নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 6 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • মুফতি মাসুদ
  • সংশপ্তক শুভ
  • সাইয়িদ রফিকুল হক
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী
  • ড. লজিক্যাল বাঙালি
  • মোমিনুর রহমান মিন্টু

নতুন যাত্রী

  • আদি মানব
  • নগরবালক
  • মানিকুজ্জামান
  • একরামুল হক
  • আব্দুর রহমান ইমন
  • ইমরান হোসেন মনা
  • আবু উষা
  • জনৈক জুম্ম
  • ফরিদ আলম
  • নিহত নক্ষত্র

আপনি এখানে

প্রত্যাশা


আজ ”পবিত্র ঈদ-এ-মিলাদুন্নবী”। বেশিরভাগ মসজিদেই আজ সন্ধ্যার পর সুর করে মিলাদ পড়ানো হবে।
”তুমি যে নূরেরও নবী, নিখিলের ধ্যানেরও ছবি,
তুমি না এলে দুনিয়ায়, আঁধারে ডুবিত সবি।”

কথা আংশিক সত্যি। কারণ আরবের বুকে সত্যিই আঁধার ছিল, তবে অবশ্যই বাদবাকী বিশ্ব আঁধারে নিমজ্জিত ছিল না। যা হোক, আরবের প্রেক্ষাপট ধরেই দলবেঁধে সুর করে হেলেদুলে এভাবে প্রশংসা বাক্য পাঠ করা ধর্ম সম্মত কি-না সে ব্যাপারে বিভেদ আছে। কারণ, ধর্মমতে ”সকল প্রশংসা কেবল স্রষ্টার”। তবে এসব বিভেদ-টিভেদে কিছুই যায় আসে না। কারণ, মিলাদ মানেই আর্থিক লেনদেন। প্রতি মিলাদের জন্যে স্তুতিবাক্য পাঠ করা ব্যাক্তি আলাদাভাবে পারিশ্রমিক পান। কখনো কখনো ধরে নেয়া হয় যে, “মিলাদের এই ব্যক্তি নির্ভর স্তুতিবাক্য পাঠের মাধ্যমেই সকল বালা-মুছিবত দূর হয়ে যাবে।”

মিলাদ পড়ানো উপলক্ষে মসজিদ কমিটির সদস্যরা নিশ্চয়ই এরই মধ্যে চাঁদা তুলেছেন । তবুও আজকে বিশেষ আলোচনা শেষে, মোনাজাতের আগে আবারও টাকা চাওয়া হতে পারে সাধারণের কাছে। অনেক উন্নয়ন দরকার। কিছু ব্যতিক্রম উদাহরণ থাকতে পারে। উদাহরণ যাই হোক, আলোচনা এবং মিলাদ পর্ব শেষে তবারক (ডেজার্ট) নিশ্চয়ই মিলবে। তবে কথা হচ্ছে কীভাবে আপনি তবারক খাবেন?

খাওয়ার জন্যে বেশ কিছু সুন্নাত আছে। যেহেতু ”মহামানব” নির্দেশনা দিয়ে গেছেন, কাজেই সেভাবেই খেতে হবে।

১. প্রথমত আপনি যদি বাঁহাতি মানুষও হোন, তবুও আপনাকে ডানহাতেই খেতে হবে। কিন্তু কেন?

সহি মুসলিম: হাদীস নম্বর: ৫২৬৪
”জাবির বর্ণিত, আল্লাহর রসূল (স) বলেছেন, বাঁ হাতে খেয়ো না, বাঁ হাতে শয়তান খায়”

আমরা জানি যে, পৃথিবীতে প্রতি দশজনের মধ্যে একজন-বাঁ হাতি আছেন। বাংলাদেশের ক্রিকেট দলের দিকে তাকালেই আঁচ করতে পারবেন। স্কটল্যান্ডের ’ইউনিভার্সিটি অফ সেইন্ট অ্যানড্রুর’ ”হিউম্যান জেনিটিসিস্ট” সিলভিয়ার মতে মানুষের ’ডিএনএ’ সিকোয়েন্সে এমন কিছু জেনেটিক ফ্যাক্টর উপস্থিত আছে যার কারণে মানুষ বাঁহাতি হয়। কিন্তু মজার ব্যাপার হচ্ছে বাঁ-হাতি হওয়ার জন্যে শুধুমাত্র একটি জিনকে দায়ী করা এখনো সম্ভব হয় নি। গবেষণা থেমে নেই, গবেষণা চলছে।

মাতৃগর্ভের সন্তানের ব্রেইন ডেভালপমেন্টে ‘এস্ট্রোজেন’ হরমোনের ভূমিকা রয়েছে। অনাগত সন্তান তার মস্তিষ্কের কোন অংশ ব্যবহার করবে ভবিষ্যতের দৈনন্দিন জীবনে, তা মাতৃগর্ভেই ঠিক হয়ে যায়। কাজেই, সহজাত বৈশিষ্ট্য হিসেবে বাঁ-হাত অথবা ডান-হাতকে ব্যবহার করা মানুষের আপন ইচ্ছের ওপর নির্ভর করে না।

তবে এতটুকু নিশ্চিত হওয়া গেছে, ইচ্ছে করে বাঁ-হাতি হওয়া যায় না। যদি কেউ নিয়মিত অভ্যাস করে বাঁ-হাতি হওয়ার চেষ্টা করেও থাকেন, তবে বড় জোর প্রয়োজন চালানো যাবে, প্রকৃত বাঁ-হাতিদের মতো দক্ষ হওয়া সম্ভব হবে না। বাঁ-হাতি হওয়া প্রকৃতির এক নিয়তি। যদি বাবা-মা দুজনেই বাঁ-হাতি হয়ে থাকেন, তবে তাঁদের সন্তানের বাঁ-হাতি হওয়ার সম্ভবনা শতকরা ২৬ ভাগ।

তাহলে বাঁ-হাতি হওয়ার অসুবিধা কোথায়? না, বাঁহাতি হওয়ার কোন অসুবিধা নেই, কিন্তু যারা ডানহাতি তাদের জন্যে বিষয়টা খুবই বিব্রতকর, কখনো কখনো ভীতিকর। বাঁ-হাতি মানুষ তার মস্তিষ্কের ডানপাশটা ব্যবহার করেন, আর ডানহাতি মানুষ মস্তিষ্কের বাঁ-পাশ ব্যবহার করেন।
খেলার মাঠে, যুদ্ধের ময়দানে, অপ্রত্যাশিত দিক থেকে বাঁ-হাতি মানুষের আক্রমণে অতিষ্ঠ হয়ে তাদের প্রতি আপনার বিতৃষ্ণা জন্মাতেই পারে, তাই বলে বাঁ-হাতি মানুষদেরকে তো তিরস্কার করা যায় না!

২. যদি আজকের তবারকে জিলেপীর বদলে বিরানি দেয়া হয়, তাহলে খুশি হওয়ার কোন কারণ নেই। কারণ, বিরানি কিন্তু খেতে হবে তিন আঙুল দিয়ে।

সহি মুসলিম: হাদীস নম্বর: ৫২৯৭
”ইবনে কা’ব বিন মালিক বর্ণিত তাঁর বাবা তাঁকে বলেছেন যে, আল্লাহর রসূল (স) তিন আঙুল দিয়ে খেতেন এবং খাওয়া শেষে আঙুল চেটে মুছে নিতেন”

আসলে তিনি আঙুল দিয়ে খেজুর, কাবাব- এই জাতীয় বড় কিছু তোলা যায়, কিন্তু উপমহাদেশের ভাত কিভাবে তিন-আঙুলে উঠবে তা সত্যিই বোধগম্য নয়!

তর্ক-বিতর্ক আজ আর দীর্ঘ না করি। তার চেয়ে বরং শুভ হোক ”ঈদ-এ-মিলাদুন্নবীর অনুষ্ঠান/জমায়েত” এবং অবশ্যই শুভবুদ্ধি আসুক মানুষ হিসেবে অন্য যে কোন মানুষের প্রতি মানবিক গভীর-সম্প্রীতি।

বিভাগ: 

Comments

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

অনিন্দ্য বর্ষণ
অনিন্দ্য বর্ষণ এর ছবি
Offline
Last seen: 1 week 3 দিন ago
Joined: সোমবার, এপ্রিল 10, 2017 - 2:32পূর্বাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর