নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 3 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • কিন্তু
  • নুর নবী দুলাল
  • মিশু মিলন

নতুন যাত্রী

  • ফারজানা কাজী
  • আমি ফ্রিল্যান্স...
  • সোহেল বাপ্পি
  • হাসিন মাহতাব
  • কৃষ্ণ মহাম্মদ
  • মু.আরিফুল ইসলাম
  • রাজাবাবু
  • রক্স রাব্বি
  • আলমগীর আলম
  • সৌহার্দ্য দেওয়ান

আপনি এখানে

ধর্ম-অধর্ম

লাখ শহিদ ও ধর্ষিতার প্রতি অসম্মান দেখিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা কেন বিলীন হওয়ার পথে ?


১৬ই ডিসেম্বর আসলেই বিভিন্ন রাজনৈতিক দল বিশেষ করে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লিগ নানা অনুষ্ঠানে আবেগময় বক্তব্য দিয়ে তাদের ভয়াবহ রকম মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বহি:প্রকাশ ঘটায়। অথচ এই আওয়ামী লিগের বহু লোকই, যখন রাজাকার দেলোয়ার হোসেন সাইদির ফাঁসির আদেশ হয়, তখন এর বিরোধীতা করে প্রকাশ্যে যা মুক্তিযুদ্ধের মুখে একটা প্র্রকান্ড চপেটাঘাত। রাজাকারের ফাঁসির আদেশের বিরুদ্ধে মত প্রকাশ করে নিশ্চয়ই মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারন করা যায় না। সোজা কথায় , গোটা দেশের জনগনের মন থেকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিলীন হওয়ার পথে।

কোরআন মোটেও আইনের বই নয়


কোরআনের আইন, শরীয়াহ আইন ইত্যাদি পরিভাষা দেখে দয়া করে কেউ প্রতারিত হবেন না। মনে রাখবেন, কোরআন কোনো আইনের বই না। আবার কোরআনকে সংবিধান হিসেবে পরিচিত করার যে প্রবণতা লক্ষ করা যায় সেটাও একটা ফাঁদমাত্র।

মূলত কোরআন কোনো সংবিধান নয়। অনুরূপ কোরআনকে দণ্ডবিধির বইও বলা চলে না। তবে হ্যা, কোরআনে কিছু আয়াত আছে যা অনেকটা আইনের মত শোনায়, কিছু আয়াত সংবিধানের মত শোনায়, কিছু আয়াত দণ্ডবিধির মধ্যেই পড়ে। কিন্তু মনে রাখতে হবে, সর্বসাকুল্যে কোরআন ওসবের একটাও নয়।

রাজাকার ও জামাত কেন আজও স্বাধীনতার যুদ্ধের সময় তাদের কর্মকান্ডের জন্যে ক্ষমা চায় না?


গত বেশ কিছু বছর ধরে ১৯৭১ সালের স্বাধীনতা যুদ্ধে যারা বিপক্ষে ছিল , যারা রাজাকার , আলবদর বা জামাত ইসলামের লোক ছিল , তাদের কয়েকজনকে বিচার করে ফাঁসি দেয়া হয়েছে।কিন্তু আজ পর্যন্ত একজন আসামীও স্বীকার করে নাই যে তারা স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় অন্যায় কাজ করেছিল। বরং তারা হাসতে হাসতে ফাঁসির কাষ্ঠে ঝুলেছে। বরং তারা বুক ফুলিয়ে বলেছে - তারা যা করেছিল আদর্শিকভাবে তা সঠিক ছিল। তার মানে মুক্তিযোদ্ধারা বেঠিক ছিল। সুতরাং বিষয়টা বিচার বিশ্লেষন করে দেখা যাক।

মিশরে মসজিদে ২৫০ সুফি হত্যা, সহিহ মুসলমান ও সহিহ ইহুদি ষড়যন্ত্র


মাত্রই গতকাল একদল জঙ্গি (বলাবাহুল্য আই এস) মিশরের একটা সুফি মসজিদের হামলা চালিয়ে ২৫০ এর মত সুফিকে হত্যা করেছে , যাদের মধ্যে বহু শিশুও ছিল , বাকী আরও কয়েকশ আহত হয়েছে। এখনই কথিত মডারেট মুসলমান সহ সকল পশ্চিমা মিডিয়া প্রচার করবে , যারা ইসলামের নামে সুফিদের হত্যা করেছে , তারা সহিহ মুসলমান নহে । ইসলাম কাউকে হত্যা করতে বলে না।বলাবাহুল্য হত্যাকারী জঙ্গিরা সবাই আই এস এর সদস্য আর তারা মিশরে একটা ইসলামী রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করে যাচ্ছে। যাহোক , এবার পুরো বিষয়টার কারন ও উদ্দেশ্য জানার চেষ্টা করা যাক।

ধর্ম এব হতো হস্তি ধর্মে রক্ষতি রক্ষিতঃ


If Kalki Avatar is not happening in next 100 years, it means only one thing. That we have to be Kalki ourselves and destroy Adharma. Chanting Hare Krishna when Abhimanyus are being killed, and Draupadis are being insulted, will not help. Gita As It Is.

কথিত ড: কিথ মুর-এর ইসলাম গ্রহন, ভ্রুনতত্ত্ব ও ইসলাম


কথিত ড: কিথ মুরের নামে মুমিনরা জিকির করে , কারন সে নাকি দুনিয়ার সর্বশ্রেষ্ট ভ্রুনতত্ত্ববিদ এবং একই সাথে আবিস্কার করেছে কোরানের মধ্যেই সেই বিখ্যাত ভ্রুনতত্ত্ব লুক্কায়িত। সে কারনেই ড: কিথ মুর নাকি ইসলাম গ্রহন করেছিল। সুতরাং কোরান একটা ঐশি কিতাব যাতে কোন ভুল নেই। মুমিনরা এই ঘটনা তাদের নিয়ন্ত্রিত সকল মিডিয়াতে রাত দিন চব্বিশ ঘন্টা প্রচার করে থাকে, এর ফলে জঙ্গি নামি খাটি মুমিনরা আরো ইমানি জোশে কাফের মুর্তাদদের কল্লা কাটে বা গাড়ি চালিয়ে হত্যা করে। এবার পুরো বিষয়গুলো একটু বিবৃত করা যাক।

স্রোতের বিপরীতে চলা নারী


আমার পরিচিত একজন ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। তিনি যখন সেই বিভীষিকাময় পরিস্থিতির বর্ণনা করছিলেন, আমি নিজেই দুমড়ে-মুচড়ে যাচ্ছিলাম। যারা ধর্ষণের মতো জঘন্য অপরাধের ভুক্তভোগী, তাদের মধ্যে খুব অল্প সংখ্যক মানুষ থাকেন, যারা সেই যন্ত্রণাকে উপচে ফেলে সামনের দিকে অগ্রসর হতে পারেন।

কুরআন অনলি: (৯) আল্লাহর ‘জিন ও শয়তান’ প্রতিরোধ প্রকল্প!


স্বঘোষিত আখেরি নবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) তার আল্লাহর রেফারেন্সে দাবী করেছেন যে তার আল্লাহ এবাদতের উদ্দেশ্যে মানুষ ছাড়াও 'জ্বিন' নামের আর এক অশরীরী জীবের সৃষ্টি করেছেন (৫১:৫৬), যারা তার কুরআন শ্রবণ করে 'বিস্ময়-বোধ' করেছিল!তিনি আমাদের জানিয়েছেন যে এই জীবেরা পূর্বে আকাশের বিভিন্ন ঘাঁটিতে সংবাদ শোনার জন্য বসে থাকতো। কিন্তু এখন তারা আর সেই কাজটি করতে পারে না এই কারণে যে, সর্বনিম্ন আকাশটি এখন 'কঠোর প্রহরী ও উল্কাপিণ্ড দ্বারা পরিপূর্ণ।' কী কারণে তার সর্বশক্তিমান আল্লাহ এই কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা-টি চালু করেছেন ও আল্লাহর এই নিরাপত্তা ব্যবস্থাটি নস্যাৎ করে যদি কোন “শয়তান” তার অভীষ্ট কার্য সম্পুর্ণ কর

পৃষ্ঠাসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর