নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 0 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

নতুন যাত্রী

  • জয়বাংলা ১৯৭১
  • জাহানারা নূরী
  • মোহাম্মদ আল আমীন
  • সজিব আহামেদ
  • সাগর সাহা
  • মাহবুব আলী
  • সাগর স্পর্শ
  • মীর মোহাম্মদ মামুন
  • শাহরিয়ার_খান_রাব্বি
  • শাহ্রিয়ার খান রাব্বি

আপনি এখানে

ধর্ম কোনো কালেই আলো আনেনি.....


"ধর্ম একদা অন্ধকারে এনেছিল আলো"। আমি কবি রুদ্র'র এই লাইনটির সাথে কোনোভাবেই একমত হতে পারছিনা। আমার মতে ধর্ম কোনোকালেই আলো আনেনি। ধর্ম বার বার অন্ধকারকে যুক্ত করেছে। ধর্ম মানুষকে অন্ধ আর মুর্খ থাকার শিক্ষা দিয়েছে। ধর্ম ঈশ্বরকে কোনো যুক্তি ছাড়াই বিশ্বাস করতে বলেছে। এতে মানুষের আত্নমুক্তির পথ বন্ধ করে দিয়েছে । ধর্ম মানুষের চিন্তাধারাকে এক জায়গায় থামিয়ে দিয়েছে।

তখনকার আইয়ামে জাহেলিয়ার যুগ থেকে মহম্মদের ইসলাম কি বেশ আধুনিক? তখনকার আইয়ামে জাহেলিয়ার যুগে খাদিজারা স্বাধীনভাবে ব্যবসা করত। ৪০ বছরের বিধবা খাদিজা ব্যবসার স্বার্থে ২৫ বছরের তরুন মহম্মদের চাকর রাখত। এবং পরে স্বেচ্ছায় সেই চাকরকে বিয়ে করার অধিকার রাখতো। ইসলামের যুগে এসে তা ভাবা যেত? ইসলাম এসে কি করল? নারীর স্বাধীনতাকে অচল করে দিল, তাদের পায়ে শেকল দিল, বোরকা পরিয়ে মেয়েদের বস্তাবন্দী করল, নারীর যৌনাঙ্গকে শষ্যক্ষেত (নারীরা হইলো শষ্যক্ষেত, তোমরা যেমন খুশি তেমন চাষ কর) উপাদি দিয়ে তাদের যৌনদাসী বানিয়ে দিল! এক অলীক জান্নাত, ৭২ হুরী আর অফুরন্ত সরাবের মিথ্যা লোভ দেখিয়ে মুমিনদের একেকটা জানোয়ার বানিয়ে দিল। তারা এখন ঐ কল্পিত বেশ্যা আর সরাবের লোভে বিধর্মী দের জবাই আর ধর্ষন করে চলেছে। কখনো কখনো বোমা হামলা করে শান্তি প্রতিষ্টা করে চলেছে। তো এখানে ধর্ম কোনদিক দিয়া আলো দিল?

"সতীদাহ" এক সময় হিন্দুদের ধর্মীয় প্রথা ছিল। ধর্মের প্রয়োজনেই স্বামী মারা গেলে স্ত্রীকে মৃত স্বামীর সাথে জলন্ত চিতায় ঊঠে আত্নাহুতি দিতে হত। যাতে স্ত্রী'র সতীত্ব রক্ষা হয়। এতে নাকি ধর্মের ইজ্জত বাঁচে! তো প্রথাটি কি কোন ধর্মযাজক উঠিয়েছিল?

ধর্ম তো দেখছি যুগে যুগে পুরুষের সুবিধার্থে তৈরি হয়েছে। পুরুষকে প্রভু বানিয়ে বার বার উঁচুতে তোলা হয়েছে। নারীর স্বার্থে ধর্ম আদৌ সৃষ্টি হয়েছে কি?
"পতি সেবা করে সতী,
এছাড়া নাই গতি।
স্বামীর পায়ের নিচে স্ত্রীর বেহেস্ত।....." এরকম আরো অনেক ধর্মীয় বাণী আছে পুরুষের পক্ষে। কই আজ অব্দি কোন ধর্মীয় যাজক তো বলেনি- স্ত্রীর পায়ের নিচে স্বামীর বেহেস্ত? তো যে ধর্মগুলো আজ পর্যন্ত নারী-পুরুষের সমতার শিক্ষা দেয়নি, সে ধর্মগুলো কখন কিভাবে আলো দিয়েছিল? ধর্ম কি বার বার মানব সভ্যতাকে পেছন দিকে টানেনি? মানুষগুলোকে স্ব স্ব ধর্মের শ্রেষ্টত্বের দাবী জানানোর শিক্ষা দেয়নি? মানুষকে হিন্দু মুসলিম বৌদ্ধ খ্রিস্টান বানিয়ে বিভক্ত করেনি? তো করলে ধর্ম অন্ধকারে কখন আলো এনেছিল? ধর্ম তো জম্মই হয়েছে অন্ধকারকে সঙ্গী করে, সেই আবার আলো কি দেবে করে? ধর্ম কোনো কালেই আলো আনেনি, এনেছে নিবিড় ঘনত্বে ভরা ভয়াবহ আর বিভীষীকাময় অন্ধকার। যে ধর্মের নৃশংসতায় মানব সভ্যতার অবক্ষয় হয়েছিল।

-অকাল প্রয়াত প্রিয় কবি রুদ্র মুহম্মদ শহীদুল্লাহ, আমি অপ্রিয় বলছি- ধর্ম কোন কালেই অন্ধকারে আলো দেয়নি, ধর্ম আলোর মাঝে বার বার অন্ধকার নিয়ে এসেছিল। মানব সভ্যতাকে পেছনের দিকে টেনেছিল। "ধর্ম একদা অন্ধকারে এনেছিল আলো," ২৫ বছর আগের আপনার কবিতার এই লাইনটি বা ধারনাটি ভুল ছিল। আসলে ধর্ম কোনো কালেই আলো আনেনি, এটা এই সময় এসে দ্বিমত পোষন করছি......

২১--১২--১৪ইং

মন্তব্যসমূহ

আব্দুর রহিম রানা এর ছবি
 

ভালো লিখেছেন, অপ্রিয় দাদা।

 

নতুন কমেন্ট যুক্ত করুন

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

Facebook comments

বোর্ডিং কার্ড

অপ্রিয় কথা
অপ্রিয় কথা এর ছবি
Offline
Last seen: 3 দিন 3 ঘন্টা ago
Joined: শুক্রবার, ডিসেম্বর 23, 2016 - 8:15অপরাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর