নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

There is currently 1 user online.

  • উদয় খান

নতুন যাত্রী

  • চয়ন অর্কিড
  • ফজলে রাব্বী খান
  • হূমায়ুন কবির
  • রকিব খান
  • সজল আল সানভী
  • শহীদ আহমেদ
  • মো ইকরামুজ্জামান
  • মিজান
  • সঞ্জয় চক্রবর্তী
  • ডাঃ নেইল আকাশ

আপনি এখানে

ছোট দুটি বুলেট আবারও ভাইরাস আক্রান্তদের শিকার একজন প্রগতিশীল মুক্তচিন্তক।


প্রতিদিনের মতো প্রাত্যাহিক কাজগুলো শেষ করে আজও অনলাইনে আসলাম। বিভিন্ন গ্রুপে আমার পোস্টের মন্তব্যের উত্তর দিচ্ছি, তখনই একটি গ্রুপের পোস্ট চোখে পড়লো, একজন অনলাইন এক্টিভিস্ট, প্রগতিশীল, মুক্তচিন্তক, সহজ সাধারন মানুষ 'শাজাহান বাচ্চু' ভাইয়ের হত্যার খবরটি দেখতে পেলাম। আমি যথারীতি বাকরুদ্ধ ও হতাশ হয়ে পরলাম। কিছু লিখব না কি চুপ করে আবারও নিজেকে শান্তনা দিয়ে যাব কিছু চিন্তা করতে পারছি না। ওনার ব্যাপারে বলতে গেলে ব্যক্তিগত তেমন জানাশোনা ছিল না। আমার বন্ধুতালিকায় যুক্ত ছিলেন একসময়। পরে হয়ত কোন কারনবশত ছিলেন না। আর আমরা যারাই অনলাইনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লেখালেখি করে আসছি সেই সূত্র ধরেই পরিচয় স্বল্পপরিসরে, কুশলাদি বিনিময় বিভিন্ন পোস্টে মন্তব্য প্রতিমন্তব্য এই পর্যন্তই। এর বেশী কিছু জানতে চাই না কাউকে জানাইও না।

কথা হলো যারা বিশ্বাসী তারা বিশ্বাসের ভাইরাস আক্রান্ত হয়ে একটি সহজ স্বাভাবিক জীবন যেকোন মুহূর্তে শেষ করে দিতে পারে। নির্দিষ্ট এপ্রজাতির নিকৃষ্ট জীবেদের ! (দুঃখিত মানব বলতেও লজ্জা পাচ্ছি) অনুভূতি এতটাই নমনীয়, ভঙ্গুর যে কারোর সহজ সত্য কথায় ভেঙে খান খান হয়ে যায়! হাতে তুলে নেয় মারনাস্ত্র! একটি জীবন শেষ করে দিয়ে নিজেকে ভাবে বিজয়ী???

কত আর দেখতে হবে? তার কোন হদিস ও কেও কোনদিন বলতে পারবে না। এই লোভী পরজীবীদের নৃশংসতার স্বীকার যে কিভাবে বন্ধ হবে তাও অজ্ঞাত।

কিছু কথা মনে পরে গেলো। যেখানে গল্প, কবিতা, গান, প্রবন্ধ লেখার কারনেও কারোর অনুভূতি আহত হয় তাকে হত্যা করা ফরজ হয়ে দাড়ায়, আর এ ইমানী দায়িত্ব পালন করাও সওয়াবের কাজ, পরকালে অফুরন্তো সুখ শান্তির নিশ্চয়তা। একজন পথপ্রদর্শকের দেখানো রাস্তায় চলা সাধারণ অনুসারীদের স্বাভাবিক কাজ। একজন পথ নির্দেশক যখন কবি, গায়ক, নৃত্যকারদের হত্যার আদেশ দিয়ে হত্যা করতে পারেন। তার অনুসারীরা সেই মতো এখনকার লেখক, কবি, প্রকাশক, অনলাইন এক্টিভিস্ট, ব্লগারদের একের পর এক হত্যা করে যাচ্ছে। কলম বন্ধ করতে ভারচুয়াল জগত ফেসবুকে উপুর্যপুরি রিপোর্ট! আবার বাস্তব জীবনে চিরতরে মুখ বন্ধ করে দিতে চাপাটি ছুরি বন্দুক হাতে তুলে নিয়ে শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে চাচ্ছে!

বিচারের ব্যাপারে যদি কিছু বলি। তাহলে আমি বলে রাখছি আমি বিচার চাই না! কার কাছে বিচার চাইবো? কিভাবে বিচার চাইবো? কে করবে বিচার?
এইদেশে যখন কবি শামসুর রহমান যখন চিহ্নিত দুস্কৃতিকারীদের হাতে আহত হলেন তখন একজন বলেছিলেন 'এই দেশ স্বাধীন হইয়াছে, মুক্তচিন্তার পরিবেশ তৈয়ারী হইয়াছে তবু মৌলবাদীরা এখনো থামিয়া নাই, তারা চুপ করাইয়া দিতে চায়"

আবার যখন হুমায়ুন আজাদ স্যার মৌলবাদীদের হাতে আক্রান্ত হলেন পরবর্তীতে মৃত্যুবরণ করেন, তখন সেই ব্যক্তি বিরোধী পক্ষে ছিলেন দুই-আড়াই কিঃমিঃ পথ হেটে স্যারকে দেখতে গিয়েছিলেন। সেই একই ব্যক্তির শাসনামলে যখন একের পর এক ব্লগার, সাংবাদিক, লেখক, প্রকাশক খুন হতে থাকলো তখন কোন উচ্চবাচ্য বা তোড়জোর দেখা গেল না! কোন বিচার হলো না!
ইদানীং তার মুখ থেকে বেরুচ্ছে অন্য সুরের কথ। যাই হোক পাঠকদের ধৈর্যচ্যুতি ঘটানোর জন্য দুঃখ প্রকাশ করছি। শাজাহান ভাইয়ের পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর শোক প্রকাশ করছি, তাদের স্বান্তনা জানানোর ভাষা আমার নেই।
তালপাতার সেপাই।

Comments

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

আবীর নীল
আবীর নীল এর ছবি
Offline
Last seen: 1 week 1 দিন ago
Joined: শুক্রবার, আগস্ট 25, 2017 - 11:04অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর