নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 3 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • মুফতি মাসুদ
  • নুর নবী দুলাল
  • আবীর নীল

নতুন যাত্রী

  • চয়ন অর্কিড
  • ফজলে রাব্বী খান
  • হূমায়ুন কবির
  • রকিব খান
  • সজল আল সানভী
  • শহীদ আহমেদ
  • মো ইকরামুজ্জামান
  • মিজান
  • সঞ্জয় চক্রবর্তী
  • ডাঃ নেইল আকাশ

আপনি এখানে

মুমিনদের বিবাহ বনাম ধর্ম বর্জনকারীদের বিবাহ


মুমিনদের দৃষ্টিতে বিবাহ মানে সেক্স। বিবাহবদ্ধ নারী স্বামীর সেক্স যন্ত্র। যখনই স্বামী চাইবে তখনই স্বামীকে পরিতৃপ্ত করতে হবে. স্ত্রীর মনের অবস্থা যখন যেমনি থাকুক না কেন। আর সারাজীবন গৃহিণী হয়ে চার দেয়ালের মধ্যে কাটিয়ে দেয়ায় খাটি মুমিনা স্ত্রীর কাজ। খাটি মুমিনা স্ত্রী ব্যস্ত থাকবে স্বামীকে তৃপ্ত করতে। ’স্বামী’ অর্থ তো প্রভু। স্ত্রী হল এক প্রকার যৌণ দাসি।

মুমিনেরা বিবাহ বলতে যে শুধু সেক্স বোঝে তার প্রমান পাইতে হলে মুমিনদেরকে জিজ্ঞাসা করুন যে বিবাহ বহির্ভুত সেক্স সম্পর্কে তাদের মতামত কি? সাথে সাথে তারা বলবে- হায় ! হায়!! বিবাহের আগে সেক্স করার সুযোগ থাকলে তো মানুষ আর বিবাহ করবে না। মানে টা কি দাড়াল? মানুষ বিবাহ করে শুধুমাত্র সেক্স করার জন্য- এটায় হল ইসলামের দৃষ্টিভঙ্গি যা সকল মুসলমানদের কাছে পাইবেন।
হাদিস দেখুন: বুখারী-৪-৫৪-৪৬০: মুহাম্মদ বলেছেন: কোন ব্যক্তি যদি স্বীয় স্ত্রীকে নিজ বিছানায় আসতে ডাকেন আর সে অস্বীকার করে এবং সে ব্যক্তি স্ত্রীর উপর ক্ষোভ নিয়ে রাত যাপন করে, তবে ফিরিশতাগণ এমন স্ত্রীর উপর ভোর পর্যন্ত লানত দিতে থাকে।
মুসলিম-০৮-৩৩৬৫: মুহাম্মদ বলেছেন: স্বামী ইচ্ছে করলে উপুড় করে, ইচ্ছা করলে উপুড় না করে, তবে তা একই দ্বারে (যোনী) হতে হবে।

মুক্তচিন্তাবিদদের নিকট বিবাহ মানে বন্ধন।দু’টি মনের বন্ধন। দু’জন ব্যক্তির ভালবাসার বন্ধন।দু’জন দুজনার হওয়ার বন্ধন।মুক্তচিন্তাবিদদের নিকট বিবাহ হল সমাজ গঠনের প্রথম ধাপ। স্ত্রী হলেন সন্তানের মা আর পুরুষ সঙ্গী হলেন সন্তানের বাবা। মুক্তচিন্তাবিদদের নিকট বিবাহ হল স্ব-সন্তানের পিতা-মাতা হওয়া। এ বন্ধন রাষ্ট্রীয় আইন দ্বারা সুরক্ষিত- তথা এক পক্ষ চাইলেই বিবাহ ভেঙ্গে দিতে পারবে না। বিবাহকে খেল তামাশার বিষয় বানানো যাবে না, রাষ্ট্র এ ধরনের খেল তামাশা মুলকি বিবাহকে প্রতিহত করবে। বিবাহ বন্ধনও যেমন রাষ্ট্রীয় আইনের কাঠামোর মধ্যে সংগঠিত হবে একই ভাবে ভাঙ্গতে হলেও রাষ্ট্রীয় আইনের মাধ্যমে ভাঙ্গতে হবে।

ধর্ম বর্জনকারীদের দৃষ্টিতে সেক্স বিবাহের মুল বিষয়বস্ত নয়। দৈহীক মেলা-মেশা বিবাহ অন্তর্ভুক্ত বা বহির্ভুত উভয়ই হতে পারে। তবে বিবাহ বহির্ভূত যৌন মিলন দ্বারা সন্তান গর্ভে আসতে দেয়া অবশ্যই অণৈতিক কাজ বলে সকল নাস্তিক/অজ্ঞেয়বাদী/ধর্মবর্জনকারীগণ মনে করে থাকেন। নারী-পুরুষের উভয়ের সম্মতিতে শুধুমাত্র দৈহীক উপভোগের নিমিত্তে দৈহীক মেলা মেশা অপরাধা নয় যতক্ষন পর্যন্ত উক্ত মেলা মেশাতে গর্ভধারনকে সতর্কতার সাথে ঠেকানো হয়। বিবাহ বহির্ভুত মেলা-মেশায় সন্তার গর্ভে আসতে দেয়া অপরাধ- হোক সেটা ইচ্ছায়/অনিচ্ছায়। গাড়ী এক্সিডেন্ট অনিচ্ছায় করলেও যেমন ড্রাইভারকে বিচারের সম্মুখিন হতে হয়, ঠিক তেমনি বিবাহ বহির্ভুত মেলা মেশায় সন্তান গর্ভে আসলেও উভয়কেই বিচারের মুখোমুখি করানো উচিত।

নাস্তিকদের বিবাহ কিভাবে হবে?
যারা ১৪০০ বছর আগের লোকদের বানানো নিয়ম নীতির বাইরে চিন্তা করতে পারে না তাদের মস্তিস্কে এ প্রশ্ন আসে। ধর্মগুলোতে যে সকল বিবাহের নিয়ম আছে সেগুলো হাজার বছর পূর্বের কোন এক/একাধিক মানুষ কর্তৃক রচিত। ধার্মিকেরা বিবাহের ক্ষেত্রেও হাজার বছর আগের নির্দিষ্ট কিছু লোক কর্তৃক রচিত নিয়মে বিবাহ করে। আর ধর্মহীনরা মনে করে যে, যুগ এগেয়েছে, মানুষ জ্ঞান-বিজ্ঞানে এগিয়েছে, তাই আমরা হাজার বছর আগের কারো তৈরি নিয়ম মানতে বাধ্য নই। তাই ধর্মহীনগণ মনে করে যে অন্য সকল বিষয়ের মত বিবাহের ক্ষেত্রেও আধুনিক জ্ঞানে বিজ্ঞ মানুষ কর্তৃক রচিত যে কোন যৌক্তিক ও গ্রহণযোগ্য আইন-ই মানতে প্রস্তুত।

নাস্তিক ও আস্তিকদের বিবাহ আইনের মৌলিক পার্থক্য:
আস্তিকেরা হাজার বছর আগের লোক কর্তৃক পশ্চাদপদ নিয়ম মানে আর নাস্তিকেরা আধুনিক মানুষ কর্তক রচিত যে কোন গ্রহণযোগ্য ও যৌক্তিক নিয়ম মানে।
বিবাহ কি?
বিবাহ একটি বন্ধনের নাম যা ব্যক্তির ইচ্ছা ও রাষ্ট্রিয় আইন দ্বারা নিবন্ধিত ও আবদ্ধ। বিবাহ ব্যক্তিগত বিষয় নয়। বিবাহ যেহেতু একটি সামাজিক বিষয় যা রাষ্ট্রের নির্দিষ্ট আইন কানুনের অধীন আবদ্ধ, তাই এটা কারো ব্যক্তিগত নিয়মে সম্ভব না। বিবাহ এর আনুষ্ঠানিকতা পালনে রাষ্ট্র যতটুকু স্বাধীনতা দেয় ব্যক্তি ততটুকু নিজমত পালন করতে পারে। বিবাহ নামক চুক্তি সম্পাদিত হওয়ার পর বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ ব্যক্তিদেরকে সে সকল নিয়ম কানুন মেনে চলতে হয়। এ চুক্তির আইনগুলোও রাষ্ট্র নির্ধারণ করে দেয়। বিবাহে দু’টি পক্ষ থাকে, বর পক্ষ ও কনে পক্ষ। উভয় পক্ষের সম্মতিতে রাষ্ট্রিয় আইনের অধীনে বিবাহ হয়ে থাকে। বিবাহে কারো একক সিদ্ধান্তে কিছু সম্ভব না, কারন বিবাহ একক বিষয় নয়। রাষ্ট্রীয় আইন ভাল হোক বা ভুল হোক বা কোন ধর্মের প্রভাব দ্বারা আচ্ছন্ন হোক, রাষ্ট্রের নাগরিকদের ইচ্ছায় হোক আর অনিচ্ছায় হোক তা মানতে হয়। তাই নাস্তিকেরা যে রাষ্ট্রে বসবাস করে বিবাহের ক্ষেত্রে সে দেশের আইন মেনে বিবাহ করে থাকে।

Comments

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

সত্যর সাথে সর্বদা
সত্যর সাথে সর্বদা এর ছবি
Offline
Last seen: 3 weeks 1 দিন ago
Joined: শনিবার, মার্চ 18, 2017 - 12:13পূর্বাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর