নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • কাঠমোল্লা
  • সাতাল
  • সৈকত সমুদ্র
  • মৃত কালপুরুষ

নতুন যাত্রী

  • সুমন মুরমু
  • জোসেফ হ্যারিসন
  • সাতাল
  • যাযাবর বুর্জোয়া
  • মিঠুন সিকদার শুভম
  • এম এম এইচ ভূঁইয়া
  • খাঁচা বন্দি পাখি
  • প্রসেনজিৎ কোনার
  • পৃথিবীর নাগরিক
  • এস এম এইচ রহমান

আপনি এখানে

শরীরের ওপর আধিপত্য বিস্তার


"ছেঁড়া-ফাটা জিনস পরা মহিলাদের ধর্ষণ করা উচিত। যাঁরা রাস্তায় নিতম্ব প্রদর্শন করে হাঁটে, তাঁদের ধর্ষণ করা কর্তব্য। যে মহিলারা এমন পোশাক পরবেন তাঁদের ধর্ষণ করা প্রত্যেক দেশবাসীর কর্তব্য।”-- নাবিহ আল-ওহাস, মিশরের আইনজীবী।

এমন চিন্তাধারা একদিনের নয়, কিংবা এমন চিন্তাধারায় বিশ্বাসী মানুষের সংখ্যা কম নয়। এমন চিন্তাধারার উৎপত্তি সকল ধর্মগ্রন্থ থেকেই। যেখানে নারীকে শুধু খাওয়ার বস্তু হিসেবে উপস্থাপন করেছে। আরব বিশ্বের নারীদের মতোই করুণ অবস্থা আমাদের এশিয়ার নারীদেরও। যদি ধর্ষণ নিয়ে পরিসংখ্যান দেখা হয় তাহলে অধিকাংশ পুরুষই নারীকে দায়ী করবে এবং ধর্ষণকে পুরুষের দায়িত্ব ও কর্তব্য হিসেবে চিহ্নিত করবে।

যে অর্থে পুরুষেরা নারীদের খাওয়ার বস্তু বা মাল বোঝায়, সেই অর্থই যদি নারীরা পুরুষদের ক্ষেত্রে ব্যবহার করে থাকে তাহলে কি পুরুষেরা তা মেনে নিতে পারবে? নারীদের ক্ষেত্রে যে অর্থে খাওয়া বলা হয় সেটা কি শুধু পুরুষের শারীরিক ও মানসিক তৃপ্তির বিষয়? পৃথিবীর অধিকাংশ পুরুষ এখনো মনে করে যেহেতু তাদের ধন, বাড়া, শিশ্ন, লিঙ্গ আছে সেহেতু তারা নারীদের খেতে পারে। নারীরা কি পুরুষ খায় না? শারীরিক তৃপ্তি কি শুধু পুরুষের একচেটিয়া সম্পত্তি? এখনো হাজার হাজার কোটি কোটি নারী আছে যারা শারীরিক তৃপ্তি বলতে পুরুষের শিশ্নের শান্তিকে মনে করে থাকে। এখনো অধিকাংশ নারী জানেই না অর্গাজম কী!

নারীর শরীরটা আসলে কার? নারীর নিজের নাকি ধর্মের? রাষ্ট্রের? সমাজের? পরিবারের? স্বামীর? ধর্ষকের? সবকিছুর মূলে আছে এইনারী শরীরের ওপর আধিপত্য বিস্তার। এই কারণে নারী কী পোশাক পরিধান করবে, বাচ্চা গ্রহণ করবে কি না, বাইরে কাজ করবে কি না, গাড়ি চালাবে কি না, যৌনমিলন সে করবে কি না- সব বিষয়ে তার মতামতের চেয়ে অগ্রে থাকে সমাজ বা পুরুষ বা ধর্মগ্রন্থ। নারীর শরীরের ওপর যতদিন না নারীর একার পূর্ণ স্বাতন্ত্র্য থাকবে, ততদিন নারীর পণ্যায়ন, ধর্ষণ অবিরত থাকতে বাধ্য।

বিভাগ: 

Comments

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

অনন্য আজাদ
অনন্য আজাদ এর ছবি
Offline
Last seen: 1 দিন 55 min ago
Joined: শুক্রবার, সেপ্টেম্বর 4, 2015 - 10:56অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর