নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 6 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • রাজর্ষি ব্যনার্জী
  • ড. লজিক্যাল বাঙালি
  • সুবর্ণ জলের মাছ
  • দীব্বেন্দু দীপ
  • মো.ইমানুর রহমান
  • সাইয়িদ রফিকুল হক

নতুন যাত্রী

  • বিদ্রোহী মুসাফির
  • টি রহমান বর্ণিল
  • আজহরুল ইসলাম
  • রইসউদ্দিন গায়েন
  • উৎসব
  • সাদমান ফেরদৌস
  • বিপ্লব দাস
  • আফিজের রহমান
  • হুসাইন মাহমুদ
  • অচিন-পাখী

আপনি এখানে

মদিনায় কেন ইসলাম প্রচারে মুহাম্মদ এত বিস্ময়করভাবে সফল ছিল ?


এটা খুবই বিস্ময়কর যে, মুহাম্মদ মক্কাতে দশ বছরের বেশী ধরে ইসলাম প্রচার করেছিল কিন্তু ১০০ জনের বেশী মানুষকে ইসলাম গ্রহন করাতে পারে নি। মদিনায় যাওয়ার পর এমন কি ঘটল যে , মাত্র কয় বছরের মধ্যে হাজার হাজার লোক মুসলমান হয়ে গেল ? এবার দেখা যাক এর রহস্য।

মদিনায় যাওয়ার পর , তার সাথে যে মক্কাবাসীরা গেছিল , তারা মিলে মদিনার পাশ দিয়ে যাওয়া বানিজ্য কাফেলায় আক্রমন করে লুণ্ঠিত মালামাল গণিমতের মাল হিসাবে নিজেদের মধ্যে ভাগাভাগি করত, সেটাই ছিল তাদের জীবিকা। কোরান হাদিসে এই ডাকাতিকেই পবিত্র জিহাদ হিসাবে গণ্য করা হয়েছে। সাধারন মুসলমান যারা কোরনা হাদিস তাফসির পড়ে না , শুনে মুসলমান , তারাও এসব ডাকাতিকে জিহাদ হিসাবে বিশ্বাস করে এসেছে। প্রথম দিকে মদিনাবাসীরা এসব ডাকাতিতে অংশ নিত না অনৈতিক কাজ বিবেচনা করে। সুরা বাকারা ২: ২১৭ নং আয়াতের প্রেক্ষাপট এরকমই একটা ডাকাতিকে বৈধতা দেয়ার জন্যে মুহাম্মদ নাজিল করে। কিন্তু যখন তারা দেখল মক্কাবাসীরা খুব অল্প শ্রমে বেশী মালামাল অর্জন করছে , তখন তারাও প্রলুব্ধ হলো বিশেষ করে মুহাম্মদের নিচের কথায় --

জিহাদ অধ্যায় ::সহিহ বুখারী :: খন্ড ৪ :: অধ্যায় ৫২ :: হাদিস ৪৬
আবূল ইয়ামান (র)...........আবূ হুরায়রা (রা) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ (সাঃ)-কে বলতে শুনেছি, আল্লাহর পথের মুজাহিদ, অবশ্যই আল্লাহই অধিক জ্ঞাত কে তাঁর পথে জিহাদ করছে, সর্বদা সিয়াম পালনকারী ও সালাত আদায়কারীর ন্যায়। আল্লাহ তাআলা তাঁর পথের মুজাহিদের জন্য এই দায়িত্ব নিয়েছেন, যদি তাকে মৃত্যু দেন তবে তাকে জান্নাতে প্রবেশ করাবেন অথবা পুরস্কার বা গানীমতসহ নিরাপদে ফিরিয়ে আনবেন।

তার মানে এসব ডাকাতি করতে গিয়ে কেউ মারা যাক বা বিজয়ী হোক , উভয় ক্ষেত্রেই লাভ। মারা গেলে সোজা বেহেস্তে গিয়ে ৭২ কুমারি নারীর সাথে অবাধ যৌন সঙ্গমের সুযোগ, আর বেঁচে থাকলে লুটপাটের মালামাল যার মধ্যে নারীরাও আছে , তাদেরকে গণিমতের মাল হিসাবে ভোগ করার অবাধ সুযোগ। লুটপাটের মালামালকে বৈধ করার জন্যে মুহাম্মদ তখন সাথে সাথে নিচের আয়াত নাজিল করে ---

সুরা আনফাল(লুটপাটের মাল)-৮:৪১: আর এ কথাও জেনে রাখ যে, কোন বস্তু-সামগ্রীর মধ্য থেকে যা কিছু তোমরা গনীমত হিসাবে পাবে, তার এক পঞ্চমাংশ হল আল্লাহর জন্য, রসূলের জন্য, তাঁর নিকটাত্নীয়-স্বজনের জন্য এবং এতীম-অসহায় ও মুসাফিরদের জন্য; যদি তোমাদের বিশ্বাস থাকে আল্লাহর উপর এবং সে বিষয়ের উপর যা আমি আমার বান্দার প্রতি অবতীর্ণ করেছি ফয়সালার দিনে, যেদিন সম্মুখীন হয়ে যায় উভয় সেনাদল। আর আল্লাহ সব কিছুর উপরই ক্ষমতাশীল।

লুটের মালের পাঁচভাগের চারভাগ পেত, যারা সরাসরি লুট করতে যেত , আর বাকীটা পেত মুহাম্মদ নিজে সর্দার হিসাবে। দেখা যাচ্ছে , লুটপাটের মালামালের ওপর মুহাম্মদ ও তার পরিবারও বহাল তবিয়তে বেঁচে থাকত। হায় রে আল্লাহর নবী ! তোমার আল্লাহ তোমাকে অবশেষে ডাকাত সর্দার বানাল ?

সেই ১৪০০ বছর আগে আরবের প্রায় বর্বর আরববাসীর কাছে এর চাইতে লোভনীয় উপায় আর কি থাকতে পারে ?বিজয়ী হলেও লাভ , মরে গেলেও লাভ! সুতরাং এই উভয় প্রকার লাভের আশাতেই এক পর্যায়ে দলে দলে আরবরা মুহাম্মদের দলে যোগ দেয় আর তাদেরকে মুসলমান হিসাবে গন্য করা হয়। আর মদিনাতে এভাবেই ইসলামের প্রসার ও প্রতিষ্ঠা ঘটে। খুব নিরপেক্ষ দৃষ্টিকোন থেকে বিচার করলে , মুহাম্মদের মদিনার জীবেন এত সাফল্যের আর কোন কারন আছে বলে মনে হচ্ছে না।

Comments

আকাশ এর ছবি
 

এত বেশি বুঝেন ভাই, এই দেশে ক্যা আপনি??

 
নুর নবী দুলাল এর ছবি
 

কোন দেশে যাওয়া উচিত। বাংলাদেশ বুঝি কম বুঝা ও গর্দভদের দেশ?

 

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

কাঠমোল্লা
কাঠমোল্লা এর ছবি
Offline
Last seen: 1 দিন 5 ঘন্টা ago
Joined: শুক্রবার, এপ্রিল 8, 2016 - 4:48অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর