নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 5 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • শাম্মী হক
  • সলিম সাহা
  • নুর নবী দুলাল
  • মারুফুর রহমান খান
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী

নতুন যাত্রী

  • চয়ন অর্কিড
  • ফজলে রাব্বী খান
  • হূমায়ুন কবির
  • রকিব খান
  • সজল আল সানভী
  • শহীদ আহমেদ
  • মো ইকরামুজ্জামান
  • মিজান
  • সঞ্জয় চক্রবর্তী
  • ডাঃ নেইল আকাশ

আপনি এখানে

ইসলাম তুমি কেন এতো সুন্দর


সম্প্রতি একটি পোস্টের মাধ্যমে এক ৭০ বছর বয়স্ক ফরাসী বৃদ্ধ নারীর সম্পর্কে জানলাম যিনি এক মুমিন বান্দার রান্না করা মাংস খেয়ে এবং “মোহাম্মদের চরিত্র ফুলের মত পবিত্র- জাল হাদিস” শুনে অন্ধকারের পথে যাত্রা শুরু করেছেন| কাকতালীয় ভাবে সেই মুমিন বান্দা এবং ফরাসী মহিলা আমার পড়শী | তাই ব্যাপারটা জানার জন্য এক বোতল রেড ওয়াইন হাতে নিয়ে মহিলার দরজায় কড়া নাড়লাম | ভদ্র মহিলা আমাকে ওয়াইন হাতে দেখে সাদরে ভিতরে নিয়ে বসালেন| মহিলাকে তার নতুন জীবনের জন্য অভিনন্দন জানালাম তারপর কিভাবে তিনি এই মহান আলোর দিশা পেলেন জানতে চাইলাম | আমাদের কথোপোকথন ছিল অনেকটা এরকম –
- শুনলাম তুমি ইসলাম গ্রহনের চিন্তা ভাবনা করছো?
- একদম ঠিক শুনেছ| আমি মোহাম্মদের চরিত্রে মুগ্ধ| আসলে এমন মানুষ পৃথিবীতে অনেক কম জন্মেছে |
তারপর মহিলা কিভাবে এক মুমিন বান্দা মোহাম্মদের শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে গরুর মাংস রান্না করে তার জন্য নিয়ে এসেছিল সেটা বর্ণনা করলেন|
- ঠিকই বলেছ| ওনার মত চরিত্রবান মানুষ খুব কমই জন্মেছেন|
- আসলেই তাই |তুমি কি জানো এক ইহুদি বুড়ি মোহাম্মদের চলার পথে কাটা ফেলে রাখতো ....
- হ্যা হ্যা জানি কিন্তু তার মহানুভবতার আরো অনেক নজির আছে, জানতে চাইলে বলতে পারি |
- অবশ্যই জানতে চাই |
- আচ্ছা, তাহলে বলছি | কিন্তু তার আগে একটা কথা বলে নেই | আমি যে দেশে জন্মেছি সেই দেশের মানুষের একটা বড় গুন হলো অতিথিপরায়নতা| এমন কি তুমি যদি কোনো ফকিরের বাড়িতে যাও, সেও তোমাকে তার সাধ্য মত আপ্পায়ন করবে | ঠিক তেমনি ভাবে কারো বাসায় কিছু রান্না হলে প্রায় প্রতিবেশীর সাথে তা শেয়ার করা হয় | এটা আমাদের সংকৃতির একটা অংশ, এখানে মরুভূমির রাখালের কথার কোনো প্রভাব নেই | এখন মোহাম্মদের প্রসঙ্গে আসছি |
- মোহাম্মদ নারীদের অনেক সম্মান দিয়েছেন| তিনি মায়ের পায়ের নিচে সন্তানের বেহেস্ত দেখিয়েছেন| দুর্দশায় আক্রান্ত নারীর কষ্ট তিনি কখনো সইতে পারতেন না| তাই যখনই এমন কোনো নারী খোঁজ তিনি পেতেন সাথে সাথে বিয়ে করে ফেলতেন | এভাবে তিনি ১৩/১৪ জনকে বিয়ে করেছিলেন| মোহাম্মদের স্ত্রী হতে পারার মত এত বড় মর্যাদা পৃথিবীর আর কোনো কিছুতে নেই | শুধু তাই নয় তিনি তার দাস দাসীদের ও মোটামুটি স্ত্রীর মর্যাদা দিয়েছিলেন এবং তাদের শারীরিক চাহিদা তিনি নিজে গায়ে গতরে খেতে মিটিয়ে দিতেন| তিনি তার পালক পুত্রের স্ত্রীকে বিয়ে করার জন্য, এতিমকে পালক নেওয়ার মত ফালতু একটি প্রথাকে হারাম করেছেন|
তিনি শিশুদের ও অনেক ভালবাসতেন| আগেই বলেছি, মোহাম্মদের স্ত্রী হওয়ার মত মর্যাদার আর কিছু হতে পারেনা, তাই তিনি এক ৬ বছরের শিশুকে বিয়ে করে ৯ বছর বয়সে সেই শিশুর সাথে সংসার শুরু করেছিলেন এবং সেই শিশুটির শারীরিক চাহিদাও তিনি নিয়মিত মেটাতেন | দেখুন, এত বড় একজন নেতা গোছের মানুষ, তার শত কাজকর্মের মাঝেও তিনি তার ১৩ স্ত্রী, দাসদাসী সবার মন সমান ভাবে রক্ষা করে চলতেন| নারীদের উপরে অত্যাচার তিনি কিছুতেই বরদাস্ত করতে পারতেন না, তাই তিনি স্ত্রী অবাধ্য হলে শুধু মাত্র টুথব্রাশ দিয়ে হালকা মারধর করার অনুমতি দিয়েছেন|
তিনি পশুপাখিও অত্যন্ত ভালোবসতেন| তাই মাঝে মাঝে গাধা, ঘোড়া ইত্যাদিকে তিনি নারীদের সমমর্যাদা দিয়েছেন| তিনি কখনই তার স্ত্রীদের ছাড়া থাকতে পারতেন না, এমনকি যুদ্ধে যাবার সময়ও লটারি করে তিনি তার ২/১ জন স্ত্রীকে সঙ্গে করে নিয়ে যেতেন|
তিনি নারীদের অনেক স্নেহের চোখে দেখতেন, তাই মাঝে মাঝেই তারা বুদ্ধিতে খাটো কিংবা ত্রূটিযুক্ত, একজন পুরুষের সমান দুইজন নারীর সাক্ষী ইত্যাদি বলে নারীদের মর্যাদা সবার কাছে ব্যাখ্যা করতেন| নারীরা লাজুক এবং যৌন চাহিদার কথা মুখ ফুটে বলতে পারেননা, কিন্তু মোহাম্মদ এই সমস্যারও সমাধান দিয়ে গেছেন| নারীদের তিনি শস্য ক্ষেত্রের সাথে তুলনা করেছেন এবং যখন খুশি তখন তাদেরকে যৌন কাজে আহবান করার কথা বলেছেন এমনকি সেই নারী যদি রান্নাবান্নার কাজের ব্যস্ত থাকে তারপরেও| কে জানে কখন কোন নারীর কি করতে ইচ্ছা হয়। আর নারীদেরও হুশিয়ারী দিয়েছেন এই বলে যে যদি কোনো স্বামী তার স্ত্রীকে বিছানায় ডাকে (সহবাসের উদ্দেশ্যে) আর স্ত্রী মানা করে যার ফলে সামী রাগ্বান্বিত অবস্থায় ঘুমাতে যান, তাহলে ফেরেস্তারা সেই স্ত্রীকে সকাল পর্যন্ত অভিশাপ দিতে থাকে | স্বামী স্ত্রী দুইজনের যৌন ক্ষুধা মেটানোর কত সহজ এবং সুন্দর পন্থা তিনি তার অনুসারীদের বলে গেছেন|
তিনি তার অনুসারীদের কাফেলা আক্রমন করে কষ্টার্জিত মালামাল চুরি হওয়াকে অত্যন্ত ঘৃণার চোখে দেখতেন| তাই তিনি চোরের হাত কেটে ফেলার নির্দেশ দিয়েছেন| শুধু তাইনা, তিনি কোনো রূপ চুক্তি ভঙ্গ করাকে অত্যন্ত কঠোরতার সাথে দমন করতেন, এর উদাহরণ হিসাবে তিনি বানু কুরাইজা নামক একটি গোত্রের প্রায় ৭০০/৮০০ সাবালককে (যাদের বয়সন্ধি হয়েছে) লাইন ধরে হত্যা করেছিলেন| কোনো নাবালক যাতে এই শাস্তি না পায় সে জন্য সবার পাজামা খুলে “যৌনকেশ আছে ” কিনা নিশ্চিত হয়ে তারপর হত্যার নির্দেশ দিয়েছিলেন| শুধু তাই নয়, বানু কুরাইজা গোত্রের এক নেতাকে হত্যার পরে সেই নেতার স্ত্রীর কষ্ট তিনি সইতে পারেননি, তাই তিনি সেই নারীকে তার “স্ত্রীর” তথাপি একজন নারীর জন্য বরাদ্দকৃত সর্বোচ্চ মর্যাদা দিয়েছিলেন|
এই পর্যায়ে এসে দেখলাম মহিলার চোখ ছলছল করছে| এমন একজন মানুষের মহানুভবতা তার হৃদয়ের গভীরে স্পর্শ করেছে |ওয়াইনের বোতল ও প্রায় শেষ করে ফেলেছেন, কাপাকাপা গলায় বললেন
- আসলেই, এমন একজন মহান ব্যক্তিত্বের কথা আমি এতদিন কেন জানলাম না? হায় আমার জীবনটাই বৃথা|
- তোমার হতাশ হওয়ার কারণ নেই| Better late than never. আজ তাহলে উঠি, তোমার যদি এই বিষয়ে কিছু জানতে ইচ্ছা করে তাহলে নিসংকোচে জিগ্যেস করতে পারো| যে মুমিন বান্দা তোমাকে এই আলোর পথে নিয়ে এসেছে সে গতকাল ইসলাম প্রতিষ্টার জিহাদ করতে গিয়ে শহীদ হয়েছে, তার জন্য দোয়া করো|
মহিলা ভেজা চোখে আমাকে ধন্যবাদ দিলো | আবার এসো | শুভরাত্রি

নব্য আলোর দিশা প্রাপ্ত ফরাসী মহিলার সাথে কথপোকথনের দ্বিতীয় পর্ব:

দরজা খুলেই দেখি মাথায় ঘোমটা দিয়ে হাসি মুখে দাড়িয়ে আছেন আমার প্রতিবেশী ৭০ বছরের ফরাসী বুড়ি| হাতে কেক টেক জাতীয় কিছু একটা হবে | ঘরে এনে বসাতেই সে হাতের খাবার জিনিসটি বের করে দিল| আপেল পাই | আমার খুবই অপছন্দের জিনিস|যাই হোক ধন্যবাদ দিয়ে কথপোকথন শুরু করলাম –
- বাহ তুমি দেখছি অলরেডি ইসলাম পালন শুরু করেছ! আমার জন্য আপেল পাই নিয়ে আসলে. মাথায় দেখছি ঘোমটাও দিয়েছ, নাইস|
- থাঙ্ক ইউ | চেস্টা করে যাচ্ছি| ইসলামের পথে চলার| ইসলামে নারীদের যে সম্মান দেওয়া হয়েছে তা এক কোথায় অসাধারণ| এই যেমন ইসলামে নারীদের পুরুষের কুনজর থেকে সুরক্ষা করার জন্য পর্দা প্রথার ব্যবস্থা করা হয়েছে |
- হ্যা ঠিক বলেছ | আসলে মুসলিম পুরুষরা সাধারনত জ্ঞান বিজ্ঞানের চর্চা খুব একটা করে না| তাই তাদের হাতে থাকে অঢেল সময় | যেহেতু হাতে কোনো কাজ নেই তাই বসে বসে নারীদের দিকে কুনজর দেওয়া ছাড়া তাদের আর কিছু করার থাকেনা, তাই অবশ্যি এটি একটি ভালো প্রথা|
- তারপর ধরো, ইসলামে নারীদের দেনমোহর নেওয়ার অধিকার দিয়েছে, যা অন্য কোনো ধর্মে নেই| কি ফেন্টাস্তিক তাই না ?
- হ্যা| আসলে ব্যাপারটির গভীরতা আরো অনেক বেশি| একটা উদাহরণ দিয়ে বুঝাই|ধরো আমি যদি কোনো “নিশি কন্যার” কাছে যাই তাহলে আমাকে তার সাথে সময় কাটানোর জন্য কিছু মূল্য পরিশোধ করতে হবে, ঠিক? সুতরাং টাকার বিনিময়ে আমি কিছু সময়ের জন্য তার যোনি উপভোগ করার সুযোগ পাবো| ইসলামে মোহরানার ব্যাপারটিও এরকম| মোহাম্মদের মতে “তুমি যখন মোহরানা দিবে, তখন তার যোনি তোমার জন্য হালাল হয়ে যাবে | মোহরানা আসলে আজীবন স্ত্রীর যোনি ব্যবহারের জন্য এককালীন মূল্য পরিশোধ| এই প্রথাটির মাধম্যে ভাগ্যের পরিহাসে নিশি কন্যায় রুপান্তরিত হওয়া নারীদের স্ত্রীদের সমপরিমাণ মর্যাদা দেওয়া হয়েছে|
- আচ্ছা বেহেস্তে নারীদের পুরস্কার সম্পর্কে কিছু বল শুনি|
- মায়ের পের নিচে সন্তানের বেহেস্ত|
- ততো জানি| কিন্তু সেটা তো আমার সন্তানের জন্য ভালো খবর, আমি জানতে চাচ্ছি আমি নারী হিসাবে কি পাবো?
কি বলবো ভেবে পেলাম না| একটু আসছি বলে স্মার্টফোন হাতে নিয়ে টয়লেটে ঢুকলাম | ঝড়ের বেগে গুগলে সার্চ দিলাম. নাহ কিছুইতো পাচ্ছিনা| “নারীরা তাদের স্বামীর ৭২ হুরের সর্দার হবার মর্যাদা পাবে” এটা কি বলবো? কিন্তু সে যদি এটাকে বেশ্যাদের সর্দার ভেবে বসে? নাহ এটা বলা যাবেনা | তেনা পেচাতে হবে কিছুক্ষণ | বাথরুম থেকে বের হলাম –
- তারপর বলো, বেহেস্তে নারীরা কি সুবিধা পাবে|
- এমমম, (কথা ঘুরানো এখন জরুরি) তুমি কি জানো ইসলাম এখন fastest growing religion ?
- তা শুনেছি, কিন্তু সেটা তো আমার প্রশ্নের উত্তর হলো না|
- নবিজি বলেছেন যে ব্যক্তি ২ মেয়ের লালন পালন করবে সে বেহেস্তে যাবে|
- কিন্তু সেটাতো মেয়ে গুলোর বাবা যাবে, মেয়ে মানে নারীদের কি প্রাপ্তি|
- আসলে তুমি এখানেও ব্যাপারটির গভীরতা বুঝতে পারনি | ইসলামে পুরুষরা ৪ বিয়ে করতে পারে, তাই বিয়ে করার জন্য এত মেয়েলোকের আমদানি পৃথিবীতে কিভাবে হবে? তাই নবিজি মেয়ে শিশুকে যত্ন সহকারে লালন পালন করতে বলেছেন| আচ্ছা আমি একটু বের হব, আপেল পাই-য়ের জন্য ধন্যবাদ |
- নো প্রবলেম| আবার দেখা হবে | তোমার সময়ের জন্য ধন্যবাদ|
- আল্লাহ হাফেজ |

Comments

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

নীরব নাস্তিক
নীরব নাস্তিক এর ছবি
Offline
Last seen: 5 months 1 week ago
Joined: বুধবার, জুন 1, 2016 - 5:19অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর