নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • রাজর্ষি ব্যনার্জী
  • বিকাশ দাস বাপ্পী
  • রসিক বাঙাল
  • এলিজা আকবর

নতুন যাত্রী

  • সাতাল
  • যাযাবর বুর্জোয়া
  • মিঠুন সিকদার শুভম
  • এম এম এইচ ভূঁইয়া
  • খাঁচা বন্দি পাখি
  • প্রসেনজিৎ কোনার
  • পৃথিবীর নাগরিক
  • এস এম এইচ রহমান
  • শুভম সরকার
  • আব্রাহাম তামিম

আপনি এখানে

একটি গাধা, একটি ঘোড়া, একটি বিশ্ববিদ্যালয়,


অনেকদিন পূর্বে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষাকে ব্যঙ্গ করা একটি রম্য গল্প শুনেছিলাম, গল্পটি এরকম।
একদেশে এক রাজা ছিলন, এখন একদিন রাজা তার সৈন্য সামন্ত নিয়ে রাজ্যে ঘুড়তে বেড়িয়েছেন, এমন সময় রাজা খেয়াল করলেন যে একটি বট গাছের নিচে অনেক মানুষ জড়ো হয়েছে। রাজা তার একজন সৈন্যকে পাঠালেন সেখানে কি হচ্ছে জানবার জন্য, সৈন্যটি এসে রাজাকে জানালো যে বট গাছের নিচে একটি লোক একটি বিশ্ববিদ্যলয় খুলেছে, এবং লোকদের পি এইচ ডি, এর সার্টিফিকেট দিচ্ছে। রাজা তার সৈন্যটিকে আবার সেখানে পাঠালেন এটি জানবার জন্য যে কি করলে একটি পি এইচ ডি সার্টিফিকেট পাওয়া যাব। সৈন্যটি সেই বটগাছ তলায় গেল এবং কিছুক্ষন পরে এসে জানালো, যে শুধু মাত্র টিপসই দিতে পারলেই পি এইচ ডি সার্টিফিকেট দেয়া হয়। রাজা তখন ভাবলেন যে তাহলে সেতো চাইলেই একটি পি এইচ ডি সার্টিফিকেট নিতে পারেন। রাজা তার ভাবনা অনুযায়ি পি এইচ ডি সার্টিফিকেট নেবার জন্য সেই বটগাছ তলায় গেলেন এবং টিপসই দিয়ে নিজের জন্য একটি পি এইচ ডি সার্টিফিকেট নিলেন। পি এইচ ডি নিয়ে ফিরবার পথে রাজার মনে হলো যে শুধুমাএ টিপসই দিতে পারলেই যদি একটি পি এইচ ডি সার্টিফিকেট পাওয়া যায় তাহলে তো আমার ঘোড়াটিও একটি পি এইচ ডি সার্টিফিকেট নিতে পারে ঘোড়াটির খুরের ছাপ নিলেই তো হয়ে যায়। চিন্তা অনুযায়ী রাজা সেই বটতলায় ফিরে এলেন এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সেই লোকটিকে বললেন যে তার ঘোড়াটিকে যেন একটি পি এইচ ডি সার্টিফিকেট দেয়া হয়, তখন সেই পি এইচ ডি দেয়া লোকটি ‍উত্তর করলো রাজামশাই এখানে শুধু গাধাদের পি এইচ ডি দেয়া হয় ঘোড়াদের নয়।

না আমি দাবি করছি না যে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় বটতলায় স্থাপিত কোন বিশ্ববিদ্যালয় এবং সেখান থেকে সার্টিফেকেট নেয়া ব্যক্তিরা গধা। একটি একটি রম্য গল্প যা বুঝায় শিক্ষা সার্টিফিকেটের উপর নির্ভর করে না।
আমি দাবি করছি আপনার গলায় ঝুলানো সর্টিফিকেটগুলো ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হবার তকমা এটির প্রমান নয় যে আপনি টিপসই দিয়ে পি এইচ ডি নেয়া রাজার মতো নয়।

এটি একখন প্রমানিত সত্য যে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যলয়ে কিছু প্রমানিত সার্টিফিকেট প্রাপ্ত গাধার গায়ে বিশ্ববিদ্যলয়ের শিক্ষক হবার তকমা দেয়া হয়েছে। আমদের সমাজে সার্টিফিকেট প্রাপ্ত গাধাদের বড় বড় তকমা থাকা বিড়ল, নয় এমন উদারন প্রচুর পাওয়া যাবে।
বিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ গ্রন্থ কোনটি? এটি যদি কোন বিশ্ববিদ্যলয়ের প্রশ্নপ্রত্রের অংশ হয় তাহলে সে বিশ্ববিদ্যলয়ের সাথে আমাদের গল্পের বটতলার বিশ্ববিদ্যলয়ের তুলুনা করা যায় কি?

না যায় না বিশ্ববিদ্যালয়ে একজন দুজন চারজন সার্টিফিকেট প্রাপ্ত গাধা ধরা পড়লে এটি প্রমান হয় না যে আমাদের বিশ্ববিদ্যলয়গুলোর মান কেমন। তবে এটি নিশ্তিত ভাবেই প্রমান হয় আমাদের বর্তমান শিক্ষাব্যবস্থায় এ ধরনের সার্টিফিকেট প্রাপ্ত গাধাদের বিশ্ববিদ্যলয়ের মতো প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক হেসেবে নিয়োগ লাভ করা সম্ভব।

পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ঠ গ্রন্থের নাম কি?
১/ পবিত্র কোরআন শরিফ,
২/পবিত্র বাইবেল,
৩/পবিত্র ইঞ্জিল
৪/গীতা, ( বিশ্ববিদ্যালয় এর মাধ্যমে ঘোষনা করেছেন উপরের তিনটি গ্রন্থ পবিত্র হলেও গিতা পবিত্র নয় )

একজন মানুয় ঠিক কি ধরনের মূর্খ হলে এই ধরনের প্রশ্ন করতে পারে আমার জানা নেই। তবে এটি একজন মানুষের মস্তিষ্ক প্রসূত হলে একটি বিষয় ছিল অতি মূর্খ মানুষ প্রচুর আছে। বিষয় হচ্ছে একটি বিশ্ববিদ্যয় কি যুক্তিতে এমন একটি প্রশ্ন তাদের ভর্তি পরিক্ষার অংশ করতে পারে?
এই প্রশ্নটি প্রশ্নপত্রের অংশ হবার পূর্বে কতো জন ব্যক্তির সম্মতি লাভ করেছ?

শেষ্ঠ গ্রন্থ ( ধর্ম গ্রন্থ ) নির্নয় করবার বিষয়টিকে পুরোপুরি সাম্প্রদায়িক বিষয় হিসেবে বিবেচনা করাবার সথেষ্ট কারন আছে তবুও আমি সাম্প্রদায়িকতার বিষয়ট এরিয়ে যাব।
ধরে নিলাম, কোরআন বাইবেল ইন্জিল( ইন্জিল নামে পৃথিবীতে কোন গ্রন্থ আছে জানি না ), গিতা, এগুলো কোন ধর্মিয় গ্রন্থ নয় এগুলো আর পাঁচটি সাধারন গ্রন্থের মতোই।
একখন বিষয় হচ্ছে পৃথিবীতে থাকা কোটি কোটি গ্রন্থর মধ্য কোনটি সর্বশ্রেষ্ঠ কিভাবে নির্নয় করবেন? প্রর্থমতো গ্রন্থের শ্রেষ্ঠত্ব পরি মাপের মাপকাঠি কি, এবং এং সে মাপকাঠির পরিমাপের মাধ্যম কি?
একমাত্র সার্টিফিকেট প্রাপ্ত গাধাদের মাথায় কোটি কিাটি গ্রন্থের মধ্য শ্রেষ্ঠ গ্রন্থ নির্বচন করবার মতো উদভট চিন্তা আসতে পারে, নয়তো ধর্মঅন্ধত্ব এমনবিষয়ের জন্ম দিতে পারে।
শ্রেষ্ঠ গ্রন্থের সংক্ষিপ্ত যে তালিকা তারা প্রনয়ন করলেন, কোরআন, বাইবেল, ইন্জিল, গীতা, এটাই বা কিসের ভিত্তিতে নির্নয় করলেন?
উক্ত চারটি গ্রন্থের মধ্য দুটি গ্রন্থ পরবার সুযোগ আমার হয়েছে, আমি কোরআন ও বাইবেল পড়েছি, ইন্জিল! ও গীতা পড়বার সুযোগ হয়নি এবং পড়বার ইচ্ছেও জন্মেনি।

আমার ব্যক্তিমতে কোরআন বা বাইবেল থেকে উত্তম গ্রন্থ আমিই লিখতে সক্ষম,

কোরআন হল আমার পড়া সবচেয়ে বাজে কোন গ্রন্থ, বাজে এই জন্য বলছি না যে কোরঅনের শিক্ষা নিয়ে আমার প্রচুর আপত্তি আছে, বাজে এ জন্য বলছি যে আপনি শুরু থেকে শেষ প্রর্যন্ত পরে এর মাথা মুন্ডু কিছুই বুঝবেন না, কারন কোরান ক্রম আনুযায়ী সাজানো নায় এমন হতে পারে যে আপনি কোরআনের যে অংশটি প্রর্থম পড়ছেন সেটি হল কোরনের শেষ দিকের অংশ আবার যা শেষে পড়বেন সেটি হল প্রর্থম দিকের অংশ। যেমন কোরআনের ৯ নম্বর সুরাটি ( সূরা আত-তাওবাহ্‌ ) এবদম শেষের দিকের অংশ অথচ এটিকে ৯ নম্বর সূরা হিসেবে রেখেছে। এমন একটি গ্রন্থ যার ক্রমের ঠিক নেই সেটি কি ভাবে শ্রেষ্ঠ গ্রন্থের সংক্ষিপ্ত তালিকায় স্থান পায় না। কোরনকে শুধুমাত্র ক্রম অনুযায়ী সাজিয়ে বর্তমান কোরআন থেকে উত্তম গ্রন্থ তৈরি সম্ভব।

সুতরাং আমার মতে কোন পাগল বা সার্টিফিকেট পাওয়া গাধা ছাড়া কোরআনকে পৃথিবীর অন্যতম সেরা গ্রন্থ হিসেবে বিবেচনা করা সম্ভব নয়।
বাইবেল নিয়ে বলতে গেলে বলা যায় বাইবেল হল একটি অনন্যসাধারন গ্রন্থ যদিও বাইবেলের অনেক শিক্ষা নিয়ে আমার আপত্তি আছে,
বাইবেলকে অনন্য সাধারন গ্রন্থ বলবার কারন এই নয় যে আমি খ্রীষ্টান সত্য হচ্ছে আমি অজ্ঞেয়বাদী এবং খ্রীষ্ট ধর্মকে মিথ্য দাবি করি। বাইবেলকে অনন্য সাধারন গ্রন্থ বলবার কারন হচ্ছে বাইবেলের ইতিহাস,
বাইবেল হল এমন একটি গ্রন্থ যা হাজার বছরে উপড় সময় জুড়ে লেখা বাইবেলের প্রাচীনতম অংশ ও সর্বশেষ লিখিত অংশের মধ্য কমপক্ষে ১০০০ বছরের ব্যবধান আমি এমন অন্যকোন গ্রন্থের নাম জানিনা যা এতো সময় ধরে লেখা হয়েছে, এবং বাইবেল কোন একজনের লিখিত গ্রন্থ নয় একটি ৪০ জন লেখকের লেখা একটি গ্রন্থ সুতরাং বাইবেল অনন্যসাধারন একটি গ্রন্থ।

তবে বাইবেল কোন মতেই শ্রেষ্ঠ গ্রন্থ হবেনা এটি আনেক যঘন্য বিষয়ের শিক্ষা দেয়, জেনসাইড করবার কমান্ড বাইবেলে আছে ( পুরাতন নিয়মে ), সুতরাং বাইবেল কোন মতেই উত্তম গ্রন্থ নয়।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যলয়ের ঘটনা আমাদের জন্য একটি চমৎকার উদাহরন যে আমাদের সমাজে অনেক সার্টিফিকেট প্রাপ্ত গাধা বসবাস করেন, একজন সচেতন মানুষ হিসেবে আমাদে কাজ হচ্ছে এসব চিহ্নিত সার্টিফিকেট প্রাপ্ত গাধদের গুরুত্বপূর্ন পদে না বাসানো, এবং এখনো চিহ্নিত না হওয়া সার্টিফিকেট প্রাপ্ত গাধাদের চিহ্নিত ব্যক্তিদের চিহ্নিত করা যেন এই ব্যক্তিরা কোন গুরুত্বপূর্ন পদে বসবার সুযোগ না পায়। কারন একজন সার্টিফিকট প্রাপ্ত গাধা যদি আমাদের শিক্ষক হন তাহলে আমদের ছাত্র, ছাত্রীরাও তেমন কিছু হবে না এটি ‍নিশ্চিত করা সম্ভব হবে না।

Comments

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

মাইকেল অপু মন্ডল
মাইকেল অপু মন্ডল এর ছবি
Offline
Last seen: 1 week 1 দিন ago
Joined: বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 2, 2017 - 4:17অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর