নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 12 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • মওদুদ তন্ময়
  • অপ্রিয় কথা
  • শিকারী
  • মারিও সুইটেন মুরমু
  • মিশু মিলন
  • দেবজ্যোতিকাজল
  • সৈয়দ আহসান
  • ফারজানা সুমনা
  • রাজর্ষি ব্যনার্জী
  • নরসুন্দর মানুষ

নতুন যাত্রী

  • প্রলয় দস্তিদার
  • ফারিয়া রিশতা
  • চ্যাং
  • রাসেল আহমেদ
  • আবদুর রহমান শ্রাবণ
  • হিপোক্রেটস কিলার
  • পরিতোষ
  • শ্যামা
  • শিকারী
  • মারিও সুইটেন মুরমু

আপনি এখানে

স্ট্যান্ডার্ড গেজ রেললাইনে চলবে দ্রুতগতির এক্সপ্রেস ট্রেন


রাজধানী ঢাকার সাথে বন্দরনগরী চট্টগ্রামের যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে আধুনিক প্রযুক্তির দ্রুতগামী ট্রেন চালানোর পরিকল্পনা করেছে সরকার। ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে ট্রেন যাবে দেড় ঘণ্টায়। এজন্য চীন থেকে আনা হবে দ্রুতগতির এক্সপ্রেস ট্রেন। নতুন করে তৈরি করা হবে স্ট্যান্ডার্ড গেজের ডাবল রেল লাইন। তখন অনায়াসে দেড় থেকে দুই ঘণ্টায় ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম যাওয়া যাবে। সে লক্ষ্যে ইতোমধ্যে চীনের সাথে একটি চুক্তিও স্বাক্ষরিত হয়েছে। চলছে ফিজিবিলিটি স্টাডি। এটি শেষ হলে রুট নির্ধারণ করে জমি অধিগ্রহণ শুরু হবে। ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের দূরত্ব যাতে কমানো যায় সে লক্ষ্যে নতুন করে স্ট্যান্ডার্ড গেজ রেললাইন স্থাপন করা হবে। ঢাকা থেকে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা হয়ে কুমিল্লার লাকসাম হয়ে ডাবল রেল লাইন যাবে চট্টগ্রামে। তাতে ঢাকা-চট্টগ্রামের দূরত্ব প্রায় একশ’ কিলোমিটার কমে যাবে। এতে খরচ পড়বে ৩০ হাজার ৯৫৫ কোটি টাকা। বর্তমান মিটার গেজ রেললাইনে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের দূরত্ব ৩২০ দশমিক ৭৯ কিলোমিটার। ঢাকা থেকে টঙ্গী-ভৈরববাজার-ব্রাহ্মণবাড়িয়া-কুমিল্লা হয়ে চট্টগ্রাম গেছে সেই রেললাইন। এতে করে এই রুটে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম যেতে বর্তমানে পাঁচ ঘণ্টার মতো সময় লাগে। ঢাকা থেকে কুমিল্লার লাকসাম হয়ে চট্টগ্রাম পর্যন্ত হাইস্পিড ট্রেনলাইন নির্মিত হলে দূরত্ব কমবে প্রায় এক শ’ কিলোমিটার। তখন এই রুটে মোট দূরত্ব দাঁড়াবে ২৩০ কিলোমিটার। আর স্ট্যান্ডার্ড গেজে একটি ট্রেন ঘণ্টায় তিন শ’ কিলোমিটার বেগে চলতে সক্ষম। সেক্ষেত্রে ২৩০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে এক ঘণ্টাই যথেষ্ট। তিন শ’ কিলোমিটার বেগে ট্রেন নাও চলে ১৮০ কিলোমিটার বেগে চালানো সম্ভব। আনুমানিক ৩০ হাজার ৯৫৫ কোটি ৭ লাখ টাকার এই প্রস্তাবিত বিশাল প্রকল্পটি বাস্তবায়নে ইতোমধ্যে কাজ শুরু করেছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। প্রকল্প সহায়তা হিসেবে চীন থেকে আসবে ২৪ হাজার ৭৬৪ কোটি ৬ লাখ টাকা। নতুন এই রেললাইন নির্মিত হলে তা বাংলাদেশের জন্য হবে তৃতীয় মাত্রার রেললাইন। বর্তমানে দেশে মিটার গেজ ও ব্রড গেজ রেল লাইন চালু আছে।

বিভাগ: 

Comments

Post new comment

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

বোর্ডিং কার্ড

নিরব
নিরব এর ছবি
Offline
Last seen: 1 দিন 6 ঘন্টা ago
Joined: রবিবার, অক্টোবর 23, 2016 - 6:13অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর