নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • নগরবালক
  • সলিম সাহা
  • বেহুলার ভেলা
  • লালসালু

নতুন যাত্রী

  • সুশান্ত কুমার
  • আলমামুন শাওন
  • সমুদ্র শাঁচি
  • অরুপ কুমার দেবনাথ
  • তাপস ভৌমিক
  • ইউসুফ শেখ
  • আনোয়ার আলী
  • সৌগত চর্বাক
  • সৌগত চার্বাক
  • মোঃ আব্দুল বারিক

আপনি এখানে

সাহিত্য

অনন্যার মুখ(বন্ধু জেরী কে)


জেরী,
সেই কবে তুমি এঁকেছিলে-
উপত্যকার অন্ধকারে কোন এক যুবকের মুখ?
তোমার স্বাধীন অভিব্যক্তি
তোমাকে দাঁড় করিয়ে দিয়েছে-
চলমান সাম্রাজ্যের বিপরীতে।

জেরী,
তোমার তুলি আজ
কঠিন সময়ের মুখোমুখি;
চেতনার ক্যানভাসে
মূর্তমান কিছু জিজ্ঞাসা-
বারবার তোমাকে নাড়া দিয়েছে।
তুমি চিনে নিতে চেয়োছো-
পৃথিবীর সব রঙ,
নতুন এক নির্ঘণ্ট সাজিয়েছো
বিমুক্ত স্মৃতি জুড়ে।

জেরী,
চেয়ে দ্যাখো ইতিহাসে-
বারংবার প্রতিধ্বনিত মনস্তত্ত্বের
বিশাল চিত্র;
হয় তো তোমার কল্পনায়-
মহাকাব্যের জন্ম দিবে কোন।

বুক রিভিউঃ ওয়েটিং ফর গডো, স্যামুয়েল বেকেট



বুক রিভিউ
বইঃ ওয়েটিং ফর গডো (Waiting for Godot)
লেখকঃ স্যামুয়েল বেকেট
ধরণঃ অধিবাস্তব নাটক
রচনাকালঃ ১৯৪৮-১৯৪৯
প্রথম প্রদর্শনীঃ ৫ জানুয়ারি, ১৯৫৩

বেকার কবি


১.
মিঃ সানাউল্লাহ্ সানা
সোসাইটির পাশাপাশি
আল্লা ও আপনাকে চোখে দ্যাখে না!
সোসাইটি কানা
আর আল্লা আপনারে লাইক করে না!
আপনি একজন বেকার
তারোপর কবি
আপনি অভাবী
আপনি ফতুর!
প্রেমিকার কাছে অপমানিত হইতে হইতে, এক পর্যায়ে এসে থেমে যান
পৃথিবীর চড়-লাথি খাইতে খাইতে
আর চলার অ্যানার্জি পান না।
২.
এরপর বাবা-মা আপনাকে ভাবতে থাকে উচ্ছিষ্ট। মিঃ সানা আপনি সংসারে
অনাহারীদের মতো ক্লিষ্ট!
আকাশের ফারিশতাদ্বয় আপনাকে পাপের কারণে করতে থাকে লানত,
মৃত্যু আপনার কাছে রেখেছে "বেঁচে থাকা'' আমানত।
আপনি কই যাবেন?

৪ টি কবিতা


করায়ত্ব হাজীর পাগড়ী করে
লাগায় কলহ; কে শরীয়ত কে মারফত!
কার টুপি লম্বা, গোল। কে রেখেছে দাঁড়ি;
বিভ্রান্ত সবাই, মসজিদে কি আসতে পারবে নারী?
বিভ্রান্ত সকলে বিভ্রান্ত ইমাম,পুরোহিত, রাব্বি, গির্জার যাজক!
চলে কথার বাহাজ, রুষ্ট উপাসক
ফাঁকে ফুরিয়ে যায় সমস্ত ইবাদত!
কে শ্রেষ্ঠ?

রিভেঞ্জ (৩টি কবিতা)


রিভেঞ্জ/
।।এক।।
দুঃখ পেলে সবাই
কাঁদতে জানে না
কারো কারো
হৃদয় ভেঙে যায়
কাচের টুকরার মত
অথচ চোখে
জল গড়ায় না!
যারা কাঁদতে জানে না

হুমায়ূন আহমেদের হযরত মুহাম্মদকে নিয়ে উপন্যাস


হুমায়ূন আহমেদ প্রচন্ডভাবে প্রভাবিত ছিলেন মাওলানা মুহিউদ্দীন খান দ্বারা। মাওলানা মুহিউদ্দীন খানের বড় পরিচয় তিনি ‘মাসিক মদিনা’ পত্রিকার সম্পাদক ছিলেন। এই কাগজটি ৫০ বছর ধরে এদেশে নারীদের পর্দায় থাকতে, জিহাদের মাধ্যমে ইসলাম কায়েম করতে, ইসলামের শত্রু ইহুদীনাসারা মুশরিক (হিন্দুদের) বিরুদ্ধে লড়াই করতে প্রচার চালিয়ে গেছে। মাসিক মদিনার এই প্রসঙ্গে পরে আসি, শুরুতে জননন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের সঙ্গে খান সাহেবের সম্পর্ক নিয়ে কিছু বলে নেই-।

পৃষ্ঠাসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর