নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 11 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • মূর্খ চাষা
  • নরসুন্দর মানুষ
  • রাজিব আহমেদ
  • কাঠমোল্লা
  • পৃথু স্যন্যাল
  • আল আমিন হোসেন মৃধা
  • নিরব
  • সাগর স্পর্শ
  • দ্বিতীয়নাম
  • নুর নবী দুলাল

নতুন যাত্রী

  • মাসুদ রুমেল
  • জুবায়ের-আল-মাহমুদ
  • আনফরম লরেন্স
  • একটা মানুষ
  • সবুজ শেখ
  • রাজদীপ চক্রবর্তী
  • নাজমুল-শ্রাবণ
  • চিন্ময় ভট্টাচার্য
  • নেইমানুষ
  • পরাজিত শুভ

আপনি এখানে

সমসাময়িক

সন্ত্রাস ও দুর্নীতিমুক্ত দেশ হিসেবে বিশ্ব পরিমণ্ডলে বাংলাদেশর নাম


বাংলাদেশের সাধারণ মানুষ রাজনীতির বলয়ে আবদ্ধ না, তারা সবসময় সহজ ভাবে বিশ্বাস করতে ভালবাসে। সাধারণ মানুষের সহজ-সরলতাকে কাজে লাগাতে তৎপর রাজনীতির নামে হত্যাযজ্ঞে লিপ্ত কিছু মহল। যাদের রাজনীতির হাতিয়ার গনতন্ত্র আর জনগণ নয়। তাদের আন্দোলনে সাধারণ মানুষের সম্পৃক্ততা নেই, আছে শুধু সাধারণ মানুষের আহাজারি আর কান্না। এ দেশের খেটে খাওয়া মানুষ আর শুধু কথায় বিশ্বাস করে না। কথায় কথায় তারা বলে গনতন্ত্র ফেরাতে হবে,গনতন্ত্রকে বাচাতে হবে তারা আজ জানে মুখস্থ মন্ত্র দিয়ে স্বার্থসিদ্ধি হয় না। তারা দেশে ব্যর্থ হয়ে এখন দেশের বাইরে গিয়ে মন্ত্র পাঠ করছে। কিংস্টনের আলিশান বাড়ীতে বসে থেকে আন্দোলনের নামে শুধু মাইক্রোফো

যে কারনে গ্রিক দেবি থেমিসের মূর্তিটি একপাশে সরানো হয়েছে


সুপ্রিম কোর্টের সামনে স্থাপিত গ্রিক দেবি থেমিসের মূর্তিটি সরানোর একমাত্র কারণ হচ্ছে যে মূর্তিটির পিছনে বাংলাদেশের মানচিত্র ঢেকে পড়ে গিয়েছিল। সুপ্রিম কোর্টের বাহিরে স্থাপিত বাংলাদেশের মানচিত্র মূর্তি থাকার কারনে সামনে থেকে দেখা যাচ্ছিল না। ৩০ লক্ষ শহীদের রক্ত ও ২ লক্ষ মা বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে অর্জিত বাংলাদেশের মানচিত্র কখনই আড়ালে পড়ে থাকতে পারে না। বিষয়টি বিবেচনা করে মূর্তিটি একপাশে সরানো হচ্ছে, তবে একেবারে উঠিয়ে নেয়া হচ্ছে না। তাছাড়া সরানোর অন্য কোন কারণও নেই। তবে কতিপয় কুচক্রী মহল বিষয়টি নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করছে। ভুল তথ্য দিয়ে সাধারণ জনগনের কাছে বিষয়টি অন্যভাবে উপস্থাপন করছে য

সাধু সাবধান!


শেখ মজিবুর রহমান, একটা নাম একটা বিশ্বাস, একটা অহংকার। একটা দেশের পৃথিবীর মাথা তুলে দাঁড়ানোর নাম। শেখ মুজিব কোটি মানুষের বুকের মাঝে সযত্নে রাখা ভালবাসার নাম। শেখ মুজিব একটা মহানায়কের নাম যে, কোটি প্রাণে দোলা দিয়েছিল স্বাধীনতা ছিনিয়ে আনার। সব ধর্মের মানুষের মিলে মিশে এক সাথে বাচার নাম ছিল শেখ মুজিব। কিন্তু দেশ স্বাধীনের ৪৫ বছর পরে আমাদের দেশকে টেনে নিয়ে চলেছে পাকিস্থানপন্থী ধর্মান্ধ, বর্তমানের মৌলবাদী আফগানিস্থানের দিকে। শেখ মুজিব কন্যা শেখ হাসিনা বর্তমানে দেশের প্রধান মন্ত্রী। যিনি ৯৬ এ ভোটে জিতেছিলেন সেক্যুলার বাংলাদেশের প্রতিশ্রুতি দিয়ে। কালে কালে পদ্মায় পানি অনেক গড়িয়েছে। পুরানো

বাংলাদেশ একতরফা পানি প্রত্যাহার করে নিচ্ছে-দাবী মমতার!


ভারত সরকার কর্তৃক একতরফা পানি প্রত্যাহার করে নেওয়া ও তিস্তা সহ ভারতের সাথে অভিন্ন ৫১ নদীর পানির ন্যায্য হিস্যার দাবিতে বাংলাদেশের মানুষ যখন সোচ্চার, তখন ভারত সরকার পানি তো দিলই না বরং উল্টো অভিযোগ করে বসল ভারতের পশ্চিম বঙ্গের সিএম মমতা ব্যানার্জি বাংলাদেশ নাকি ভারতকে পানি থেকে বঞ্চিত করছে। তিনি বাংলাদেশ থেকে ভারতে প্রবেশ করা অভিন্ন তিন নদীর পানির হিস্যা দাবি করেছে। আমরা ভারতের সাথে অভিন্ন ৫১ নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা নিশ্চিত করতে না পারলেও ভারত বাংলাদেশের সাথে অভিন্ন ৩ নদীর পানির হিসাব নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে।

নার্গিস ও কাজী নজরুল ইসলামের প্রেম-বিচ্ছেদ


কাজী নজরুল ইসলামের প্রথম প্রেম ও প্রথম স্ত্রী সৈয়দা খানম ।নজরুল নার্গিস বলে ডাকতো।নার্গিস কুমিল্লার মুরাদনগর দৌলতপুর গ্রামের মেয়ে। মামা আলী আকবর খানের সাথে নজরুলের খুব ঘনিষ্টতা ছিলো।সম্রাট বাবরের জীবনী নিয়ে আলী আকবর খান একটা নাটক লিখেছিলো।ছোট ছোট বই লিখে নিজেই ফেরি করে বিক্রি করতেন। সেই সব বইতে আলী আকবর খান রচিত কিছু কবিতা থাকতো। সেসব হাস্যরস্য কবিতা দেখে নজরুল নিজে “লিচু চোর” কবিতাটি আলী আকবর খানকে লিখে দিলেন। খুশি হয়ে নজরুলকে গ্রামের বাড়ি কুমিল্লাতে দাওয়াত দেন। আলী আকবর থেকে সর্বদাই নজরুলকে বন্ধুরা দূরে থাকার পরামর্শ দিতেন। কিন্তু নজরুল কখনি বন্ধুদের উপদেশ শোনেন নি।

শ্যামলকান্তির বিরুদ্ধে করা ঘুষের মামলা মিথ্যে, বানোয়াট ও ষড়যন্ত্রমূলক



ঘটনা ও বিশ্লেষণ থেকে স্পষ্ট বুঝা যায় শ্যামলকান্তির বিরুদ্ধে আনীত ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ মিথ্যে, বানোয়াট, হয়রানীমূলক ও ষড়যন্ত্রের অংশ। প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার হীন উদ্দেশ্যে তাঁকে মামলায় ফাঁসানো হয়েছে। শ্যামলকান্তির অবিলম্বে জামিন দাবী করছি এবং ঘুষ গ্রহণের মিথ্যে অভিযোগটি ডিসচার্জড করে তাঁকে অভিযোগের দায় থেকে অব্যাহতি দেওয়া হোক। সেই সাথে ঘুষ দিতে চাওয়া ও মিথ্যে মামলা করার জন্য অভিযোগকারীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হোক।

প্রসঙ্গ : শ্যামল মাষ্টার এবং অসভ্য মুসলমান ।



••••• ড: কামাল হোসেন এ্যটর্নী জেনারেল মাহবুবে আলমকে যে বিলাতি ভাষায় "বাস্টার্ড" গালি দিয়েছেন তাতে আমার মন ভরে নাই । কারন, বেজন্মা মুসলমান বিলাতি ভাষায় গালির জন্য যোগ্য না । এইসব বেজন্মা জঙ্গিদের জন্য খাঁটি বাংলা কিংবা খাঁটি ঢাকাইয়া ভাষার নিম্নমানের রিক্সাওয়ালাদের মুখে মানানসই গালিসমগ্রই যথেষ্ট । তাছাড়া, এইসব বোমাবাজ , চাপাতিবাজ মুসলিমদের অপমান করতে ও শুধু তাদের জন্যই এর চাইতে আরো নিকৃষ্ট কোন অপমানজনক গালি আছে কি না তা খুঁজে বের করা জরুরী ।

একজন ধর্ষিতা ন্যায় বিচার পাবে কার কাছে?


সমাজের ভয়ে ধর্ষিতার পরিবার অনেক সময়েই ধর্ষণের বিচার দাবি করেন না। সমাজপতিরা অনেকসময় ভয় দেখিয়ে কিংবা কিছু টাকা হাতে গুজে দিয়েই ধর্ষিতার পরিবারকে দমিয়ে রাখে। একজন নারী ধর্ষিতা হয়েছে, এটা জানা জানি হলে এই সমাজে খুব কম লোকই আছে যারা সেই নারীকে বিয়ে করার সাহস দেখায়। অথচ একজন ধর্ষকের জন্য বিয়েশাদি করতে কোন সমস্যাই হয় না। 'পুরুষ মানুষ বয়সকালে দুই চারটে অমন কাজ করেই' বলে ধর্ষণকে জায়েজ করার প্রবণতা সমাজে লক্ষ্যনীয়।

দ্রুত এগিয়ে চলছে পায়রা সেতুর নির্মাণ কাজ


বরিশাল থেকে সড়কপথে পর্যটনকেন্দ্র কুয়াকাটায় যেতে আগে ৬ থেকে ৭ ঘণ্টা সময় লাগত। ১০৪ কিলোমিটার দীর্ঘ সড়কপথের পাঁচটি পয়েন্টে ছিল ফেরি। এ কারণে ঘাটে ঘাটে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হতো যাত্রীদের। গত কয়েক বছরে চারটি পয়েন্টে সেতু নির্মিত হওয়ায় যোগাযোগ ব্যবস্থা অনেক সহজ হয়েছে। বেঁচে গেছে অর্ধেক সময়। এর পরও বাকি থাকা একমাত্র লেবুখালী ফেরিঘাট পয়েন্টে দুর্ভোগ নিত্যসঙ্গী পরিবহন চালক ও যাত্রীদের। ব্যস্ততম এই মহাসড়কে জনদুর্ভোগ কমাতে গত বছর লেবুখালী পয়েন্টের পায়রা নদীর ওপর সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়। যেখানে বরগুনার আমতলী-পুরাকাটা রুটের পায়রা নদীতে সেতু নির্মাণের বিষয়টি একসময়ে ছিল কল্পনারও অতীত, ছিল আকাশ

পৃষ্ঠাসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর