নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

শিডিউল

ওয়েটিং রুম

এখন 3 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • অভিজিৎ
  • মূর্খ চাষা
  • দ্বিতীয়নাম

নতুন যাত্রী

  • রোহিত
  • আকাশ লীনা
  • আশরাফ হোসেন
  • হিলম্যান
  • সরদার জিয়াউদ্দিন
  • অনুপম অমি
  • নভো নীল
  • মুমিন
  • মোঃ সোহেল রানা
  • উথোয়াই মারমা জয়

আপনি এখানে

শোকগাঁথা

জেনি ফন ভেস্টফালেন- সমাজ পরিবর্তনের দর্শন প্রতিষ্ঠার প্রধান অংশীদার এবং কার্ল মার্কসের সহধর্মিনী


জেনি মার্কসের মত একজন নারীকে কার্ল মার্কস স্ত্রী হিসেবে পেয়েছিলেন বলেই হয়ত কার্ল মার্কস হতে পেরেছিলেন একজন সমাজ পরিবর্তনের পথপ্রদর্শক দার্শনিক ও বিপ্লবী! জেনি মার্কসের মেয়ে এলিনর মার্কস এভেলিং তার মা’কে স্মরণ করে লিখেছিলেন, স্ত্রী জেনী মার্কসের সহায়তা না পেলে কার্ল মার্কস কোন কিছুই করে যেতে পারতেন না।

একজন শ্যামল হেমব্রাম


শ্যামল হেমব্রাম
এমন একজন নেতা চাই নেতা!
প্রতিবাদী নেতা, নিপীড়িত মানুষের নেতা,
অসহায় মানুষের নেতা, দেশপ্রেমিক নেতা!
জোটের নেতা নয়, মহাজোটের নেতা নয়
রাজ’নীতির নেতা নয়,শোষিতদের নেতা চাই।
নেতা চাই নেতা!
সার্বভৌমত্বের নেতা, ভু-খন্ডের নেতা,
অধিকার বঞ্চিতদের নেতা, দাবি অাদায়ের নেতা,
অর্থের নেতা নয়, স্বার্থের নেতা নয়,
মুখোশধারী নেতা নয়,প্রান দিতে পারে এমন এক নেতা।
নেতা চাই নেতা
সুস্থ্য মস্তিস্কের নেতা, সত্যবাদী নেতা,
চোখে চোখ রেখে কথা বলার নেতা
দাবী আদায় অটল শকুনের গুলি খেয়ে আত্মত্যাগের নেতা

আমি আলফ্রেড সরেন বলছি....


ছবিঃ সংগৃহীত

মনে আছে আপনাদের সেই ভীমপুরের কথা ? আজ থেকে ১৬ বছর আগে যে ভীমপুরে দাও দাও করে আগুন জ্বলেছিল। মধ্যযুগের বর্বরতাকে হার মানানো যে নারকীয় হত্যাকাণ্ড ও তাণ্ডবলীলা চালিয়েছিল ১৩ টি আদিবাসী পরিবারের উপর। ভীমপুর গ্রাম ও মৌজার ১৬৬ ও ১৬৮ দাগের এক একর জমির উপর তখন ১৩টি আদিবাসী সাঁওতাল পরিবার বসবাস ছিল। গ্রামের অল্প দুরেই ৯০/৯৫ বিঘার মত খাস জমি ছিল। আর সেই জমি দরিদ্র আদিবাসী ও এলাকার ভূমিহীনদের কাছে বন্দোবস্তো দেবার জন্য চেষ্টা করেছিলাম। আর এটাই ছিল জীবনের কাল!

পাহাড়ের এক মা ও তাঁর হাজার সন্তানের কান্না


হাতে হাতকড়া, তার সাথে দড়ি বাঁধা রয়েছে। দড়ির একপ্রান্তে পুলিশ দাঁড়িয়ে। শুধু হাতকড়া নয়, পায়ে ডান্ডাবেরি ও গায়ে বুলেটপ্রুপ জ্যাকেট। এ যেন এক কুখ্যাত খুনী বা দাগী কোন অপরাধীকে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আর সে তখন চোখে অশ্রু নিয়ে তার মাকে শেষ বিদায় জানাচ্ছিল।
হ্যাঁ, বিপুলের কথাই বলছি। আমার বন্ধু বিপুল, কলেজের সহপাঠী বিপুল, রাজনীতির কমরেড বিপুল আর পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক বিপুল চাকমা।

সব কিছু নষ্টদের অধীকারে চলে গেছে


বহুমাত্রিক জ্যতিময় ও প্রথাবিরোধী লেখক হুমায়ুন আজাদ বলেছিলেন সবকিছু নষ্টদের অধিকারে যাবে।

দুঃখ-কষ্টে ভরা আমার জীবন…


কষ্টের কথায় এসে এখন আমার একটি গানের কথা মনে পড়ে যাচ্ছে। গানটি হলো এস.আই.টুটুলের “জীবনে ভালোবেসে করেছি ভূল, বুঝিনি পাথরে ফুটবেনা ফুল।”

মানব‌েন্দ্র নারায়ন লারমা চির অম্লান প্রত‌‌িটি জুম্মদ‌ের রক্ত‌ে।


শুভ জন্মদ‌িন!
মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমা
জন্ম:
১৫ সেপ্টেম্বর, ১৯৩৯ সাল
মহাপ্রুম গ্রাম, বুড়িঘাট, নানিয়ারচর থানা, রাঙ্গামাটি
মৃত্যু ১০ নভেম্বর, ১৯৮৩ সাল
খেদারা ছড়ার থুম, পানছড়ি, খাগড়াছড়ি
পেশা শিক্ষকতা, আইনজীবি
যে জন্য পরিচিত রাজনীতিবিদ

মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমা ছিলেন একজন আদিবাসী নেতা এবং রাজনীতিবিদ।পাহাড়ি জনতার প্রাণের দাবিতে তিনি সারা জীবন আন্দোলন করে গেছেন। ১৯৯৭ সালে ২রা ডিসেম্বর তাঁর আন্দোলনের সফলতা অর্জিত হয় শান্তিচুক্তির মাধ্যমে। তিনি ছিলেন আসলে শোষিত মানুষের নেতা।

কিছু লজ্জা। নির্লজ্জ জাতির পক্ষ থেকে।


শনিবার সকাল থেকেই টঙ্গি ৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের গেটে ভিড় করে স্বজনরা। হাসপাতালের গেটে লাশ আসা মাত্রই ছুটছেন ভেতরে। স্বজনের পোড়া লাশ দেখে কান্নায় ভেঙে পড়ছেন। অনেকেই ছবি নিয়ে ঘুরছেন স্বজনের খোঁজে।

১৯ বছর বয়সী মুরাদ মেশিন হেলপার ছিল ট্যাম্পাকো লিমিটেডের প্যাকেজিং কারখানায়। রাতে কারখানায় গেলেও এখনও তার খোঁজ না পেয়ে হাসপাতালে এসেছেন তার ভাবী সুমি। কান্না জড়ানো কণ্ঠে ছবি দেখিয়ে সবাইকে বলেছেন, ‘মুরাদকে কেউ দেখেছেন ?’

‘জীবনেরে কে রাখিতে পারে, আকাশের প্রতি তারা ডাকিছে তাহারে।'- রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।


কোন এক ঈদের মৌসুমে কোন একটি মেয়ে নিজের উপার্জিত অর্থ দিয়ে গাবতলির হাট থেকে গরু কিনে বাড়ি ফিরছিল। পিতাবিহীন পৃথিবীতে মেয়েটি অভিভাবকের গুরু দায়িত্ব পালন করতে কার্পণ্যবোধ করে নি। মেয়েটি বেশ খুশি ছিল। সে সময়ে ৪০,০০০ টাকা দিয়ে গরু কেনা বিশাল ব্যাপার।

পৃষ্ঠাসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর