নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 5 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • শাম্মী হক
  • সলিম সাহা
  • নুর নবী দুলাল
  • মারুফুর রহমান খান
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী

নতুন যাত্রী

  • চয়ন অর্কিড
  • ফজলে রাব্বী খান
  • হূমায়ুন কবির
  • রকিব খান
  • সজল আল সানভী
  • শহীদ আহমেদ
  • মো ইকরামুজ্জামান
  • মিজান
  • সঞ্জয় চক্রবর্তী
  • ডাঃ নেইল আকাশ

আপনি এখানে

কিছু অহেতুক প্রলাপ


ধার্মিকদের দৃঢ় বিশ্বাস, ধর্মপুস্তকই পৃথিবীর সব জ্ঞানের উৎস! অর্থাৎ পৃথিবীর জ্ঞান-বিজ্ঞানের ভাণ্ডার হলো এসব ধর্মগ্রন্থ। এসব পুস্তক সর্বজ্ঞানের অধিকারী । কারণ এই মহাবিশ্বের সর্ব জ্ঞানীরা বাণী পাঠিয়েছে। তাদের জ্ঞান ভাণ্ডারে জ্ঞানের অভাব নাই ! কিন্তু সবথেকে মজার বিষয় তা হলো যাদের জন্য এতো আয়োজন তারাই এসব বই খুলে দেখে না। এসব বই পড়ে নাস্তিক নাছাড়ারা। এজন্য তারা জ্ঞান বিজ্ঞানের চুড়ায় অবস্থান করে। কিন্তু এমন কেন যারা মানেই না কোন কিছু তারা কিভাবে এতো কিছু করে আর যারা এতো মানে এতো জানে তাদের এই বেহাল দশা কেন? উত্তর তো জানা আছে সবার। কিন্তু কেউ মুখ খুলবে না । বলবেও না। কারণ ধর্মানুভূতি নামে জটিল একটা ব্যাপার আছে সকল ধার্মিকের মাঝে।উঁই পোকার পাখা গজালে আর আগুন দেখলে যেমন ঝাপ দিয়ে মরে ধর্মানুভুতি ঠিক তেমন । একবার অনুভূতি জাগলেই হয় তাদের আর আটকে রাখে কে। নিজের জীবনের মায়া ত্যাগ করে ধর্মের অনুভূতি রক্ষার্থে নেমে পড়ে। এতো অনুভূতি আসে কোথা থেকে?? আমার ঈশ্বর আমার বাবা মা আবার দেবতা মার্ক্স, হেগেল, লালন, লেনন, ডিলন, হোমার সহ আরো শতাধিকেরও বেশী । বলুন দেখি আমার অনুভূতিতে সুরসুরি দিতে পারেন কিনা! এরা কেউ আপনার ঈশ্বর ব দেবতাদের মতো এতো মহান এবং শক্তিশালী নয় । আপনার ঈশ্বর তো সর্বশক্তিমান মহান মহাজ্ঞনী। তিনি কি নিজের দেখভাল করতে পারেন না? আপনাদের দায়িত্ব নিতে হবে? নিলেন দায়িত্ব ভালো কথা কিন্তু আপনাদের মাঝেই তো বিশ্বাস নামক বস্তু নেই । যদি থেকে থাকে আপনাদের বিশ্বাস এতো ঠুনকো কেন? কেউ একজন কিছু বলল বা লিখল আর আপনাদের বিশ্বাসের বারোটা বেজে গেল। অনুভূতি নষ্ট হয়ে গেল। এই আপনাদের ঈশ্বর বিশ্বাস আর অনুভূতি? আপনাদের এই বিশ্বাসে থুতু দিতে ইচ্ছে করে । ইচ্ছে করে আপনাদের এই অন্ধ আর ভুয়া বিশ্বাস ঘুড়িয়ে দেই। কিন্তু পারি না । করতে দেওয়া হয় না। কারণ আমরা এখন স্বাধীন দেশের নাগরিক। স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি ক্ষমতায় । এরা সারাদিন স্বাধীনতা স্বাধীনতা বলে এতো চিল্লায় যে জিনিসটা আসলে কি ভুলতে বসেছি। আসলে স্বাধীনতা কি ? আমার তো উত্তর জানা নেই। আমি যেটা বুঝি সেটা হলো আমি আমার খুশিমত চলতে চাই বলতে চাই করতে চাই। আমার কাছে এটাই স্বাধীনতা। কিন্তু কই আমি তো আমার স্বাধীনতা পাই নি। আমি তো বলতে পারি না। চলতে পারি না এমনকি কিছু করতে গেলেও বাধা দেওয়া হয়। তাইলে এই মেকি স্বাধীনতা নিয়ে আমি কি করবো? মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জাতির জনকের কন্যা উন্নয়নের রূপকার সহ হাজার বিশেষণে ভূষিত। আপনার পিতা সহ আর যারা মুক্তিযুদ্ধ করেছিল তারা কি এই স্বাধীনতার জন্য লড়াই করেছে? এসবের জন্য জন্য ত্রিশ লক্ষাধিক মানুষ প্রাণ দিয়েছে? আপনি এর সঠিক উত্তর দিতে পারবেন না। কারণ আপনি ভোটের রাজনীতি করেন । আপনি অতীত ভুলে যান দ্রুত। আপনি হয়তো জানেন না যাদের জন্য আপনি এসব করছেন তারা কোনদিন ও আপনার পাশে ছিল না আর থাকবেও না। কাঠ মোল্লাদের ভোট কোন কালেই নৌকা মার্কায় যায় নি আর যাবেও না। আপনি এখানেও আবারো ব্যর্থ। আপনার ব্যর্থতার কথা বলতে গেলে শেষ করা যাবে না। তাই আর কথা বাড়াচ্ছি না। একটা কথা বলে শেষ করছি কোন ইলেকশন বা সিলেকশন নয় আমরা স্বাধীনতা চাই।

বিভাগ: 

Comments

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

মিথুন
মিথুন এর ছবি
Offline
Last seen: 3 months 1 week ago
Joined: বুধবার, অক্টোবর 7, 2015 - 8:46অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর