নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 6 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • জংশন
  • বেহুলার ভেলা
  • রুদ্র মাহমুদ
  • রিক্ত রিপন
  • দীব্বেন্দু দীপ
  • সাইয়িদ রফিকুল হক

নতুন যাত্রী

  • মাইনুদ্দীন স্বাধীন
  • বিপু পাল
  • মৌন
  • ইকবাল কবির
  • সানসাইন ১৯৭১
  • রসরাজ
  • বসন্ত পলাশ
  • মারুফ মোহাম্মদ বদরুল
  • রাজীব গান্ধী
  • রুবেল মজুমদার

আপনি এখানে

রাজনীতি

হে মুমিন, আসো , যারা খাটি জিহাদীদেরকে জঙ্গি বলে অপমান করে , তাদের এই অপপ্রচারের বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষণা করি


হে মুমিন , আজ খাটি মুমিন তথা জিহাদীদেরকে জঙ্গি বলে অপবাদ দিয়ে ইসলামকেই অপমান করা হচ্ছে। আল্লাহ ও তার নবীকে অপমান করা হচ্ছে। আর এভাবে ইসলামকে একটা জঙ্গি বা বর্বর ধর্ম হিসাবে প্রচারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে ইহুদি নাসারা কাফেররা। তাই আমাদেরকে দেখা উচিত , যাদেরকে তারা জঙ্গি বলছে তারা খাটি ও সহিহ ইসলামী পথে আছে কি না , প্রথমেই দেখা যাক ----

ইউরোপের রাজনীতি ও ডঃ ফরহাদ আলী খান:- Light at the end of the tunnel


সুড়ঙ্গের শেষ প্রান্তে আশার আলো, Light at the end of the tunnel.গল্পের শুরুতেই বলে রাখা প্রয়োজন যে শিশুটি আমার অন্তরের গহীনে ভালোবাসা আর স্নেহ মমতায় মায়া আমার মনের আকাশে স্থান করে নিয়েছে তার নাম জনি , একটি শিশুর অন্তরের দৃষ্টি কখনোই তার প্রিয় মানুষটিকে খুঁজে নিতে ভুল করে না , উচ্ছলতায় পরিপূর্ণ শিশুটি তার ভালোবাসার দাবি নিয়ে দৃঢ়তার সাথে তার আইসক্রিমের আবদার করতে ভুল করতো না। মানুষের প্রতি মানুষের ভালোবাসার কোন বন্ধন আর সীমারেখা টানা যায় না আর সেই সুন্দর ক্ষণের স্মৃতি নিয়েই মানুষ আগামী দিনের ভোরের অপেক্ষায় বেঁচে থাকে। শিশুটির মত তার বাবাও হয়তো সেই ভালোবাসা আর মানুষের টানে দেশের টানেই রাজনীতির

বাংলাদেশের স্বাধীনতাঃ নতুন বোতলে পুরোনো মদ


বাংলাদেশ।যে দেশের স্বাধীনতার জন্য ১৯৭১ সালে একটি মুক্তিযুদ্ধ হয়েছে।জনগনের অংশগ্রহণে এই যুদ্ধ সর্বাত্মক জনগনের মুক্তির লক্ষ্যে পরিচালিত না হলেও জনগনের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ ছিল। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ কখন শুরু হয়েছে কে শুরু করেছে এটা নিয়ে শাসক দলগুলোর খুব মাথাব্যথা রয়েছে।নয়া পরাধীনতার বাংলাদেশের ৪৭ বছর কেটে গেলেও জনগনের কোন ধরনের স্বাধীনতা অর্জিত হয় নি।পাকিস্তান আমলে বা তারও আগে ব্রিটিশ রাজত্বে জনগনের উপর যে নিপীড়ন চলতো তা থামে নি।এখনো চলছে ধারাবাহিকভাবে।৭১ সালে পাক বাহিনী আমাদের মা বোন দের ধর্ষণ করেছে,হত্যা করেছে।কিন্তু তথাকথিত স্বাধীন দেশে তনুরা "স্বাধীন" সেনাবাহিনীর সেনানিবাসে ধর্ষনের

প্রচারণা পর্যালোচনায় হেফাজত, জামাত শিবির ও ক্বওমী সম্পর্ক


জিহাদে (আসলে ওরা বোঝাচ্ছে ‘ক্বিতাল, খুন হত্যা, রক্তপাত”) উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে কোন কোন ধরণের মানুষের বিরুদ্ধে; শাসক, যারা নবী ও রাসুলকে অর্ধেক মানে অর্ধেক অন্য জাতির বৈশিষ্ট্যে চলে-সিভিল সোসাইটির অগ্রসর মানুষেরা যারা বাঙ্গালয়িনার পক্ষে, যারা নবী রাসুলকে বিদ্রুপ করে (ব্লগার, লেখক, এথেয়িস্ট, অনলাইন এ্যাকটিভিস্ট), যারা কাফের (ইবনে তাইমিয়াহ মতে), মুনাফেক (বিশ্বাসঘাতক, নিশ্চিতভাবেই ৭১ এ যারা বিশ্বাসঘাতকরূপে চিত্রিত হয়েছিল-আওয়ামী লীগ ও স্বাধীনতার সমর্থকগণ), এবং যারা শেরক করে (হেফাযত মতে হিন্দু তো বটেই বৈশাখ পালনকারী বাঙ্গালী মুসলিম পর্যন্ত শিরককারী,আল্লাহর সাথে প্রতিতুলনায় আর কাউকে ভজনা করা শিরক)।

সশস্ত্র বিপ্লবী মাস্টার দা সূর্য্যসেন লাল সালাম



"বাংলায় বীর যুবকের আজ অভাব নাই। বালেশ্বর থেকে জালালাবাদ,কালারপোল পর্যন্ত এদের দৃপ্ত অভিযানে দেশের মাটি বারে বারে বীর যুবকের রক্তে সিক্ত হয়েছে। কিন্তু বাংলার ঘরে ঘরে মায়ের জাতিও যে শক্তির খেলায় মেতেছে, ইতিহাসে সে অধ্যায় আজও অলিখিত রয়ে গেছে। মেয়েদের আত্মদানে সে অধ্যায় রচিত হোক এই-ই আমি চাই। ইংরেজ জানুক, বিশ্বজগৎ জানুক, এদেশের মেয়েরাও মুক্তিযুদ্ধে পেছনে নেই”। -----প্রীতিলতার ইউরোপিয়ান ক্লাবে হামলার সময় মাস্টার দা লিখেছিলেন।

ক্রিকেট প্রেমে একাকার দেশপ্রেম


ক্রিকেটে শত তম টেষ্ট ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপরীতে বাংলাদেশ জিতেছে।এটা নিঃসন্দেহে ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে একটা বড় অর্জন।বাংলাদেশের ক্রিকেট টিম আজকের অবস্থানে এসেছে গত কিছু বছর ধরে।এখন বাংলাদেশ ক্রিকেট টিম প্রতিযোগিতা করার মত অবস্থানে পৌঁছেছে।দেশের মানুষ ক্রিকেটের এই জয় কে উল্লাসের সাথেই গ্রহণ করে।কিন্তু মধ্যবিত্তের একটা অংশ বরাবরই পরাজয়কে ভালো চোখে দেখেন না।ক্রিকেটে পরাজয়কে মেনে নিতে পারেন না।এটা উগ্র দেশপ্রেমের জায়গা থেকে ভালোই মনে হবে।কিন্তু কেউ যদি খেলার জায়গা থেকে দেখেন তবে সেটা স্বাভাবিক ঘটনা।

আসছে মে দিবসঃ সেদিনের ইতিহাস ও আজকের প্রেক্ষাপট


পৃথিবীর ইতিহাস শ্রেনী সংগ্রামের ইতিহাস।
আরো স্পষ্ট ভাবে বললে পৃথিবীর ইতিহাস শোষিত শ্রেনীর সংগ্রামের ইতিহাস,বিজয়ের ইতিহাস।

আর মে দিবস বা আন্তর্জাতিক শ্রমিক সংহতি দিবস হচ্ছে শ্রমিক শ্রেনীর সংগ্রাম ও বিজয় অর্জনের ইতিহাসের একটি মহান অংশ। আর একারনেই পহেলা মে বা শ্রমিক দিবসের ইতিহাস আমাদের জানা দরকার।অন্তত যারা আজ শ্রমিক শ্রেনীর মুক্তির রাজনীতি করতে চায় তাদের এই ইতহাসের পুঙ্খানুপুঙ্খ ভাবে জানা আবশ্যক।
সেই লক্ষ্যেই আজকের এই আলাপ।

বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড নাকি রাষ্ট্রীয় হত্যাকাণ্ড


বিচার।আমরা মূলত বিচার বলতে স্বাভাবিক ভাবে ন্যায় বিচারকেই বুঝি।আর ন্যায় বিচার কিভাবে হয়?

আইন যদি নিজেই বেআইনী হয় তাহলে কি ন্যায় বিচার পাওয়া সম্ভব? প্রথমত ন্যায় বিচারের জন্য সঠিক আইন দরকার হয়।সেটা কি দেশে আছে? নাই।দেশে আইন-কানুন সব কিছুই একটা নির্দিষ্ট শ্রেনীর হাতে।তারা যখন খুশি ইচ্ছামত আইন বানাবেন আর বলবেন আইন সবার জন্য সমান। হ্যাঁ, সমান বটে।তবে কার জন্য সমান?যারা রাষ্ট্রের কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে যাবে তাদের জন্য সমান।তাদেরকে সর্বোচ্চ সাজা দেবার জন্য আইন সমান।

অপদ্য বচন (২১৬-২২৫)


২১৬. শিশুদের হাতে তুলে দেওয়া সবচে' খুনে অস্ত্রের নাম, 'আল-কুরআন'

২১৭. ইস্টিশন ব্লগের বাংলাদেশে নিষিদ্ধ হওয়া প্রসঙ্গে এক পরিচিত গতরাতে বলছিলো, 'এই বালের সাইটের নাম কে শুনছে? কার কি আসে যায় ব্যান খাক আর যাই খাক!'

তার বিশেষজ্ঞ মতামত কষ্ট করে গিলে আমি বললাম, 'চিন্তা করেন, বালের ওয়েবসাইটকেও ছাড়তেসে না, গুরুত্ত্বপূর্ণ সাইট হলে তো গুলি করে মারতো'। পরিচিত লোকটি এরপর আর কিছু বলেননি।

২১৮. মুখ চিরে দেখি মুখোশের সন্ধানে

জঙ্গি উৎপাদনের মতাদর্শিক ভিত্তি চালু রেখে জঙ্গি নিধন সরকারের ফ্যাসিবাদী শাসনের একটা দিক


দেশে দফায় দফায় জঙ্গি নিধন করছে সরকার।সরকারের বিরোধী হলেই তাকে জঙ্গি বলে চালিয়ে দেয়ার চেষ্টাও কম নয়।দুদিন আগেই চট্টগ্রামে সোয়াট বাহিনী অভিযান চালিয়েছে।সারাদেশে এমাসের শুরুতে যৌথ বাহিনীর অভিযানে অনেক গ্রেফতার করা হয়েছে।আর গ্রেফতারের সাথে আছে গ্রেফতার বাণিজ্যের নিবিড় সম্পর্ক।বর্তমানে পুলিশের গ্রেফতার বাণিজ্যের কথা আমরা কমবেশি সবাই জানি।

পৃষ্ঠাসমূহ

Facebook comments

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর