নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 3 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • দ্বিতীয়নাম
  • বেহুলার ভেলা
  • অাব্দুল ফাত্তাহ

নতুন যাত্রী

  • সুশান্ত কুমার
  • আলমামুন শাওন
  • সমুদ্র শাঁচি
  • অরুপ কুমার দেবনাথ
  • তাপস ভৌমিক
  • ইউসুফ শেখ
  • আনোয়ার আলী
  • সৌগত চর্বাক
  • সৌগত চার্বাক
  • মোঃ আব্দুল বারিক

আপনি এখানে

ধর্মের আবার কিসের আঘাত?


শিরোনাম - জাতির পিতার অবমাননায় ১৪ ও ধর্মীয় আঘাতে ১০ বছরের কারাদণ্ড! বাতিল করা হচ্ছে ৫৭ ধারা।

এখন প্রশ্ন হলো, ধর্মের কেন এত অনুভূতি? অদৃশ্য স্রষ্টা যার অস্তিত্ব এখন পর্যন্ত পৃথিবীর কোন মানুষ পায়নি, তাঁর এত অনুভূতি কিসের। সরকার কি ভোটের রাজনীতি করতে গিয়ে মানুষকে প্রকৃত জ্ঞানের আলো থেকে বঞ্চিত করছে না? বাংলাদেশের ১৭ কোটি মানুষকে অন্ধকারে রাখার জন্য আর কি কি পরিকল্পনা করার বাকি আছে ।

আমাদের রাষ্ট্র ক্ষমতায় যারা বসে আছে, তাদের কি কখনো এটা মাথায় আসেনি। দুই হাজার, আড়াই হাজার, বছর আগের ধর্মীয় অন্ধবিশ্বাসকে এখন পর্যন্ত হৃদয়ের গভীরে লালন করার প্রয়োজনীয়তা কতটুকু?

সরকারকে হতে হবে মানবিক, সরকার সবসময় সত্যের পক্ষে থাকবে। সরকার মানুষকে মুক্তির পথ দেখাবে। সরকার দেশ থেকে দূর করবে অন্ধবিশ্বাস। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য। আমরা এমনই এক হতভাগা দেশের হতভাগা সন্তান। যেখানে মিথ্যেকে জয় করার জন্যে প্রতিনিয়ত সত্যকে চাপাতি দিয়ে আঘাত করা হচ্ছে।

আমরা এমনই এক হতভাগা দেশের সন্তান, যেখানে সন্ত্রাসী নিরাপদ, যেখানে চোরাকারবারি নিরাপদ, যেখানে দুর্নীতিবাজ নিরাপদ, যেখানে ধর্ষক নিরাপদ।

আমরা এমন এক হতভাগা দেশের সন্তান। যেখানে লেখকরা অনিরাপদ, যেখানে মানবাধিকার কর্মীরা অনিরাপদ, যেখানে প্রগতিশীল নাস্তিকরা অনিরাপদ। যেখানে মুসলিম ছাড়া ভিন্নধর্মাবলম্বী মানুষরা অনিরাপদ।

আমরা এমনই এক হতভাগা দেশের সন্তান। যে দেশের পাঠ্যবইয়ে অন্ধকার যুগের কথা শেখানো হয়। যে দেশের পাঠ্যবইয়ে কাল্পনিক একজন স্রষ্টার কথা শেখানো হয়। যে দেশের পাঠ্যবইয়ে কোমলমতি শিশুদের ভুলে ভরা হাজার গল্প শিখানো হয়।

আমরা এমনই এক হতভাগা দেশের সন্তান। যে দেশের পাঠ্যবই থেকে হুমায়ুন আজাদকে বাদ দেওয়া হয়। যে দেশের পাঠ্যবই থেকে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে বাদ দেওয়া হয়। যে দেশের পাঠ্যবই থেকে লালনকে বাদ দেওয়া হয়।

আমরা এমনই এক হতভাগা দেশের সন্তান। যে দেশের মসজিদে মসজিদে প্রতিনিয়ত মানুষকে হত্যা করার জন্য উস্কে দেওয়া হয়।

যে দেশের প্রত্যেকটা জায়গায় মাহফিলে মোল্লারা সাধারণ মুসলমানদের উস্কে দিচ্ছে, মানুষ হত্যা করার জন্য। যে দেশে প্রকাশ্যে হিন্দুদের বাড়িঘরে আগুন দেওয়া হয়। যে দেশে প্রকাশ্যে মন্দিরে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়। যে দেশে প্রকাশ্যে বিশ্বজিৎকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। যে দেশে প্রকাশ্যে একের পর এক ব্লগারকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। যে দেশে ছয় বছরের শিশু ধর্ষিত হয়‌।

আমরা এমনই এক হতভাগা দেশের সন্তান। যে দেশে সত্য বলার জন্য জেলখানায় পঁচে মরতে হয়। যে দেশে সত্য বলার জন্য দেশ থেকে বিতাড়িত হতে হয়। যে দেশে সত্য বলার জন্য ঘর থেকে বের হওয়া যায় না। যে দেশে সত্য বলার জন্য গাড়িতে হামলা করা হয়। যে দেশে সত্য বলার জন্য বাড়িতে হামলা করা হয়।

বাংলাদেশে অতীতের সব সরকারই ভোটের রাজনীতিতে ধর্মকে মিলিয়েছে। কিন্তু আওয়ামীলীগ সরকারকে এক কঠিন সত্য ভুলে গেল চলবেনা। ভোটের জন্য আর ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য, যতই ধর্ম নিয়ে ব্যবসা করবে, কিন্তু কোন লাভ হবে না। ধর্মীয় মোল্লারা কখনোই আওয়ামীলীগ সরকারকে হৃদয় থেকে ভালোবাসবে না। সময়ে ছুড়ে ফেলে দিবে আওয়ামীলীগ সরকারকে। আর নতুন কোন দলকে নিয়ে তখন লাফালাফি করবে।

তবে একটা বিষয় খুব আগ্রহের সাথে খেয়াল করলাম। নতুন আইনে করা, ধর্মীয় অবমাননার জন্য ১০ বছরের সাজা। কিন্তু জাতির পিতাকে অবমাননা করলে ১৪ বছরের সাজা। তার মানে কি দাঁড়ালো? স্রষ্টার থেকেও বাংলাদেশে জাতির পিতা গুরুত্বপূর্ণ। হ্যাঁ, এইটা ভালো উদ্যোগ। চেষ্টা করলে নতুন একটা ধর্মের জন্ম দেওয়া যাবে।

তবে একটা বিষয় খুব আগ্রহের সাথে খেয়াল করলাম। সরকার কেন ধর্ম নিয়ে এই খেলা খেলতেছে। তার একটি মাত্র কারণ, আর তা হলো রাষ্টীয় ক্ষমতায় বসে থাকা। কিন্তু আমাদেরকে অতীত ভুলে গেলে চলবে না। জোর করে এই দেশে কেউ বেশিদিন ক্ষমতায়ন থাকতে পারেনি।

বন্দুকের নলে সবার আগে ক্ষমতায় এসেছিল জিয়াউর রহমান। কিন্তু বেশিদিন থাকতে পারেনি। বন্দুকের বুলেটি তাকে একদিন চিরতরে নিশ্চিহ্ন করে দিয়েছে।

তারপর জোর করে ক্ষমতায় এসেছে এরশাদ, কিন্তু সেই এরশাদ আজ কোথায়? আজ বাংলার মানুষ এরশাদকে নিয়ে হাসি তামাশা করে। এই এরশাদ হাজারো চেষ্টা করলে আর বাংলার ক্ষমতায় আসতে পারবে না। এরশাদকে সিঁড়ি হিসেবে ব্যবহার করে একের পর এক ক্ষমতায় আসবে অন্যান্য দলগুলো।

তাই ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করা বন্ধ করুন। মানুষকে মুক্তির আলোতে আসার সুযোগ দিন। আর না হয় ইতিহাসের কাছে আপনারা অপরাধী হয়ে থাকবেন।

ধর্মীয় রাজনীতি নিপাত যাক, মু্ক্তচিন্তা মুক্তি পাক।

Comments

পার্থিব এর ছবি
 

নতুন আইনে করা, ধর্মীয় অবমাননার জন্য ১০ বছরের সাজা।

চটি রচনা আর গালি-গালাজের জন্য ১০ বছর সাজা আসলে একটা মহা শাস্তি। দু-চার থাপ্পর দিয়ে ইউরোপের প্লেনে তুলে দেয়াটাই যথেষ্ট।

 

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

সাহাবউদ্দিন মাহমুদ
সাহাবউদ্দিন মাহমুদ এর ছবি
Offline
Last seen: 3 weeks 3 দিন ago
Joined: মঙ্গলবার, আগস্ট 8, 2017 - 12:09পূর্বাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর