নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

There is currently 1 user online.

  • উদয় খান

নতুন যাত্রী

  • চয়ন অর্কিড
  • ফজলে রাব্বী খান
  • হূমায়ুন কবির
  • রকিব খান
  • সজল আল সানভী
  • শহীদ আহমেদ
  • মো ইকরামুজ্জামান
  • মিজান
  • সঞ্জয় চক্রবর্তী
  • ডাঃ নেইল আকাশ

আপনি এখানে

কল্পনা চাকমা। পার্বত্য চট্টগ্রামে একটি প্রতিবাদী নাম ।



অশান্ত পাহাড় ,রক্তাক্ত জনপদ পার্বত্য চট্টগ্রামের বিভীষিকাময় সময় অতিক্রান্ত করেই চলছে ।নিপীড়ত জুম্ম জনগণের লড়াই সংগ্রামে নতুন করে যোগ হয় নতুন দিনের আশা ।আর সেই নতুন দিনের আরেক আলোর পথিক যার নাম কল্পনা চাকমা ।জুম্ম জনগণের আত্মনিয়ন্ত্রণাধিকার প্রতিষ্টার সংগ্রামে তথা আদিবাসী নারীদের অধিকার প্রতিষ্টার সংগ্রামে জুম পাহাড়ের সাহসী কণ্ঠ যিনি ছিলেন জুম্ম জাতির আশা । এক বাস্তবতার মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হয়ে চলেছে পার্বত্য চট্টগ্রামের জনপদের জীবন যাত্রা ।সেই জনপদের এক সংগ্রামী পথিক আজ স্মরণ করছি পার্বত্য চট্টগ্রাম তথা সমগ্র বাংলাদেশের নারী অধিকারের প্রতিবাদী কন্ঠস্বর কল্পনা চাকমার কথা ।

আজ থেকে ২২ বছর আগে পাহাড়ে এক প্রতিবাদী সাহসী নারী ১২ জুন ১৯৯৬ সালে হিল ওমেনস ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক কল্পনা চাকমা রাঙামাটির জেলাধীন বাঘাইছড়ি উপজেলার নিউ লাল্যাঘোনা গ্রামে নিজ বাড়ি থেকে একদল সশস্ত্র সেনা কর্তৃক নির্মমভাবে অপহরণের শিকার হয়। এবং অপহরণকারী সেনা সদস্যরা এসময় কল্পনা চাকমার দুই বড় ভাই কালিন্দী কুমার ও লাল বিহারি চাকমাকেও বাড়ির বাইরে নিয়ে গিয়ে গুলি করে হত্যার চেষ্টা করেছিল ।ভাগ্যে যে দুই ভাই কোনোরকম পালিয়ে গিয়ে প্রাণে বেঁচে যায়। এখানে স্পষ্ট যে কল্পনার বড় ভাইয়েরা স্পষ্টতই চ‌িন‌ে ফ‌েলে টর্চের আলোতে অপহরণকারীদের মধ্য ছ‌িলেন তাদের বাড়ির পার্শ্ববর্তী কোজইছড়ি সেনা ক্যাম্পের কমান্ডার লেঃ ফেরদৌস এবং তার সহযোগী ভিডিপি সদস্য মোঃ নুরুল হক ও মোঃ সালেহ আহমেদ কে চিনতে পারেন।

কল্পনার চাকমার অপহরণের পর দেশ বিদেশে ব্যাপক প্রতিবাদ ও নিন্দা জানানো হয় ।এর মধ্যে সরকার তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করলেও বিগত বছর সরকার‌ের সেই তদন্ত কমিটি চূড়ান্ত রিপোর্ট প্রকাশ করেন নি ।বরং একের পর এক মিথ্যা প্রচারণা করে যাচ্ছে ।পরবর্তী কল্পনা চাকমা অপহরণ ঘটনা ও মামলার বিশ বছর পর গত ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬ সালে মামলার ৩৯ তম তদন্ত কর্মকর্তা তৎকালীন রাঙামাটির পুলিশ সুপার তার চূড়ান্ত রিপোর্ট জেলা আদালতে দাখিল করেন ।কিন্তু পরিতাপের বিষয় যে রিপোর্টে প্রকৃত দোষীদের আড়াল করার চেষ্টা চালানো হয় । অর্থাৎ অপহরণকারী লেঃ ফেরদৌস ভিডিপি নুরুল হক ও সালেহ আহমেদের উক্ত ঘটনায় জড়িত থাকার বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোন প্রমান পাওয়া যায়নি বলে দাবি করা হয় ।

উল্লেখ্য যে ,কল্পনা চাকমা অপহরণ ঘটনাটি একটি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক ইস্যু ।এটি পার্বত্য চট্টগ্রামে ও দেশের অবহেলিত আদিবাসী নারীদের উপর নির্যাতন ,নিপীড়ন ও সহিংসতার এক জ্বলন্ত প্রতীক ।সত্য যে কল্পনা চাকমার অপহরণের ঘটনাটি আজ ২২ বছর অতিক্রান্ত হতে চললেও এই রাষ্ট্র ,সরকার ,দায়িত্বশীল বিভিন্ন গোয়েন্দা বিভাগ ,সেনাবাহিনী ,পুলিশ ,বিচার বিভাগ সংশ্লিষ্ট প্রশাসন কল্পনা চাকমার হদিশ দিতে চরম ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে । তারা পারেনি অভিযুক্ত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার করতে এবং গ্রেপ্তার করে বিচারের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিয়ে সুবিচার নিশ্চ‌িত করতে। অপরদিকে অপহরণ ঘটনার প্রতিবাদে তৎকালীন পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ ও হিল ওমেন্স ফেডারেশন র ডাকা ২৭ জুন ১৯৯৬ সালে অর্ধ দিবস সড়ক অবরোধ চলাকালে বাঘাইছড়িতে সেনা মদদে স্থানীয় ভিডিপি ও সেটলার বাঙালিদের সাম্প্রদায়িক হামলায় গুলি করে রুপম চাকমাকে এবং দাঁড়ালো চাপাটি দিয়ে সুকেশ চাকমা ,মনতোষ চাকমা ও সমর বিজয় চাকমাকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয় । এই হত্যা কাণ্ডের ক্ষেত্রেও সরকার বা প্রশাসন কোনো পদক্ষেপ গ্রহন করেন নি ।এক্ষেত্রেও সরকার ও প্রশাসন কোনোভাবে দায়দায়িত্ব এড়াতে পারে না ।

উল্লেখ্য যে ,শুধু কল্পনা চাকমা অপহরণ নয় ,পার্বত্য চট্টগ্রাম সমস্যা সমাধান এবং আদিবাসীদের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্টার লক্ষ্য ১৯৯৭ সালে পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় । কিন্তু চুক্তি স্বাক্ষরিত হওয়ার পরও চুক্তিটি যথাযথ ও পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়িত না হওয়ায় ফল‌ে বিশেষত সেটলার বাঙালি ও সেনা সদস্যদের দ্বারা বহু জুম্ম নারী যৌন নিপীড়ন, নির্যাতন,অপহরন ও সহিংসতার স্বীকার হয়‌েছে এবং হচ্ছ‌ে।

বাস্তব য‌ে ,এ সমস্ত ঘটনার জন্য রাষ্ট্র, সরকার,প্রশাসন ,স‌েনাব‌াহ‌িনী ক‌োন দায় এড়াত‌ে পারেনা।এই রাষ্ট্র ও সরকার‌ে‌র উচ‌িত দ‌ো‌ষীদ‌ের চ‌িহ্ন‌িত কর‌ে দৃষ্টান্তমুলক শাস্ত‌ি প্রদান করা।এবং সরকার ও রাষ্ট্রক‌ে তা ন‌িশ্চ‌িত করত‌ে হব‌ে।বস্তুত পার্বত্য চট্টগ্রাম‌ের সমস্যা সমাধানের লক্ষ্য পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি পুর্ণ বাস্তবায়ন করতে হবে ।কারণ চুক্তি যথাযথ বাস্তবায়ন না হওয়ার ফলে আদিবাসী নারী তথা জুম্ম নারীদের উপর নির্যাতন ,নিপীড়ন হত্যা ,ধর্ষণ ও অপহরণের ঘটনা ঘটেই চলেছে ।তাই কল্পনা চাকমা অপহরণকারী লেঃ ফেরদৌস ও তার সহযোগীরাসহ এবং বিগত বছরের সকল দোষী সাব্যস্তকারীদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দেয়া হোক । কল্পনা চাকমা অপহরণ কারীদের গ্রেপ্তার করা এবং কল্পনা চাকমাকে উদ্ধারের জন্য প্রশাসন ভুম‌িকা রাখুক ।এই রাষ্ট্রের কাছে জোর দাবি জানাই।

তথ্য সহায়‌িকা:
হ‌িল উইম‌েন্স ফ‌েডার‌েশান

বিভাগ: 

Comments

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

রেবেল ওয়ারিয়র ব...
রেবেল ওয়ারিয়র ব্যাবিলন এর ছবি
Offline
Last seen: 1 week 1 ঘন্টা ago
Joined: রবিবার, ফেব্রুয়ারী 14, 2016 - 12:55পূর্বাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর