নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 7 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • কফিল উদ্দিন মোহাম্মদ
  • দীপ্ত সুন্দ অসুর
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী
  • ড. লজিক্যাল বাঙালি
  • নুর নবী দুলাল
  • দীব্বেন্দু দীপ
  • সুবিনয় মুস্তফী

নতুন যাত্রী

  • আরিফ হাসান
  • সত্যন্মোচক
  • আহসান হাবীব তছলিম
  • মাহমুদুল হাসান সৌরভ
  • অনিরুদ্ধ আলম
  • মন্জুরুল
  • ইমরানkhan
  • মোঃ মনিরুজ্জামান
  • আশরাফ আল মিনার
  • সাইয়েদ৯৫১

আপনি এখানে

সাহিত্য

লেখক ও শিল্পের দায়বোধ


'আশাবাদ' কিংবা 'নৈরাশ্যবাদ' নিয়ে যে জীবনযাপন তাকে সাহিত্য-সিনেমা ও গানে কীভাবে উপস্থাপন করা যায়, তার এক ধরণের করণকৌশল হয়তো আছে। বোধকরি সেসব নানাভাবে, নানা মাধ্যম হয়ে উৎসাহী কিংবা তৎসংশ্লিষ্টজনেরা তা পঠনপাঠন ও নানাভাবে ব্যবহার করেনও হয়তো। এর ব্যবহারিক দিক আছে। সেরকম করে ধরে নিলে দাঁড়ায় যে, এই ধারার একটি প্রভাব আছে বা থাকেও। নির্দিষ্ট করে বললে বলতে হয় সাহিত্যে এই আশাবাদী বা নৈরাশ্যবাদ কেমন করে ফুটে ওঠে? বা সাহিত্যে এই ধরণের গালভরা প্রপঞ্চগুলি কিভাবে চিত্রায়িত হয়? তার রূপ সাম্প্রতিক থেকে অতীতের সাহিত্য কেমন কিভাবে ফুটে ওঠেছে? সাহিত্যে এই সামাজিক বাস্তবতাটুকু কীভাবে চিত্রায়িত হয়? বা সাহিত্যের এই দায়টুকু কিভাবে পালন করে? লেখক কিভাবে দায় বা দায়মুক্তি পান?

কুশমণ্ডি


তোমাদের ভিতরের মানুষটা মরে যাচ্ছে-
মরতে দাও;
তারপর হাহা করে নবারুন আওড়াও, এই ’মৃত্যু উপত্যকা’ হ্যানত্যান, হে
গু খোরের জাত;
বাহ্যতঃ পাঞ্জোবী আর ধুতির তলে তোমাদের বাঁড়ার সাইজ বাড়ছে;
পেছনের লাঙ্গুলটা লুকিয়ে,
তোমরা রবীন্দ্রনাথ, পয়লা বৈশাখ পঞ্চকবি ঝেড়ে চলেছো,
ঝেড়ে চলেছো, কুরান হাদীস নবী, নারায়ণ ও গীতার শ্লোক!

ভ্রম ভালোবাসা


বাসে সেদিন রাতে কোনো সিট না পেয়ে দাড়িয়ে আছি শেষের দিকে..পাশের সিট থেকে এক বৃদ্ধা নেমে গেলেন,তার পাশে এক পিচ্চি বাচ্চা কোলে নিয়ে এক মেয়ে বসে আছে আসলে মেয়ে বললে ভুল হবে,বোঝা যাচ্ছিলো না মুখ ওড়না দিয়ে ঢাকা,বাচ্চাটার বয়স ১বছর হয়নি মনে হচ্ছে,আমি অনেকক্ষণ দাঁড়িয়ে আছি তারপর সে আমাকে বসতে বললো, যদিও অস্বস্তি লাগছিলো,কিন্ত আরো চার ঘন্টা এভাবে দাঁড়িয়ে থাকা মোটেও সম্ভব না..কণ্ঠটা অনেক বছরের পরিচিত মনে হলো,আমি একটু ঘুম ঘুম চোখে গা এলিয়ে দিলাম..তারপর অপ্রত্যাশিত কিছু..!!

তবুও ভালোবাসি


আমি জানি না যে আমি কি শুধুই অণু পরমাণুর সমষ্টি?

আমি কি শুধুই প্রকৃতির নিয়মে বাধা একটি যন্ত্র মাত্র?

প্রকাশিত হয়েছে আমার দ্বিতীয় গল্পগ্রন্থ ‘পরান পুরাণ’


প্রকাশিত হয়েছে আমার দ্বিতীয় গল্পগ্রন্থ ‘পরান পুরাণ’। প্রকাশনী-এক রঙ্গা এক ঘুড়ি। স্টল নম্বর- ৬৫৪। 'এক রঙ্গা এক ঘুড়ি' কেবল একটি প্রকাশনা সংস্থা নয়, একটি মানবিক সংগঠনও বটে। প্রতিবছর শীতার্ত এবং বন্যার্তদের পাশে দাঁড়ায়। পথশিশুদের নিয়ে কাজ করে। এবছর এক রঙ্গা এক ঘুড়ি নিজের খরচে পেপারব্যাকে বিশটি বই প্রকাশ করছে, বিক্রীত বইয়ের ত্রিশ শতাংশ ব্যয় করা হবে মানবিক কাজে। ধন্যবাদ নীলদা এবং এক রঙ্গা এক ঘুড়ি টিমের সকল সদস্যকে।

ভালবাসার গান


হোসে মার্‌তির সেই বিখ্যাত ভালবাসার কবিতাটি থেকে কয়েক পংক্তি ভাবানুবাদের ব্যর্থ প্রয়াস আমার...

আমি এক সহজ মানুষ, সরল আমার মন
দেশে আমার রয়েছেগো পাম গাছের বন ।
মনের কথা এক আমি বলে যেতে চাই
আমি মরে যাবার আগে, ওগো ও ভাই ।

দণ্ডিত বিবেক


মালগাড়ির শব্দে হাজেরার ঘুম ভাঙে।মধ্য রাতে হাজেরা মাকে জড়িয়ে চিৎকার দেয়।মস্ত বড় এক হাত হাজেরার বুকের উপর।মা আমাকে শক্ত করে ধরো।বুকে ভিষণ ব্যাথা।উঃ মা মরে গেলাম।কোমরে ব্যাথা লাগছে।নড়তে চড়তে পারছি না।উঃ মা আর পারছি না। আলেয়া কপাল চাপড়ে চিৎকার দিয়ে ওঠে। এ্যা খোদা-আমার নাবালক মেয়ের সর্বনাশ কে করলো? আমি এখন কি করব? বলে দাও খোদা।
আলেয়া মেয়ের গালে কয়েটা থাপ্পর বসিয়ে দেয়। বল তোর এ সর্বনাশ করলো কে? সত্যি কথা বল।
হাজেরা কাঁদতে থাকে।আলেয়ার কোন প্রশ্নের উত্তর সে দ্যায় না।

জমাট কিছু দহন


মালগাড়ির শব্দে হাজেরার ঘুম ভাঙে।মধ্য রাতে হাজেরা মাকে জড়িয়ে চিৎকার দেয়।মস্ত বড় এক হাত হাজেরার বুকের উপর।মা আমাকে শক্ত করে ধরো।বুকে ভিষণ ব্যাথা।উঃ মা মরে গেলাম।কোমরে ব্যাথা লাগছে।নড়তে চড়তে পারছি না।উঃ মা আর পারছি না। আলেয়া কপাল চাপড়ে চিৎকার দিয়ে ওঠে। এ্যা খোদা-আমার নাবালক মেয়ের সর্বনাশ কে করলো? আমি এখন কি করব? বলে দাও খোদা।
আলেয়া মেয়ের গালে কয়েটা থাপ্পর বসিয়ে দেয়। বল তোর এ সর্বনাশ করলো কে? সত্যি কথা বল।
হাজেরা কাঁদতে থাকে।আলেয়ার কোন প্রশ্নের উত্তর সে দ্যায় না।

পৃষ্ঠাসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর