নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

There is currently 1 user online.

  • ড. লজিক্যাল বাঙালি

নতুন যাত্রী

  • আরিফ হাসান
  • সত্যন্মোচক
  • আহসান হাবীব তছলিম
  • মাহমুদুল হাসান সৌরভ
  • অনিরুদ্ধ আলম
  • মন্জুরুল
  • ইমরানkhan
  • মোঃ মনিরুজ্জামান
  • আশরাফ আল মিনার
  • সাইয়েদ৯৫১

আপনি এখানে

মিশরে মসজিদে ২৫০ সুফি হত্যা, সহিহ মুসলমান ও সহিহ ইহুদি ষড়যন্ত্র


মাত্রই গতকাল একদল জঙ্গি (বলাবাহুল্য আই এস) মিশরের একটা সুফি মসজিদের হামলা চালিয়ে ২৫০ এর মত সুফিকে হত্যা করেছে , যাদের মধ্যে বহু শিশুও ছিল , বাকী আরও কয়েকশ আহত হয়েছে। এখনই কথিত মডারেট মুসলমান সহ সকল পশ্চিমা মিডিয়া প্রচার করবে , যারা ইসলামের নামে সুফিদের হত্যা করেছে , তারা সহিহ মুসলমান নহে । ইসলাম কাউকে হত্যা করতে বলে না।বলাবাহুল্য হত্যাকারী জঙ্গিরা সবাই আই এস এর সদস্য আর তারা মিশরে একটা ইসলামী রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করে যাচ্ছে। যাহোক , এবার পুরো বিষয়টার কারন ও উদ্দেশ্য জানার চেষ্টা করা যাক।

ঘটনাটি ঘটে সিনাই অঞ্চলে যেখানে আই এস নামক খাটি সহিহ মুসলমানরা প্রানপন চেষ্টা করে যাচ্ছে একটা ইসলামী রাজ্য প্রতিষ্ঠার। এখনই অনেকে বলবে আই এস কোন খাটি সহিহ মুসলমান না। তাহলে বলতে হচ্ছে , যারা এসব বলবে , তারাই আসলে মুসলমান না বরং মুনাফিক। কারন তারা নিজেদের মনগড়া কথাবার্তাকে ইসলামের নামে চালানোর অপচেষ্টা করে যাচ্ছে। আই এস খাটি মুসলমান কি না , সেটা বুঝতে গেলে নিচের কয়েকটা আয়াত ও হাদিস পড়লেই যথেষ্ট হবে -
-----------------------------------------------------------------
সুরা তাওবা - ৯: ৫: অতঃপর নিষিদ্ধ মাস অতিবাহিত হলে মুশরিকদের হত্যা কর যেখানে তাদের পাও, তাদের বন্দী কর এবং অবরোধ কর। আর প্রত্যেক ঘাঁটিতে তাদের সন্ধানে ওঁৎ পেতে বসে থাক। কিন্তু যদি তারা তওবা করে, নামায কায়েম করে, যাকাত আদায় করে, তবে তাদের পথ ছেড়ে দাও। নিশ্চয় আল্লাহ অতি ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু।
সুরা তাওবা -৯:২৯: তোমরা যুদ্ধ কর আহলে-কিতাবের ঐ লোকদের সাথে, যারা আল্লাহ ও রোজ হাশরে ঈমান রাখে না, আল্লাহ ও তাঁর রসূল যা হারাম করে দিয়েছেন তা হারাম করে না এবং গ্রহণ করে না সত্য ধর্ম, যতক্ষণ না করজোড়ে তারা জিযিয়া প্রদান করে।
-----------------------------------------
এখনই আবার কিছু মডারেট মুসলমান নামধারী মুনাফিক এসে বলবে উক্ত আয়াতের প্রেক্ষাপট , তাফসির ইত্যাদি দেখতে হবে , তাহলে বোঝা যাবে উক্ত আয়াতের প্রকৃত অর্থ। তাদের জন্যে খোদ মুহাম্মদ নিজে উক্ত আয়াতের কি ব্যখ্যা করে গেছিল , সেসব সহিহ হাদিস থেকে দেখা যাক ----
-------------------------------------------------------------------
কিতাবুল ঈমান অধ্যায় ::সহিহ মুসলিম :: খন্ড ১ :: হাদিস ৩১
আহমাদ ইবন আবদ আয-যাবিব (র)………আবু হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণনা করেন যে, রাসুলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন, আল্লাহ ব্যতীত কোন ইলাহ নেই,-এ কথার সাক্ষ্য না দেওয়া পর্যন্ত এবং আমার প্রতি ও আমি যা নিয়ে এসেছি তার প্রতি ঈমান না আনা পর্যন্ত লোকদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার জন্য আমি আদিষ্ট হয়েছি । এগুলো মেনে নিলে তারা তাদের জানমালের নিরাপত্তা লাভ করবে, তবে শরীআতসম্মত কারণ ছাড়া ।আর তাদের হিনাব-নিকাশ আল্লাহর কাছে ।
কিতাবুল ঈমান অধ্যায় ::সহিহ মুসলিম :: খন্ড ১ :: হাদিস ৩৩
আবু গাসসান-আল মিসমাঈ মালিক ইবন আবদুল ওয়াহিদ (র)……আবদুল্লাহ ইবন উমর (রাঃ) থেকে বর্ণনা করেন যে,রাসুলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন, লোকদের সাথে যুদ্ধ করার জন্য আমি আদিষ্ট হয়েছি, যতক্ষন না তারা সাক্ষ্য দেয় যে, আল্লাহ ব্যতীত কোন ইলাহ নেই এবং মুহাম্মাদ আল্লাহর রাসুল এবং নামায কায়েম করে, যাকাত দেয় । যদি এগুলো করে তাহলে আমা থেকে তারা জানমালের নিরাপত্তা লাভ করবে, তবে শরীআতসম্মত কারন ছাড়া । আর তাদের হিসাব-নিকাশ আল্লাহর কাছে ।
-----------------------------------------------------------------
এ তো গেল যারা কাফের মুশরেক ইত্যাদির বিরুদ্ধে চিরকালিন যুদ্ধ ঘোষনার কথা ও তাদেরকে হত্যা করার কথা। সুফি মুসলমানদের ব্যাপারে তো কিছু বলে নাই। আই এস সিরিয়া ও ইরাকে মূলত: এ কারনেই খৃষ্টান , ইয়াজিদি ইত্যাদিরকে হত্যা করেছিল , তবে যারা ইসলাম গ্রহন করেছিল , তাদেরকে আর হত্যা করে নাই। সুতরাং এর থেকেই বোঝা যায় , আই এস প্রকৃত মুসলমান নাকি ভুয়া মুসলমান নাকি ইহুদিদের এজেন্ট ? এখন দেখা যাক , সুফি মুসলমানরা প্রকৃত মুসলমান কি না। প্রথমেই জানা যাক , সুফিদের ধর্মীয় বিশ্বাসের কথা ---

কোরান ও হাদিস থেকে জানা যায় , আল্লাহ সাত আসমানের ওপর বসে আছে। তার সাথে কোন বান্দার সরাসরি সংযোগ অসম্ভব। সুফিরা বলে আরাধনার মাধ্যমে আল্লাহর সাথে বসবাস করা যায় আর আরাধনার চুড়ান্তে খোদ আল্লাহর সাথে মিশে যাওয়া যায়। যা কোরান হাদিস মোতাবেক কঠিন শিরক, বিদাত। হাদিসে বলা আছে , গান বাজনা হারাম , অথচ সুফিরা মূলত: গান বাজনার মাধ্যমে তাদের আরাধনা করে । তার মানে এক্ষেত্রেও সুফিরা হারামকে হারাম গণ্য করে না। তাছাড়া সুফিরা নিয়মিত নামাজ পড়াকে ফরজ মনে করে না , তারা কোরবানীর বিরোধী। সব চাইতে বড় কথা ইসলামের মূল বিষয় জিহাদের ঘোরতর বিরোধী এই সুফিরা। এরকম বহু বিষয় আছে , যার সাথে মুল ধারার ইসলামের বহু পার্থক্য। সুতরাং দেখা যাচ্ছে , নামে মুসলমান হলেও সুফিরা আসলে কোরান হাদিস বহির্ভুত বিষয়কে ইসলামের নামে চালানোর চেষ্টা করে যাচ্ছে এবং এটাকেই বলে মুনাফিকি। মুনাফিকদের সাথে কিরুপ আচরন করতে হবে , সেটা বলা আছে , কোরানে , যেমন -
--------------------------------------------------------------
সুরা তাওবা -৯:৭৩: হে নবী, কাফের ও মুনাফিকদেরকে প্রচন্ডভাবে আঘাত করুন। তাদের ঠিকানা হল দোযখ এবং তাহল নিকৃষ্ট ঠিকানা।

জিহাদ অধ্যায় ::সহিহ বুখারী :: খন্ড ৪ :: অধ্যায় ৫২ :: হাদিস ২২০
ইয়াহ্ইয়া ইব্ন বুকাইর (র)...............আবূ হুরায়রা (রা) থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ্ (সাঃ) বলেছেন, অল্প শব্দে ব্যাপক অর্থবোধক বাক্য বলার শক্তি সহ আমি প্রেরিত হয়েছি এবং শত্রুর মনে ভীতির সঞ্চারের মাধ্যমে আমাকে সাহায্য করা হয়েছে।
---------------------------------------------------------------
সুতরাং কোরান ও হাদিসের সুস্পষ্ট বিধান অনুযায়ী খাটি সহিহ মুমিন আই এস রা মসজিদে জমায়েত সুফি নামক মুনাফিকদের ওপর প্রচন্ড আঘাত করেছে এবং তাদেরকে দুনিয়া থেকে নিশ্চিহ্ন করার চেষটা করেছে। এটা কিভাবে ইসলাম বিরোধী হবে , সেটা বোধগম্য হচ্ছে না। কোন বিধান মতে তথাকথিত মডারেট মুসলমানরা একে ইসলাম বিরোধী বলে সেটা তারাই ভাল জানে। তবে তারা নিজেরাও যে মুনাফিক সেটা অত্যন্ত পরিস্কার , কারন তারা নিজেরাই কোরান ও হাদিসের বিধানকে পাশ কাটিয়ে নিজেদের মনগড়া ধ্যান ধারনাকে ইসলামের নামে চালাতে চাচ্ছে।

সুতরাং আই এস নামক খাটি সহিহ মুসলমানরা ইসলাম প্রতিষ্ঠার জন্যে মুনাফিক সুফিদেরকে ইসলামের দেখান পথেই হত্যা করেছে। আর এখনই কথিত মডারেট মুসলমান তথা মুনাফিক বা অসহিহ মুসলমানরা এসে তোতাপাখির মত বলতে থাকবে , আই এস রা মুসলমান না , তাদের কাজের সাথে ইসলামের কোন সম্পর্ক নেই , অথবা ইহা একটা সহিহ ইহুদি ষড়যন্ত্র । ভাবখানা জীবনে কোনদিন কোরান হাদিস স্পর্শ না করেই তারা দাবী করবে , তাদের চাইতে ইসলাম জানা মানুষ দুনিয়াতে আর দ্বিতীয়টা নেই।

এইসব কথিত মডারেট মুসলমানদের ওপর যেদিন সহিহ মুমিনরা গজব নাজিল করবে , বা তাদের কয়েকজনের কল্লা কাটবে , তখনই তারা উপলব্ধি করবে , যে কারা সহিহ মুসলমান আর কারা মুনাফিক এবং একই সাথে উপলব্ধি করবে , সহিহ ইসলাম কি জিনিস , কাহাকে বলে , কত প্রকার ও কি কি ।

Comments

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

কাঠমোল্লা
কাঠমোল্লা এর ছবি
Offline
Last seen: 6 দিন 19 ঘন্টা ago
Joined: শুক্রবার, এপ্রিল 8, 2016 - 4:48অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর