নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 12 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • মূর্খ চাষা
    • নরসুন্দর মানুষ
    • রাজিব আহমেদ
    • কাঠমোল্লা
    • পৃথু স্যন্যাল
    • আল আমিন হোসেন মৃধা
    • নিরব
    • সাগর স্পর্শ
    • দ্বিতীয়নাম
    • নুর নবী দুলাল

    নতুন যাত্রী

    • মাসুদ রুমেল
    • জুবায়ের-আল-মাহমুদ
    • আনফরম লরেন্স
    • একটা মানুষ
    • সবুজ শেখ
    • রাজদীপ চক্রবর্তী
    • নাজমুল-শ্রাবণ
    • চিন্ময় ভট্টাচার্য
    • নেইমানুষ
    • পরাজিত শুভ

    ১৯৮১ সালের ১৭ই মে রাতে সামরিকজান্তা জিয়াউর রহমান যে-কারণে খুব ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে পড়েছিলো


    কর্নেল তাহের বিপ্লবী ছিলেন। তিনি ১৯৭৫ সালের সেনাবিদ্রোহে জিয়ার জীবনরক্ষা করেছিলেন। আর জিয়াউর রহমান তার প্রতিদান হিসাবে কর্নেল তাহেরকে ঠাণ্ডামাথায় খুন করে নিজের অবৈধ ও অগণতান্ত্রিক সামরিকশাসনের মসনদকে পাকাপোক্ত করেছিলো। জিয়া ছিল প্রতিবিপ্লবী। আর তাই, প্রতিবিপ্লবী জিয়াউর রহমানের সঙ্গে বিপ্লবী কর্নেল তাহেরের রাষ্ট্রপরিচালনাসংক্রান্ত বিষয়ে বিরোধ চরম আকারধারণ করলে জিয়া ষড়যন্ত্রমূলকভাবে কর্নেল তাহেরকে দোষী সাব্যস্ত করে—আর নিজের ক্ষমতা-কণ্টকমুক্ত করার জন্য ১৯৭৬ সালের ২১-এ জুলাই জিয়াউর রহমান তার নেতৃত্বাধীন সামরিকআদালতের এক প্রহসনমূলক বিচারে তাহেরকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে হত্যা করে। এরপর জিয়া নিজেকে বাংলাদেশরাষ্ট্রের সর্বেসর্বা মনে করে দেশ চালাতে থাকে। আর ১৯৭৮ সালে, এই জিয়াউর রহমান বাংলাদেশবিরোধী ও পাকিস্তানপন্থী একটি রাজনৈতিক দল গঠন করে নিজেকে বিরাট নেতা ভাবতে শুরু করে দেয়।

    ইসলামের প্রধান অবলম্বন মিথ্যাচার এবং সেটা শত কোটি বার প্রচার করা


    কোরান ও হাদিসে বলেছে, ইসলামের আগে আরবে নারীদের কোন সম্মান অধিকার স্বাধীনতা ইত্যাদি ছিল না। শিশু নারীদের নাকি জীবন্ত কবর দেয়া হতো। অথচ মুহাম্মদের জীবনকাহিনী ও তার সাহাবিদের জীবনকাহিনী দেখলে দেখা যায় এসবই মিথ্যা , ভুয়া ও মিথ্যাচার। আর এই মিথ্যা প্রপাগান্ডাই শত শত বছর ধরে মুসলমানরা প্রচার করে এসেছে , ফলে , বর্তমানে এসে মনে হয় এসব স্বত:সিদ্ধ সত্য।

    বিলাসিতা নষ্টামী না


    ধর্ষক সাফাতের ভাষায় এই বয়সটা হলো উপভোগ করার বয়স তাই আমি উপভোগ করছি। এটা কোনো অন্যায় না। আমি প্রতিদিন কোনো না কোনো হোটেলে এরকম কাজ করেই থাকি। ’ রিমান্ডে সাফাত আহমেদ এসব তথ্য জানিয়েছে বলে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন তদন্ত কমিটি।

    মিলিটারির ব্যবসায়িক সম্রাজ্যের বিকাশে পাকিস্তানের অবস্থা: একই প্রবণতা সম্পন্ন অন্যান্য দেশে ভয়ের কারণ



    কতক দেশে এই সেনাবাহিনীর জন্যেই গণতন্ত্রের দ্বার রুদ্ধ হয়েছে, গণতন্ত্রের চর্চা ব্যহত হয়েছে; উদাহরণঃ পাকিস্তান, মায়ানমার, তুরস্ক, বাংলাদেশ ইত্যাদি- এসব দেশে সেনা শাসন ছিল কিংবা আছে। এসব দেশে মিলিটারিরা শাসনক্ষেত্রে হোক কিংবা ব্যবসায়িক ক্ষেত্রে হোক- অনেক প্রভাবশালী ভূমিকা পালন করে থাকে যা দেশের অভ্যন্তরে আর্থ-সামাজিকভাবেও একধরণের ভারসাম্যহীণতা প্রতিষ্ঠিত করেছে যা গণতন্ত্রের চর্চায় বাঁধা হিসেবে পরিগণিত।

    প্রবাসের অখ্যাত গল্প-৬


    উত্তর মেরুতে গ্রীষ্মের আমেজটা ফুরিয়ে আসতেই উত্তরের হওয়া সুইডেনের উপর দিয়ে এ বছর প্রবল তুষারপাতের আগাম জানান দিয়ে যাচ্ছে, গাছের পাতাগুলো তাদের রং বদলাতে শুরু করেছে, পৃথিবীটা যে কত রঙ্গিন হতে পারে তা স্বচক্ষে না দেখলে বিশ্বাস করার উপায় নাই, হলুদ আর ধুসর লাল রঙের ছড়াছড়ি চতুর দিকে, এমন মনোরম শুভ্র সুন্দর প্রকৃতি সেই সাথে গ্রীষ্মকালীন সময়টা হুট করে বিদায় জানাচ্ছে।

    মুক্ত চিন্তা মানেই কি কল্যাণকর চিন্তা?


    মুক্তচিন্তা মানেই কি কল্যানকর চিন্তা?

    আমরা সবাই একাধিক কাঠামো কিংবা বন্ধনে আবদ্ধ। "By born we are free but we are chained in everywhere ".
    পরিবার,গোত্র, সম্প্রদায়,সমাজ,রাষ্ট্র ইত্যাদি বিভিন্ন সামাজিক-রাষ্ট্রিক-অর্থনৈতিক-রাজনৈতিক কাঠামোতে আমরা আবদ্ধ। এই কাঠামোতে আমাদের জন্ম,এই কাঠামোতেই আমাদের মৃত্যু।

    নিমগ্ন ধ্যানে জেগে থাকার গল্প।



    ভেজা সকাল। ঠাণ্ডা মুড। শরীরে এবং মনে উত্তাপ নেই। এক কাপ চায়ের তৃষ্ণা আছে। ঘুম ঘুম আলস্য আছে। নূর দুটো সিঙ্গারার অর্ডার দেয়। তারপর, কিছুক্ষন অপেক্ষা! দু একটা ভাবনা খুব হালকা ভাবে একে অপরের সাথে মিশে যাওয়ার চেষ্টা করছে। করুক। নূর হাই তোলে। অদূরে কোথাও কুকুর ডেকে যাচ্ছে। ডাকুক। দুটো সিঙ্গারা, একটি পেঁয়াজ এবং একটি মরিচ-চলে আসে নূরের কাছে। নূর মরিচে কামড় বসায়। তারপর সিঙ্গারায়! নূর ভেজা সকালটা ঠাণ্ডা মুডে ভোগ করতে শুরু করে। ভোগ থেকে উপভোগ।

    ক্রসফায়ার


    ক্রসফায়ারে নিহত লোকটিকে নিয়ে
    এখানে কোন কাব্য হয় না।দেহ মাটিতে পড়ে থাকে
    খবরের কাগজে খবর বেড়োয়।চরমপন্থি নিহত!
    বাড়ির ছোট্ট কোলের শিশুটি খবর কাগজ পড়তে শেখার আগেই শিখে যায়, বাপ ছিল এক রাষ্ট্রদ্রোহী
    সে তার রাষ্ট্রদ্রোহী বাপের মেয়ে।বড় হয়ে শশুর বাড়ি উঠতে বসতে একই কথা শুনতে হয় তাকে।
    সদ্য বিবাহিত বউয়ের কথা অজানা থাকে সেই সব সুশিলদের কাছে।যারা বিশ্বাসঘাতকদের নিয়ে কবিতা লেখে পাতার পর পাতা
    তারা জানতে চায় না কেন মানুষ চরমপন্থি হয়!
    যখন ঘরে চাল থাকেনা।বোন ধর্ষিত হয় ভাইয়ের সামনে

    মানুষ এবং সাপের গল্প


    গল্পটা পূর্ব-পাকিস্থানের নোয়াখালী, ঢাকা, রাজশাহী, ফরিদপুরের অথবা ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কলকাতা, উত্তর চব্বিশপরগণা, নদীয়া, বর্ধমানের। স্যার সিরিল র‌্যাডক্লিফ যখন তার নির্দয় কলমটা অথবা কলমের অবয়বে মানবজাতির ইতিহাসের সবচেয়ে নিকৃষ্টতম ছুরিটা ভারতবর্ষের মানচিত্রের ব্যবচ্ছেদের কাজে ব্যবহার করলেন, যাকে আমরা বলি র‌্যাডক্লিফ লাইন; র‌্যাডক্লিফ লাইনের দাগটা আসলে কালির নয়, ভারতবর্ষের কোটি কোটি মানুষের তাজা রক্তের দাগ ওটা; শিশুর রক্ত, নারীর রক্ত, টগটবগে তরুণ-তরুণীর রক্ত, প্রৌঢ় কিংবা বৃদ্ধ-বৃদ্ধার রক্ত; হিন্দুর রক্ত, মুসলমানের রক্ত, শিখ, জৈন কিংবা বৌদ্ধ’র রক্ত; মাথার রক্ত, বুকের রক্ত, যোনির রক্ত, সারা শরীরে

    পৃষ্ঠাসমূহ

    কু ঝিক ঝিক

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    SSL Certificate
    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর