নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 6 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • জংশন
  • বেহুলার ভেলা
  • রুদ্র মাহমুদ
  • রিক্ত রিপন
  • দীব্বেন্দু দীপ
  • সাইয়িদ রফিকুল হক

নতুন যাত্রী

  • মাইনুদ্দীন স্বাধীন
  • বিপু পাল
  • মৌন
  • ইকবাল কবির
  • সানসাইন ১৯৭১
  • রসরাজ
  • বসন্ত পলাশ
  • মারুফ মোহাম্মদ বদরুল
  • রাজীব গান্ধী
  • রুবেল মজুমদার

আপনি এখানে

সমালোচনা

আদৌ স্বাধীনতা বলে কিছু আছে?


স্বাধীনতা !!
আমরা কি এখনো স্বাধীন ? আমার কাছে মনে হয় স্বাধীনতা শব্দটি এখন এদেশে শুধুই একটা গালি।এ শব্দটি এখন শুধু লোকমুখেই বন্দি!
এদেশে স্বাধীনতা মানে জঙ্গিবাদ,অসাম্প্রদায়িকতা,ধর্ষণ,খুন,আর শোষন করা।আপনার স্বাধীনতা কী আছে?
আমি হরফ করে বলতে পারি,নেই,আপনার বিন্দু মাএ স্বাধীনতা নেই।
সাধারণ জনগন অস্বাধীনতার মধ্যে থাকলে এত সংগ্রাম করে স্বাধীনতা অজর্নের দরকারেই কি ছিল?
আজও আমাদের স্বাধীনতা রাজনৈতিক অপশক্তির নিকট জিম্মি।
আমরা তনুর মতো হাজারো বোনকে হারাচ্ছি।আমরা মুক্তচেতনার লেখককে (abijit ray,humayun azad) মেরে ফেলা হচ্ছে।আমরা এখনো বিচার এর মুখ দেখে নি।

১৪৭৫৭০ বর্গ কিলোমিটারের জেলখানা ও স্বাধিনতা পরস্পর বিরধি নয়কি?


ইষ্টিশন ব্লগে বড় বড় অক্ষরে,২৬ই মার্চ মহান স্বাধিনতা দিবস লেখা দেখেই লেখাটা শুরু করেছি কোথায় থামবো জানি না,
আমি জানি না এই ধরনের মূর্খ মনতব্যকারির বিপক্ষে ঠিক কি লেখা উচিৎ, কারো কাছে স্বাধিনতার সংগা যদি হয়„ ১৪৭৫৭০ বর্গ কিলোমিটারের জেলখানা,তাকে কি বলা যায় ? কেউ যদি মনে করে, মানুষের জাতায়াতকে শিমাবদ্ধ করবার নাম স্বাধিনতা তাকে কি বলবেন ?
কেউ যদি মনে করে সামরিক বাহিনি নামক সন্ত্রাসি গোষ্ঠি পুষবার নাম স্বাধিনতা তাকে কি বলবেন ?
আমার মনে হয়, একমাত্র অতিবর্বর পিশাচ শ্রেনির কেউ না হলে, রাষ্ট নামক জেলখানাকে স্বাধিনতা শব্দের সাথে জুড়তে
পারে না ।

আত্মঘাতী নয়, কমেডি শো!


আত্মঘাতী নয়, এটা একটা কমেডি শো!
গতকাল গণহত্যা এবং আজ জাতীয় দিবস। মূলত এই দু'দিবস-কে তরুণ প্রজন্মের কাছে স্মরণীয় রাখার অল্পপ্রাণ প্রয়াস। এ ধরুন 'অপরাশেন চার্চলাইট' যেমন হয়েছিল কি, একদল মুষুলমান গুলিনিয়ে চোরপুলিশ খেলল কিছু সাধারন জনতার উপর। পরে দ্যাখা গ্যাছে তাঁরা মুষুলমান এবং হায়েনা ( উপাধি ) দুটোই। এদের আরো একটি বড় বৈশিষ্ট্য, এরা মুষুলমান না হোন্দি তা নির্ধারণ কোরতেন লুঙ্গি উপরে তুলে নুনু্র ধরন দ্যাখে। তবে এটা বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছিল না। তখন ফাক-বাহিনী।

পোশাক না মানসিক বিকৃতি- ধর্ষণের জন্য দায়ী কোনটি?



বর্তমানে নতুন এক অনুভূতির সৃষ্টি হয়েছে; তা হলো ধর্ষণাভূতি। এই অনুভূতিটা শুধুমাত্র পুরুষদের মাঝেই বিদ্যমান। একটা মেয়ের ব্যতিক্রমী কার্যকলাপ দেখলেই অনেক পুরুষের এই অনুভূতিতে সুড়সুড়ি লাগে।তাদের মধ্যে কেউ কেউ শীঘ্রই এই অনুভূতি দূর করতে ব্যাস্ত হয়ে পড়ে; যার ফলাফল খবরের কাগজে শিরোনাম হয় নতুন আরেকটি ধর্ষণ।

বাংলাদেশ কি তবে একটি জঙ্গী রাষ্ট্রে পরিনত হচ্ছে?


প্রত্যেকটা হামলার পরেই অনেক মডারেট মুসলমান কিবোর্ড যোদ্ধা হিসেবে হাজির হয়ে যান সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলিতে। ”ইসলাম শান্তির ধর্ম”, ” ইসলাম এইসব সাপোর্ট করেনা”, ”জঙ্গীরা মুসলিম নয়”, ” এগুলি ইহুদী নাসারাদের ষড়যন্ত্র” ইত্যাদি ইত্যাদি লিখে মাখিয়ে ফেলেন। কেউ কেউ মনে করেন কোন ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার জন্যেই এগুলি কোন সাজানো নাটক। এগুলি লিখে মনের শান্তিতে ইসলামকে রক্ষা করে ফেলেছেন ভেবে শান্তিতে ঘুমাতে যান। তবুও কোনভাবেই ধর্মের দোষ দেয়া যাবে না।

সুযোগ সন্ধানী জিয়া ছিলেন শেখ মুজিবের স্বাধীনতা ঘোষণার একজন পাঠক মাত্র


১৯৭১ সালের বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ছিল একটি গণযুদ্ধ এটি কোন সামরিক যুদ্ধ ছিল না। সুতরাং সামরিক সামরিক অভ্যুত্থানের কোন প্রশ্নই উঠে না।

বিপথগামী তরুণ প্রজন্ম- দায়ী কে?


একটি শিশু যখন বড় হয় ধীরে ধীরে; আমরা তার হাতে বই তুলে দিইনা। তুলে দেই টিভি বা মোবাইল'কে। তাদেরকে শিক্ষামূলক কিছু শিখাইনা; বদলে তাদের অশ্লীল কুরুচিপূর্ণ নাচ কিংবা সিনেমা তুলে দিই। পোশাকের বিবেচনায় অশ্লীল বলছিনা। অশ্লীল বলছি পরিচালকের কুরুচিপূর্ণ বিকৃত চিন্তাধারা'কে; যেখানে নারী মাত্র'ই ভোগ্য পণ্য, কামের পিপাসি- হিসেবে তুলে ধরা হয়।

মধ্যরাতের ওয়াজ কি প্রয়োজনীয়?


রাতের ১টা বেজে ২ মিনিট হলো। স্বভাবত'ই ব্যস্ত নগরী ঘুমে মগ্ন। সারদিনের ক্লান্তি দূর করতে ও পরের দিনের জন্য নিজেকে প্রস্তুত করতে ঘুমটি অতীব জরুরি। ঠিক সেসময় যদি মাইকে বিকট শব্দে কেউ গান বাজায়; কেমন লাগবে?

ব্লগের ফেসবুক পেজ কেমন হওয়া উচিত?


সম্প্রতি পারভেজ আলম একটা ফেসবুক পোস্ট দিয়েছেন। সেখানে মুলতঃ দুটি বক্তব্য। ইস্টিশান ব্লগে তিনি লেখা ছেড়েছেন আর দ্বিতীয়টি ব্লগের ফেসবুক পেজ, যেখানে সাধারণতঃ নির্বাচিত লেখার লিঙ্ক দেয়া হয়, সেটায় যেসব লেখা শেয়ার করা হচ্ছে তার মানদণ্ড সবসময় ঠিক থাকে না। যথারীতি লেখার প্রতিবাদে কিংবা বলা যায় উত্তরে এর অন্যতম উদ্যক্তা নুর নবী দুলাল কমেন্ট করেছেন। উত্তরটা ঠিক প্রাসঙ্গিক মনে হয়নি। তিনি মত প্রকাশের স্বাধীনতা নিয়ে বক্তৃতা করেছেন, কিন্তু ফেসবুক পেজে কিসের ভিত্তিতে পোস্ট সিলেক্ট করা হয়, বা উচিত এই প্রশ্নে নীরব। প্রশ্নোত্তর পর্বে একসময় জানালেন, এটা হয় অটো। অর্থাৎ লেখার মানদণ্ড কিংবা বক্তব্য কোনটাই ধর্তব্

বিশ্ববিদ্যালয় না কিন্ডারগার্টেনঃ প্রসঙ্গ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ইউনিফর্ম।


দেশের কয়েকটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের ড্রেসকোড এর বিধান যুক্ত করা হয়েছে। বিশেষ করে মেয়েদের জন্য ড্রেসকোড মানা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এই বছরের ১ম শ্রেণির পাঠ্য বইয়ে লেখা হয়েছিলো, ও-তে ওড়না চাই। এই শিক্ষায় দীক্ষিত হয়ে কয়েকটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় অথরিটি ওড়নাকে মেয়েদের জন্য বাধ্যতামূলক করেছে!

পৃষ্ঠাসমূহ

Facebook comments

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর