নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 5 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • মাহফুজ উল্লাহ হিমু
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী
  • দ্বিতীয়নাম
  • মিশু মিলন
  • নরসুন্দর মানুষ

নতুন যাত্রী

  • রবিউল আলম ডিলার
  • আল হাসিম
  • মাহের ইসলাম
  • এহসান মুরাদ
  • ফাহিম ফয়সাল
  • সানভী সালেহীন
  • সাঞ্জানা প্রমী
  • অতৃপ্ত আত্বা
  • মনিকা দাস
  • আব্দুল্লাহ আল ম...

আপনি এখানে

ধর্ম-অধর্ম

মুহাম্মদের সমালোচনা করলে মুমিনরা ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে , কিন্তু আল্লাহর সমালোচনা করলে কিছু বলে না , কারন কি ?


একটা বিষয় বেশ চোখে পড়ার মত। আল্লাহকে নিয়ে কিছু বললে , মুমিনরা তেমন উত্তেজিত হয় না কিন্তু মুহাম্মদকে নিয়ে কিছু বললেই সাথে সাথে ক্ষিপ্ত বর্বর পশুর মত আচরন করে। কারনটা কি ? আমি এ বিষয়ে গবেষণা করে কিছু তথ্য বের করলাম।

যারা ধার্মিক , তাদেরকে কি মানসিক রোগী বলা যায় ?


দুনিয়াতে বহু ধর্ম আছে , তার মধ্যে খৃষ্টান , ইসলাম , হিন্দু , বৌদ্ধ , ইহুদি ইত্যাদি ধর্ম প্রধান। প্রতিটা ধর্মের কাহিনী ভিন্ন ভিন্ন এবং দেখা যাবে , প্রায়ই আজগুবি সব কাহিনী যার সাথে ঠাকুরমার ঝুলির গল্পের মত অনেক মিল পাওয়া যাবে। মনে হয় ঠাকুরমার ঝুলির কাহিনী ছোট বেলায় যে কোন ধর্মের কাহিনী বলে চালিয়ে দিলে , এক সময় সেই ধর্মের অনুসারীরা সেইসব কিচ্ছাকেও সত্য বলে বিশ্বাস করত। কথা হচ্ছে , আজকের এই বিজ্ঞানের যুগে , যুক্তি তর্কের যুগে , যারা ধর্মের নানা উদ্ভট কিচ্ছা কাহিনীকে সত্য বলে বিশ্বাস করে , তাদেরকে কি মানসিক রোগী বলা যাবে ? মনোবিজ্ঞান কি বলে ?

ধর্ষণের দায় নারীর পোশাকের নয়, পুরুষের অনিয়ন্ত্রিত প্রবৃত্তির!


আজ থেকে প্রায় বছর দশেক আগের কথা। চট্টগ্রাম হালিশহর এ ব্লক-বি ব্লক এলাকায় একটা মানসিক ভারসম্যহীন মেয়ে ছিলো। প্রায়শই মেয়েটির পরনে তেমন কোন জামা-কাপড় থাকত না। আমার স্মৃতি যদি বিশ্বাসঘাতকতা না করে, তবে আমার মনে আছে মেয়েটি অধিকাংশ সময় গর্ভবতী অবস্থায় থাকতো। আকাশ সংস্কৃতির আগ্রাসনে এ দেশের মেয়েরা পশ্চিমা ঢংয়ে চলতে গিয়ে যে বোরকা-হিজাব পরিত্যাগ করেছে, আমাদের দেশের বিরাট ছাগু সম্প্রদায়ের মতে দেশে প্রকটাকার ধারন করা ধর্ষণের কারণ সেটা, কিন্তু সেই বিরাট বিজ্ঞ গোষ্ঠীর প্রতি আমার প্রশ্ন- সেই মানসিক ভারসম্যহীন মেয়েটি কি করণে কিছুদিন পরপর গর্ভবতী হতো?

সুন্নি এবং শিয়া: (পর্ব-১)


সুন্নি এবং শিয়া: (পর্ব-১)

ইসলামের প্রাচীন দ্বন্দ্ব সুন্নি এবং শিয়া। ইসলাম কি স্রষ্টার বানী? এই দাবী কোন সন্দেহ ছাড়াই প্রত্যাখ্যান করে।

সুন্নি ও শিয়া মধ্যে বিভেদ হল ইসলামের ইতিহাসে বৃহত্তম এবং প্রাচীনতম।

দুই শতাব্দীর ধরে অস্তিত্ব আছে অনেক মৌলিক বিশ্বাস এবং অভ্যাস । কিন্তু তারা ইসলামের মতবাদ, রীতিনীতি, আইন, ধর্মতত্ত্ব এবং ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের মধ্যে পার্থক্য করে।

তাদের নেতারা এছাড়াও এই দ্বন্দ্বকে ইসলামের আদর্শগত প্রতিযোগিতায় বলে মনে করে।এবং উনারা লেবানন এবং সিরিয়া থেকে ইরাক ও পাকিস্তান থেকে সাম্প্রতিক সংঘর্ষে সাম্প্রদায়িক দমনের উপর জোর দিয়েছেন।

কুরআন অনলি রেফারেন্স: (২০) মুহাম্মদ এর আল্লাহর বৈশিষ্ট্য - দুই


স্বঘোষিত আখেরি নবী হযরত মুহাম্মদ (সা:) তার জবানবন্দি কুরআনে বার বার ঘোষণা করেছেন যে তার আল্লাহ যাকে ইচ্ছা তাকে অনুগ্রহ করেন, যাকে ইচ্ছা তাকে করেন অনুগ্রহ-বঞ্চিত ও অভিশপ্ত! তিনি যাকে ইচ্ছা তাকে বিশ্বাসী বানান, যাকে ইচ্ছা তাকে বানান অবিশ্বাসী। তিনি যাকে ইচ্ছা তাকে চালান সরল পথে, যাকে ইচ্ছা তাকে চালান বিপথে; যাকে ইচ্ছা তাকে করেন ক্ষমা, যাকে ইচ্ছা তাকে দেন শাস্তি! তিনি আরও দাবী করেছেন যে তার আল্লাহ ইচ্ছা করলেই সবাইকে বিশ্বাসী বানাতে পারতেন, কিন্তু সে ইচ্ছা তিনি করেন না। আর কী কারণে আল্লাহর সেই অনিচ্ছা, তাও মুহাম্মদের জবানবন্দিতে সুস্পষ্ট (৩২:১৩)।

মুহাম্মদের ভাষায়: [1] [2]

কার চরিত্র উন্নততর ? মুহাম্মদের , নাকি তার উম্মতদের ?


মুসলমানদের বিশ্বাস , মুহাম্মদ হলো সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ আদর্শ মানুষ। আর তার আদর্শ অনুসরন করা সকল মুসলমানের কর্তব্য। তাই যদি হয় , তাহলে মুহাম্মদ তার জীবনে যা যা করেছে , তার সবই সর্বকালের জন্যে আদর্শ কাজ হবে এবং সেসব মুসলমানরা অনুসরন করলে হতে পারে খাটি ইমানদার মুমিন। তো এবার দেখা যাক , সেই বিচারে , আজকের উম্মতদের চরিত্র ও মুহাম্মদের চরিত্রের মধ্যে কার চরিত্র উন্নততর বলে খোদ মুমিনরাই রায় দিবে।

বিলুপ্ত প্রজাতির শুক্রাণু


চোখ বুজে খুললাম পৃথিবীর প্রাচীনতম পুঁথি,দেখলাম সেখানে বলা আছে-
“জল বলে কিছু নেই,আপনারা সকলে পানি বলুন।”
এই শুনে পরস্পর ভাইভাই কেটে নিল কয়েক লক্ষ জিহ্বা।
অতএব, প্রসঙ্গত এটাই সত্যি যে-আপনি মানুষের চেয়ে পুঁথির ওপরে বিশ্বাসী।
হয়ত বিগত শতকে আপনিই ছিলেন আরব্য একমাত্র পুথিসাহিত্যিক।
আপনি একান্ত পুঁথিনির্ভর-তাই আপনার কাঁধে আছে যুদ্ধের একমাত্র অস্ত্র-
আপনার আছে কাটাওয়ালা শান্তির বাণী।
আপনার আছে একলক্ষ যৌনদাসী,অগনিত ভোগ্যবস্তু ও যুদ্ধবন্দী রমণী।
আপনি কুকুর পছন্দ করেন না,টিকিটিকি মারতে পছন্দ করেন আঙুলের টিপে,

ধর্ম আর নৈতিকতা


ধর্মের ভিত্তি, শুনতে সুখকর না লাগলেও, লালসা ও ভীতি।

ধর্ম, আমার মনে হয়, প্রথমত ও প্রধানত দাড়িয়ে আছে ভয়ের ওপর ভিত্তি করে। এর অংশবিশেষ হচ্ছে এমন বোধ যে আমার রয়েছে এক জ্যেষ্ঠভ্রাতা, যে বিপদাপদে আমার পাশে এসে দাড়াবে। সম্পূর্ণ ব্যাপারটির ভিত্তি হচ্ছে ভয়—অলৌকিকের ভয়, পরাজয়ের ভয়, মৃত্যুর ভয়। ভয় নিষ্ঠুরতার জনক, এবং এতে বিস্ময়ের কিছু নেই যে নিষ্ঠুরতা ও ধর্ম এগিয়েছে হাতে-হাত ধ’রে।

পৃষ্ঠাসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর