নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • শহরের পথচারী
  • দীব্বেন্দু দীপ
  • অলীক আনন্দ
  • মিশু মিলন

নতুন যাত্রী

  • তা ন ভী র .
  • কেএম শাওন
  • নুসরাত প্রিয়া
  • তথাগত
  • জুনায়েদ সিদ্দিক...
  • হান্টার দীপ
  • সাধু বাবা
  • বেকার_মানুষ
  • স্নেহেশ চক্রবর্তী
  • মহাবিশ্বের বাসিন্দা

আপনি এখানে

প্রবন্ধ

অ্যাডাম-ইভের মঙ্গল যাত্রা এবং বিবর্তনবাদ-১


আপনার দাদার দাদার অনেক-অনেক-অনেক পেছনের দাদারা ’বানর’ ছিলেন— একথা শোনার পর উন্নত শ্রেণীর প্রাণী তথা ‘মানুষ’ হিসেবে বিষয়টা মেনে নেয়াটা সত্যিই খুব কষ্টের, কেউ কেউ আবার যথেষ্ঠ অপমানবোধও করেন। এই অপমানবোধ শুধু মানুষের নয়, “বাড়ির পোষা কুকুরটারও অপমানবোধ আছে।” পার্থক্য, মানুষ অপমানিত হলে যুক্তি খোঁজে, আর কুকুর মাত্রই ঘেউ ঘেউ করে। কামড় দিতে আসে।

শুরুতেই বলে রাখি, আমাদের আদি বংশে কোনো বানর ছিলনা এবং তা আমি পরে বুঝিয়ে বলব। কিন্তু তার আগে কিছু গল্পের অবতারণা করতে চাই।

পতিতাবৃত্তিতে মেয়েরাঃ স্বেচ্ছায় নাকি অনিচ্ছায়?


আপনি কি একবারো ভেবেছেন কি দেশের কত শতাংশ মেয়ে পতিতাবৃত্তি পেশার সাথে জড়িত? পতিতা শব্দটা শুনলেই আমরা ছিঃ ছিঃ করি নিজের পবিত্রতার পরিচয় জানান দিতে। শত শত অসভ্যতা করেও আমরা সভ্য! একদিকে পতিতাদের কথা শুনলে আমরা ছিঃ ছিঃ করে ফেনা তুলে ফেলি আর অন্যদিকে রাতের অন্ধকারে চুপি চুপি অতৃপ্ত বাসনাগুলো পূরণ করতে ধরণা দেই সেই পতিতাদের কাছে। আমাদের কারণেই যারা অসভ্য আর বেশ্যা উপাধি পেয়ছে সেই আমরাই কিন্তু সভ্য। কোট-টাই-পেন্টের আবরণের ভেতর গুটিশুটি মেরে থাকা সেই অসভ্যতা কেউ দেখে না। আচ্ছা একবার চিন্তা করুন তো রাতের অন্ধকারে এই কর্মগুলোর সাথে যারা লিপ্ত হতে যায় তাদের পরিমাণটা যদি বিশাল অঙ্কের না হতো তাহলে কি এই পতিতাদের সংখ্যাটা দিন দিন বেড়ে যেতো? চাহিদা আর যোগানের মধ্যে গভীর যোগসূত্র আছে সেটা আমরা সবাই কম বেশি জানি। যাহোক আমাদের ভদ্র এবং সভ্য সমাজকে দায়ি না করি।

ধর্ম না থাকলে কি পৃথিবীতে খুন-খারাবি,অন্যায় অবিচারে ভরে যাবে?


কেউ কেউ মনে করেন ধর্ম সত্য বা মিথ্যা যাই-ই হোক, ধর্ম না থাকলে পৃথিবী নৈরাজ্য ভরে যেত । ধর্মের কারনে ও খোদার ভয়ে মানুষ ভাল আছে । সুতরাং ধর্মের প্রচার ও প্রসার হওয়া উচিত । আমিও একসময় এ দর্শনের সমর্থক ছিলাম । কিন্তু বাস্তবতা চরম ভিন্ন ।

বই বিনিময়ে কেন এই অনীহা?


"বই পড়ুয়া মানুষগুলো প্রেমিক/প্রেমিকা হিসেবে চমৎকার। বই পড়ুয়ারা চমৎকার রুচিবোধ সম্পন্ন, উচ্চ ব্যক্তিত্বসম্পন্ন মানুষগুলো বইপোকা হয়"

বই পড়া বর্তমানে একটা ট্রেড হয়ে দাঁড়িয়েছে। ট্রেড দণ্ডের নিজের সূচক সুউচ্চ রাখার জন্য বই পড়ার দিকে ঝুকে পড়ছে মানুষ। কে কতগুলো বই পড়লো কার ব্যক্তিগত সংগ্রহ আজকাল আলোচনার হট টপিকে পরিণত হচ্ছে। কোমল বাক্য বিনিময় হচ্ছে জাগায় জাগায়।

মানুষ বই পড়ার দিকে ঝুঁকে পড়ছে তা সত্যিই ভাল খবর। পাশাপাশি কিছু খারাপ খবরও আছে।

বুদ্ধিজীবীর ক্ষীনদৃষ্টি


আমাদের প্রথম জাতীয় অধ্যাপক আব্দুর রাজ্জাক, যদিও তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক পদে কোনদিন পদোন্নতি পাননি;যোগ্যতার অভাবে নয়, যোগ্যতার প্রাচুর্যের কারনেই পাননি। আকাশচুম্বী বুদ্ধিজীবী তিনি । হুমায়ুন আজাদ তাঁকে বাংলার সক্রেটিস বলে অভিহিত করেছেন। আজকের বাংলাদেশে যে প্রবীণ বুদ্ধিজীবী সমাজ তাদের প্রায় সকলেই আব্দুর রাজ্জাকের পায়ের কাছে বসে থাকা ছাত্র এবং অনুগ্রাহী। বছর তিনেক আগে আব্দুর রাজ্জাক স্মারক গ্রন্থ বের হয়েছিল। হেন কোন বিখ্যাত বাঙালি বুদ্ধিজীবী নেই যিনি আব্দুর রাজ্জাকের বন্দনা করে সেখানে লেখেননি। তিনি এক কিংবদন্তী!

হাফেজ তারিকুলের কোরআন পাঠে চ্যাম্পিয়ন হওয়াঃ কিছু জিজ্ঞাসা


কবি রাসেল রায়হানের পোস্ট থেকে জানতে পেলাম, যাত্রাবাড়ির মারকাজুত তাহফিজ ইসলামিয়া ক্যাডেট মাদ্রাসার ছাত্র হাফেজ মোহাম্মাদ তারিকুল ইসলাম দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত কোরআন পাঠ প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করে দেশের মুখ উজ্জ্বল করেছে। এবারে ২১ তম কম্পিটিশন হয়। এতে ১০৩ টি দেশের প্রতিযোগীদের পেছনে ফেলে বাংলাদেশ প্রথম হয়।

সবচেয়ে আকর্ষণীয় ব্যাপার হলো পুরষ্কারের মূল্যমান। ২ লাখ ৫০ হাজার দিরহাম জিতে নিয়েছে হাফেজ তারিকুল। টাকার অংকে ফিগারটা দাঁড়ায় প্রায় ৫৫ লক্ষ টাকা!!! কী চোখ কপালে উঠে গেলো?

পৃষ্ঠাসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর