নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 5 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • নুর নবী দুলাল
  • মোঃ রাব্বি সাহি...
  • ড. লজিক্যাল বাঙালি
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী
  • কিন্তু

নতুন যাত্রী

  • আরিফ হাসান
  • সত্যন্মোচক
  • আহসান হাবীব তছলিম
  • মাহমুদুল হাসান সৌরভ
  • অনিরুদ্ধ আলম
  • মন্জুরুল
  • ইমরানkhan
  • মোঃ মনিরুজ্জামান
  • আশরাফ আল মিনার
  • সাইয়েদ৯৫১

আপনি এখানে

একজন ট্রাম্পের ঘোষণা, জেরুজালেম এবং ইহুদি-ফিলিস্তিন ইস্যু :


জেরুজালেম শহরটি ১৯৬৭ সাল থেকে ইসরাইলের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ইহুদিরা বিশ্বাসের গভীরে রয়েছে :এই জেরুজালেমেই তাদের ঈশ্বর ‘ইয়াওয়ে’ (হিব্রু ভাষায় ঈশ্বরকে ইয়াওয়ে বলে) বাস করে। ফিলিস্তিনি আরবরা জেরুজালেমের উপর তাদের অধিকার ছাড়তে নারাজ। পেছনে আরবের অধিকাংশ দেশ এবং বিশ্বের মুসলিম উম্মাহ। জেরুজালেমই ছিলো তাদের প্রথম কিবলা যে দিকে মুখ করে তারা নামায পড়তো। তাই জেরুজালেমের উপর থেকে দাবি ছাড়তে তারা নারাজ। 'জেরুজালেম হলো ইসরাইলের রাজধানী'- ট্রাম্পের এই ঘোষণার পর ইসরাইল প্রবল সোল্লাসে স্বাগত জানায়, আর আরবরা এবং বিশ্বব্যাপী মুসলিম উম্মাহ ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ক্রোধে ও ক্ষোভে ফেটে পরে। ১৯৪৭ সালের ২৯শে নভেম্বর জাতিসংঘ ফিলিস্তিনি ভূখন্ডকে দ্বিখন্ডিত করে ইসরাইল ও ফিলিস্তিনি রাষ্ট্র গঠনের প্রস্তাব গ্রহণ করে। এই ঐতিহাসিক প্রস্তাবটি রাষ্ট্রসঙ্ঘের ১৮১ নং প্রস্তাব ।

জেরুজালেম ছিলো একসময়ে ইহুদিদের বাসভূমি। খৃস্টের জন্মের এক হাজার বছর আগে ইহুদি রাজা ডেভিড ও তাঁর পুত্র সালমান এখানেই স্থাপন করেছিলেন জিহোভার মন্দির। জিহোভা হলো ইহুদিদের ঈশ্বর, আল্লাহ মুসলমানদের । রোমান রাজপুত্র টাইটাস হিংস্র বাঘের মতো ঝাঁপিয়েছিল জেরুজালেমের ওপর। ইহুদিদের বিশ্বাসের প্রতীক জিহোভার মন্দিরটি ধূলায় মিশিয়ে দিয়েছিল রাষ্ট্রশক্তির দম্ভে। পাশবিকভাবে নিরীহ ইহুদিদের হত্যা করেছিল লাখে লাখে। বাকি ইহুদিরা প্রাণ বাঁচাতে দেশ ত্যাগ করে উদ্বাস্তু হয়ে ছড়িয়ে পরেছিল পৃথিবীর পথে পথে। ১৯৪৮ সালে ইসরাইলি রাষ্ট্র তৈরী হওয়ার আগে পর্যন্ত তারা উদ্বাস্তু হয়ে পৃথিবীর দেশে দেশে যাযাবরের মতো ছুটে বেড়িয়েছে। এরপর এসেছিলো মুসলমান আগ্রাসনের পালা ।৬৩৭ খৃস্টাব্দে ২য় খলিফা ওমর ফারুকের সেনাবাহিনী খৃস্টান সম্রাট সাফ্রোনিয়াসকে পরাস্ত করে জেরুজালেমের দখল নিয়েছিলো। তারপর খলিফা ওমরের নির্দেশে ইহুদি ও খৃস্টানদের পবিত্র তীর্থভূমি জেরুজালেমের মাটিতেই তৈরী করা হয় মুসলমানদের একটি উপাসনালয় যেটা আল-আকসা মসজিদ নামে খ্যাত। ইহুদি ও খৃস্টানদের পবিত্র তীর্থভূমিতে মুসলমানদের শাসন ও আধিপত্য বজায় ছিলো ১০৯৯ সাল পর্যন্ত। ১ম ক্রুসেডের সময় খৃস্টানরা জেরুজালেমকে মুসলমানদের হাত থেকে মুক্ত করে। ১১৮৭ খৃস্টাব্দেই সুলতান সালাহউদ্দিন আয়ুবী জেরুজালেম আবার দখল করে নিয়ে ক্রুসেডের বদলা নেয় এবং প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময়েও জেরুজালেম ছিলো উসমানিয়া খেলাফতের অধীনে, মুসলমানদের দখলে। টাইটাসের পরে ও হিটলারের আগে মুসলমানদের রোষানলে পরতে হয়েছিলো আরবে বসবাসকারী সকল ইহুদিদের। তাদের অপরাধ ছিলো তারা মোজেস (মুসা) ঈশ্বরের শেষ নবী/দূত এই বিশ্বাস থেকে টলে নি এবং মুহাম্মদকে ঈশ্বরের দূত বলে মানেনি।

জেরুজালেম ও ইহুদিদের ইতিহাস খুবই করুণ। জেরুজালেম কেবল খৃস্টান, পারসিক ও মুসলমানদের হাতেই লাঞ্ছিত, নিগৃহীত ও পদদলিত হয় নি ! আরো অনেক জাতি ও গোষ্ঠীই জেরুজালেমের উপর অত্যাচারের স্টীম রোলার চালিয়েছে !! জাতিসংঘ ফিলিস্তিন প্রশ্নে ১৯৪৭ সালে যে প্রস্তাবটি গ্রহণ করেছিলো সেটাকে ওআইসিভুক্ত দেশগুলি সমর্থন জানালে জেরুজালেম নিয়ে সব বিতর্ক এবং ইসরাইল ও আরবের মধ্যেকার দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের অবসান হয়ে যেতো। তাতে ইহুদিরা যেমন তাদের নিজেদের হারানো স্বদেশের খানিকটা ফিরে পেতো তেমনি ফিলিস্তিনি আরবদেরও তাদের প্রিয় জন্মভূমি থেকে উচ্ছেদ হয়ে উদ্বাস্তু হতে হতো না। UNSCOP (UN Special Committee on Palestine)। কমিটি দুটি প্রস্তাব দিয়েছিল-সংখ্যাগরিষ্ঠের প্রস্তাব ছিলো ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে দুটি পৃথক রাষ্ট্র গঠন করা এবং সংখ্যালঘিষ্ঠের মত ছিলো ফিলিস্তিনে একটি রাষ্ট্রের অধীনে ইহুদি ও আরবদের জন্যে পৃথক স্বাশাসিত অঞ্চল গঠন করা। কমিটি জেরুজালেম সম্পর্কে খুব সাবধানী প্রস্তাব দিয়ে বলেছিলো : 'জেরুজালেম থাকবে আন্তর্জাতিক সংস্থার নিয়ন্ত্রণে'। ইহুদিরা ১ম প্রস্তাবটিকে স্বাগত জানায়, কিন্তু আরবরা পুরো প্রস্তাবটাই প্রত্যাখান করে। ১৯৪৮ সালের ৩০শে নভেম্বর ইসরাইলের বিরুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পরেও মুসলিম জোট দেশগুলো কিচ্ছু করতে পারেনি এবং তারপর বারবার একইভাবে হাত কামড়েছে!

ধর্মান্ধ ইসলামী দেশগুলির ধর্মান্ধতা পরিত্যাগ করে ইতিহাস ও বাস্তবকে স্বীকার করে নেওয়াই একমাত্র এই জেরুজালেম বিতর্কের অবসান ঘটাতে পারে এবং তাতে সবথেকে লাভবান হবে ফিলিস্তিনিরা ।

Comments

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

রাজর্ষি ব্যনার্জী
রাজর্ষি ব্যনার্জী এর ছবি
Online
Last seen: 43 min 9 sec ago
Joined: সোমবার, অক্টোবর 17, 2016 - 1:03অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর