নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

শিডিউল

ওয়েটিং রুম

There is currently 1 user online.

  • মিঠুন বিশ্বাস

নতুন যাত্রী

  • ফজলে রাব্বী খান
  • হূমায়ুন কবির
  • রকিব খান
  • সজল আল সানভী
  • শহীদ আহমেদ
  • মো ইকরামুজ্জামান
  • মিজান
  • সঞ্জয় চক্রবর্তী
  • ডাঃ নেইল আকাশ
  • শহিদুল নাঈম

আপনি এখানে

রোজা সমগ্র - ২য় পর্বঃ রোজা নিয়ে ভণ্ড জাকির নায়েকের মিথ্যাচারগুলোর যুক্তিখণ্ডন


এক্সক্লুসিভ মেগা পোস্টঃ রোজা সমগ্র - ২য় পর্ব

২য় পর্বঃ রোজা নিয়ে ভণ্ড জাকির নায়েকের মিথ্যাচারগুলোর যুক্তিখণ্ডন

লেখকঃ মুশফিক ইমতিয়াজ চৌধুরী

ভূমিকাঃ

৪ পর্বে সমাপ্য রোজা সমগ্রের ২য় পর্বে আজকে রোজা নিয়ে জাকির নায়েকের মেডিকেল ব্যাখ্যাহীন মিথ্যাচার পরিপূর্ণ দাবীগুলোর অসারতাকে মেডিকেল তথ্য ও যুক্তি দিতে প্রমাণ করা হবে। যারা এখনো ১ম পর্ব পড়েননি, তারা এখান থেকে পড়ে নিন।

সূত্রঃ https://www.facebook.com/mushfiqueimtiaz/posts/1848024568593211

রোজার তথাকথিত উপকারিতা সম্পর্কে ভণ্ড ডাক্তার জাকির নায়েক কি বলেন, আসুন দেখে নেই -

It organizes the heartbeat and relaxes it. It reduces pressure on the heart arteries. And it reduces the fat - the cholesterol as well as the acids. It releases the pressure on the liver. Fasting also decreases the secretions of the digestive glands which normally causes ulcer. Less chances of having kidney stones in a person fasts. Fasting is also helpful in non-insulin dependent diabetes. And fasting is also helpful in reducing the weight. Fasting as a whole, it is beneficial for the whole digestive system as well as central nervous system. Fasting helps in removing the toxins from the body. Fasting increases the immunity of the body. Fasting also reverses the aging process. It increases the longevity - life span of a human being. Fasting also helps in creation of more of T-Cells which is known as Killer Cells. And fasting as a whole it rejuvenates the complete body. And there are various diseases which helped when a person fast. For example, a person who suffering from certain diseases and if a person fast, it is helpful for him. For example, in cardiovascular diseases, a person suffering from asthma, from arthritis, from digestive disorders, if he is suffering from lupus, from skin disorders, if he suffering from non-insulin dependent diabetes, there are various, list can go on and on. And it is helpful in removing a person who is addicted to things which are haram. And medically they are not good, for example smoking, a person who is an alcoholic, or a person who is chain smoker, fasting helps in breaking the wrong habits.

ভিডিও লিংকঃ

ভিডিও সাক্ষাৎকার থেকে দেখা যায়, দ্রুত কথা বলার ক্ষমতাসম্পন্ন এই শ্রুতিধর ব্যক্তি রোজা রাখার অনেক শারীরিক উপকার রয়েছে বলে দাবী করেছেন কিন্তু এর পেছনে কোন মেডিকেল ব্যাখ্যা দেননি। এই দাবীগুলোর মেডিকেল ব্যাখ্যাদানের অক্ষমতা থেকে সুস্পষ্ট হয় যে দাবীগুলো মিথ্যে বা ভুল।

আসুন মেডিকেল তথ্য, যুক্তি ও ব্যাখ্যা সহকারে দেখে নেই কেন জাকির নায়েকের দাবীগুলো ভুল -

১ম ভুলঃ রোজা হার্টবিটকে সুশৃঙ্খল ও শিথিল করে। এটি হার্ট আর্টারির প্রেশার কমায়।

সঠিক বক্তব্যঃ (চিত্রে রোজায় পানিশূন্যতাজনিত হৃদস্পন্দনের উচ্চগতি)

১) রোজা রাখলে হার্টবিট শিথিল ও সুশৃঙ্খল নয় বরং মাত্রাতিরিক্তভাবে দ্রুত তথা বিশৃঙ্খল হয়ে পড়ে যাকে বলা হয় Palpitation। হার্টবিট প্রতি মিনিটে ১০০ এর ওপরে গেলে বলা হয় Tachycardia যা থেকে শ্বাসপ্রশ্বাসের ক্ষীণতা (Shortness of breath), মাথা ঘোরা (Lightheadedness), পালসের দ্রুততা (Rapid pulse rate), অনিয়মিত হৃদস্পন্দন (Arrhythmia), বুক ব্যথা (Chest pain) ও অজ্ঞান হয়ে যাওয়া (Fainting) ইত্যাদি ঘটতে পারে।

সূত্রঃ https://www.mayoclinic.org/diseases-conditions/tachycardia/symptoms-caus...

নন-ইসলামিক ফাস্টিংয়ের প্রথম কয়েক সপ্তাহে এসব হতে পারে, সেক্ষেত্রে রোজার ক্ষেত্রে পানিশূন্য অবস্থায় এটি আরো ভয়াবহ রূপ ধারণ করতে পারে -

An increase in heart rate may happen within the first few weeks of fasting or being in ketosis. Heart palpitations can occur simply from lack of enough water and salt, making it all the more important to stay hydrated and include salt when you eat!

সূত্রঃ https://www.perfectketo.com/fasting-ketosis-symptoms

২) রোজার কারণে সৃষ্ট পানিশূন্যতা এবং পটাশিয়াম ও গ্লুকোজ স্বল্পতা থেকে হার্টবিট বেড়ে যাওয়ার ঝুঁকি রয়েছে -

Low potassium levels and dehydration can trigger heart palpitations.

If you’ve been diagnosed with hypoglycemia, or low blood sugar, you may be at higher risk for having heart palpitations due to your diet.

সূত্রঃ https://www.healthline.com/health/heart-disease/heart-palpitations-after...

৩) না খেয়ে থাকলে ব্লাড প্রেশার কিছুটা কমবেই – এটা কমন সেন্সের ব্যাপার। প্রেশার কমা মানে শুধু হার্টের আর্টারির প্রেশার কমা নয় বরং সকল আর্টারির প্রেশার কমা। তাই আলাদাভাবে হার্ট আর্টারির প্রেশার কমবে বলে উল্লেখ করা হাস্যকর এবং ব্যক্তির ডাক্তারি জ্ঞানের স্বল্পতার পরিচায়ক। রোজা রাখলে যদি প্রেশার কিছুটা কমে তবে ইফতারি ও সেহরীতে অতিভোজনের কারণে প্রেশার আবার বেড়ে যাবে। ফলে লাভটা হল কী? আবার, উচ্চ রক্তচাপ একটি Chronic Disease যার বিশেষ ক্ষেত্র ছাড়া কোন স্থায়ী নিরাময় নেই বরং এটিকে সারা জীবন নিয়ন্ত্রণে রেখে চলতে হয়।

A chronic condition is a human health condition or disease that is persistent or otherwise long-lasting in its effects or a disease that comes with time.

সূত্রঃ https://en.wikipedia.org/wiki/Chronic_condition

ফলে মাত্র ৩০ দিন রোজা রাখার মাধ্যমে সারা জীবনের রোগ - উচ্চ রক্তচাপ কমানোর কথা বলার কোন মানে নেই ! বাস্তবে রোজা রাখলে রক্তচাপ অ্যান্টিহাইপারটেনসিভ মেডিকেশনের তুলনায় খুব সামান্যই কমে যার প্রভাব অতিভোজনে নাকচ হয়ে যায়।

সিদ্ধান্তঃ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণের জন্য সময়মত অ্যান্টিহাইপারটেনসিভ মেডিকেশন, ফ্যাট হ্রাস, স্বাস্থ্যকর খাদ্য গ্রহণ, সোডিয়াম, অ্যালকোহল ও ধূমপান পরিহার, স্ট্রেস কমানো, শরীরচর্চা ইত্যাদি কার্যকরী, রোজা নয়। ৩০ দিনের অ্যালকোহল ও ধূমপান পরিহার করে লাভ নেই বরং স্থায়ীভাবে পরিহার করার চেষ্টা করা উচিত যার জন্য রোজার দরকার নেই বরং দরকার ইচ্ছেশক্তির।

২য় ভুলঃ রোজা ফ্যাট বা কোলেস্টেরল তথা ওজন কমায়

সঠিক বক্তব্যঃ

আমাদের শরীরের প্রায় ৭০% পানি। রোজায় প্রতিদিন ১৩-১৮ ঘন্টার পানিশূন্যতায় ফ্যাট খুব সামান্যই কমে কিন্তু শরীরের পানি ব্যাপক হারে কমে যায়। ফলে আমরা যেই ওজনটা হারাই, সেটি মূলত ফ্যাটের নয় বরং পানির ওজন হারাই, মাসলের ওজন হারাই। এছাড়া ধীরগতির মেটাবলিজমে শরীর থেকে খাবারের বিপাক হতে অনেক সময় লাগে বা হতে চায় না। ফলে, শরীরে খাবার অনেকটি শোষিত হয় ও ফ্যাট কমে না বরং বাড়ে।

What happens to your body when you fast?

You lose weight. But that’s because you have drastically cut down on your calories. Also you are not losing fat this instance instead that change on the weighing scale is reflecting the loss of water in your body. Remember our body is 70 % water and that’s why on a fast one loses the “water weight” which comes instantly back the minute eating is resumed. Fasting also slows down the metabolism that’s the reason why a lot of people tend to put on weight even when they have been on prolonged periods of fasting instead of really losing it.

সূত্রঃ https://www.practo.com/healthfeed/disadvantages-of-fasting-for-weight-lo...

University of Pittsburgh Medical Center's Weight Loss Management Center এর ডিরেক্টর Madelyn Fernstrom, PhD, CNS বলেন, ফাস্টিংয়ের ওজন হ্রাস সামগ্রিক ওজন হ্রাস নয় বরং এটি শুধুমাত্র দ্রুত তরল হ্রাস। এটি যত তাড়াতাড়ি যায়, খাওয়াদাওয়া শুরু করা মাত্র তত তাড়াতাড়ি ফেরত আসে।

"The appeal is that [fasting] is quick, but it is quick fluid loss, not substantial weight loss. If it's easy off, it will come back quickly -- as soon as you start eating normally again",

তিনি আরো বলেন -

Even worse for dieters is that fasting for weight loss "distracts people from the real message of how to lose weight: lower fat intake, eat five fruits and vegetables a day, drink water and stop drinking other liquids, walk 30 minutes a day, and get more sleep," says Fernstrom, an associate professor of psychiatry, epidemiology, and surgery at the University of Pittsburgh School of Medicine.

চিকিৎসক Joel Fuhrman MD যিনি Eat to Live: The Revolutionary Plan for Fast and Sustained Weight Loss and Fasting and Eating for Health এর লেখক, তিনি বলেছেন, রোজা ওজন কমানোর কোন সঠিক পন্থা নয়। রোজা শরীরের বিপাক ক্রিয়া ধীরগতির করে দেয় ফলে রোজার পরে আরো দ্রুত ওজন বাড়তে শুরু করে।

"Fasting is not a weight loss tool. Fasting slows your metabolic rate down so your diet from before the fast is even more fattening after you fast,"

তিনি আরো বলেন -

"it can be quite dangerous if you are not already eating a healthy diet, or if you've got liver or kidney problems, any kind of compromised immune system functioning, or are on medication -- even Tylenol," says Fuhrman, a family physician in Flemington, N.J

সূত্রঃ https://www.webmd.com/diet/features/is_fasting_healthy#1

আসুন দেখে নেই কেন বাস্তবিক প্রেক্ষাপটে রোজার মাসে ফ্যাট/কোলেস্টেরল/ওজন বৃদ্ধি পায়। এর কারণ –

১) অভুক্ত অবস্থায় সারাদিন চলার জন্য শেষরাতে সেহরীতে বেশি করে শর্করা জাতীয় ভাত বা রুটি বেশি করে খেয়ে নেওয়া হয় যার কারণে Calorie Intake বৃদ্ধি পায়। জাকির নায়েক তার ভিডিওতে রোজায় কার্বোহাইড্রেট অক্সিডেশন কমার কথা বলেছেন যার কারণ এই ব্যাপারটি।

২) রোজার মাস ব্যতীত অন্যান্য মাসে সন্ধ্যায় হালকা নাস্তা খাওয়া হলেও রোজার মাসে ইফতারীতে খাওয়া হয় ডুবো তেলে ভাঁজা পেয়াজু, বেগুনী, চপ, পাকোড়া কিংবা ফ্যাট শোষণের অন্যতম প্রধান প্রভাবক চিনি বিশিষ্ট খেজুর, খেজুরের শরবত, রূহ আফজা, বুন্দিয়া ইত্যাদি হাই ক্যালোরীযুক্ত খাবার। ইফতারের এই হাই ক্যালোরী খাবার খাওয়া থেকে ব্যাপক ওজন বৃদ্ধি হয়।

৩) রোজায় দীর্ঘ সময় অভুক্ত থাকার কারণে মস্তিষ্কের Hunger Center: Hypothalamus এ প্রচণ্ড ক্ষুধা তৈরি হয় এবং মুখরোচক খাবারের প্রতি লোভ সৃষ্টি হয়। ফলে ইফতারী শুরু হলেই মানুষ গ্রোগ্রাসে খাবার খেতে থাকে এবং অতিভোজন করে ফেলে। এই Food Craving প্রবৃত্তি চাইলেই সহজে নিবৃত্ত করা সম্ভব হয় না। ফলে ওজন বৃদ্ধি হয়।

সূত্রঃ https://www.ncbi.nlm.nih.gov/pubmed/22764071

৪) সেহরীর কারণে অনেকে রাতে ঘুমোন না, সারা রাত জেগে থাকেন। এসময় তারা টুকিটাকি খাবার খেয়ে এই সময়টুকু কাটান। রোজায় সেহরীর জন্য জাগার কারণে বা মধ্যরাতে ঘুম থেকে উঠে পড়ার কারণে একটানা ৬-৭ ঘন্টার ব্যাঘাতহীন ঘুম হতে পারে না যার কারণে ওজন বৃদ্ধি হতে পারে।

সূত্রঃ https://www.webmd.com/sleep-disorders/features/lack-of-sleep-weight-gain#1

৫) আবার, ঘুম কম হলে বা এর ব্যাঘাত ঘটলে শরীরের মেটাবলিজম কম হয় যা ওজন বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখতে পারে। ভিডিও থেকে দেখা যায়, রোজা মেটাবলিজম হারকে ২২% কমিয়ে দেয় বলে জাকির নায়েক দাবী করেছেন যা ওজন বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখতে পারে।

Research suggests an association between sleep restriction and negative changes in metabolism. In adults, sleeping four hours a night, compared with 10 hours a night, appears to increase hunger and appetite — in particular for calorie-dense foods high in carbohydrates.

সূত্রঃ https://www.mayoclinic.org/healthy-lifestyle/adult-health/expert-answers...

৬) অভুক্ত থাকার কারণে সারাদিন শারীরিক শক্তি না পাওয়া তথা ক্লান্তির আশংকায় রোজাদারেরা ভোরবেলা শরীরচর্চা করা থেকে বিরত থাকেন কিংবা করতে চান না। আবার সারাদিন অভুক্ত থাকার কারণে প্রচণ্ড ক্লান্তি আসে ও সন্ধ্যায় ইফতারের সময় হয় বলে সন্ধ্যার শরীরচর্চাটাও বাদ পড়ে। এভাবে ১ মাস পুরোপুরি শরীরচর্চা ছাড়া থাকার কারণে শরীরে ব্যাপকহারে চর্বি জমা হয় যা ক্ষতিকর। উল্লেখ্য, শরীরচর্চা করার শ্রেষ্ঠ সময় ভোর ও সন্ধ্যা, অন্যান্য সময় নয়। কেননা ভোরে পাওয়া যায় অক্সিজেন সমৃদ্ধ নির্মল ও বিশুদ্ধ বাতাস এবং অন্যান্য সময় খাওয়া দাওয়া ও অন্যান্য কাজে ব্যয় হয় বলে সন্ধ্যা শরীরচর্চার জন্য একটি উত্তম সময়।

সূত্রঃ https://www.webmd.com/fitness-exercise/guide/exercise-weight-control

৭) মুসলিম ডাক্তারগণ রোজার পক্ষে বলবেন এটাই স্বাভাবিক কিন্তু হিশাম আহমেদ নামের এক মুসলিম ডাক্তার স্বীকার করেছেন যে রোজা সকলের জন্য উপযোগী নয়, দীর্ঘমেয়াদী ওজন হ্রাসের ক্ষেত্রে উপকারী নয়, এতে শরীর সঠিক শেপে আসে না, সার্জারির সময় ছাড়া এটি নির্দেশিত নয়।

Is fasting a good way to lose weight?

Although it offers health benefits — including reduced heart disease and weight loss — it’s not really the best way to lose weight, Dr. Ahmed says. While fasting helps you drop pounds quickly, it doesn’t help you stay in shape.

“For long-term weight loss, it’s not terrific,” he says. “The only time we really recommend fasting for weight is if someone needs rapid weight loss, for instance, for surgery.”

সূত্রঃ https://health.clevelandclinic.org/fasting-how-does-it-affect-your-heart...

সিদ্ধান্তঃ বাস্তবতায় প্রচণ্ড ক্ষুধার কারণে মস্তিষ্ক কর্তৃক শরীরকে উচ্চ ক্যালোরী গ্রহণের প্রণোদনা দেওয়া এবং সারা রাত জাগার কারণে মেটাবলিজম হ্রাস – এসবের কারণে রোজায় ওজন বৃদ্ধি পায়।

৩য় ভুলঃ রোজা লিভারের ওপর চাপ কমায়

সঠিক বক্তব্যঃ

লিভার হচ্ছে প্রধান Fat Burning অঙ্গ। ফ্যাট বার্ন করতে তথা ওজন কমাতে হলে লিভারকে অবশ্যই তার কাজ যথাযথভাবে পালন করতে হবে যা লিভারের ওপর কাজের চাপ কোনভাবেই কমাবে না বরং এই বাড়তি কাজটির জন্য কাজের চাপ আরো বাড়াবে।

The liver is the major fat burning organ in the body and regulates fat metabolism by a complicated set of biochemical pathways. The liver can also pump excessive fat out of the body through the bile into the small intestines. If the diet is high in fiber, this unwanted fat will be carried out of the body via the bowel actions. Thus, the liver is a remarkable machine for keeping weight under control, being both a fat burning organ and a fat pumping organ.

সূত্রঃ https://www.liverdoctor.com/liver-problems/weight-loss

সিদ্ধান্তঃ ফ্যাট বার্ন করতে লিভারের ওপর বাড়তি চাপ পড়ে।

৪র্থ ভুলঃ রোজা এসিডিটি বা অম্লত্ব কমায়

সঠিক বক্তব্যঃ

রোজা ডিওডেনাল আলসারের প্রদাহ বাড়ায়। পেপটিক আলসার ডিজিজের ২ ধরনের প্রকরণ রয়েছে – ১) গ্যাস্ট্রিক আলসার ২) ডিওডেনাল আলসার। উভয়ের মধ্যে অন্যতম ১টি পার্থক্য হল খাদ্যগ্রহণে ডিওডেনাল আলসারের ব্যথা কমে অর্থাৎ রোজা রাখলে ডিওডেনাল আলসারের ব্যথা বাড়ে। পক্ষান্তরে খাদ্যগ্রহণে গ্যাস্ট্রিক আলসারের ব্যথা বাড়ে।

The most common symptoms of a duodenal ulcer are waking at night with upper abdominal pain or upper abdominal pain that improves with eating. With a gastric ulcer the pain may worsen with eating.

সূত্রঃ

ক) https://en.wikipedia.org/wiki/Peptic_ulcer_disease
খ) http://www.differencebetween.net/science/health/difference-between-a-duo...

আসুন উভয় আলসারের Epidemiological Data দেখি -

Four times as many duodenal ulcers as gastric ulcers are diagnosed.

সূত্রঃ https://www.ncbi.nlm.nih.gov/pubmed/6378441

দেখা যাচ্ছে, ডিওডেনাল আলসার গ্যাস্ট্রিক আলসার থেকে ৪ গুণ বেশি আর অভুক্ত থাকলে ডিওডেনাল আলসারের ব্যথার মাত্রা বেড়ে যায়।

এদিকে আলসারের মূল কারণ এসিডের স্বাভাবিক নিঃসরণ নয় বরং এসিডের প্যাথোলজিক্যাল অতিনিঃসরণ যা ঘটে হেলিকোব্যাকটার পাইলোরি নামের এক ব্যাকটেরিয়া, গ্রুপের ব্যথানাশক ঔষধ, ধূমপান, লিভার সিরোসিস, স্ট্রেস ও খাওয়া দাওয়ায় অনিয়ম (যা রোজা থেকে হয়) ইত্যাদির মাধ্যমে।

সূত্রঃ https://www.mayoclinic.org/diseases-conditions/peptic-ulcer/symptoms-cau...

সিদ্ধান্তঃ রোজা রাখা ডিওডেনাল আলসারের প্রদাহ তথা তীব্রতা আরো বাড়িয়ে দেয় এবং এসিডের Normal Physiological Secretion নয় বরং Pathological Hypersecretion আলসারের প্রধান ২ কারণ।

৫ম ভুলঃ রোজা কিডনী স্টোন হওয়ার ঝুঁকি কমায়

সঠিক বক্তব্যঃ

রোজায় পানি পান থেকে বিরত থাকার কারণে প্রস্রাবে পানির পরিমাণ কম থাকে, ফলে হালকা রঙের প্রসাবের বদলে গাঢ় হলুদ বর্ণের ঘন প্রসাব হয়। প্রস্রাবে থাকা পাথর সৃষ্টিকারী মিনারেলগুলো পানির অভাবে আরো বেশি ঘন তথা শক্ত হতে থাকে এবং একজোট হয়ে পাথর সৃষ্টি করে।

A major risk factor for kidney stones is constant low urine volume. Low urine volume may come from dehydration (loss of body fluids) from hard exercise, working or living in a hot place, or not drinking enough fluids. When urine volume is low, urine is concentrated and dark in color. Concentrated urine means there is less fluid to keep salts dissolved. Increasing fluid intake will dilute the salts in your urine. By doing this, you may reduce your risk of stones forming.

সূত্রঃ

ক) https://www.urologyhealth.org/urologic-conditions/kidney-stones/causes
খ) https://emedicine.medscape.com/article/437096-overview#a5
গ) https://www.h4hinitiative.com/hydration-science/hydration-lab/water-inta...

সিদ্ধান্তঃ রোজায় পানিশূন্যতার কারণে কিডনীতে পাথর হওয়ার ঝুঁকি বাড়ে।

৬ষ্ঠ ভুলঃ রোজা নন ইনসুলিন ডিপেন্ডেন্ট ডায়াবেটিস কমায়

সঠিক বক্তব্যঃ

১) Pacific Northwest University of Health Sciences এর Kathaleen Briggs এর মতে ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগীদের জন্য রোজা ব্যাপক ঝুঁকিপূর্ণ

Fasting with diabetes poses significant risks

এব্যাপারে Erika Gebel Berg, PhD এর Safe Fasting With Diabetes প্রতিবেদনে বলা হয় রোজা খাদ্য ও পানির ভারসাম্য নষ্ট করে এবং রক্তের গ্লুকোজ লেভেলকে ক্ষতিকর দিকে নিয়ে যেতে পারে -

Fasting can throw off the delicate balance of food, water, and blood glucose levels in potentially harmful ways.

সূত্রঃ http://www.diabetesforecast.org/2014/10-oct/safe-fasting-with-diabetes.html

২) আরেকটি প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয় ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য রোজা রাখা ঝুঁকিপূর্ণ এবং এব্যাপারে অবশ্যই একজন স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীর পরামর্শ নেওয়া উচিত।

Fasting when you have diabetes can be risky. Working with your health care provider is a must.

সূত্রঃ https://www.everydayhealth.com/type-2-diabetes/living-with/fasting-safel...

এছাড়া ব্রিটেনের ডায়াবেটিস বিষয়ক সরকারী সাইট জানাচ্ছে ডায়াবেটিক রোগীদের জন্য রোজা শারীরিক ক্ষতির কারণ হতে পারে যার মধ্যে হাইপোগ্লাইসেমিয়া বা গ্লুকোজ স্বল্পতা প্রধান। আবার সারাদিন না খাওয়ার ফলে সৃষ্টি ক্ষুধা থেকে রাতে বেশি খাওয়ার ফলে হাইপারগ্লাইসেমিয়া বা গ্লুকোজ আধিক্য ঘটতে পারে। ডায়াবেটিক জটিলতায় আক্রান্ত ব্যক্তি এবং ইনসুলিন নির্ভর টাইপ-১ ডায়াবেটিসে রোজা রাখা একেবারেই নির্দেশিত নয়।

Is fasting with diabetes dangerous to health?

Fasting during Ramadan could compromise one’s health.

Should people with diabetes fast during Ramadan?

People are recommended not to fast if the act of fasting could negatively affect their health.

The charity, Diabetes UK, advises people with existing diabetic complications not too fast.

সূত্রঃ https://www.diabetes.co.uk/diet/ramadan-and-diabetes.html

সিদ্ধান্তঃ টাইপ-১ ডায়াবেটিসে রোজার প্রাণসংহারী ভূমিকা রয়েছে বলেই জাকির নায়েক টাইপ-১ ডায়াবেটিস সম্পর্কে কোন বক্তব্য দেননি। রোজা উভয় ডায়াবেটিসের সমস্যা বাড়ায়।

৭ম ভুলঃ রোজা শরীরের ডিটক্সিফিকেশন করে ও ইম্যুনিটি বৃদ্ধি করে

সঠিক বক্তব্যঃ

বিবিসিতে প্রকাশিত Scientists dismiss detox schemes প্রতিবেদনটি থেকে জানা যায় যে তথাকথিত ‘ডিটক্সিফিকেশন’ সময় ও অর্থের অপচয়। এর কোন অর্থ নেই কেননা আমাদের শরীর তার নিজস্ব ব্যবস্থা থেকেই শরীর থেকে ক্ষতিকর পদার্থ দূরীভূত করতে পারে। ট্যাপের পানি, রাতের ঘুম ও আলোবাতাস শরীরকে চাঙ্গা বা সতেজ করতে যথেষ্ট।

Following a so-called detox plan - often popular in January - is a waste of time and money, scientists say. The detox business - which includes diets, tablets and drinks said to flush out toxins - is said to be worth tens of millions of pounds. But the scientists from the Sense About Science organisation say water, fresh air and sleep is all that is needed. The term detox is meaningless as the body is perfectly capable of clearing out harmful substances, they add. Tap water rehydrates the body and a good's night sleep will leave people refreshed, the scientists said.

সূত্রঃ http://news.bbc.co.uk/2/hi/health/4576574.stm

উল্লেখ্য, রোজায় পানি পান থেকে দীর্ঘ সময় বিরত থাকা হয় যা পানিশূন্যতা সৃষ্টি করে। পানিশূন্যতা বা পিপাসা আরো বেড়ে যাবে তথা শারীরিকভাবে আরো বেশি খারাপ লাগবে – এমন আশংকায় সূর্যের আলো থেকে রোজাদারেরা দূরে থাকার চেষ্টা করেন। ফলে তারা বাইরের বাতাস থেকেও বঞ্চিত হন। সেহরীর জন্য সারা রাত জাগা কিংবা মধ্যরাতে ঘুম থেকে ওঠা থেকে রোজাদারদের ঘুমের ব্যাঘাত সৃষ্টি হয়। অর্থাৎ, শরীরকে চাঙ্গা রাখতে বিজ্ঞানীদের উল্লেখিত water, fresh air and sleep এর সবগুলোই রোজা দ্বারা ব্যহত হয়।

মেডিকেল সাইট WebMD জানাচ্ছে যে ডিটক্স ডায়েটের যেগুলো ফাস্টিংয়ের সাথে সম্পর্কিত সেগুলো দুর্বলতা সৃষ্টি করতে পারে এবং দীর্ঘদিনের ফাস্টিং থেকে ভিটামিন ও মিনারেল স্বল্পতার সৃষ্টি হতে পারে।

Detox diets that severely limit protein or that require fasting, for example, can result in fatigue. Long-term fasting can result in vitamin and mineral deficiencies.

সূত্রঃ https://www.mayoclinic.org/healthy-lifestyle/nutrition-and-healthy-eatin...

ডিটক্সিফিকেশন সম্পর্কে British Dietetic Association (BDA) এর ভাষ্য হচ্ছে এটি পুষ্টি সংক্রান্ত কোন বাস্তবতা নয় বরং শুধুই ব্যবসায়িক উদ্দেশ্যে প্রচারিত একটি কল্পকাহিনী।

Detox diets are a marketing myth rather than nutritional reality. They sound like a great concept and it would be fabulous if they really delivered all that they promised! Unfortunately, many of the claims made by detox diet promoters are exaggerated, not based on robust science and any benefit is short lived.

ফাস্টিং সম্পর্কে তাদের বক্তব্য আরো সুস্পষ্ট যে ফাস্টিং থেকে যদি দ্রুত ওজন হ্রাস হয় তবে এই ওজনের একটি বড় অংশ হচ্ছে পানি ও গ্লাইকোজেন (শরীরে শর্করার মজুদ), ফ্যাট নয়। রোজার কারণে হতে পারে ক্লান্তিবোধ, মাথা ঘোরা, শক্তিহীনতা অনুভব করা। ফাস্টিং করলে শরীর শারীরিক কার্যক্রম ও এক্সারসাইজ করার প্রয়োজনীয় জ্বালানী পায় না যা স্বাস্থ্য রক্ষা ও ওজন নিয়ন্ত্রণের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। ফাস্টিংয়ে যেইটুকু ওজন হ্রাস হয়েছিল তা ফাস্টিংয়ের পরে পুনরায় ফিরে আসে।

Fasting, or severely restricting what you eat, limits intake of energy (calories) and important nutrients needed for health and wellbeing. Rapid weight loss can occur, but this weight loss is largely water and glycogen (the body’s carbohydrate stores), rather than fat. You may feel tired and dizzy and it’s likely you’ll have less energy while you are following an extreme detox programme. Furthermore, if you are fasting, your body won’t have the necessary fuel available to carry out physical activity and exercise – an important aspect of general wellbeing and healthy weight management. At the end of the programme, if you return to your old eating
habits, you are likely to put back on any weight you lost

সূত্রঃ https://www.bda.uk.com/foodfacts/detoxdiets.pdf

সিদ্ধান্তঃ টক্সিন নাশের গল্পটি পুরোই কাল্পনিক, আধুনিক চিকিৎসাবিজ্ঞান এটিকে সমর্থন করে না।

৮ম ভুলঃ রোজা আয়ু বাড়ায় ও বৃদ্ধ হতে দেয় না

সঠিক বক্তব্যঃ

রোজা নয় বরং ক্যালোরী মেপে খাওয়া আয়ু বৃদ্ধি করতে পারে বা সহজে বৃদ্ধ হতে দেয়না বলে বিজ্ঞানীরা কিছু এভিডেন্স পেয়েছেন কিন্তু এগুলো মানুষে নয় বরং ইঁদুরসহ অন্যান্য কিছু প্রাণীতে। এব্যাপারে বিজ্ঞানীরা চূড়ান্ত কোন বক্তব্য বা নির্দেশনা দেননি। ক্যালোরী রেস্ট্রিকশনের জন্য বিজ্ঞানীরা resveratrol নামের একটি ঔষধকে মানুষের ওপর ব্যবহার করে কোন নিশ্চিত সিদ্ধান্তে পৌঁছুতে পারেননি যে ক্যালোরী রেস্ট্রিকশন আদৌ আয়ু বাড়ায় কী না কিংবা বৃদ্ধ হতে বাধা দেয় কী না।

সূত্রঃ

ক) https://en.wikipedia.org/wiki/Ageing
খ) https://www.livescience.com/62098-calorie-restriction-metabolism-aging.html

উল্লেখ্য, রোজায় ক্যালোরী মেপে খাওয়া সম্ভব হয় না কেননা সারাদিন অভুক্ত থাকতে হবে বলে রোজাদারেরা সেহরীতে প্রচুর পরিমাণে খেয়ে নেন। আবার ইফতারের সময় প্রচণ্ড ক্ষুধায় তারা প্রচুর খাওয়া দাওয়া করেন এবং ইফতারী থাকে প্রচুর ক্যালোরী সমৃদ্ধ তেলে ভাজা পেয়াজু, বেগুনী, আলু, মাংস, ডিম ও সবজির চপ, খেজুর বা খেজুরের শরবত, কোক স্প্রাইট, বুন্দিয়া ইত্যাদি। আবার রাতে সেহরীর জন্য জাগতে হয়, সেসময় একদম অনিয়মতান্ত্রিকভাবে এটা ওটা খাওয়াদাওয়া চলতে থাকে। ফলে, রোজায় ক্যালোরী রেস্ট্রিকশন মোটেও অর্জিত হয় না বরং শরীরে আরো বেশি ক্যালোরী গৃহীত হয় । বরং পানির অভাবে কিটোন বডি শরীর থেকে বের হতে পারেনা এবং জমে জমে কিটোসিসই ত্বরান্বিত করে চলে। এদিকে অতিভোজনের কারণে শরীরে ফ্রি র‍্যাডিক্যাল অত্যন্ত বেড়ে যায় যা কোষের জারণ ঘটিয়ে Aging Process ত্বরান্বিত করে।

সিদ্ধান্তঃ আয়ুবৃদ্ধি বা বয়স প্রতিরোধে Fasting নয় বরং Calorie Restriction এর একটি ভূমিকা থাকতে পারে যা এখনো সর্বসম্মতক্রমে গৃহীত নয়।

৯ম ভুলঃ রোজা আর্থারাইটিস, লুপাস, অ্যাজমা, ত্বক ও হজমের সমস্যা কমায়

সঠিক বক্তব্যঃ

১) Rheumatoid Arthritis ও Osteoarthritis হাড়ের রোগ, ১মটির কারণ Autoimmune বা শরীরের নিজ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার ধ্বংসাত্মক তথা আত্মঘাতী কার্যকলাপ এবং ২য়টির কারণ Degeneration বা বয়স ও ব্যবহারজনিত ক্ষয়। ১মটির চিকিৎসা DMARD, Immunosuppresant ২য়টির চিকিৎসা NSAIDS। রোজা বা অভুক্ত থাকার সঙ্গে হাড়ের অসুখের কোন সম্পর্ক নেই।
সূত্রঃ

ক) https://emedicine.medscape.com/article/331715-overview
খ) https://emedicine.medscape.com/article/330487-overview

২) Systemic Lupus Erythomatosus (SLE) ও রিউমাটয়েড আর্থারাইটিসের মত অটোইমিউন অসুখ। কতিপয় গবেষক বহু বছর ধরে Leptin নামক হরমোনের সঙ্গে উভয় অসুখের যোগসূত্র আছে বলে দাবী করে আসলেও আজ পর্যন্ত কোন স্বীকৃত মেডিকেল টেক্সটবুকে এই তথ্য সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়নি। এমনকী আমেরিকায় congenital leptin deficiency and generalized lipodystrophy - শুধুমাত্র এই ২ অসুখে লেপটিনের ব্যবহার অনুমোদিত হয়েছে।

সূত্রঃ

গ) https://emedicine.medscape.com/article/332244-overview
ঘ) https://en.wikipedia.org/wiki/Leptin

উল্লেখ্য, SLE এর অন্যতম একটি উপসর্গ হচ্ছে ক্লান্তি –

Fatigue — Fatigue is the most common symptom of lupus, and sometimes the most debilitating. Almost everyone with lupus experiences fatigue, even when there are no other symptoms.

সূত্রঃ https://www.uptodate.com/contents/systemic-lupus-erythematosus-sle-beyon...

রোজা রাখলে অভুক্ত অবস্থা ও পানিশূন্যতা থেকে এই ক্লান্তি আরো বেশি বৃদ্ধি পাবে তথা অসুখের তীব্রতা আরো বেড়ে যাবে।

৩) অ্যাজমার কারণ Environmental Allergens, Irritants (e.g. Household Spray, Paint Fumes) & Pollutants, Tobacco Smoke, Viral respiratory tract infections, Exercise, hyperventilation, Gastroesophageal reflux disease, Chronic sinusitis or rhinitis, Aspirin or NSAID hypersensitivity, Sulfite sensitivity, Beta Blockers, Obesity, Occupational exposure, Compounds (Insects, Plants, Latex, Gums, Diisocyanates, Anhydrides, Wood Dust, and Fluxes), Emotional factors or stress, Perinatal factors (Prematurity and Increased Maternal Age; Maternal Smoking and Prenatal Exposure to Tobacco Smoke; Breastfeeding) ইত্যাদি।

সূত্রঃ https://emedicine.medscape.com/article/296301-overview#a5

অর্থাৎ, অ্যাজমার সাথে রোজা রাখা বা খাদ্য গ্রহণের কোন সরাসরি সম্পর্ক নেই। অ্যাজমার ক্ষেত্রে শুধুমাত্র অ্যালার্জি সৃষ্টিকারী খাবার এড়িয়ে চলতে হবে।

৪) রোজা থেকে উদ্ভূত পানিশূন্যতা একজিমার মত শুষ্ককারক চর্মরোগের তীব্রতা বাড়বে। তৃষ্ণা অনুভব করার মানে হচ্ছে পানিশূন্যতা মোটামুটি ১% যা ২% হলে কাজকর্ম করতে অসুবিধা অনুভূত হতে থাকে এবং ৪% হলে ব্যক্তি মানসিক কাজকর্ম করার শক্তি হারিয়ে ফেলে, পেশীতে ব্যথা হতে থাকে ও অবসন্ন হয়ে পড়ে। মেটাবলিজম কমে যাওয়ার কারণে রক্ত সংবহন ও হজমজনিত সমস্যা সৃষ্টি হয়। এখান থেকে খাদ্যের প্রতি অত্যাসক্তি সৃষ্টি হয়, যা থেকে রোজাদারেরা সন্ধ্যায় ইফতার শুরু হওয়ার সাথে সাথে গোগ্রাসে খাওয়া শুরু করে, সারা রাত ধরে খায়, সেহরীতে বেশি খায় ইত্যাদি।

Studies have found that by the time you start to feel thirsty, you are already at least 1% dehydrated. That might not sound like much, but by the time you hit 2% dehydration, you’ll start to have trouble functioning. You can begin to have trouble working, for example. 4% dehydration starts to interrupt your mental clarity and you can become very lethargic.

A lack of hydration slows down your metabolism and goes hand in hand with circulatory and digestive problems. You can start to experience weight gain, food cravings, muscle pain, and of course dehydration is a trigger for the dry itchiness of eczema.

সূত্রঃ https://www.adrescuewear.com/blog/managing-your-eczema-through-hydration

সিদ্ধান্তঃ রোজা আর্থারাইটিস, লুপাস, অ্যাজমা, ত্বক ও হজমের সমস্যা বাড়ায়।

জাকির নায়েকের অন্যান্য ভুলসমূহঃ

১) জাকির নায়েক ভিডিওটিতে রোজায় খুব অল্প ওজন হ্রাসের কথা (slight reduction in the body weight) এর কথা বলেছেন যা তাৎপর্যপূর্ণ নয়।

২) গ্লুকোজ লেভেল বেড়ে যাওয়ার কথা বলেছেন অথচ বর্তমানে ডায়াবেটিস একটি প্রধান বৈশ্বিক স্বাস্থ্যসমস্যা। তাই বর্তমান সময়ের প্রেক্ষাপটে মানুষের শরীরে গ্লুকোজ বেড়ে গেলে ক্ষতি।

৩) জাকির নায়েক ভিডিওটিতে বলেছেন – “it had no effect on the HPT as well as on the Thyroid hormones” অথচ HPT = Hypothalamic Pituitary Thyroid Axis এর মধ্যেই থাইরয়েডের ব্যাপারটি অন্তর্ভুক্ত। ফলে আলাদাভাবে থাইরয়েডের কথা বলাটা হাস্যকর।

৪) জাকির নায়েক বলেছেন - “when food is taken when a person is sick it prevents him from getting well early it hampers the immune system so when a person fast when you seriously ill it helps him to recover faster” অসুস্থ হলে নাকি খাদ্যগ্রহণ করা উচিত নয়, এতে নাকি প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার কার্যক্রম ব্যহত হয় ! অথচ বাস্তব সত্য হচ্ছে খাদ্যগ্রহণ না করলে রোগীর প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা আরো দুর্বল হয়ে পড়ে তথা রোগী আরো বেশি অসুস্থ হয়ে যায় এবং জীবাণু আরো বেশি শক্তিশালী হয়ে ওঠার সুযোগ পায়।

উপসংহারঃ

মেডিকেল সায়েন্স সম্পর্কে সাধারণ মানুষের অজ্ঞতার সুযোগ নিয়ে কোনরকম মেডিকেল তথ্য ও যুক্তি না দিয়েই জাকির নায়েক রোজার সপক্ষে যেসব দাবী করেছেন, তা সর্বৈব ভুল, মিথ্যে তথা অবৈজ্ঞানিক। এই লেখাটির মাধ্যমে জাকির নায়েকের মিথ্যাচার তথা প্রতারণা মেডিকেল ব্যাখ্যা সহকারে প্রমাণ করা হল। এর পরে কারোরই আর সন্দেহ থাকার কথা নয় যে রোজা আসলে শরীরের জন্য চরম ক্ষতিকর। এর পরেও যদি কেউ রোজার পক্ষে সাফাই গাওয়ার চেষ্টা করেন তবে তিনি হয় চরম মূর্খ নতুবা চরম ধূর্ত।

আগামী পর্বে রোজার স্বাস্থ্যগত ক্ষতিসমূহ সম্যকভাবে তুলে ধরা হবে। সকলকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

Comments

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

মুশফিক ইমতিয়াজ
মুশফিক ইমতিয়াজ এর ছবি
Offline
Last seen: 2 weeks 4 দিন ago
Joined: রবিবার, এপ্রিল 2, 2017 - 10:06পূর্বাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর