নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • সাইয়িদ রফিকুল হক
  • শ্মশান বাসী
  • আহমেদ শামীম
  • গোলাপ মাহমুদ

নতুন যাত্রী

  • নীল মুহাম্মদ জা...
  • ইতাম পরদেশী
  • মুহম্মদ ইকরামুল হক
  • রাজন আলী
  • প্রশান্ত ভৌমিক
  • শঙ্খচূড় ইমাম
  • ডার্ক টু লাইট
  • সৌম্যজিৎ দত্ত
  • হিমু মিয়া
  • এস এম শাওন

আপনি এখানে

ঈশ্বর বানালো যারা, নাস্তিক ও বানালো তারা৷ মাঝখানে শুধু অনুভূতি


নাস্তিকরা যখন কোন যুক্তি তুলে তখন ধার্মিকদের দেখেছি প্রমাণ চাইতে৷ রেফারেঞ্জ না দিলে তরকারিতে যেন নুনটা কম হয়ে গেলো! প্রমাণ ছাড়া আল্লাহ খোদা বিশ্বাস করা গেলেও মানুষের কথা একেবারে অখাদ্য৷ কেউ এসে একটা সুখবর দিলো ভাই আবুলের বাচ্চা হয়েছে, আরেকজন বললো কই রেফারেঞ্জ দেনতো দেখি! অবশ্য আবুলের নয় আবুলের বউয়ের হয়েছে৷ এই রেফারেঞ্জ নামক জিনিসটা গ্রন্থ হতে দিলে হয় দলিল আর না দিলে দলিত৷ সব নাকি কোরআনে আছে, আবুলের বউয়ের বাচ্চা হয়েছে সেটাও আর বাদ যাবে কেন? দেন রেফারেঞ্জ নইলে বিশ্বাস হলো না বলে৷

ইদানিং সবে বরাত নিয়ে হুজুরে হুজুরে কামড়া কামড়ি৷ কেউ বলছে কোরআনে আছে, কেউ বলছে নেই৷ কেউ বলছে সবে বরাতের বরাত দিয়ে যদি রোজা রাখেন তবে আল্লাহ মাফ আর করবে না৷ আল্লাহ মাফ করবে কি করবে না সেটাও আল্লাহ জানুক না জানুক হুজুররা জেনে ফেলেছে৷ সবই কোরআনে আছে তবে এই বাক্ বিতন্ডা কেন? অবশ্য যেখানে ফেসবুক আবিস্কার কোরআনে থাকে, পহেলা বৈশাখ পালন অপালন কোরআনে থাকে সেখানে আবুলের বউয়ের বাচ্চা হওয়ার রেফারেঞ্জ তেমন কিছুই না৷

আগে ধর্ম ব্যবসা করত রাজনীতিবিদ আর ধর্মগুরুরা, এখন জনগন লিপ্ত৷ ইউটিউবে ফ্রাংক ভিডিওতে একটু ধর্মের চিনি গুলিয়ে দিলেই সরবত৷ টাকা ইনকাম বেশ ভালো৷ লাইক কমেন্টের জন্য নিজেকে বড় দেখাতে ফেবুতে এসে নেকির ন্যাকা কান্না আর কেউ আমীন না যাবেন না এটাতো আছেই৷ গাছে বাঁশে তরি তরকারি মাছে মাংসে আল্লাহ ভগবান আর তাদের সেনাপতি মন্ত্রীদের মেঘে চাঁদে দেখা যায়৷ রেফারেঞ্জ আছেতো, ফটোশপে৷ যে প্রাণীতে আল্লাহ পাওয়া যাচ্ছে সেটা তবুও খাচ্ছে, আল্লাহ খেয়ে আল্লাহ নাম কি চমৎকার৷ আদায় গণেশ দাদা, মেঘে লোকের নাথ আর গৌতমকে দেখা যায়৷ এদের গরীব ক্ষুধার্তদের ঘরে মোটেও দেখা যায় না৷ শালার ভগবান ও চালাক, যেখানে ভাত পাবে সেখানে গিয়ে মরে৷ মানুষ মরলেও তাদের পাওয়া যায়না৷

ভালো করলে আল্লায় করছে,
খারাপ করলে বান্ধায়!
সৌখিন ঘরে ভগবান আল্লাহ
মানুষ মরছে ঠান্ডায়৷
যেখানে সেখানে পদচারণা
দেখছে পরিস্কার আন্ধায়,
ধর্ষণে নেই খোদার বাঁধা
দিব্যি চলছে ধান্ধায়৷

মচিবত বড়ই মচিবত৷ যখন ধার্মিক ফান্দে পড়ে আল্লাহ খোদারে গালি দেয় তখন ঠিক আছে৷ যখন ফান্দে না পড়ে কেউ বলে তখন ধিক আছে৷ যদি আল্লাহ খোদা ভগবান গড এসব শুধু প্রথম সৃষ্টির কেন্দ্রবিন্দু হত তবে আমার তেমন মাথা ব্যথা ছিলোনা৷ কিন্তু পাতা ধরে নাড়ানাড়ি করে উঠোন অপরিস্কার করলে ঝাড়ু দেবে কে!? ঐ যে বলছে ইশারা ছাড়া গাছের পাতাও নড়েনা৷ গাছের পাতা যেমন নড়ছে না বলে তারাও নড়ছেনা৷ না আগামিকে গড়তে, না সুন্দরে, না শিক্ষায় দিক্ষায়৷ বলছে হে প্রভু আমাকে জ্ঞান দাও৷ প্রভু জ্ঞান দিলে পায়, না হলে পুরা মস্তক খালি৷ গাছের পাতা নড়লে তারাও নড়ে৷ যেমন উঠোন ময়লা তেমন সমাজ সভ্যতা ময়লা৷ এমন নড়া নড়ে যেখানে দেহ হতে মাথা আলাদা হয়ে যাচ্ছে৷ হুমকি দিচ্ছেতো কেউ দিচ্ছেনা তিনিই দিচ্ছেন৷

আমি ছোট হতে দেখে এসেছি নারীরা সব সময় ধর্ম পরায়ন৷ আমার মা মারা গেছেন যখন আমি ছোট৷ সেই শিশু কালে৷ তখন হতে আজো আমার মায়ের জন্য ঘুষ দিতে হয়৷ নইলে স্বর্গের রুম ভাড়া হয় না৷ মরেও শান্তি নাই৷ সেখানেও আল্লাহ ভগবান গড ব্যবসা করেন৷ তারা বড় প্রপার্টিজের মালিক৷ কেউ ৫০০০, কেউ ২৫০০, কেউ ২০০০, কেউ ১৫০০ এভাবে মালিক বনে আছেন স্বর্গে ঘর বাড়ি বানিয়ে৷ আমার বর্তমান যিনি মা তিনিও দেখি রোজ প্রার্থনা করেন৷ আমি প্রশ্ন করি কিন্তু তাতে বলেন এভাবে বলতে নেই তাতে ওনারা মাইন্ড খাবেন আর চুক্তি বাতিল করবেন বা করে দিতে পারেন বলে ভয়৷ তিনি সুন্দর শীতল পাটি নঁকশা করে বানাতে জানেন৷ যদি প্রতিদিন এই ঘন্টা দেড় প্রার্থনা না করে তা বানাতেন তবে ঘরের পরের ভালো হতো৷ আমার বাবাও বাঁশ বেঁতের কাজ জানেন, যদি করতেন আমরাও শিখতাম তাদেরও লাভ হত৷ আহারে পরিশ্রমে ধন আনে পূন্যে আনে সুখ, আলস্যে দারিদ্রতা টানে পাপে সর্ব দুখ৷

গ্রামের লোক কিংবা নগরের আমরা ধর্মে কতটা ভদ্র এবং সুন্দর তাতো বলা বাহুল্য৷ এমন যেন আমার মত সুন্দর চিন্তা চেতনার মানুষ আর হয়না! কিন্তু যখন বিয়ের অনুষ্ঠানে ব্যান্ড প্রোগ্রাম হবে তখন একটা হট সেক্সি গার্ল সিঙ্গার ফ্যান না হলে বাতাস হলোনা৷ গায়ে হলুদে কোমড়ের চেয়ে বুক দোলানো মেয়ে না হলে চললোই না, মেলায় আস্তে আস্তে টাকা পড়ার সাথে সাথে হাঁটুর উপর আস্তে আস্তে পর্দা উঠতে না থাকলে জমলো না৷ বুকের ক্লিভেজ হতে আস্তে নিচে জামা না নামলে গরম হলোনা৷ শুধু যখনই ধর্ষণের ব্যপারগুলোতে কাপড় আসে তখনই ধর্ম আর তার গুরু সহ সমর্থক গণের ভদ্রতা সভ্যতার বিকাশ হতে থাকে৷ আমি আজ পর্যন্ত শুনিনি সানি লিয়নকে উলঙ্গতার কারণে ধর্ষণ করা হয়েছে, শুনিনি সানি লিয়নির স্ক্রীনসুট ফাঁস হয়েছে, শুনিনি সানি লিয়ন পর্দা করত না তাই তাকে ধর্ষণ করে মেরে জঙ্গলে ফেলে গেছে তনুদের মত কিংবা কোন হলিউড অভিনেত্রীর এই পরিণতি৷ আমিতো শুনেছি পর্ণ টর্ণ এসব দেখা হারাম, পাপ৷ কিন্তু চিন্তায় পড়ে যাই যখন বিমানবন্দর ধার্মিকরা ঘেরাও করবে বলে সানি লিয়ন আসলে৷ এত হালাল ধার্মিক তাকে চিনে কিভাবে!? অবশ্য আল্লাহ খোদার কথা ছাড়া গাছের পাতাও নড়েনা, সেই তারা যদি ধর্ষণ উপভোগ করতে পারেন এবং তবুও মহান হন তবে এটা তেমন আর কি? ধর্ষণটাও আছে ঐ কিতাবে৷ তবে কোন প্রাণ মন মগজের নয় হয় কাপড়ের জন্য, এমন মানসিকতার উপহার আর কি হতে পারে!?

গানের কথায় আছে- তুমি বাঁচাও তুমি মারো, তুমি খাওয়াইলে আমি খাই৷ অথচ আমি যেদিন না খেয়ে ছিলাম সেদিন খাওয়াইছে আমার মায়, মা ছিলোনা যেদিন সঙ্গে সেদিন দেখলাম তিনি নাই৷ আমাকে আমার খাবার যোগার করতে হলো যেদিন আমি উপার্জন সক্ষম ছিলাম না৷ ডাক্তার না পেলে জন্মের শিশুটাও আলো আর দেখেনা৷ এটাও নাকি পরীক্ষা৷ অক্ষর জ্ঞানের মগজ ও যার তৈরী হয়নি, না পড়ে ছাত্র পাস করানোর এ চেষ্টা শুধু মূর্খ নয় একদম নিম্ন মূর্খেরই হবে, সেখানে এ পরীক্ষা দিয়ে তিনি নাকি সর্ব জ্ঞানী আর মহান৷

তা যাই হোক ঈশ্বর আল্লাহ শব্দগুলোর সাথে আমার তেমন রেষ নেই৷ এগুলোতো তারা এসে বলেনি, বলছে আমাদের মাঝে জাহির করা প্রাণীগুলো৷ জাহিরতো জাকিরও করে৷ তবে সাত পাঁচ বিশ আট টাকা না হয় না দিস বলে দেখানো কিছু৷ যদি প্রমাণ পেতাম দেখতাম তাহলে আল্লাহ ঈশ্বর বিরোধিতা হত, এখন সেটা তাদের বিরোধীতা হয়না, হয় মিথ্যা বলে যাওয়া সেই হতে এই পর্যন্ত মিথ্যাবাদীদের৷ আমাকে কত সুন্দর নাস্তিক ও তারা বানিয়েছে সে মিথ্যা দেখানোর কারণে৷ আমিও মেনে নিয়েছি কারণ তারা মিথ্যাবাদী হলে সত্যবাদীর অপর নাম দাড়ায় নাস্তিকতা৷ আল্লাহ ঈশ্বর ধর্ম যেমন তাদের বানানো, তেমনি নাস্তিক ও তাদের প্রতিষ্ঠিত৷ আমিতো দুটোই উপভোগ করি৷ শুধু মাঝখানে একটা অনুভূতির ফাঁরাক এই যা! ছোটরা God কে ভুল করে লিখলে খুব জোর Dog হয়, তাওতো বিশ্বস্ত কোন প্রাণী, কিন্তু বড়রা ভুল করলে তা হয় বর্তমান অবস্থা৷ পুতুল খেলাতো শুধু ছোটরা নয়, সবাই খেলছে৷ শুধু দেখা আর অদেখা৷

Comments

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

কাঙালী ফকির চাষী
কাঙালী ফকির চাষী এর ছবি
Offline
Last seen: 9 ঘন্টা 28 min ago
Joined: শুক্রবার, ডিসেম্বর 29, 2017 - 2:02পূর্বাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর