নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

ওয়েটিং রুম

এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

  • অনিন্দ্য
  • নুর নবী দুলাল
  • আরণ্যক রাখাল
  • রুদ্র মাহমুদ

নতুন যাত্রী

  • মাইনুদ্দীন স্বাধীন
  • বিপু পাল
  • মৌন
  • ইকবাল কবির
  • সানসাইন ১৯৭১
  • রসরাজ
  • বসন্ত পলাশ
  • মারুফ মোহাম্মদ বদরুল
  • রাজীব গান্ধী
  • রুবেল মজুমদার

আপনি এখানে

এমপি লিটন হত্যাঃ দুর্বৃত্তকে মারলো কোন দুর্বৃত্ত?


গাইবান্ধার এমপি সাহেবের প্রতি আমার কোনো ব্যক্তিগত লেনাদেনা, ক্ষোভ কিংবা আক্রোশ নেই। এই মানুষটার নাম প্রথম শুনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। শিশু সৌরভ এই এমপির গুলিতে আহত হয়। সেই কারণে নাকি মামলাও চলছিল।

তখনকার প্রচারিত নানা সংবাদ আর লেখালেখি থেকে মনে হয়েছিল এই এমপি নিজেই একজন দুর্বৃত্ত। সরকারও ছিল বিব্রতকর অবস্থায়। এখন প্রশ্ন আসে মনে যে এই দুর্বৃত্তকে হত্যা করলো কোন দুর্বৃত্তরা?

প্রশাসন স্তম্ভিত, সরকার আহাজারি করছে। মৃত্যুর পর আমাদের দেশের সংস্কৃতি হচ্ছে এটা বলা যে, "উনি একজন ভালোমানুষ ছিলেন।" আসলেই কি ছিলেন? আমার মন এতটা উদার না, আমার এখনো ওই ঘটনার কথা মনে হয়। আমার মনে হয় কোনো মহান নাগরিক মারা যান নাই যে তার জন্য হা হুতাশ করবো।

রাষ্ট্রের যে সম্মান নিয়ে এমপি সাহেব অন্তিম শয্যায় গেলেন তা কতটুকু উনার প্রাপ্য এটাও আমার অজানা। একটা শিশুকে মাতাল অবস্থায় গুলি করেছেন, মাতাল ছিলেন তাই বোধ ঠিক ছিল না, সজ্ঞানে থাকলে হয়তো করতেন না। মাতাল অবস্থায় না থাকলে উনি হয়তো একজন মাটির মানুষ। হতেই পারেন এমন কেউ, কিন্তু ওই ঘটনা ভুলি কি করে?


যাদের মানুষ ভোট দেয় মানুষের সেবা করতে, মানুষের সুরক্ষা দিতে, তারাই যদি এমন করেন তাহলে কেমন যেন লাগে না? আর ওই ঘটনাটা তো জামাত শিবির বিএনপির বানানো না। প্রকাশ্য দিবালোকে ঘটা সাধারণ পরিবারের এক শিশুর সাথে এবং সবচেয়ে আফসোসের ব্যাপার হচ্ছে শিশুটাকে চিকিৎসা দিতে নিয়ে যাবার সময়েও বাঁধা দেয়া হয়েছিল এই এমপির লোকজনদের মাধ্যমে। মানুষ খুব দ্রুতই ভুলে যায় এসব, মানুষ এখন তাই বললেই পারে, "উনি খুব ভালোমানুষ ছিলেন।"

দুঃখিত, আমি বলতে পারছি না এই বাক্যটা এই এমপির ব্যাপারে। হত্যাকে কখনোই সমর্থন করি না। কিন্তু এই এমপি সাহেব যেই রাষ্ট্রীয় সম্মান নিয় গেলেন সেটা উনার প্রাপ্য ছিল না। আবার এটা এমন এক রাষ্ট্রের কথা বলছে সুবিচার, সর্বসাধারণের নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠা হয়নি এখনো। আমার কাছে এই দুর্বৃত্ত এমপির অজানা দুর্বৃত্তদের কাছে মৃত্যুর ঘটনা ওই শিশুটার জনপ্রতিনিধির কাছে গুলি খাওয়ার ঘটনার কাছে তুচ্ছ। ফাটা কেষ্ট ওবায়দুল কাদের কিংবা এমন ভালো মানুষ হিসেবে পরিচিত নেতারা অসুস্থ্য হলেও যেমন খারাপলাগতো, সেটা আসবে না।

এখন দেখা যাক পুলিশ কাদের অপরাধী হিসেবে খুঁজে বের করে। সম্ভবত কিছুই পাবে না। কে জানে জামাত শিবিরের হাত নাকি অন্তঃকোন্দল? বিএনপি জোট আন্দোলনের নামে, বিশেষ করে জামাত শিবির শত শত মানুষকে পেট্রল বোমা মেরে আহত নিহত করেছিল, সেইসবও হত্যা। ভুক্তভোগী পরিবার হাজার হাজার। সবাই জানে কারা করছিল এসব। কিন্তু এই ঘটনায় বিএনপি কিংবা জামাত শিবিরের চেয়ে অন্তঃকোন্দলের হাত বেশি থাকবার সম্ভাবনা। সবকিছুতে শুরুতেই দোষ অন্যদিকে চাপিয়ে দেয়া ঠিক না। তনু, সাগর-রুনী কিংবা ছাত্রলীগ নেতার হাতে অপহৃত এবং ধর্ষিতা হয়ে মৃত্যু হয়ে মারা যাওয়া মেয়েটার হৃদয়বিদারক ঘটনার পর সরকার যেভাবে বলেছিল অপরাধী যে হোক খুঁজে বের করা হবে, তদন্ত চলছে। এই দুর্বৃত্ত এমপির ক্ষেত্রেও বক্তব্য তাই হওয়া দরকার। তবে তনুদের মত অনেকের হত্যাকারীদের খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না দেখে যে বিতৃষ্ণা কাজ করে, আফসোস হয়, তদন্তে কিছুই পাওয়া যাচ্ছে না বলে যেমন চাপা রাগ আসে, তেমনটা এই এমপির বেলায় তেমনটা অনুভব করব না।

মনে হবে, দুর্বৃত্তরা দুর্বৃত্তকে মেরে গেছে, এ আর এমন কী?

বিভাগ: 

মন্তব্যসমূহ

নতুন কমেন্ট যুক্ত করুন

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
CAPTCHA
ইস্টিশনের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আপনাকে ক্যাপচা ভেরিফিকেশনের ধাপ পেরিয়ে যেতে হবে।

Facebook comments

বোর্ডিং কার্ড

আমি অথবা অন্য কেউ
আমি অথবা অন্য কেউ এর ছবি
Offline
Last seen: 1 দিন 5 ঘন্টা ago
Joined: শুক্রবার, জুন 17, 2016 - 6:11পূর্বাহ্ন

লেখকের সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

কু ঝিক ঝিক

ফেসবুকে ইস্টিশন

SSL Certificate
কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর