নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 6 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • লিটমাইসোলজিক
  • সাইয়িদ রফিকুল হক
  • কাঠমোল্লা
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী
  • জহিরুল ইসলাম
  • নুর নবী দুলাল

নতুন যাত্রী

  • আদি মানব
  • নগরবালক
  • মানিকুজ্জামান
  • একরামুল হক
  • আব্দুর রহমান ইমন
  • ইমরান হোসেন মনা
  • আবু উষা
  • জনৈক জুম্ম
  • ফরিদ আলম
  • নিহত নক্ষত্র

আপনি এখানে

ইনোসেন্স অব মোহাম্মদ


অামরা সকলে জানি, রাহমাতাল্লিল অালামীন ছিলেন চরম মানবতাবাদী। তার দিল ছিলো মারাত্মক কোমল ও পরিষ্কার!
অাল্লাহর চাপে পড়ে তিনি এমন অনেক কাজ করেছেন যা তিনি কখনো করতে চাননি। অাসুন দয়ার নবীর এমন কিছু কষ্টদায়ক কাজের কষ্টের ভাগিদার অামরাও হই -
(১) শিশুকাম : দয়ার নবী কখনো চাইছিলেন না শৈশব হতে চাচা ডেকে অাসা শিশু অায়েশাকে বিছানায় নিতে, কিন্তু অাল্লাহ তাঁকে স্বপ্নযোগে অায়েশাকে বিয়ে করার অাদেশ করার কারণে একান্ত অনিচ্ছা সত্ত্বেও তিনি অায়েশাকে নিকাহ করেন। বলা হয়ে থাকে, অায়েশাকে বিয়ের রাতে তিনি প্রচুর কেঁদেছিলেন, শিশুর সাথে সহবতের অাদেশ দেয়ার কারণে অাল্লার সাথে অভিমানও করেছিলেন! এবং শিশুর সাথে তিনি প্রথমদিকে মুফাখখতাত (রানের চিপায় ঘষাঘষি) করতেন, পরে অাল্লাহর ধমকে সঠিক জায়গায় দন্ড বসান!

(২) পুত্রবধূ কাম : জয়নবের সৌন্দর্য দেখে তিনি বিমোহিত হলেও তিনি কখনো চাইছিলেন না পুত্রবধূকে নিজবধূ বানাতে। অাল্লাহ তাঁকে প্রথমে স্বপ্নযোগে নির্দেশ দিলে তিনি তা মানলেন না। অবশেষে অাল্লাহ অায়াত নাজিল করে ধমক দিয়ে বললেন জয়নবকে বিয়ে করতে! এমনকি এ-ও জানালেন, অারশে মহল্লায় অাল্লাহর ঘটকালিতে ফেরেশতাদের উপস্থিতিতে জয়নব-মোহাম্মদের শুভবিবাহ সম্পন্ন হয়েছে, ফেরেশতারা মরণচাঁদের মিষ্টি দিয়ে মিষ্টিমুখও করেছে!

(৩) জেনোসাইড অব বনু কুরাইযা : বনু কুরাইযাকে হত্যা করতে কখনো তিনি চাননি, সা'দ বিন মুঅাযের রায়ে অাল্লাহর অাদেশে তাদেরকে হত্যা করতে বাধ্য হন তিনি। পিতৃহারা, স্বামীহারা, ভ্রাতৃহারা সাফিয়ার সাথে তিনি সে রাতে সহবতও করতে চাননি; কিন্তু অাল্লাহ ধমক দিয়ে বললেন - "সহবত তোমার করতেই হবে, নইলে নবুওয়ত কেড়ে নেব!"
অবশেষে কাঁদতে কাঁদতে তিনি সাফিয়াকে ঘরে নিয়ে গেলেন, কান্না মোটে থামছিল না, হেঁচকি দিয়ে কাঁদছিলেন । সাফিয়া জিজ্ঞেস করলো - কি হয়েছে হে নবী? তিনি সবকিছু খুলে বললেন, অাল্লাহর স্বৈরাচারী অাচরণের কথাও বললেন।
তার কান্না এবং দুখ দেখে সাফিয়া নিজেই নিজের কাপড় খুলে দিলো! নবীজি তখন কেঁদেকেঁদেই সাফিয়ার সাথে সহবত করেছেন।

(৪) বনু নযীরের বিতাড়ন : বনু নযীরকে তিনি তাড়াতে চাননি, কিন্তু এখানেও অাল্লাহ তার প্রিয়নবীকে চাপ প্রয়োগ করেছেন, যার প্রমাণ পাওয়া যায় সূরা হাশরে। বনু নযীর যখন তাদের বাড়িঘর, গবাদিপশু, ভূমি ফেলে চলে যাচ্ছিল অার কাঁদছিল তখন দয়ার নবী নিজেও তার চোখের পানি ধরে রাখতে পারেননি!
অাল্লাহ তাকে ইহুদীদের দুখে কাঁদতে নিষেধ করেছিলেন, কিন্তু তিনি তবুও কেঁদেছেন, কাঁদতে কাঁদতে সংজ্ঞাহীনও হয়েছিলেন!
রাগ করে নিষ্ঠুর অাল্লাহর সাথে তিনদিন কথা বলেননি দয়ার নবী।

(৫) উরাইনার হত্যাকান্ড : উরাইনা গোত্রের লোকদেরকে তিনি শুধু ফাঁসি দিতে চেয়েছিলেন, কিন্তু অাল্লাহ এতে অতি ক্ষুব্ধ হলেন। অাল্লাহ ফরমান জারি করলেন - তাদের হাত, পা, চোখ কেটে ফেলতে এবং মরুভূমিতে শুইয়ে পানি না দিয়ে হত্যা করতে!
অাল্লাহর নির্দেশে নবী এটা করলেও তিনি তখন উরাইনার কষ্ট দেখে মাটিতে গড়াগড়ি খেয়ে কেঁদেছেন। চল্লিশ দিন পর্যন্ত স্ত্রী সহবাস থেকেও বিরত ছিলেন অাল্লাহর সাথে রাগ করে, সে রাগ ভাঙাতে অাল্লাহরও অনেক বেগ পেতে হয়েছে!

(৬) কাব, অাবু রাফে, অাসমা সহ বহু কবিকে হত্যা করা : "কবি-সাহিত্যিক দেশের সম্পদ, তারা অামার একটু বিরোধিতা করলে কি-ইবা অাসে যায়?" এভাবে বারবার অাল্লাহর সাথে অার্গুমেন্টে জড়িয়ে যান তিনি, কিন্তু অাল্লাহ নাছোড়বান্দা - ওদের হত্যা করতেই হবে, ফরমান জারি করলেন! এমনকি এ হুমকিও দিলেন, "কবিদেরকে হত্যা না করলে মদিনার সবাইকে ওহুদ পাহাড় চাপা দিয়ে মেরে ফেলা হবে!"
অবশেষে হাজারো মানুষের জীবন বাঁচাতে তিনি কবি-সাহিত্যিকদেরকে হত্যা করেন।

(৭) ডজনখানেক বিয়ে : এ কাজ তিনি মোটেই নিজের ইচ্ছায় করেননি, সম্পূর্ণ অাল্লাহর চাপের কারণে করেছেন! অাগে এক বুড়ি দিয়েই যার সাধ মিটতো সে কিভাবে এতগুলো সামলায়! এটা কি খোদার কুদরত নয়?
কথিত অাছে, নবীপাক একরাতে নিজ জামাই অালির বোনের সাথে 'মিরাজ' করছিলেন, তখন অাল্লাহ তাঁকে ত্রিশ হর্সপাওয়ার দান করেন এবং একডজন নিকাহ করার অাদেশ করেন! নবীপাক অাল্লাপাককে বললেন - অায় অাল্লাপাক, এত বেশি শাদি করলে তো অামার উম্মত অামাকে লুচ্চা বলবে!
অাল্লাপাক ফরমাইলেন - "তুমি চিন্তা কোরোনা, তোমার উম্মতও সকলে লুচ্চা হবে, তাদের দন্ডের ভয়ে মুমিনারা সব বোরকার তলে লুকাবে!"

(৮) দাসী সহবত : দাসী সহবতে তিনি বরাবরই অনীহ ছিলেন, অাল্লাহ এখানেও নাক গলালেন। নবীর স্ত্রীরাও তার এত 'কামে' বিরক্ত ছিলেন, তখন স্ত্রীদেরকে হুমকি-ধামকি দিয়ে অাল্লাহ সূরা অাহজাব ও সূরা তাহরীম নাজিল করলেন। মারিয়া কিবতিয়ার সাথে সহবতকালীন সময়ে যখন হাফসার হাতে তিনি ধরা পড়লেন তখন হাফসা দিল রামধোলাই। রামধোলাই দেয়ায় অাল্লাহ অত্যন্ত ক্ষুব্ধ হন, হাফসাকে সতর্ক করেন, হাফসার বাবা ওমর তখন হাফসাকে শাসিয়ে যায় (অাহজাব ও তাহরীম এর তাফসীর দ্রষ্টব্য।)

Comments

ড. লজিক্যাল বাঙালি এর ছবি
 

পড়লাম। ৫৭-ধারার কারণে কোন মন্তব্য করবো না।
==============================================
আমার ফেসবুক আইডিতে আমার ইস্টিশন বন্ধুদের Add করার ও আমার ইস্টিশনে আমার পোস্ট পড়ার অনুরোধ করছি। লিংক : https://web.facebook.com/JahangirHossainDDMoEduGoB

===============================================================
জানার ইচ্ছে নিজেকে, সমাজ, দেশ, পৃথিবি, মহাবিশ্ব, ধর্ম আর মানুষকে! এর জন্য অনন্তর চেষ্টা!!

 
অলীক আনন্দ এর ছবি
 

আপনার লেখাটি একটু বেশিই ঝাঁঝালো হয়ে গেছে,এমন নিষ্ঠুর উপহাস সরলপ্রান মুমিনেরা কিভাবে সইবে তা ভেবে আমার দুঃখ লাগছে....

অলীক আনন্দ

 
নুর নবী দুলাল এর ছবি
 

মুমিনদের হজম করতে কষ্ট হবে। একজন মুফতি থেকে তিতা সত্য মুমিনরা আশা করেনা। আপনার উপর শতশত লানত কামনা করবে।

 
ড. লজিক্যাল বাঙালি এর ছবি
 

উপভোগ করলাম।

===============================================================
জানার ইচ্ছে নিজেকে, সমাজ, দেশ, পৃথিবি, মহাবিশ্ব, ধর্ম আর মানুষকে! এর জন্য অনন্তর চেষ্টা!!

 
TTSG এর ছবি
 

ঠিকইতো! দয়াল নবী এত্তো খারাপ তো আগে ছিলেন না। আল্লাই তারে পু*ইতে বাধ্য করছে । আল্লা হুয়া কাবাব!

 
রুদ্রমঙ্গল এর ছবি
 

Lol
Yahoo

 

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

মুফতি মাসুদ
মুফতি মাসুদ এর ছবি
Offline
Last seen: 1 দিন 1 ঘন্টা ago
Joined: সোমবার, আগস্ট 14, 2017 - 6:00অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর