নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 8 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • কফিল উদ্দিন মোহাম্মদ
  • দীপ্ত সুন্দ অসুর
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী
  • ড. লজিক্যাল বাঙালি
  • নুর নবী দুলাল
  • দীব্বেন্দু দীপ
  • সুবিনয় মুস্তফী
  • রহমান বর্ণিল

নতুন যাত্রী

  • আরিফ হাসান
  • সত্যন্মোচক
  • আহসান হাবীব তছলিম
  • মাহমুদুল হাসান সৌরভ
  • অনিরুদ্ধ আলম
  • মন্জুরুল
  • ইমরানkhan
  • মোঃ মনিরুজ্জামান
  • আশরাফ আল মিনার
  • সাইয়েদ৯৫১

আপনি এখানে

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

স্ট্রোক- বর্তমান সময়ের বিভীষিকার নাম



স্ট্রোক- বর্তমান সময়ের বিভীষিকার নাম। অহরহ ঘটছে এই রোগ।
চিকিৎসা করবে চিকিৎসক। কিন্তু আপনি, আমি সাধারণ মানুষ কি করব?
>কখন বুঝবেন স্ট্রোক হয়েছে?
সাধারণ লক্ষন হল হটাত শরীরের কোন এক পাশ দূর্বল বা অবশ হয়ে যাওয়া, মাথা ব্যথা, শরীরের এক পাশ বাকা হয়ে আসা, অজ্ঞান হয়ে যাওয়া।
>কি করবেন?
স্ট্রোক রোগীর ক্ষেত্রে মোটেও তাড়াহুড়ো করবেন না।

বলছি আমাদের বিজ্ঞান পড়ুয়াদের কথা


বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে যাদের অগ্রসর হবার কথা ছিল,তারা যদি অবৈজ্ঞানিক ধারনাকে ঠিক মনে করে তার পক্ষে সাওয়াল করে কিংবা জীবন ধারণে একান্ত নিবিড় করে নেয় তখন সন্দেহটা আরো জোরালো হয়-
আদৌ কি তারা বিজ্ঞান শিখছে?

হিন্দুত্ববাদিদের নতুন জোকার নায়েক-সত্যপাল সিং



সত্যপাল সিং ভারতের মানবসম্পদ রাষ্ট্রমন্ত্রী। তার দাবী ডারউইনের বিবর্তন তত্ব ভুল, গোঁজামিল। স্কুল সিলেবাস থেকে তুলে দেওয়া উচিত। মানবসম্পদকে মানবআপদ বানানোর এমন ঐকান্তিক ইচ্ছা প্রকাশ করে মন্ত্রীমশাই এখন সংবাদ শিরোনামে।

প্রশ্নের কাঠগড়ায়


মুক্তচিন্তা খুব জুরুরী।অহরহ চিন্তার কত আঙ্গিক চারিদিক।সেখানে একটিকে অবলম্বন করে চলতে গেলে বেধে যেতে হবে। যেমনঃ কেউ মার্ক্সবাদী, কেউ গান্ধীবাদী,কেউ আম্বেদকরবাদী,কেউ বুদ্ধের অনুসারী, কেউবা আবার গোড়া ধার্মিক।এবং এটা সত্য যে, প্রত্যেকেই নিজেদের ওয়েটাকে সঠিক বলে ভাবতে অভ্যস্ত।কিন্তু প্রশ্ন হলো কোনটা ঠিক??
হ্যা,এই ক্ষেত্রে মনকে খোলা না রাখলে বিচার করা সম্ভব নয়। কিন্তু কিভাবে মনকে খোলা বা যে কোন পূর্বধারণা (assumption) থেকে মুক্ত রাখা যায়?

আর এক্ষেত্রে আমাদের স্কুল কলেজের শিক্ষক-শিক্ষিকাদের ভূমিকা কতটুকু?

মোবাইল


মোবাইল যে মানুষের জীবনের কতগুলো মূল্যবান সময় নিয়ে নেয় তা বোঝার ক্ষমতাও দিন দিন হারিয়ে ফেলছি। এক সময় ছিলো যখন সারাদিনের পরিশ্রম শেষে মানুষের রিল্যাক্স করার মাধ্যম ছিলো পরিবার। বাবা-মা, ভাই-বোন, স্বামী-স্ত্রী বা সন্তানের সাথে সময় কাটিয়েই মানুষ সারাদিনের কষ্ট ভুলে যেত। পরিবারের মধ্যেই শান্তি খুঁজে পেত।

এখন মানুষ সারাদিনের পরিশ্রমের পর মোবাইল নিয়ে শুয়ে বসে রিল্যাক্স করে। ফেসবুকিং, ইউটিউব বা গেম। এখন মানুষের মনে শান্তি দেয়!!

আমরা কি পারবো সভ্যতা ০ থেকে সভ্যতা ১ হতে?


মিশিও কাকু হলেন একজন জাপানিজ বংশভূত আমেরিকান পদার্থ বিজ্ঞানী ও ভবিষ্যতদ্রষ্টা, তিনি হলেন সিটি কলেজ অফ নিউ ইয়র্ক এর অধ্যপক। তিনি তিনটি নিউ উয়র্ক টাইম বেস্ট সেলার বই লিখেছেন ফিজিক্স অফ দি ইমপসিবল (২০০৮) ফিজিক্স অফ দি ফিউচার (২০১১) দি ফিউচার অফ দি মাইন্ড (২০১৪)

রাশিফলঃ একটি অপবিজ্ঞানের ইতিকথা


আমেরিকার “ন্যাশনাল সায়েন্স ফাউন্ডেশন(NSF)” এর ২০১৪ সালের রিপোর্ট অনুযায়ী শতকরা ৪৫ ভাগ প্রাপ্তবয়স্ক আমেরিকান “জ্যোতিষশাস্ত্র(ASTROLOGY)” কে একপ্রকার বিজ্ঞান মনে করে ।আর সে দেশে ক্রিয়াশীল জ্যোতিষীদের সংখ্যা লাখের উপরে।বিজ্ঞানমনষ্ক যেকোন মানুষই আঁতকে উঠবেন এই রিপোর্ট দেখে যেখানে এত বড় বড় মহাকাশ গবেষনার বিষয়গুলো আমেরিকান বিজ্ঞানীরা সফলতার সাথে পরিচালনা করছেন সেখানে এস্ট্রলজি বা জ্যোতিষশাস্ত্রের মত অপবিজ্ঞান(pseudoscience) এ মানুষের এত বিশ্বাস কেন??

আমেরিকার মিলিটারি ইন্টেলিজেন্স স্বীকার করল UFO ও বহির্জাগতিক উন্নত প্রানীর অস্তিত্ব সত্য


বেশ কয়েক দশক ধরে আলোচনা সমালোচনা চলছে , বিশ্বে মানুষই একমাত্র উন্নত প্রানী না। বরং বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তেই বুদ্ধিমান জীব আছে আর তারা মানুষের চাইতেও বহু উন্নত। এসব নিয়ে বহু বই পুস্তক, অনলাইনে বহু ভিডিও , ওয়েব সাইট আছে। কিন্তু এ পর্যন্ত কখনই এমন কোন নির্ভরযোগ্য ব্যাক্তি এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট প্রমান দাখিল করেন নি। এবারই প্রথম আমেরিকার মিলিটারী ইন্টেলিজেন্সের একজন প্রাক্তন কর্মকর্তা CNN এ সেটা স্বীকার করলেন।

পৃষ্ঠাসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর