নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • রাজর্ষি ব্যনার্জী
  • বিকাশ দাস বাপ্পী
  • রসিক বাঙাল
  • এলিজা আকবর

নতুন যাত্রী

  • সাতাল
  • যাযাবর বুর্জোয়া
  • মিঠুন সিকদার শুভম
  • এম এম এইচ ভূঁইয়া
  • খাঁচা বন্দি পাখি
  • প্রসেনজিৎ কোনার
  • পৃথিবীর নাগরিক
  • এস এম এইচ রহমান
  • শুভম সরকার
  • আব্রাহাম তামিম

আপনি এখানে

১৯৭১ সালে পাকিস্তানে সংগঠিত গৃহযুদ্ধে নিহতের সংখ্যা কতে?



বাংলাদেশে জন্মানো এবং বড় হওয়ার একটি বড় সুবিধে হচ্ছে যে আপনি চোখের সামনে অনেক মিথ জন্মাতে দেখবেন। আমি প্রচুর মিথ জন্মাতে দেখেছি। বাংলদেশের মানুষের মাঝে কোন মিথের জন্ম দেয়া সাধারন বিষয়। এইত মাত্র কয়েকদিন পৃর্বে ব্লু হোয়েল গেমর্সটি নিয়ে কতো মিথ জন্মাতে দেখলাম।
সায়েদীকে চাঁদে পাঠোনো হলো, ইস যদি কাজটি ৫৫/৬০ বছর আগে করা যেতো তাহলে চাঁদে যাওয়া প্রর্থম ব্যক্তিটি ততকালিন পূর্বপাকিস্তান ( বর্তমান বাংলাদেশ ) হত।
এখন প্রশ্ন হলো বাংলাদেশের মতো রষ্ট্র যেখাতে প্রতিদিন দেশের কোথাও না কোথাও নুতন নুতন মিথের জন্ম হয় সে দেশে ১৯৭১ সালে পাকিস্তানে সংগঠিত গৃহযুদ্ধে নিহতের সংখ্যা নিযে মিথের জন্ম হওয়া কোন কঠিন কিছু?
উত্তর হচ্ছে না, খুবিই সম্ভব।
এখন প্রশ্ন হচ্ছে ১৯৭১ সালে পাকিস্তানে সংগঠিত গৃহযুদ্ধে নিহতের সংখ্যা কতো?
এই প্রশ্নটির উত্তরে, বাংলদেশে বসবাসকারী প্রায় সাবাই উত্তর দিবে সংখ্যাটি ৩০ লক্ষ, এমনকি এই সংখ্যটির সাথে সহমত নয় এমন মানুষও হয়তো ৩০ লক্ষই বলবে কারন এটি রাষ্ট্র সিকৃত একটি বিষয়, সংখ্যাটির সাথে দ্বিমত করলে আপনি রাষ্ট্রযন্ত্রের আক্রশের শিকার হতে পারেন।
কিন্তু প্রশ্ন হলো রাষ্ট্র ঠিক কি তথ্য প্রমানের ভিত্তিতে ৩০ লক্ষ সংখ্যটিকে গ্রহন করেছে?

আমি ১৯৭১ সালে পাকিস্তানে সংগঠিত গৃহযুদ্ধে নিহতের সংখ্যা নিয়ে বেশ কিছু লেখা পড়েছি যাদের তথ্যর মূল উৎস হল ততকালীন সময়কার গণমাধ্যমগুলো।বিষয় হচ্ছে গণমাধ্যমগুলো সংখ্যা নিয়ে অনেক পরস্পর বিরোধী তথ্য দেয় তার থেকে বড় বিষয় হচ্ছে এই সব গনমাধ্যম সংখ্যা নির্নয়ে একমাত্র যে সোর্স ব্যবহার করেছে তা হল অনুমান।
তখনকার পত্রিকা ও গণমাধ্যমগুলির অনুমান মূলক সংখ্যা কতটা নির্ভরয্যেগ্য?
যদি বাংলাদেশ সরকার বা কোন সংগঠন ১৯৭১/১৯৭২ সালের দিকে হতাহতের সংখ্য নির্নয়ে কোন আদমশুমারি আয়জন করতো তাহলে সংখ্যটি নিয়ে আমদের স্পষ্ট ধারনা ধারনা থাকত। এটি একদম সত্য যে একরকম একটি ভয়াবহ যুদ্ধের পর সে জনগোষ্ঠির রাষ্ট্রযন্ত্র আদমশুমারি করবার মতো অবস্থারে থাকে না এবং এটি একদম অত্যাবশ্যকীয় বিষয় নয়।
তবে সঠিক সংখ্যাটি নির্নয়ে আমাদের আরো সময় নেয়া উচিৎ ছিল যুদ্ধ শেষ হওয়ামাত্রই সংখ্যটি নির্নয় করে ফেলা হল বিষয়টি একদম হাস্যকর। যদি এটি নির্নয়ে আরো সচেতনা দেখানো হতো সম্ভাবত সংখ্যাটি এতো বির্তকের মুখোমুখি হতো না।

ব্যক্তিগত ভাবে আমার কাছে ৩০ লক্ষ সংখ্যটি অতিরন্জিত মনে হয়। কারন যুদ্ধের ব্যপ্তি ও স্থায়িত্ব বিচার করলে সংখ্যাটি অন্য যুদ্ধের সাথে ব্যপক ব্যবধান তৈরি কারে। যেমন ভিয়েতনাম যুদ্ধ,
সোজা কথায় বললে আমদের কোন ধারনা নেই যে ১৯৭১ সালে পাকিস্তানে সংগঠিত গৃহযুদ্ধে কত মানুষ নিহত যয়েছে আমাদের কাছে যা আছে তা হলো কতোগুলো মানুষের অনুমান।
সংখ্যাটি ৩০ লক্ষ হতে পারে ৩ লক্ষও হতে পারে, সুতরাং সংখ্যটি একটি অনুমান।

একজন সচেতন সভ্য মানুষ অনুমানকে অনুমান হিসেবে ব্যবহার করবে এটিই কম্য। আপনি যখন দাবি করে বলেন যে ১৯৭১ সালে পাকিস্তানে সংগঠিত গৃহযুদ্ধে নিহতের সংখ্যা গৃহযুদ্ধে নিহতের সংখ্যা হল ৩০ লক্ষ তখন আপনি অনুমানকে প্রমানিত সত্যর স্থান প্রদান করেন যা মোটেও সচেতন মানুষ হবার পরিচয় বহন করে না।

Comments

পথচারী এর ছবি
 

গৃহযুদ্ধ?? বাহ তালি হবে।

 

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

মাইকেল অপু মন্ডল
মাইকেল অপু মন্ডল এর ছবি
Offline
Last seen: 1 week 1 দিন ago
Joined: বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 2, 2017 - 4:17অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর