নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 3 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • দ্বিতীয়নাম
  • বেহুলার ভেলা
  • অাব্দুল ফাত্তাহ

নতুন যাত্রী

  • সুশান্ত কুমার
  • আলমামুন শাওন
  • সমুদ্র শাঁচি
  • অরুপ কুমার দেবনাথ
  • তাপস ভৌমিক
  • ইউসুফ শেখ
  • আনোয়ার আলী
  • সৌগত চর্বাক
  • সৌগত চার্বাক
  • মোঃ আব্দুল বারিক

আপনি এখানে

ভুতের বাচ্চা সুলাইমান - এটাই জাফর ইকবালের অপরাধ।


জাফর ইকবালের মাথায় সামান্য আঘাত লাগার কারণে তাকে হেলিকপ্টারযোগে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। প্রশাসনসহ সকল মিডিয়া জাফর ইকবালের পা চাটতে শুরু করেছে। মনে হয় পুরো বাংলাদেশ নাস্তিক কুলাঙ্গারদের নিয়ন্ত্রণে চলতেছে।

কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে অসহায় ছিলেটি জাফর ইকবালের মতো কুলাঙ্গারকে আক্রমণ করেছে, সেই ছেলেটিকে কেউ একটু দেখতেও গেল না। তাকে উপর্যুপরি গণধোলাই দেওয়া হয়েছে। এখন তার বিরুদ্ধে মামলা হবে। এই নিরীহ ছেলেটি হয়তো আর স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে পারবে না।
আল্লাহ আপনি আপনার এই জিহাদী ভাইকে হেফাজত করুন।

আসুন বাংলার সকল তৌহিদী জনতা এক হয়ে, নাস্তিক জাফর ইকবাল গংদের বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তুলি।

----------------------------------------------------------------

উপরের লেখাটা আমার, কিন্তু কথাগুলো আমার নয়। এগুলো বাংলাদেশের ৯০ ভাগ মুসলমানের হৃদয়ের কথা। জাফর ইকবালকে আক্রমণ করার পর থেকে ফেসবুক ইউটিউবসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে এ ধরনের মন্তব্য আসতে শুরু করেছে।

আগে ভাবতাম বাংলাদেশের শতকরা দশ থেকে পনের ভাগ মানুষ হতাশাগ্রস্থ ধর্মান্ধ। কিন্তু এখন লক্ষ্য করলাম পুরোটাই উল্টো। বাংলাদেশের ৮০ থেকে ৮৫ ভাগ মানুষ প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জঙ্গিবাদের সাথে জড়িত।

এই সময়ের বাংলাদেশের বিজ্ঞানমনস্ক একজন লেখকের নাম জাফর ইকবাল। হুমায়ুন আহমেদ এর পরে জাফর ইকবালকে বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ লেখক হিসেবে ধরা হয়। এবারের বইমেলায় সবচেয়ে বেশি বই বিক্রি হয়েছে জাফর ইকবালের। ইউটিউব ফেসবুক সহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জাফর ইকবালের লক্ষ লক্ষ অনুসারী আছে। তাকে বাংলাদেশের তরুণ প্রজন্মের নির্দেশক হিসেবে ধরা হয়।

শুধু এইবারই প্রথম নয় আগেও কয়েকবার তার ওপরে হামলা করা হয়েছে। এই মানুষটি ছাত্রলীগের হাতেও লাঞ্ছিত হয়েছে কয়েকবার। নিজ মাতৃভূমিতে স্বাধীনভাবে হাঁটাচলা করার অধিকার থেকে বঞ্চিত এই মানুষটি।

বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ সন্তানরা প্রতি পদে পদে লাঞ্চিত। ১৯৭১ সালে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী অসংখ্য বুদ্ধিজীবীকে হত্যা করেছে। হামলার নেপথ্যে ছিল বাংলাদেশের ধর্মান্ধ মৌলবাদী অপশক্তি, তারপরও তারা থেমে নেই। ২০০৪ সালে হুমায়ূন আজাদ। এরপরে অভিজিৎ রায় সহ অসংখ্য ব্লগারকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। বর্তমানে দেশ থেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছে অসংখ্য লেখক ব্লগার।

জাফর ইকবালকে আক্রমণ করার মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে তিনি একটা বই লিখেছেন যে বইটার নাম ছিল ভুতের বাচ্চা সোলাইমান। এই কারণেই সেই ঈমানদার ভাইয়ের হৃদয়ে আঘাত লেগেছে।

ভূতের বাচ্চা সোলাইমান এই নামে বই লেখা অপরাধ। কারণ সুলাইমান আল্লাহর নবী, আল্লাহর ৯৯ টি নাম আছে। ইসলাম ধর্মের সকল ব্যক্তির নামের সাথে কোন না কোন বড় ইসলামী নেতার নাম জড়িত। আমাদের বাড়ির পাশের বাজারে এক পাগল থাকে, সব সময় রাস্তায় লেংটা লেংটা ঘুরে বেড়াতো, তার নাম ছিলো সুলাইমান। কিন্তু তাতে কি?

আসল সত্য হচ্ছে আমরা এক হতাশাগ্রস্থ জাতী। আমরা নিজেরাই জানি না আমরা কি? এই হতাশার মূল কারণ হচ্ছে ধর্মীয় শিক্ষা, গ্রামে গ্রামে ইসলামিক মাহফিল, রাস্তায় রাস্তায় দাওয়াত-তাবলীগ, মসজিদে মসজিদে ইসলাম প্রচারের জন্য আলোচনা। এবং কওমি মাদ্রাসার লক্ষ লক্ষ ছাত্র ছাত্রীর ধর্মীয় শিক্ষা। এই হতাশার কারণ হচ্ছে ধর্ম নিয়ে রাজনীতি, হেফাজতের একের পর এক দাবি মেনে নেওয়া।

ওয়াজ মাহফিল সহ ধর্মীয় শিক্ষা এবং ধর্মীয় রাজনীতি নিষিদ্ধ করা হোক।

Comments

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

সাহাবউদ্দিন মাহমুদ
সাহাবউদ্দিন মাহমুদ এর ছবি
Offline
Last seen: 3 weeks 3 দিন ago
Joined: মঙ্গলবার, আগস্ট 8, 2017 - 12:09পূর্বাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর