নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 7 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • মিশু মিলন
  • আরণ্যক রাখাল
  • মলি
  • মনিরুজ্জামান মানিক
  • হাকিম চাকলাদার
  • নুর নবী দুলাল
  • মোহাম্মদ আল আমীন

নতুন যাত্রী

  • মারুফ মোহাম্মদ বদরুল
  • রাজীব গান্ধী
  • রুবেল মজুমদার
  • ব্লুএস্ত এয়ে
  • বকুল আহ্সান
  • মকছুদ ওসামা
  • প্রজাপতি
  • তাওহীদুল ইসলাম
  • জিসান রাহমান
  • আজুর ব্রেইস

আপনি এখানে

অনুবাদ

অন সেন্সরশিপ / সালমান রুশদি


খুব কম লেখকই সেন্সরশিপ নিয়ে কথা বলতে আগ্রহী। লেখকরা সৃষ্টি নিয়ে কথা বলতে চান। সেন্সরশিপ সৃষ্টি বিরোধী। নেতিবাচক শক্তি, অসৃষ্টি, অসৃষ্টকে সৃষ্টি করা । Sir Tom Stoppard এর ভাষায় মৃত্যুর উপমাকে ব্যবহার করা যায় - 'বর্তমানের অনুপস্থিতি'। সেন্সরশিপ হল যা আপনি করতে চান তা করা হতে আপনাকে বিরত রাখা । লেখকরা তারা যা করে তা নিয়ে কথা বলতে চায়, কিন্তু সে বিষয়টা নিয়ে নয় যা তাদেরকে তারা যা চায় তা করা হতে বিরত রাখে। লেখকরা নিজেরা কে কত পেল এ বিষয়ে কথা বলতে চায়, অন্য লেখকদের নিয়ে তারা গল্প করতে পছন্দ করে, তারা কত পেল, সমালোচক ও প্রকাশকদের নিয়ে অভিযোগ তুলে এবং রাজনীতিবিদদের নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে।

রম্য লেখক মার্ক টোয়েনের কয়েকটি উক্তি, সংক্ষিপ্ত পরিচিতি


প্রারম্ভিকা :
রাষ্ট্র নামক নামক সীমাবদ্ধ ধারণার বাইরে বিশ্বসাহিত্যের যে কয়জন শক্তিধর রচনাকার সারা পৃথিবী নিজের আলোয় আলোকিত করতে পেরেছিলেন মার্ক টোয়েন সেই অনেকের মধ্যে একজন। তাঁর তূলনা তিনি নিজেই।

দলিত বৌদ্ধ আন্দোলন এবং একজন বাবাসাহেব আম্বেদকর/ অনুবাদ


১৪ অক্টোবর ১৯৫৬, ভারতের সংবিধানের অন্যতম স্থপতি ও আধুনিক ভারতের অন্যতম বুদ্ধিজীবিদের একজন বি. আর আম্বেদকর তাঁর মৃত্যুর মাত্র ২ মাস আগে প্রায় ৩,৬৫,০০০ দলিত অনুসারী নিয়ে বৌধ ধর্ম গ্রহণ করেন। নাগপুরে একটি প্রথাগত উৎসবের মাধ্যমে এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়। ধর্মান্তরিত হবার ব্যাপারটি বহুকাল তার আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে ছিল এবং এ নিয়ে তিনি দীর্ঘকাল অধ্যয়নও সম্পন্ন করেছিলেন। এই ঘটনাটি আধুনিক সময়ে ভারতে বৌদ্ধ আন্দোলনের একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা । ( Dalit Movement)

ভয়ংকর সময়ে শিল্পীরা অবশ্যই নীরবতাকে বেছে নেবেনা । টনি মরিসন



করে উঠলেন “ না ! না, না , না ! এটা এমনই এক সময় যখন শিল্পিদের কাজে যাওয়া উচিৎ - সবকিছু যখন ঠিকঠাক তখন নয়, ভয়ানক সময়টাই শিল্পীদের কাজের সময় । এটাই আমাদের কাজ !”

সারাটা সকাল আমার বোকা বোকা লাগছিল, বিশেষত যখন আমি সে সব শিল্পিদের কথা স্মরণ করলাম যাদের জীবন কেটেছে গুলাগে, জেল খানায়, হাসপাতাল শয্যায় ; তাদেরকে তাড়া করেছিল , হেনস্থা করেছিল, নির্বাসনে দেয়া হয়েছিল, গালাগাল করা হয়েছিল, জনসমক্ষে অপদস্থ করা হয়েছিল এবং সে সব শিল্পীরা যাদেরকে হত্যা করা হয়েছিল।

স্যাপিয়েন্সঃ মানবজাতির সংক্ষিপ্ত ইতিহাস by Yuval Noah Harari অধ্যায় ১ - বুদ্ধিবৃত্তিক বিপ্লব (চতুর্থ ভাগ)


যদি আমরা জানতাম আমরা কতগুলো প্রজাতি বিলুপ্ত করে দিয়েছি, আমরা হয়তো এখনো যেগুলো বেঁচে আছে সেগুলো রক্ষা করতে বেশি উতসাহী হতাম। সেটি মহাসাগরের প্রাণীকূল সম্পর্কে বেশি গ্রহণযোগ্য। তাদের স্থল সঙ্গীসাথীদের চেয়ে ভিন্নভাবে, বিশাল সাগরের প্রাণীরা বুদ্ধিবৃত্তিক আর কৃষি বিপ্লবে কম ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছিল। কিন্তু এখন তাদের অনেকগুলোই বিলুপ্তির পর্যায়ে শিল্প দূষণ আর মানুষ কতৃক মহাসাগরের সম্পদসমূহ বেশি করে ব্যবহার করার কারণে। যদি বিষয়টি বর্তমান গতিতে চলতে থাকে, এটাই ঘটবে যে ডিপ্রোটোডন, স্থল স্লথ আর ম্যামথকে অনুসরণ করে তিমি, হাঙ্গর, টুনা আর ডলফিন বিস্মৃতিতে চলে যাবে। পৃথিবীর বিশাল প্রাণীদের মধ্যে মানুষের বন্যার মধ্যে একমাত্র বেঁচে থাকবে শুধু মানুষরাই, ফার্মের প্রাণীরা নুহের বজরায় শুধুমাত্র দাঁড় টানা নৌকার সাজাপ্রাপ্ত কয়েদি হিসেবে কাজ করবে।

স্যাপিয়েন্সঃ মানবজাতির সংক্ষিপ্ত ইতিহাস by Yuval Noah Harari অধ্যায় ১ - বুদ্ধিবৃত্তিক বিপ্লব (তৃতীয় ভাগ)


আমাদের প্রকৃতি, ইতিহাস আর মনমানসিকতা বুঝতে, আমাদের অবশ্যই শিকারি-সংগ্রাহক পূর্বসূরীদের মস্তিস্কের ভিতর ঢুকতে হবে। আমাদের প্রজাতির পুরো ইতিহাসজুড়ে, স্যাপিয়েন্স বেঁচে ছিল খাদ্য সংগ্রাহক হিসেবে। গত ২০০ বছর, যে সময়টাতে সংখ্যায় বেড়ে চলা স্যাপিয়েন্সরা অফিস কর্মী বা শহুরে শ্রমিক হিসেবে তাদের নিত্যদিনের আহার্য সংগ্রহ করেছে, আর বিগত ১০,০০০ বছর, যে সময়টাতে বেশিরভাগ স্যাপিয়েন্স কৃষক আর পশুপালক হিসেবে বেঁচে ছিল, তা একটা চোখের পলক মাত্র লক্ষ লক্ষ বছরের সাথে তুলনা করলে যে সময়টাতে আমাদের পূর্বসূরীরা শিকার করেছে আর খাবার সংগ্রহ করেছে। বিবর্তনের মনোবৃত্তির বর্ধিষ্ণু ক্ষেত্র বলে যে আমাদের আজকের দিনের অনেক মানসিক আর সামাজিক বৈশিষ্ট গঠিত হয়েছে এই দীর্ঘ প্রাক-কৃষির যুগে। এমনকি আজও, এই ক্ষেত্রের পণ্ডিতেরা দাবি করেন, আমাদের মন আর মস্তিস্ক শিকারি জীবনের সাথে মানানসই।

পর্নোগ্রাফিক নিষ্ঠুরতা !! (পর্ব-৩)


যুগের পরিবর্তনে মানব সভ্যতার উন্নয়ন যেমন হয়েছে তেমনি দিনে দিনে মানুষের বিবেক লোপ পেয়ে তাদের মাঝে বেড়ে ওঠেছে নিষ্ঠুরতা | পর্নোগ্রাফিক নিষ্ঠুরতা এমনি একটি যার আনন্দদায়ক চিত্র মানুষকে বুঝতেই দেয় না যে কতটা ভয়ানক রকম নিষ্ঠুরতা লুকিয়ে আছে এই আনন্দের আড়ালে | উন্নত বিশ্বে এমনকি বাংলাদেশেও পর্নোগ্রাফির প্রতি আকৃষ্ট মানুষের সংখ্যা অগণিত | আমরা প্রতিনিয়ত যে সকল মানুষের সাথে সবসময় উঠাবসা করছি তাদের মধ্যে দিব্বি বিশাল পরিসরে এমন মানুষ আছে যারা ভয়ানক রকম পর্নোগ্রাফির দ্বারা আকৃষ্ট | পর্নাসক্ত মানুষের পরিমাণ এবং পর্নোগ্রাফির উপর মানুষের ইন্টারেস্ট কতটা তা জানতে হলে নজর দিতে হবে পর্নোগ্রাফি নিয়ে করা কিছু

পৃষ্ঠাসমূহ

Facebook comments

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর