নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 2 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • ফারজানা সুমনা
  • মিনহাজ

নতুন যাত্রী

  • অরুণাভ দে
  • পাহাড়ের উপমানুষ
  • পুরানো ঘড়ি
  • স্বর্ণ সুমন
  • হেজিং
  • মং চিং প্রু
  • প্রলয় দস্তিদার
  • ফারিয়া রিশতা
  • চ্যাং
  • রাসেল আহমেদ

আপনি এখানে

সমালোচনা

স্বাধীন দেশের পরাধীন গণমাধ্যম ও শহীদ রমেল চাকমা


প্রত্রিকায় প্রকাশিত খবরে রমেল চাকমা হত্যাকান্ড; তুলনামুলক বিশ্লেষণঃ

১। ইত্তেফাক ২৩ এপ্রিল ১৭ (বিশেষ প্রতিনিধি রাঙ্গামাটি);
রাঙ্গামাটিতে রমেল চাকমার মৃত্যুকে কেন্দ্র করে অবরোধ পালিত হয়েছে। এদিকে, এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে একটি সশস্ত্র গ্রুপ পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করার জন্য প্রপাগাণ্ডা শুরু করেছে। ইতোমধ্যে তারা রোমেল চাকমার লাশ নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা পুড়িয়ে ফেলেছে বলে প্রচার চালিয়েছে।

মাই লাইফ, মাই চয়েজ !


দীপিকা পাডুকোন এর মাই চয়েস ভিডিওটি নিয়ে বলার আসলে খুব বেশি কিছু নেই। ইতোমধ্যেই সবাই কয়েকবার করে দেখে ফেলেছে ভিডিওটি। এই ভিডিওটির উদ্যোক্তা ভোওগ ইন্ডিয়া নামের একটি ফাশন ও লাইফ স্টাইল ম্যাগাজিন।
মূল কথায় আসি। মাই চয়েস ভিডিওটির প্রতিপাদ্য হলঃ আমার শরীর, আমার মন, আমার ইচ্ছা। অথর্াৎ আমার জীবনের সিদ্ধান্ত শুধুই আমার।

কার জন্য হেফাজত?


"বাঁধরে রশি
মাররে টান
মূর্তি যাবে
হিন্দুস্তান"

- হেফাজতে ইসলাম।

সানি লিওনির নাম শুনলে যেমন বিশেষ একটা বাপারের কথা মাথায় আসে, মূর্তি দেখলে মোল্লাদের হিন্দুদের কথা মনে পরে। মোল্লাদের ফ্রান্স বা ইতালি নিয়ে গেলে "অস্তাগফিরুল্লাহ হিন্দুস্তান" বলে মূর্ছা যাবে।

দেশে কওমি মাদ্রাসার পরিমাণ বাড়ানো হচ্ছে। দলে দলে আরও গণ্ড মুর্খ মোল্লা প্রসব করবে এই সব মাদ্রাসা গুলো। দিন দিন দেশকে পেছাবে অন্যান্য দেশগুলো থেকে। তারপরও হুঁশ হবেনা আমাদের। আমরা খালি দিন দিন ট্যাক্স না দেয়া মোল্লা পয়দা করব।

প্রাসঙ্গিক লেনিন



ভ্লাদিমির ইলিচ উলিয়ানভ লেনিন ১৮৭০ সালে ২২শে এপ্রিল জার শাসিত রাশিয়ার সিমবির্স্ক শহরে জন্ম গ্রহণ করেন। তাঁর পারিবারিক নাম ছিল ভ্লাদিমির ইলিচ উলিয়ানভ। ভল্গা নদীর তীরবর্তী সিমবির্স্ক নামক ছোট শহরটি রাজধানী সেন্ট পিটার্সবার্গ থেকে ১,৫০০ মাইল দুরত্বে অবস্থিত ছিল।

জাহেলিয়াতের যুগে নারীর অবস্থা নিয়ে অপপ্রচারের জবাব


বিভিন্ন ওয়াজ মাহফিলের সুবাদে ছোটবেলা থেকে শুনে আসতেছি ইসলাম আসার আগে আরবে নারীদের কোন অধিকার ছিল না।ইসলামই শুধু নারীকে মর্যাদা দিয়েছে।W. Robertson Smith একটা বই লিখেছিলেন আরবের নারীদের নিয়ে।বইটার নাম Kinship and Marriage in Early Arabia।বইটিতে তিনি জাহেলিয়াতের যুগে আরবে বিয়ের পদ্ধতিকে ৩টি শ্রেণীতে ভাগ করেছেন।সেগুলো হলঃ

হেফাজতের ১৩ দফা এবং মুহাম্মদ ও তার উম্মতদের সৃষ্টিকর্তা শানে বেয়াদবি


২০১৩ সালে সারাদেশ যখন যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে উত্তাল ঠিক তখনই যুদ্ধপরাধিদের বাঁচাতে কৌশল পরিবর্তন করে হেফাজতে ইসলামের উত্থান।কওমি মাদ্রাসা ভিত্তিক এই সংগঠনটি শাহবাগ আন্দোলনকে বানচাল করার অপচেষ্টা থেকে ব্লগারদের নাস্তিক ঘোষণা করে তাদের ফাঁসির দাবিতে পাল্টা শাপলা চত্বর,মতিঝিলে অবস্থান নেয় । এরপর ইসলাম ও রাসুলকে কটূক্তিকারী নাস্তিক ব্লগারদের ফাঁসি দাবী করে হেফাজতে ইসলাম ১৩ দফা দাবি উত্থাপন করে।

প্রিন্স মাহমুদের ধর্মানুভূতির উন্মত্ত গিটার!


প্রিন্স মাহমুদের সুরে, কথায় ও কম্পোজিশনে বাংলা ব্যান্ডে যেসব গান সৃষ্টি হয়েছে তা সময়ের পরিক্রমায় আজ ক্ল্যাসিকে রূপ নিয়েছে। মাইলস, এলআরবি, ফিলিংস/নগর বাউল, আর্ক ব্যান্ডের শাফিন-হামিন, আইয়ুব বাচ্চু, জেমস ও হাসানদের কন্ঠে নব্বই দশক থেকে যেসব কালজয়ী গান প্রিন্স তাঁর সুর কথায় ও কম্পোজিশনে উপহার দিয়েছেন তা বাংলা ব্যান্ড-সংগীতকে এক অন্য মাত্রায় নিয়ে গেছে। যেমন কথা তেমন সুর তেমন কম্পোজিশন। বাংলা ব্যান্ডের ভিতকে শক্ত করেছেন যে ক'জন সংগীত স্রষ্টা তার অগ্রভাগে প্রিন্স মাহমুদ আছেন, ভবিষ্যতেও থাকবেন।

উচ্চস্বরে আজান বিতর্ক


সনু নিগাম বলেছিলেন, "আমি মুসলিম না। তাহলে কেন আজানের শব্দে আমার ঘুম ভাঙানো হবে?"।ব্যাপারটিকে তিনি গুন্দাগিরির সাথে তুলনা করেছিলেন।এ নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় উঠেছে।উঠায় উচিৎ কথাগুলো যে বলেছেন একজন হিন্দু সেলিব্রেটি।কোথাগুলো যদি কোন মুসলিম বলতো তবে এ নিয়ে কোন আলোচনা হতো বলে মনে হয় না।কেন এমনটা বললাম তার যথেষ্ট কারন আছে।এই বাংলাদেশেও এক দশক আগে মসজিদে মাইক ব্যাবহার নিয়ে এক শ্রেণীর আলেম বিরোধী ছিলেন।এখনও সেই ধারা বজায় আছে।

মিচিও কাকুর ঈশ্বর প্রাপ্তি ও আরিফ আজাদের তথ্যসূত্র বিভ্রাট


পদার্থবিজ্ঞানী মিচিও কাকুর নাম এদেশের উচ্চমাধ্যমিক পড়া বিজ্ঞানের অনেক ছাত্রই শুনে নি। আর সাধারণ মানুষ তো অনেক দুরের কথা। কিন্তু তাতে কী? মিচিও কাকুর নাম ধর্মব্যবসায়ীদের হাত ধরে ঠিকই পৌছে গেছে এদেশের ফেসবুকবাসীর মননে, মগজে। প্রথমত একাজটি করা হয় খ্রিষ্টান টুডে নামক ওয়েব পোর্টালে, যেখানে দাবী করা হয়, মিচিও কাকু বলেছেন এই মহাবিশ্ব ঈশ্বর নামক কোনো এক ম্যাথমেটিশিয়ানের তৈরী। সেই বক্তব্যটি প্রথমে বাংলাদেশের সুনির্দিষ্ট রাজনৈতিক কর্মীদের পোস্টে এবং তারপর একজন অনলাইন এক্টিভিটিস্টের (আরিফ আজাদ) হাত ধরে ছড়িয়ে পরে ফেসবুকের আনাচে কানাচে। যেই বক্ত্যবের খণ্ডাংশ নিয়ে এত আলোড়ন, সেই বক্তব্যের ক্ষুরধার বিশ্লেষণ করেছেন অনেকেই। তবে সমস্যাটা হচ্ছে এই বিশ্লেষণ পক্ষে না গেলে কেওই তা মানতে চান না, তাই সে সমস্যার সমাধানকল্পে এগিয়ে হলেন খোদ মিচিও কাকু নিজেই। ২০১৭ সালের ২৭ মার্চ প্রকাশিত এক এক্সক্লুসিভ সাক্ষাতকারে সুস্পষ্ট করলেন তার অবস্থান। কিন্তু কী বলেছিলেন তিনি? চলুন পড়ে ফেলি;

পৃষ্ঠাসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর