নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 3 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • নুর নবী দুলাল
  • মিশু মিলন
  • নরমপন্থী

নতুন যাত্রী

  • নীল মুহাম্মদ জা...
  • ইতাম পরদেশী
  • মুহম্মদ ইকরামুল হক
  • রাজন আলী
  • প্রশান্ত ভৌমিক
  • শঙ্খচূড় ইমাম
  • ডার্ক টু লাইট
  • সৌম্যজিৎ দত্ত
  • হিমু মিয়া
  • এস এম শাওন

আপনি এখানে

দুধ নাকি স্তন?


১৷ দুধ নাকি স্তন?
আমরা বাঙালিরা স্তনকে দুধ বলি৷ ছোট হতে তাই জানা বা শেখা৷ অথচ দুধ আর স্তনের পার্থক্য আছে৷ ইংরেজী মিল্ক বললে আমরা সাদা তরল দুধ ঠিকই দেখি আর Breast বললে দেখি অঙ্গ , কাম মস্তিষ্কে কাম অঙ্গ৷ আবার Boobs বললেও কাম অঙ্গ দেখি যার মূল অর্থ দুধ৷ অাপনি যদি গ্রামে গঞ্জে যান তবে দেখবেন স্তন কি অনেকে চিনেই না৷ এই নিয়ে রস কৌতুক ও বেশ আছে যেমন বাজারের তলে হতে দুধের প্যাকেট পড়ে গেলে, পাশের ছেলেরা বলে উঠে আপা আপনার দুধ পড়ে গেছে৷ এতে মেয়ে রেগে আগুন৷ অন্য কৌতুকে শিক্ষক ছাত্রীকে বলছে দু দু'বার করে লিখো, ছাত্রী শুনলো দুদু বার করে লিখো তারপর আগুন৷ এই রস কৌতুকগুলো স্তন আর দুধকে এক করারই ফল যদিও ঐ রস কৌতুকে সবাই হাসে কিন্তু নারী কিছু বললেই কত অনুভূতি কত ভদ্রতার লেকচার কত কী! অনেকে স্তন কি চিনি দুধ কি চিনি কিন্তু দুধ আর স্তনকে এক করে ফেলি আর পান্ডারা কোন মেয়ে দেখলে বলে দেখ কত বড় বড় দুধ৷ আমরা এভাবে বিকৃত করে ফেলেছি৷ অথচ দুধ দুধই আর স্তন স্তনই৷

২৷ স্তন কি যৌন অঙ্গ যা স্পর্শকাতর?
আসলে সব অঙ্গে স্পর্শকাতরতা আছে৷ শুধু সেটা জাগাতে হয়৷ যখন শরীর জাগে তখন যেখানেই ছোঁয়া সেখানেই ধোঁয়া৷ কিন্তু আমরা স্তন আর যৌনি নিয়ে বেশি উন্মাদনা করি৷ কারণ আমরা প্রথমত ঐ দুই অঙ্গকে গোপন করি, গোপনের প্রতি রহস্য আর আকৃষ্টতা দিন দিন মস্তিষ্কে বড় হয়, আকর্ষণীয় হয় যার কারণে ওগুলোতেই আমাদের যত বিভ্রান্তি সেটা যেমন পুরুষের কাছে তেমনি নারীর কাছে৷ নইলে ঠোঁট, গলা, ঘাড় বুক, পেট, পিট, পা সবখানে স্পর্শকাতরতা আছে৷ কিন্তু শ্রবন, গোপন, রহস্য আমাদের আকর্ষণকে বেশি আকৃষ্ট করায় দুই অঙ্গে৷ নইলে শিশুকে মা যখন দুধ পান করাতে পারত না স্পর্শকাতরতার জন্য সেটা মাথায় রাখতে হবে৷

৩৷ অন্য অঙ্গের মতই স্তন অঙ্গ এটা নিয়ে এত অনুভূতিতে লাগার কি আছে?

আছে অনুভূতিতে লাগার আছে৷ আমরা যখন নারীর পক্ষে বলি তখন আমরা স্বাভাবিক কত ফ্রি থিংকারের মত বলে ফেলি স্তন একটা স্বাভাবিক অঙ্গ৷ সেটা নিয়ে মাতামাতির কিছু নাই৷ বিশেষ করে যখন বড় কোন সেলিব্রেটি যখন বলে তখন ভালো করলে আল্লাহ খারাপ করলে মনুষ্য করে, ঠিক এমন চিন্তা চেতনা চলে৷ যেমন তসলিমা যখন বলে অমুকের জাম্বুরা দুটো এত বড় বড় সেটা তখন আমরা দোষ ধরব না সেটা স্বাভাবিক অঙ্গ তখন বলবো৷ কিন্তু আমি যদি আমার ফ্রেন্ডলিস্টের কাউকে বলি তখন সেটা স্বাভাবিক অঙ্গ আর থাকবে না, সবার চেতনা তখন উল্টো হবে৷ সেটা শুধু অন্যের বেলায় নয়, আমার বেলাতেও৷ যেমন আমি কারো বেলায় স্বাভাবিক বলবো যদি কেউ যদি আমার সামনে আমার বোনকে বলে তখন আমার মাথায় রক্ত উঠে যাবে৷ মুখের উপর বলে দিচ্ছি প্রতিটা অঙ্গের মতই অঙ্গ, কিন্তু নিজের বেলায় আমরা সবাই উগ্র৷ আমি কারো চোখের গুনগান করতে পারি, ঠোঁটের পারি, মুখের পারে, চুলের পারি কিন্তু স্তনের? তাহলে আর পাঁচটা অঙ্গের মত অঙ্গ থাকলো কই?

৪৷ এমন কেন হয়?

এমন হবার অনেক কারণ আছে৷ কারণ আমাদের পরিবেশ তেমন নয়৷ উপরেই বলেছি অঙ্গ গুলো আমরা দিনের পর দিন আলাদা অনুভূতির করে ফেলেছি৷ তার উপর আমাদের পরিবেশটা সন্দেহে আক্রান্ত৷ সমাজের নোংরামী আমাদের ঐ চেতনাধারী করতে বাধ্য করে এসেছে কারণ আমরা অসভ্য জাতিতে ইতিমধ্যেই পরিণত হয়ে গেছি৷ ধনাত্বক চেতনা আমরা নিতে অভ্যস্ত নই দিতেও৷ আমি লেবাননে দেখি ছেলেরা পার্লারে কাজ করছে মেয়েদের আবার মেয়েরাও ছেলেদের কিন্তু বাংলায় তা অসম্ভব৷ মেয়েদের পার্লারে ছেলেরা কোন গুরুত্বপূর্ণ কাজে গেলেও পার্লারের মেয়েটা দেহ ব্যবসা করে চট করে এই ভাবনা আসে কারণ পরিবেশ তাই শিখিয়েছে দেখিয়েছে৷ তার উপর পার্লারে বাইরে থেকে যেন দেখা না যায় সে ব্যবস্থা অথচ বিদেশে চারদিকে গ্লাস৷ আবার বাংলায় পার্লারে পরদা না করলে বাইরের লোক হা করে থাকবে, ভিডিও করবে বিদেশে কারে কে দেখে? তার মূল কারণ মূলত আমাদের নোংরা পরিবেশ৷ যেখানে ভাইয়ের সাথে বোন রিক্সায় বসলে প্রেমিক প্রেমিকা ভাবতে শুরু করে সেখানে আমরা সভ্য, সুন্দর চিন্তা চেতনার বলা মানে ডাস্টবিন নিয়ে পরিচ্ছন্নতার বিজ্ঞাপন করে গৌরব করা৷ আমরা যতই মুখে বল না কেন আমরা সে জায়গায় পৌঁছাতে পারিনি যে জায়গায় মুক্ত মনের আলোর জ্বলকানি আছে৷ কার দোষ দেব?আমিইতো মানতে পারিনা, মানতে শিখিনি৷ শুধু মুখে বড় বড় বুলি ঝাড়তে শিখেছি৷ আর কিছু না থাক, আমাদের একটা গাল আছে, গালবাজী আমরা ভালই পারি৷ অন্তত আমাকেতো আমি চিনি? আমিইতো বড় গালবাজ.....

Comments

sabbir এর ছবি
 

third class write up

 

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

কাঙালী ফকির চাষী
কাঙালী ফকির চাষী এর ছবি
Offline
Last seen: 1 দিন 3 ঘন্টা ago
Joined: শুক্রবার, ডিসেম্বর 29, 2017 - 2:02পূর্বাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর