নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 5 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • ড. লজিক্যাল বাঙালি
  • নুর নবী দুলাল
  • প্রত্যয় প্রকাশ
  • কাঙালী ফকির চাষী
  • সাইয়িদ রফিকুল হক

নতুন যাত্রী

  • নীল মুহাম্মদ জা...
  • ইতাম পরদেশী
  • মুহম্মদ ইকরামুল হক
  • রাজন আলী
  • প্রশান্ত ভৌমিক
  • শঙ্খচূড় ইমাম
  • ডার্ক টু লাইট
  • সৌম্যজিৎ দত্ত
  • হিমু মিয়া
  • এস এম শাওন

আপনি এখানে

অত:পর বাংলাদেশের মানুষ যদি ইসলাম ত্যাগ না করে, বুঝতে হবে তারা মানুষ না


মানুষ বলতে আমরা সেই প্রানীকেই বুঝি যার কান্ডজ্ঞান , যুক্তি বোধ ও বুদ্ধি আছে। এখন বাংলাদেশের মুসলমানরা যদি নিজেদেরকে মানুষ ভাবে , তাহলে এই পোষ্ট পড়ার পর পরই যদি ইসলাম ত্যাগ না করে , তাহলে বুঝতে হবে , তারা দ্বিপদী জানোয়ার , মানুষ নয়। এখন বাংলাদেশের মুসলমানরা কি নিজেদেরকে দ্বিপদী জানোয়ার ভাবতে পছন্দ করবে ?

বিষয়টা খোলাসা করার জন্যে কোরানের নিচের আয়াতটা পড়া যাক ---

সুরা আল ইমরান - ৩: ১০৬: সেদিন কোন কোন মুখ সাদা হবে, আর কোন কোন মুখ হবে কালো। বস্তুতঃ যাদের মুখ কালো হবে, তাদের বলা হবে, তোমরা কি ঈমান আনার পর কাফের হয়ে গিয়েছিলে? এবার সে কুফরীর বিনিময়ে আযাবের আস্বাদ গ্রহণ কর।

কেয়ামতের মাঠে মানুষের চেহারা কি হবে সেটা বোঝানো হচ্ছে উক্ত আয়াতে। কেয়ামতের মাঠে দুই ধরনের মানুষ থাকবে , সাদা ও কালো। যারা সাদা তারা বেহেস্তে যাবে , যারা কালো তারা দোজখে যাবে। কোরান হাদিস তাফসির ইত্যাদি থেকে আমরা জানি , কেয়ামতের মাঠে প্রতিটা মানুষই ঠিক সেভাবেই হাজির হবে , যেভাবে সে মৃত্যুবরন করেছিল। তার মানে যাদের গায়ের রং সাদা , তারা সাদা মুখ নিয়ে এবং যাদের গায়ের কালো বা বাদামী তারা কালো বা বাদামী মুখ নিয়ে কেয়ামতের মাঠে হাজির হবে। আর ফলাফল ? বুঝতে পারছেন পাঠক ?

বাংলাদেশের কোন মুসলমানেরই গায়ের রং সাদা না , তাই তারা সাদা মুখ নিয়ে কেয়ামতের মাঠে হাজির হতে পারবে না , ফলাফল- সোজা দোজখের খোরাক হতে হবে। এখন অনেকেই এসে বলবে , এই আয়াতের অনুবাদ ভুল , আগে পরের আয়াত দেখতে হবে , প্রেক্ষাপট দেখতে হবে ইত্যাদি। সুতরাং বিষয়টা সুরাহা করার জন্যে প্রথমেই অনুবাদের বিষয়ে আলাপ করা যাক। আমরা দেখি দুনিয়ার প্রসিদ্ধ আলেমরা কিভাবে এর অনুবাদ করেছে : ----

SAHIH INTERNATIONAL: On the Day [some] faces will turn white and [some] faces will turn black. As for those whose faces turn black, [to them it will be said], "Did you disbelieve after your belief? Then taste the punishment for what you used to reject."

Yusuf Ali (Orig. 1938) : On the Day when some faces will be (lit up with) white, and some faces will be (in the gloom of) black: To those whose faces will be black, (will be said): "Did ye reject Faith after accepting it? Taste then the penalty for rejecting Faith."

Shakir: On the day when (some) faces shall turn white and (some) faces shall turn black; then as to those whose faces turn black: Did you disbelieve after your believing? Taste therefore the chastisement because you disbelieved.

Abdul Majid Daryabadi: On a day whereon faces become whitened and faces become blackened. Then as for those whose faces shall have become blackened: disbelieved ye after your profession of belief! taste the torment for that ye have been disbelieving.

Ali Quli Qara'i: on the day when [some] faces will turn white and [some] faces will turn black. As for those whose faces turn black [it will be said to them], ‘Did you disbelieve after your faith? So taste the punishment because of what you used to disbelieve.’

Hamid S. Aziz: On the day when faces shall be whitened and faces shall be blackened. As for those whose faces are blackened, - "Did you disbelieve after your faith, then taste the torment for your disbelief."

Muhammad Mahmoud Ghali: The Day when (some) faces are whitened, and (some) faces blackened. Then, as for the ones whose faces are blackened- "Did you disbelieve after your belief? Then taste the torment for that you disbelieved.

Umm Muhammad (Sahih International): On the Day [some] faces will turn white and [some] faces will turn black. As for those whose faces turn black, [to them it will be said], "Did you disbelieve after your belief? Then taste the punishment for what you used to reject."

Talal A. Itani (new translation): On the Day when some faces will be whitened, and some faces will be blackened. As for those whose faces are blackened: 'Did you disbelieve after your belief?' Then taste the punishment for having disbelieved.

সূত্র: https://quran.com/3/106-116
https://www.islamawakened.com/quran/3/106/default.htm

উক্ত Sahi International এর সূত্রের(https://quran.com/3/106-116) কোরান খুলে যে কেউ প্রতিটা আরবী শব্দের ওপর কার্সর রাখলেই তার অর্থ বের করা যাবে। যেমন تَبْيَضُّ এই শব্দটা হলো tabyaddu এর অর্থ হলো would become white । সুতরাং উক্ত অনুবাদে কোন সমস্যা নেই। কিন্তু অবশ্যই কেউ কেউ বিষয়টার গুরুত্ব বুঝতে পেরে উক্ত শব্দের অনুবাদ করেছে "উজ্জ্বল" বলে। কেন করেছে সেটা অবশ্যই বোধ গম্য।

এখন মুহাম্মদ কিন্তু তার দিক থেকে ঠিকই আছে। কারন মুহাম্মদ নিজে ছিল সাদা মানুষ। আর তার আরব লোকজনও ছিল সাদা মানুষ। মুহাম্মদ কেমন সাদা মানুষ ছিল সেটা জানা যাক ----

মসজিদ ও স্বলাতের স্থান অধ্যায় ::সহিহ মুসলিম :: খন্ড ৪ :: হাদিস ১২০৮
তিনি (সা’দ) বলেছেনঃ আমি রাসুলুল্লাহ (সা) কে ডানে এবং বামে সালাম ফিরাতে দেখতাম। এমনকি (তিনি এমনভাবে মুখ ঘুরাতেন যে) আমি তার গালের স্বেত-শুভ্র আভা দেখতে পেতাম।

কিতাবুল ফাযায়েল (ফযীলত) অধ্যায় ::সহিহ মুসলিম :: বই ৩০ :: হাদিস ৫৭৭৭
সাঈদ ইবন মানসূর (র).......আবু তুফায়ল (রাঃ) থেকে বর্ণিত । তিনি বলেনঃ আমি তাঁকে জিজ্ঞাসা করলাম যে, আপনি কি রাসুলুল্লাহ (সা) -কে দেখেছেন? তিনি বললেন, হ্যা, ভিনি ছিলেন ফর্সা, লাবণ্যময় চেহারার অধিকারী

মুহাম্মদ যেহেতু সাদা মানুষ ছিল , তার মানে তার আরবরাও সাদা মানুষ ছিল। ব্যাতিক্রম ছিল আরবে যেসব কাল ক্রীতদাস ছিল। কিন্তু সে যাই হোক ,কোরানে পরিস্কার বলছে , কাল মানুষদের জন্যে কোন লাভ নেই। তাদের কপালে বেহেস্ত নেই। যারা সাদা নয় , তাদের কপালেও বেহেস্ত নেই , তাই যাদের গায়ের রং বাদামী , মানে যারা বাংলাদেশী মুসলমান , তাদের কপালেও বেহেস্ত নেই।

সুতরাং মুহাম্মদ খুবই কৌশলে আসলে কঠিন বর্ণবাদী ধর্ম প্রবর্তন করে গেছে কিন্তু মূর্খ , অশিক্ষিত ও অন্ধ মুসলমানরা সেটা বোঝে না। বুঝবেই বা কি করে ? তারা তো আর কোরান বা হাদিস নিজ মাতৃভাষায় পড়ে না। যদি পড়ত তাহলেই বুঝত।

এমন অবস্থায় , বাংলাদেশের মুসলমানরা যদি ঠিক এই মুহুর্তে ইসলাম ত্যাগ না করে , তাহলে তাদেরকে কি আর মানুষ হিসাবে গণ্য করা যাবে ?

Comments

সলিম সাহা এর ছবি
 

জীবনে বহু বোকা দেখেছি কিন্তু আপনার মতো এত বোকা মানুষ দেখবো, এটা কখনো ভাবতে পারিনি। আপনি বলেছেন মোহাম্মদ সাদা ছিল। আসলেই কি মোহাম্মদ সাদা ছিল? না! মোহাম্মদ ছিল লাল ও সাদা মিশ্রিত রঙের। আর আপনি যে আয়াতটি উপস্থাপন করেছেন, আসলেই তাঁর অনুবাদটি ভুল উপস্থাপন করেছেন। কারণ, আয়াতটি হল-
يَوْمَ تَبْيَضُّ وُجُوهٌ وَتَسْوَدُّ وُجُوهٌ
বাংলা উচ্চারণ- ইয়াউমা তাবইয়াদ্দু উজুহুন ওয়া তাসওয়াদ্দু উজুহুন।
যার বাংলা অর্থ- সেদিন কিছু মুখ সাদা হবে ও কিছু মুখ কালো হবে।
আরবি ওয়াজহু শব্দের বাংলা অর্থ- মুখমণ্ডল, চেহারা নয়। অর্থাৎ ওয়াজহু এর বাংলা অর্থ- মুখমণ্ডলের অবস্থা, শরীরের রঙ নয়।

 

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

কাঠমোল্লা
কাঠমোল্লা এর ছবি
Offline
Last seen: 3 দিন 3 ঘন্টা ago
Joined: শুক্রবার, এপ্রিল 8, 2016 - 4:48অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর