নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 3 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • ড. লজিক্যাল বাঙালি
    • দীব্বেন্দু দীপ
    • নুর নবী দুলাল

    নতুন যাত্রী

    • রিপন চাক
    • বোরহান মিয়া
    • গোলাম মোর্শেদ হিমু
    • নবীন পাঠক
    • রকিব রাজন
    • রুবেল হোসাইন
    • অলি জালেম
    • চিন্ময় ইবনে খালিদ
    • সুস্মিত আবদুল্লাহ
    • দীপ্ত অধিকারী

    কার্টুন ভিডিও গেমসে পালিয়েছে গল্পের রাক্ষস-খোক্ষস ও শি মুরগিরা!


    গল্পের শি মুরগি আমি খুঁজে বেড়িয়েছি বহুদিন। মায়ের সাথে কোথাও বেড়াতে গেলে সেই বাড়িতেও আনমনে শি মুরগি খুঁজেছি। বাড়ির আশেপাশে ঝোপ জঙ্গলেও দিনের পর দিন খুঁজে বেড়িয়েছি। আমি যখন ভয়ে ভয়ে সবে স্কুলে যাওয়া শুরু করেছি সেসময়ও খেলাধুলোর ফাঁকে, গল্পের ফাঁকে আশপাশের ঝোপঝাড় খুঁজে ফিরে শি মুরগি দেখতে চেয়েছি। দেখতে না পেয়ে হতাশ হয়েছি। মনে মনে এটুকু আশা পোষণ করে ক্ষান্ত দিতাম যে, হয়তো অন্যদিন, অন্য কোথাও না কোথাও আমি তাকে পাবো। দেখবো। একসময় বুঝতে পেরেছি যে, আসলে শি মুরগি বলে কিছু নেই। কিংবা থাকলেও আজ আর বেঁচে নেই। বেঁচে থাকলে তো আমি আমরা দেখতাম। যদিও গল্পের সেই শি মুরগির বাসস্থান নিয়ে আমার মধ্যে এক ধরণের দ্বি

    ধর্মের ম্যাজিক: সর্বশেষ আব্রাহামিক ধর্ম 'বাহাই' ও খোদার প্রেরীত সর্বশেষ নবী 'বাহাউল্লাহ': শেষ পর্ব


    মির্জা ইয়াহিয়া ও তার অনুসারীরা বাহাউল্লাহকে হেয় করতে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে অটোম্যান কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ করল। বাহাউল্লাহর বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল গোপন ষড়যন্ত্র ও স্থানীয়দের মাঝে উত্তেজনা ছড়িয়ে ধর্মীয় সম্প্রীতি করা। সরকার দেখল যে বাহাউল্লাহ এবং মির্জা ইয়াহিয়া দুজনেই এক নূতন ধর্মীয় দাবী ছড়িয়ে দিচ্ছেন যা মুসলিমদের কাছে গ্রহণযোগ্য নয়। সরকার ভাবলো এতে করে ধর্মীয় সম্প্রীতি ও শৃঙ্খলার মারাত্মক অবনতি হতে পারে। তাই দুজনকেই দোষী সাব্যস্ত করে আবার তাদের অটোম্যান সাম্রাজ্যের দুই প্রান্তে কারাদন্ডসহ নির্বাসন দিল। ১৮৬৮ সনের জুলাই মাসে ফরমান জারী হল। মির্জা ইয়াহিয়া ও তার অনুসারীদেরকে সা

    দারিদ্রতার গ্রাসে শিশুশ্রম


    শিশু শ্রম,শিশু নির্যাতন কেন জানি আমাদের সমাজের এক শ্রেনীর মানুষের নিত্য দিনের রুটিন হয়ে দাড়িয়েছে।প্রতিদিন খবরের কাগজ খুল্লেই যার যথেষ্ঠ প্রমান পাওয়া যায়। হারিয়ে যাচ্ছে মানবতা, সহানুভূতি কেমন যেন দুষ্পাপ্য হয়ে যাচ্ছে।নিজ স্বার্থ রক্ষায় এক শ্রেনীর মানুষ এই পাশবিক কাজগুলো করছে। তারা কি তাদের সন্তানের কথা একবারও ভাবে না।তাদের সন্তানের প্রতি যদি একই আচরন করা হয় তাদের কেমন লাগবে?

    রোহিঙ্গা আপদ- "আগে দেশ পরে মানবিকতা"


    আমি বাংলাদেশের একজন মুসলিম। আমার লবিং কিংবা অর্থের জোর নেই তাই আমার চাকুরী হচ্ছে না, কেউ কি আমায় রোহিঙ্গাদের ত্রাণ দেওয়ার মত সহানুভূতি দেখিয়ে একটা সরকারীর চাকুরী ব্যবস্থা করে দিবেন?

    মুমিনরা , আপনারা কিন্তু আপনাদের থলের বিড়াল বের করে দিচ্ছেন


    গত ১৪০০ বছর ধরে ইহুদি খৃষ্টান সহ সব অমুসলিমরা ইসলামের বিরুদ্ধে নানারকম প্রচার করে যতটা না ইসলামের স্বরূপ তুলে ধরতে পেরেছিল , আপনারা গত কয় দশকের মধ্যেই তার চাইতে অনেক বেশী ইসলামের স্বরূপ তুলে ধরেছেন। বিশেষ করে গত দুই তিন বছরে প্রকৃত ইসলামের স্বরূপ সারা দুনিয়ার সামনে একেবারে দিনের আলোর মত পরিস্কার করে দিয়েছেন। বেশী ঘটনা নয় , মাত্র দুই চারটা ঘটনা দিয়ে সেটা বুঝাচ্ছি।

    মানবতাবোধ কি বিষফোঁড়া হয়ে দাঁড়ালো?



    “আসুন, অসহায় মুসলিম ভাই-বোনদের পাশে দাঁড়াই। ওদের কেউ নাই আমরা ছাড়া।”- ব্যানারগুলা দেখেছি খুব বেশিদিন হলো। মানবতার বুলি আওড়াতে আওড়াতে গলার পানি শুকিয়ে গেছে অনেকের। এত মানবতাবাদী দেখে একদিকে খুশিও লাগছিল, আবার আফসোসও হচ্ছিলো। এতো মানবতাবাদী আছে বিষয়টা যেমন খুশির ঠিক তেমনি আফসোসের বিষয় হলো এতো মানবতাবাদী থাকার পরও কিভাবে দেশে এত সমস্যা থাকে!

    মানবতা কি নোবেল বিজয়ের ড্রামা



    বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থার রিপোর্ট অনুযায়ী ইসলামপন্থী ধর্মান্ধদের উন্মাদনা, নিপীড়ন, অত্যাচারের (আংশিক স্বেচ্ছায়) কারণে পাক-ভারত উপমহাদেশ বিভক্তির পর শুধু মাত্র বাংলাদেশের ভূখণ্ড থেকেই ৫০ মিলিয়নেরও অধিক হিন্দু দেশান্তরী হয়েছে। মানবতা কি তখন নাকে তেল দিয়ে নিদ্রাচ্ছন্ন ?

    এখন বিশ্ব পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে দাঁড়িয়েছে যেখানে সকল প্রকার ধর্ম মানব হত্যার হুলি খেলছে।


    সংগীত শিল্পী হয়দার হোসেনের একটা বিখ্যাত বাংলা গানের কথার সাথে মিলিয়ে বলছি; কি দেখার কথা, আমি কি দেখছি? কি শুনার কথা, আমি কি শুনছি? মানব জাতির এতো অগ্রগতির পরও আমি মানবতা কে আজও খোঁজছি!!মানবতার চরম আহাজারিতে আমাদের চারপাশ ধূসর, মানব জাতির রক্ত স্রোতে প্রবাহমান মানবতার বর্বরতা। বিবেকের দরজা বন্ধ হয়ে আছে শব্দহীনভাবে। বাকরুদ্ধ করে আমাদের প্রগতিশীল মানুষগুলোকে কোনঠেসা করে রেখেছে শতাব্দীকাল।সত্যালয়ে কি আমরা বাস্তবতা উপলদ্ধি করতে পারছি না?

    পৃষ্ঠাসমূহ

    কু ঝিক ঝিক

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    SSL Certificate
    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর