নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • রাজর্ষি ব্যনার্জী
  • বিকাশ দাস বাপ্পী
  • রসিক বাঙাল
  • এলিজা আকবর

নতুন যাত্রী

  • সাতাল
  • যাযাবর বুর্জোয়া
  • মিঠুন সিকদার শুভম
  • এম এম এইচ ভূঁইয়া
  • খাঁচা বন্দি পাখি
  • প্রসেনজিৎ কোনার
  • পৃথিবীর নাগরিক
  • এস এম এইচ রহমান
  • শুভম সরকার
  • আব্রাহাম তামিম

আপনি এখানে

মুসলিমের হিন্দুয়ানী নাম ব্যবহারঃ নাসিরনগরের ধারাবাহিকতায় ঠাকুরপাড়ায় সাম্প্রদায়িক হামলা


রংপুরের টিটু রায় যে ফেসবুকে ইসলাম ধর্ম অবমাননা করে কোন পোস্ট দেয়নি, সেটা আপাতত নিশ্চিত হওয়া গেছে। ১২ নভেম্বর ২০১৭, দৈনিক কালের কন্ঠ পত্রিকার তথ্য অনুযায়ী মাওলানা হামিদী নামক একজন মুসলিম ঐ পোস্ট করেছিলেন!
আমার প্রশ্ন হচ্ছে, একজন মুসলমানকে কোন নও মুসলিমের নাম ব্যবহার করার অনুমতি ইসলাম দেয় কিনা? সেটা যদি হয় অপরাধমূলক কাজ, ইসলাম অবমাননার কাজ? মানে মাওলানা হামিদী কিংবা নাসিরনগরের জাহাঙ্গীর আলম, টিটু রায় কিংবা রসরাজ দাসের নাম ব্যবহার করে যে আকাম করেছে, ইসলাম কি সেটাকে অনুমোদন দেয়? আমার জানা মতে দেয় না!
মাওলানা হামিদী কিংবা জাহাঙ্গীর আলম হিন্দুয়ানী নাম ব্যবহার করে গুনাহের কাজ করেছেন! হিন্দুয়ানী নাম ব্যবহার করে নিজেই নিজের ধর্মকে অবমাননা করে ফেসবুকে পোস্ট করেছেন। সেটাও ইসলামের দৃষ্টিতে গুনাহের কাজ! একজন হামিদী কিংবা একজন জাহাঙ্গীর আলম দুই দুইটি গুনাহের কাজ করলেও, কোন মুমিন জিহাদী মুসলিম ভাই তাদের বাড়িতে হামলা চালানো তো দূর, এই গুনাহগারদের বিচারের দাবি পর্যন্ত করেনি!

ধর্ম অবমাননা বা ইসলাম অবমাননার কথা শুনলে জিহাদীরা জেগে উঠে। তাদের শরীরে মুজাহিদীনের শক্তি সঞ্চারিত হয়। সেই শক্তি নিয়ে তারা বিধর্মীদের বাড়ি ঘরে হামলা চালায়। কোন কোন জিহাদী মুসলিম গণিয়তের মাল মনে করে বিধর্মীদের সম্পদ লুন্ঠন করে। এরপর যখন জানা যায় ঐ ধর্ম অবমাননার পোস্ট কোন বিধর্মী করে নাই, করেছে সহি মুসলিম মোমিন বান্দা, তখন মুমিন জিহাদী মুসলিমদের সবকিছু নেতিয়ে পড়ে! তারা আর এই বিষয়ে কথা বলেন না, সব শান্ত হয়ে যায়। আবার কয়েকদিন পর একই কায়দায় মুমিনরা অশান্ত হয়ে উঠে এবং সবকিছু পূর্বের ন্যায় ঘটতে থাকে!

এভাবে চলছে অসাম্প্রদায়িক চেতনার বাংলাদেশ। যে দেশে একটি বিশেষ ধর্মই সকল ধর্মীয় অনুভূতির লিজ নিয়ে রাখছে। তারা হিন্দুদের মালাউন বললে কিংবা হিন্দুদের দেব – দেবীদের নিয়ে কটুক্তি করলেও, হিন্দুদের অনুভূতিতে আঘাত লাগতে নেই। রাষ্ট্রও এটাকে অপরাধ মনে করে না। কেননা এদেশে বেধর্মী আর আদিবাসীরা তো তৃতীয় শ্রেণীর নাগরিক!

পক্ষান্তরে ধর্ম অবমাননার কোন অভিযোগ উঠলে, পুলিশ প্রশাসন তদন্ত করার আগেই অভিযুক্তকে আটক করাকে প্রধান দায়িত্ব বলে মনে করেন। সেই সাথে সংখ্যালঘুদের বাড়ি ঘরে নির্বিঘ্নে হামলা করে, তাদের সম্পদ লুট করে নেবার পর, সেখানে উপস্থিত হয়ে পুলিশ বাহিনী জাতিকে উদ্ধার করেন! অভিযুক্ত বিধর্মী ব্যক্তিকে যতদ্রুত গ্রেপ্তার করা যায়, মূল অপরাধী মুমিন লোকটিকে আটক করা ততটাই বিলম্বিত হয়।

এবার অবশ্য ব্যতিক্রম ঘটছে! পুলিশ মুমিনদের যথেষ্ট বাধা দিয়েছিলো, একজন গুলিতে মারাও গিয়েছে। প্রশাসনের তরফ থেকে খুব দ্রুত আক্রান্তদের নিরাপত্তা দেয়া হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থদের দ্রুত সময়ে নতুন ঘর নির্মাণ করে দেয়া হয়েছে। হামলার ইন্দনদাতা ৪ জন সহ মোট ১৪৩ জনকে আটক করা হয়েছে। পূর্বে এমনটি ঘটেনি। এসব দেখে আওয়ামীলীগাররা বুক ফুলিয়ে বলবে, আওয়ামীলীগ এমন ঘটনাকে উৎসাহ দেয়না, বরং শক্ত হাতে দমন করে। সংখ্যালঘুদের পাশে আওয়ামীলীগ সব সময় আছে।

অবশ্য নিন্দুকেরা বলবে সামনে নির্বাচন। নির্বাচনে সংখ্যালঘু ভোটারদের নিজের পক্ষে টানতে আওয়ামী মুসলিমলীগের এই ইউটার্ণ, এই লোক দেখানো কারবার! কেননা, নাসিরনগর কিংবা রামুর সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনাগুলোতে, মৌলবাদীদের সাথে আওয়ামী মুসলিমলীগের স্থানীয় নেতাদের সম্পৃক্ত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেছে। নিজ প্রয়োজনে হেফাজতকে তোষন করে চলেছে আওয়ামী মুসলিমলীগ সরকার! সবই যে রাজনৈতিক পায়দা হাসিলের জন্য হচ্ছে, সেটা বুঝতে খুব বেশি বিজ্ঞ হওয়া লাগে না।

যায় হোক, আমি চাই সকল সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনার সুষ্ঠ বিচার হোক। দোষী ব্যক্তিদের দৃষ্টান্ত্যমূলক সাজা হোক। বিচার হয়না বলেই, মানুষজন নতুনভাবে পূর্বের কাজ করার সাহস পায়। মৌলবাদীদের শক্ত হাতে দমন করতেই হবে। তা না হলে দেশ যে পাকিস্তান আর আফগানিস্তান হতে চলেছে, সেটা ঠেকানো সম্ভব হবে না। মুক্তিযুদ্ধের চেতনার অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়তে যে দলই উদ্যোগ নিবেন, তাদের সাথে আছি।।

Comments

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

কফিল উদ্দিন মোহাম্মদ
কফিল উদ্দিন মোহাম্মদ এর ছবি
Offline
Last seen: 16 ঘন্টা 23 min ago
Joined: রবিবার, মে 8, 2016 - 11:31পূর্বাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর