নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 5 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • মৃত কালপুরুষ
  • মাইকেল অপু মন্ডল
  • ড. লজিক্যাল বাঙালি
  • সুবর্ণ জলের মাছ
  • দ্বিতীয়নাম

নতুন যাত্রী

  • অনুপম অমি
  • নভো নীল
  • মুমিন
  • মোঃ সোহেল রানা
  • উথোয়াই মারমা জয়
  • শাহনেওয়াজ রহমানী
  • জিহাতুল
  • আজহারুল ইসলাম
  • মোস্তাফিজুর রহম...
  • রিশাদ হাসান

আপনি এখানে

কোরান যে সর্বজ্ঞানী সৃষ্টিকর্তার কিতাব হতে পারে না , তার অকাট্য প্রমান


কোরানে সৃষ্টিকর্তাকে আল্লাহ নামে ডাকা হয়েছে। এই আল্লা কোরানে বলছে, সে কোরান আরবী ভাষায় নাজিল করেছে, যাতে আরবের লোক বুঝতে পারে। তো সঙ্গতভাবেই আল্লাহ যদি সর্বজ্ঞানী হয় , তাহলে তার সেই আরবী ভাষা হবে চুড়ান্তরকম বিশুদ্ধ, কোরানের আল্লাহ নিজেও সেটা বলছে।কিন্তু দেখা যাচ্ছে কোরান কোনভাবেই বিশুদ্ধ আরবী ভাষায় লিখিত না। তাহলে কি বুঝতে হবে ?

প্রথমে সেই আয়াতটা দেখি --

সুরা ইউসুফ-১২:০২: আমি একে আরবী ভাষায় কোরআন রূপে অবতীর্ণ করেছি, যাতে তোমরা বুঝতে পার।

সুরা নাহল -১৬: ১০৩: আমি তো ভালভাবেই জানি যে, তারা বলেঃ তাকে জনৈক ব্যক্তি শিক্ষা দেয়। যার দিকে তারা ইঙ্গিত করে, তার ভাষা তো আরবী নয় এবং এ কোরআন পরিষ্কার ও বিশুদ্ধ আরবী ভাষায়।

বিশুদ্ধ আরবীর এই কোরানে কোন রকম বিদেশী ভাষার শব্দ থাকবে না। তাই না ? এবার দেখা যাক কোরানের আয়াত --

সুরা - ইনসান - ৭৬: ২১: তাদের আবরণ হবে চিকন সবুজ রেশম ও মোটা সবুজ রেশম এবং তাদেরকে পরিধান করোনো হবে রৌপ্য নির্মিত কংকণ এবং তাদের পালনকর্তা তাদেরকে পান করাবেন ‘শরাবান-তহুরা’।

উক্ত আয়াতের আরবী দেখা যাক --عَالِيَهُمْ ثِيَابُ سُندُسٍ خُضْرٌ وَإِسْتَبْرَقٌ وَحُلُّوا أَسَاوِرَ مِن فِضَّةٍ وَسَقَاهُمْ رَبُّهُمْ شَرَابًا طَهُورًا

এবার উক্ত আরবীর উচ্চারন দেখা যাক --AAaliyahum thiyabu sundusin khudrun wa-istabraqun wahulloo asawira min fiddatin wasaqahum rabbuhum sharaban tahooran

উক্ত উচ্চারনে দেখা যাচ্ছে একটা শব্দ আছে istabraqun । তো এই istabraq শব্দের অর্থই হলো সবুজ রেশমের কাপড়। বিস্ময়কর হলো - এই শব্দটা কিন্তু আরবী না , এটা ফার্সি ভাষার একটা শব্দ। বিশ্বাস না হলে যে কেউ গুগল সার্চ করে দেখুন , এই শব্দটা আরবী নাকি ফার্সি। ফার্সি অর্থ পারস্য বা ইরানের ভাষা।

তাহলে দেখা যাচ্ছে , কোরান রচনা করতে গিয়ে আল্লাহ সঠিক আরবী শব্দ পায় নি , আর তাই তাকে বিদেশী ভাষা ব্যবহার করতে হয়েছে। যার অর্থ দাড়ায় , আরবী ভাষা বিশুদ্ধ ভাষা না , সেই কারনে সেই ভাষায় বিশুদ্ধ কোন কিতাব লেখা যায় না। কিন্তু কোরান লেখা হয়েছে আরবী ভাষায় , তাই সেই কিতাব বিশুদ্ধ হতে পারে না। কিন্তু সর্বজ্ঞানী সৃষ্টিকর্তার লিখিত কিতাব কখনো অবিশুদ্ধ হতে পারে না। সুতরাং প্রমানিত যে কোরানের আল্লাহ কোনভাবেই সর্বজ্ঞানী সৃষ্টিকর্তা না। আর তাই কোরান সর্বজ্ঞানী সৃষ্টিকর্তার কাছ থেকে আসে নাই।

Comments

TTSG এর ছবি
 

কোরানের নাম্বারিং নিয়ে কানাডিয়ান লেখক তারেক ফাতাহ আলোকপাত করেছেন কোন এক আলোচনায়। উনার মতে নাম্রারীং করাহয়েছে সংস্কৃত/ভারতীয় নাম্বারীং আনুযায়ী, আরবী নাম্বারীঙ/সংখ্যা নয় ।
একটু আলোকপাত করবেন প্লীজ।

 

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

কাঠমোল্লা
কাঠমোল্লা এর ছবি
Offline
Last seen: 4 দিন 12 ঘন্টা ago
Joined: শুক্রবার, এপ্রিল 8, 2016 - 4:48অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর