নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 8 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • মোমিনুর রহমান মিন্টু
  • নকল ভুত
  • মিশু মিলন
  • দ্বিতীয়নাম
  • আব্দুর রহিম রানা
  • সৈকত সমুদ্র
  • অর্বাচীন স্বজন
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী

নতুন যাত্রী

  • সুমন মুরমু
  • জোসেফ হ্যারিসন
  • সাতাল
  • যাযাবর বুর্জোয়া
  • মিঠুন সিকদার শুভম
  • এম এম এইচ ভূঁইয়া
  • খাঁচা বন্দি পাখি
  • প্রসেনজিৎ কোনার
  • পৃথিবীর নাগরিক
  • এস এম এইচ রহমান

আপনি এখানে

ধর্ষিতের পোষাক


আমি তাদের দলের একজন নই যারা মনে করে ধর্ষন সংগঠিত হবার পিছনে ধর্ষিতের পোষাকের কোন ভূমিকা থাকেনা। কোন ধর্ষন সংগঠিত ক্ষেত্রে অনেক বিষয় কাজ করে ধর্ষিতার পোষাক তার একটি হতে পরে।

আমি মনে করি কারো প্রতি যৌন কামনা জন্মানোর জন্য পোষাক ও অঙ্গভঙ্গি বা ভাষা একটি ভুমিকা রাখতে পারে। বিষয়টি এমন নয় যে সব সময় যৌন কামনার জন্ম দিতে পোষাক ও অঙ্গভঙ্গি ও ভাষার প্রযোজন পরে। ছোট শিশু ধর্ষিত হবার খবর আমাদের কাছে নুতন নয়। হ্যা ধর্ষনে ধর্ষিতের পোষাক ও অবস্থান একটি গুরুত্বপুর্ন ভূমিকা রাখতে পারে কিন্তু কথা হচ্ছে এই ভুমিকাতে ধর্ষিতের কোন অন্যায় বা অনৈতিকতা আছে?

একটি নারী বা পুরুষ যদি রাত ১২ টায় রাস্তায় নগ্ন হয়ে ঘোরে তার মানে কি এই আপনি চাইলেই তাক ধর্ষন করতে পারেন?

আমাদের সবার আমাদের যৌন কামনা নিয়ন্ত্রন করা শিখতে হয়। আমরা যদি আমাদের যৌন কামনা নিয়ন্ত্রন করা না শিখতাম তাহলে পৃথিবীর মানব সভ্যতা ঠিক কেমন হতো সে সম্পর্কে আমার কোন ধারনা নেই।
কার প্রতি আপনার যৌন কামনা জন্মেছে মানেই যে আপনি তাকে বিছানায় পাবেন বা পেতেই হবে এমন মানুষিকতা কোন মতেই গ্রহনযোগ্য হতে পারে না। যদি ধরেও নিই আপনি যাকে ধর্ষন করেছেন তাকে নগ্ন অবস্থায় দেখেছেন বলেই আপনার মনে তার জন্য যৌন কামনা জন্মেছে তাতে কি প্রমান হয়?

প্রমান হয় আপনি কাউকে নগ্ন দেখলে তাকে ধর্ষন করতে পারেন যা আপনার মানুষিক ভারসাম্যকে প্রশ্নের মুখে দাড় করায়। আমরা প্রতিনিয়ত রাস্তায় হাটবার সময় দোকনে কতো খাবার সাজানো দেখি কতো পোষাক দেখি যা আমাদের মনে সেটি পাবার কামনার জন্ম দেয়, কিস্তু আমাদের সেই কামনা আমাদের সেই খাবার বা পোষাক পাবার জন্য দোকান থেকে সেটি লুট করবার অধিকার দেয় না। আমাদের আত্বনিয়ন্ত্রনের ব্যর্থতার দায় আমরা সেই খাবার, পোষাক বা কোন মানুষকে দিতে পারি না।
যৌনতার ক্ষেত্রে কেন ব্যক্তির না কে না বলে মেনে নেয়ার ক্ষমতা না থাকলে সেটি আপনার ব্যর্থতা যদি আপনাক না বলা ব্যক্তিটি নগ্ন হউক না কেন।

আমাদের দেশে বৈবাহিক ধর্ষনের বিষটি ততটা পরিচিত কোন বিষয় নয় যদিও বৈবাহিক ধর্ষনের শিকার হবার লক্ষ লক্ষ ঘটনা খুজে পাওয়া যাবে। অনেকে হয়তো জানেই না যে স্ত্রী না বললে সেটি না হিসেবে মেনে নিতে হবে। আপনার নগ্ন স্ত্রী বা স্বামী না বলে আপনি সেটি না বলে মেনে নিতে বাধ্য। আমরা যদি নিজের স্ত্রী বা স্বামীর না কে না হিসেবে মেনে নিতে না পারেন সেটি আপনার মানুষিক দূর্বলতা ও পৈশাচিকতার পরিচয়।

নিজের দিকে তাকিয়ে বলতে পারি আমাদের সবার মাঝেই নোংরা দূর্গন্ধযুক্ত মানুষিকতা থাকে তবে সেটিকে যদি ছুড়ে না ফেলতে পারি বা নিয়ন্ত্রন না করতে পারি সেটি আমাদের ব্যার্থতা। কোন মতেই আমরা এ জন্য আমদোর নোংরা স্বভাবের দায় দিতে পারি না।

পরিশেষে কথা হচ্ছে এই আপনি যদি রাত ১২ টার সময় কোন মদ্যপ্য নারী বা পুরুষকে নগ্ন ও অসহায় অবস্থায় পেয়ে নিজের যৌন চাহিদা মেটানে থেকে নিজেকে বিরতো রাখতে না পারেন তাহলে আপনার উচিৎ গলায় রশি দিয়ে ঝুলে পড়া কারন তাতে সমাজ থেকে একজন সম্ভাব্য ধর্ষক কমবে।

Comments

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

মাইকেল অপু মন্ডল
মাইকেল অপু মন্ডল এর ছবি
Offline
Last seen: 1 week 2 দিন ago
Joined: বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী 2, 2017 - 4:17অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর