নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 7 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • জান্নাতুল নাইম শাওন
  • শাহরিয়ার জাহিদ...
  • পৃথু স্যন্যাল
  • নীল কষ্ট
  • আরিফ ইউডি
  • নুরুন নেসা
  • এম ইউ রাকিব

নতুন যাত্রী

  • আবুল কালাম
  • ইমরান আহমেদ সৈকত
  • উন্মাদ কবি
  • রাহাত মাকসুদ
  • শাহরিয়ার জাহিদ...
  • অপূর্ব দাশ
  • এল্লেন সাইফুল
  • বাপ্পি হালদার
  • রমাকান্ত রায়
  • আবুল খায়ের

আপনি এখানে

মস্তিস্কে যখন ৭-১৪ বছর কিংবা ১ কোটির হিসাব, সর্বোপরি ৫৭ ধারা



ধরেন, আমি ভরদুপুরে মদ্যপান করিলাম, এরপর কারও উপর ঝাপাইয়া পড়লাম কিংবা মন খুইলা দুইটা খিস্তি দিলাম, বাংলাদেশের পেনাল কোডের ৫০১ নং ধারা অনুসারে শাস্তি হইলো ২৪ ঘন্টার কারাদন্ড কিংবা ১০ টাকা জরিমানা।

কিন্তু আমি যদি ঝাপাইয়া পড়ার হুমকী কিংবা ওই একই খিস্তি ফেসবুকে কারো ইনবক্সে দেই, তাইলে আইসিটি এক্ট অনুসারে শাস্তি হইলো ৭ থাইকা ১৪ বছরের কারাদন্ড কিংবা ১ কোটি টাকা জরিমানা কিংবা উভয়দন্ড।

কিংবা কাউরে যদি লাঠি দিয়া পিটাইয়া আহত করি, তাইলে বাংলাদেশের পেনাল কোডের ১৪৭ ধারা অনুসারে শাস্তি হইলো দুই বছরের জেল। কিন্তু আইসিটি এক্টের ৫৭ ধারা অনুসারে সহিংসতা উস্কাইতে নিলেও আপনার ওই একই শাস্তি। এই কথাগুলা মাথায় রাইখেন, ৭-১৪ বছর, এক কোটি।

আইসিটি এক্ট নিয়া আগে সেইভাবে পড়ি নাই, কিন্তু আজকে এক বন্ধুর সাথে গল্প করতে করতে এক্টটা একটূ দেখতে গিয়া মাথায় আকাশ ভাংলো, পতিত হইলো চন্দ্র তারকারাজি আমার মস্তিকের উপর।

এই সংশোধিত এক্ট এমন আজব যে এইখানে ফেসবুক পাসওয়ার্ড হাতানোও হ্যাকিং আবার কোটি টাকার ব্যাঙ্ক একাউন্ট জালিয়াতিও হ্যাকিং। অপরাধের মাত্রা কেমন ওইসব নিয়ে চিন্তার ধারও ধারা হয় নাই এই ধারা সংশোধনের নামে সংযোজন করার সময়। আহারে আরাফাত সানি, আপনার প্রতি আমার পূর্ণ সমবেদনা জানাই। বাইর হইতে আপনার কতদিন লাগবে কে জানে...

কারণ, উনার উপর মামলা হইছে আইসিটি এক্টে, যাতে নির্দোষ প্রমাণ না হওয়া পর্যন্ত জামিন নাই। ধরেন, আমি অমুক, আপনি তমুকরে মজা কইরাই গালি দিলাম, কিঞ্চিত অশ্লীল ছবি পাঠাইলাম কিংবা আসলে পাঠাইলামইই না। এখন আপনার লগে আমার সম্পর্ক ভালো, আপনি কিছু কইলেন না, বিনোদন হিসেবে নিলেন। কিন্তু ১ বছর পর সম্পর্ক খারাপ হইলে ওইসবই হইলো আপনার হাতিয়ার। দিলেন আইসিটি এক্টে মামলা কইরা, আর যামু কই? এইদেশে মামলার মীমাংসা হইতেও বছরের পর বছর লাগে, পাত্তি না থাকলে শেষই হবে না। দোষী প্রমাণিত হওয়ার আগেই মানব্জন্মের অর্ধেক জেলে কাইটা যাবে। আহারে আরাফাত, আপনার সাবেক গার্লফ্রেন্ড কিংবা স্ত্রীরে আইসিটি এক্ট সম্পর্কে অবগত করিলো কে?

এইদেশের আইনের বিশেষ কিছু ধারা আছে, কিছু স্পেশাল এক্ট আছে। যেমনঃ বিশেষ ক্ষমতা আইন। সকল আমলের সকল বিরোধীদল যার প্রয়োগের নিন্দা জানায়, ক্ষমতায় যাইয়া বাতিলের ব্যবস্থার কথা বলে, কিন্তু সকল দলই কখনো না কখনো ক্ষমতায় ছিল, কেউ কিছু করে নাই। আর এই আইসিটি এক্ট এমন প্যাচ অলা, এতই মোক্ষম অস্ত্র এর ৫৭ ধারা যে কাউরে এই আইনের ক্ষমতাবলে যেকোনো মুহূর্তে ফাসানো সম্ভব।

ধরেন, আমি কুরবানীর ঈদের সময় ফেবু স্ট্যাটাস দিলাম, "রক্ত দেখলে আমার নিজেরে অসুস্থ্য মনে হয়।" খাইতে পারি ধরা। ইসলাম ধর্মের উৎসবের অবমাননার দায়ে ফাইসা যাইতে পারি। কিংবা কোনো ফেবু সেলিব্রিটির অসহ্য বিরক্তিকর পোস্টে গিয়া রাগ দমনে কমেন্ট কইরা আসলাম, "এই পোস্ট পইড়া আপনার চাপা বরাবর একটা ঘুষা মারতে মন চাইতেছে।" হইয়া যাইতে পারে মানহানির মামলা, হুমকী। ধইরা রাখেব ৭ থাইকা ১৪ বছর, ১ কোটি টাকার ককিছু একটা কনফার্ম। মারতে ইচ্ছা করলে সরাসরিই মাইরেন ভাইলোগ, তাতে শাস্তি নেহাতই কম, রিস্কও কম। কোনো বালিকার ওড়না ধইরা টান মারতে ইচ্ছা করলে সরাসরি টান দেয়া কম শাস্তির হবে। খবরদার, ফেসবুকে ইঙ্গিতও দিয়েন না।

খুন করা বড় অপরাধ নাকি খুনের হুমকি? ডাইরেক্ট ধর্ষন নাকি ধর্ষনের হুমকি? বিদেশে বসে ফেক আইডি দিয়ে হুমকি দিলে উপায় কি? আইসিটি এক্ট তখন কি ললিপপ চুষবে? প্রভাবিত করা যদি এত বড় অপরাধই হয়, তাহলে ভাই নজরুলকে কিংবা আরও অনেক কবিকেও কবর থেকে তুলে এনে বিচার করা লাগবে। উনিও তো লিখছিলেন, আলগা করো গো খোঁপার বাঁধন... ইভটিজিং টাইপ শোনায় না? কিংবা "খোদার আরশ আসন ছেঁদিয়া"। খাইছে, এতো দেখি সরাসরি ধর্মীয় অবমাননা। খোদার আরশ ছেদনের কথা বলছিলেন উনি। এইসব শেয়ার দেয়াও তো আইসিটি এক্টে অপরাধই হবে। উনি যদি এই আমলে জন্মাইয়া ফেবুতে এই কবিতাগুলা পোস্ট দিতেন, তাইলে তো সরাসরি ফাইসা যাইতেন যুবক প্রজাতিরে ইভটিজার হইতে প্রভাবিত করবার জন্য কিংবা ইসলাম ধর্মের ঈশ্বরের অবমাননার জন্য।

আরও অনেক কথা বলা যাইতো, ওইসব বাদ দিয়া ধারাটাই টূইকা দেই। অসাধারণ এক সংযোজন বাংলাদেশের আইনের পুস্তকেঃ

‘কোন ব্যক্তি যদি ইচ্ছাকৃতভাবে ওয়েব সাইটে বা অন্য কোন ইলেক্ট্রনিক বিন্যাসে এমন কিছু প্রকাশ বা সম্প্রচার করেন, যাহা মিথ্যা ও অশ্লীল বা সংশ্লিষ্ট অবস্থা বিবেচনায় কেহ পড়িলে, দেখিলে বা শুনিলে নীতিভ্রষ্ট বা অসৎ হইতে উদ্বুদ্ধ হইতে পারেন অথবা যাহার দ্বারা মানহানি ঘটে, আইন শৃঙ্খলার অবনতি ঘটে বা ঘটার সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়, রাষ্ট্র ও ব্যক্তির ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয় বা ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করে বা করিতে পারে বা এ ধরনের তথ্যাদির মাধ্যমে কোন ব্যক্তি বা সংগঠনের বিরুদ্ধে উস্কানী প্রদান করা হয়, তাহা হইলে তাহার এই কার্য হইবে একটি অপরাধ’

এই ধারার বদৌলতে যে কাউকে গ্রেফতার করা যাবে যাহা জামিন অযোগ্য। মিডিয়া কিংবা ব্যক্তির নিয়ন্ত্রণে এরচেয়ে মোক্ষম আইন কেউ পয়দা করতে পারবে না।

মন্তব্যসমূহ

পথচারী  এর ছবি
 

মামলা করে দিব নাকি দুই একটা?

 
আমি অথবা অন্য কেউ এর ছবি
 

দেন ভাই। লিস্ট আকারে দিয়েন। ধরেন, ১০০০ মানুষের একটা নামের লিস্ট তাদের ফেবু আইডি সহ, পোস্ট লিঙ্ক আর টেক্সট সহই দিলেন। সেভ টেভও কইরা রাখেন। পুলিশ আর আদালত একটু দৌড়াক এতগুলারে আদালতে হাজির করতে, তদন্ত করতে আর হাজতে জায়গা দিতে।

মরতে মরতে ভুল হয়ে যাবে, শেষ নিঃশ্বাসে রয়ে যাবে পাপ। আমি তো নাদান, আমি যে বান্দা খারাপ...

 

নতুন কমেন্ট যুক্ত করুন

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

Facebook comments

বোর্ডিং কার্ড

আমি অথবা অন্য কেউ
আমি অথবা অন্য কেউ এর ছবি
Offline
Last seen: 15 ঘন্টা 59 min ago
Joined: শুক্রবার, জুন 17, 2016 - 6:11পূর্বাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর