নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 7 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • গোলাম রব্বানী
  • বিকাশ দাস বাপ্পী
  • অনন্য আজাদ
  • নুর নবী দুলাল
  • আব্দুল্লাহ্ আল আসিফ
  • মোমিনুর রহমান মিন্টু
  • মিশু মিলন

নতুন যাত্রী

  • ফারজানা কাজী
  • আমি ফ্রিল্যান্স...
  • সোহেল বাপ্পি
  • হাসিন মাহতাব
  • কৃষ্ণ মহাম্মদ
  • মু.আরিফুল ইসলাম
  • রাজাবাবু
  • রক্স রাব্বি
  • আলমগীর আলম
  • সৌহার্দ্য দেওয়ান

আপনি এখানে

ভালোবেসে বাঁধা ঘরে এ কেমন বিচ্ছেদের সুর!


ঢাকা (উত্তর) সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিএনপির তথা বিশ-দলীয় জোটের প্রার্থী হিসেবে তাবিথ আওয়ালের দৌড়-ঝাঁপ শুরু হয়ে গেছে ইতিমধ্যে। ২০১৫ মেয়র নির্বাচনে আওয়ামীলীগ প্রার্থী আনিসুল হকের সাথে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে তাবিথ আওয়াল নিজের জনপ্রিয়তা প্রমাণ করতে পেরেছিলো। মাঝ পথে নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করার আগ পর্যন্ত তাবিথ আওয়াল সে বার তিন লক্ষ পঁচিশ হাজার ভোট পেয়েছিলো। যেখানে বিজয়ী আনিসুল হক পেয়েছে চার লক্ষ ষাট হাজার! সুতরাং এই উপ-নির্বাচনে তাবিথ আওয়ালের প্রার্থীতা মোটামুটি নিশ্চিত, ২০দলের শরীক দল হিসেবে তাবিথ আওয়াল জামায়াতের প্রার্থীও, কিন্তু জামায়াতের পক্ষ থেকে মোহাম্মদ সেলিম-উদ্দিন নামের একজনকে এই নির্বাচনে নিজেদের প্রার্থী হিসাবে ঘোষণা করেছে। এই সেলিম উদ্দিন শুধুমাত্র একজন প্রার্থীই নয়, বিএনপি-জামায়াতের ভালোবেসে পাতা সংসারে বিচ্ছেদ আর ভাঁঙনের প্রচ্ছন্ন প্রতিক।

এমনিতেই জামায়াত নামক কোন দলের অস্তিত্ব এখন আর আমাদের দেশের রাজনীতিতে নেই। অন্ধকার যুগের সতীদাহ প্রথা উচ্ছেদের মতো জামায়াতও এ দেশ থেকে উচ্ছেদ হয়েছে। শুধু কিছু প্রান্তিক জনগোষ্ঠির মানসিকতায় জামায়াত আছে, সেটাও যাবে। শীঘ্রই যাবে। কারণ নষ্টের বীজ সভ্যতার মস্তিষ্কে বেশি দিন টেকে না। রাজনীতিক দল হিসেবে নিবন্ধন বাতিল হওয়ায় জামায়াত কোন নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী দিতে পারবে না। এমনকি স্বতন্ত্র প্রার্থী হলেও দাঁড়িপাল্লা প্রতিক পাবে না। এই বিলুপ্ত দলের কোনো ব্যক্তি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে অংশ নিতে চাইলেও স্বতন্ত্র প্রার্থীর শর্তসমূহ পূরণ করেই প্রার্থী হতে পারবে। তবে নির্বাচন কমিশনের অনুমোদন লাগবে।

উপরোক্ত হিসেব নিকেশ অনুযায়ী জামায়াত কোনভাবেই প্রার্থীতা দেয়ার কথা নয়। তা সত্বেও এই প্রার্থী দেয়ার কারণ একটাই, সেটা হচ্ছে ভালোবাসার ঘরে বিচ্ছেদের ভাঁঙন। এককভাবে প্রার্থিতার ঘোষণা দিয়ে জামায়াত বিএনপিকে বার্তা দিতে চায় যে, তাদের ব্যাপারে বিএনপির সাম্প্রতিক উদাসিনতায় তারা মনক্ষুন্ন! আর আওয়ামীলীগ সরকারকে বুঝাতে চাইছে তারা বিএনপির সাথে জোটে আর নেই। জামায়াত হয়তো আশা করছে, এতে সরকারের তাদের ব্যাপারে কিছুটা নমনীয় দৃষ্টিভঙ্গি তৈরি হতে পারে।

জামায়াত দলটি বিএনপির পড়নের আগুন লাগা লুঙ্গির মতো। পড়ে থাকলেও বিপদ, খুলে পেললেও বিপদ। যুদ্ধাপরাধ ইস্যুতে দন্ডপ্রাপ্ত দল জামায়াতকে সাথে রাখায় বিএনপি এদেশের বড় একটি জনসমর্থন হারিয়েছে। রাজাকারদের বিচারের দাবীতে সারা দেশ যখন ফুঁসে উঠেছিলো বিএনপি তখন জামায়াতকে বগলদাবা করে দিব্যি রাজনীতি চালিয়ে গেছে। আজকের বিএনপি'র রাজনীতিক দেউলিয়াপনার জন্য সেদিনের ভুলটাই দায়ী। কিন্তু এতদাসত্বেও বিএনপি জামায়াতকে ছাড়তে পারছে না, কারণ মাঠের রাজনীতির জন্য আন্দোলন-সংগ্রামের বিকল্প নেই। সেই জায়গাতে বিএনপি বরারবই নালায়েক। এদিক থেকে জামায়াতকে আবার তাদের দরকারও। এখানেই জামায়াত বিএনপি পড়নের আগুন লাগা লুঙ্গি! খুলতে গেলে ইজ্জতের ভয়! পড়ে থাকলে পুড়ে যাওয়ার ভয়!

কিন্তু দিন শেষে বিএনপি'র ক্ষমতাটাই দরকার। আর দেশদ্রোহীর সাথে বাসর শয্যায় থেকে দেশের ক্ষমতায় আসতে পারবে না এটাও বিএনপি বুঝতে পেরেছে। তাই সাম্প্রতিক জামায়াতের ব্যাপারে ওরা মধ্যপন্থা অবলম্বন করেছে। খুব একটা আগ্রহ নেই! উদাসিন! অনেকটা ভালোবেসে ঘর বাঁধা কয়েক যুগের পুরানো দম্পতির মতো। আগেকার সেই প্রেম নেই! রোমাঞ্চ নেই! ঘর অপেক্ষা বাহিরের প্রতিই যেন বেশি টান!!

বিভাগ: 

Comments

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

রহমান বর্ণিল
রহমান বর্ণিল এর ছবি
Offline
Last seen: 5 দিন 9 ঘন্টা ago
Joined: রবিবার, অক্টোবর 22, 2017 - 9:43অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর