নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 12 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • মূর্খ চাষা
    • নরসুন্দর মানুষ
    • রাজিব আহমেদ
    • কাঠমোল্লা
    • পৃথু স্যন্যাল
    • আল আমিন হোসেন মৃধা
    • নিরব
    • সাগর স্পর্শ
    • দ্বিতীয়নাম
    • নুর নবী দুলাল

    নতুন যাত্রী

    • মাসুদ রুমেল
    • জুবায়ের-আল-মাহমুদ
    • আনফরম লরেন্স
    • একটা মানুষ
    • সবুজ শেখ
    • রাজদীপ চক্রবর্তী
    • নাজমুল-শ্রাবণ
    • চিন্ময় ভট্টাচার্য
    • নেইমানুষ
    • পরাজিত শুভ

    চাই রাসায়নিকমুক্ত ফল


    মধুমাস জ্যৈষ্ঠ চলছে। নানা জাতের আমসহ মৌসুমী ফলে ভরে উঠতে শুরু করেছে বাজার। তবে এসব বাহারি মওসুমি ফল সম্পর্কে সচেতন নাগরিক মহলে এক ধরনের ভীতি সৃষ্টি হয়েছে। এ ভীতি অমূলক নয়, বেশী লাভের আশায় ফল পরিপক্ক হওয়ার অনেক আগেই প্রথমত: গাছে রাসায়নিক রাইপেন ব্যবহার করে এবং অপরিপক্ক আম, লিচু, কলা কার্বাইড দিয়ে পাকিয়ে বাজারজাত করছে এবং পচন থেকে রক্ষা করতে ফর্মালিন ব্যবহার করছে একশ্রেনীর মুনাফাবাজ ব্যবসায়ী। এসব আম ও ফল ফলারি বাহ্যিকভাবে দেখতে মনোহর হলেও এর স্বাভাবিক স্বাদ, গন্ধ থাকেনা। উপরন্তু অনেক দাম দিয়ে এসব ফল খেয়ে দীর্ঘ মেয়াদে নানা রকম স্বাস্থ্য সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে শিশু-বৃদ্ধসহ সব বয়েসের মানুষ। দেশ

    কোথাও কেউ অপেক্ষা করে নেই!


    কোথাও কেউ অপেক্ষা করে নেই;
    সকাল থেকে রেলষ্টেশনের একপাশে দাঁড়িয়ে ছিলাম একা, হয়ত রাজধানী এক্সপ্রেস থেকে কেউ নেমে এসে বলবে, আপনি কি আমার জন্য দাঁড়িয়ে আছেন?
    কিন্তু কোথাও কেউ অপেক্ষা করে নেই!

    আজও আমার সমস্ত সৃষ্টিগুলো কেবলই খোয়াড়ে বাঁধা মুরগীর ডিমের মত বন্ধ্যা; সিদ্ধ, ভাজা অথবা রান্না ছাড়া এ ডিম সৃষ্টি করেনা কিছুই; তারপরেও একপেয়ে বকের মত অপেক্ষায় আছি, কখন চন্ডিদাশের ছিপে উঠবে ১০ কেজি ওজনের একটা মাছ।
    কিন্তু কোথাও কেউ অপেক্ষা করে নেই!

    এই রাষ্ট ও সমাজের যৌনাক্রম, ধর্ষন, যৌনাধিকার আর যৌন-অশিক্ষার..... সমাচার


    এদেশের রাষ্ট্র-সমাজ ও পরিবার যৌনশিক্ষাটাকে এতো এতো ট্যাবু করে রেখেছে যে, এই শিক্ষা শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে যোজন যোজন দুরে রাখা হয়। এই যেন নিষিদ্ধ কোনো শিক্ষা। এই যেন ঔষদের মতো ভয় দেখিয়ে বলার মতো, -শিশুদের নাগালের বাইরে রাখুন! যৌনশিক্ষা কেন ট্যাবু হবে? এই শিক্ষা কেন ছোটকাল থেকে শিশুকে দেয়া হয় না? সঙ্গম, সেক্স, মিলন, সহবাস, মৈথুন..... এই শব্দগুলো মানুষের জীবনের সাথে ওতপ্রোত ভাবে জড়িত। এটা কেন আমাদের ছোটকাল থেকে বলা হয় না? এটা কি নিষিদ্ধ কোনো গন্ধম? এটা মানব জীবনের বাইরের কোনো অংশ?

    সুখি সমকামি যুগল নাকি অসুখি বিষমকামী দম্পতি?


    বছর পনের আগের কথা। আমাদের মহল্লার এক ছটফটে তরুনীর বিয়ে হল খুব ঘটা করে। মেয়ে দেখার দিনে ছেলে অনুপস্থিত কিন্তু ছেলেপক্ষ ডায়মন্ডের আংটি নিয়ে এসেছিল সাথে করে, মেয়ের আঙুলের মাপ না জেনেই। ঢ্যাঙা গোছের শ্যামলা মেয়ের হাতের চা খেয়ে দামী গাড়িতে চড়ে আসা ছেলের মা, মিসেস চৌধুরি এতই মুগ্ধ হয়েছিলেন যে নিজের হাতের বেশ চওড়া বালাগুলো তৎক্ষনাৎ খুলে মেয়েটির হাতে পরিয়ে দিতেও এক মুহূর্ত দেরি করেননি। শুকনো দুহাতে ঢলঢলে বালাদুটো পরে মেয়েটা যখন বিকেলে পাড়ার আর সব মহিলা আর সমবয়সী মেয়েদের সাথে আড্ডা দিতে আসত, আমার কেন যেন হাতে বেড়ি পরা জেলখানার কয়েদী মনে হত ওকে। টানাপোড়েনের সংসারে বেড়ে ওঠা মেয়ে

    সৌদি সামরিক জোটে বাংলাদেশ ।


    ••••• বাংলাদেশের জন্মের বিরোধীতা করা এবং সারা বিশ্বে ইসলামি জঙ্গিবাদ ছড়িয়ে দেয়ার মূল উৎস দেশ হচ্ছে সৌদি আরব । সৌদি আরব শান্তির ধর্ম নামে বিতর্কিত একটি ধর্ম ইসলামেরও উৎস দেশ । ১৯৭৫-৭৬ সনে বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেয় সৌদি আরব এবং এই স্বীকৃতি দেয়া হয় বর্তমান জঙ্গিনেত্রি , মদিনা সনদের প্রবক্তা ও হেড অব দা কালসাপ শে খাসি না এর প্রায় পুরো পরিবারকে হত্যার পরই । অথচ, এই একই সৌদি আরবের ইসলামি আহ্বানে অনেকটা নাচতে নাচতেই ৩৪ মুসলিম দেশের ইসলামি সামরিক জোটে আনুষ্ঠানিকভাবে যোগ দিতে যাচ্ছে বাংলাদেশ । মুসলমানের উপ্রে বিশ্বাস রাখাটাও যে এক ধরনের পাপ তা এই ঘটনা না ঘটলে অবশ্য বুঝতে পারতাম না ।

    প‌িসিপ‌ি আত্মপ্রকাশ‌ে ২৮ বছর


    প্রত‌িক্র‌িয়াশীল,সুব‌িধাবাদী ও চুক্ত‌িবির‌োধীদ‌ের রুখ‌ে দাড়ান,পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্ত‌ি বাস্তবায়নে ইস্পাত কঠ‌িন আন্দ‌োলন সংগঠ‌িত করুন__এই স্লোগানটিকে সামনে রেখে ২০শে‌ ম‌ে ২০১৭ পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পর‌িষদ‌ের আত্মপ্রকাশ‌ের গ‌ৌরবময় ২৮ বছর পুর্ণ হল‌ো।দ‌েশে দ‌েশে যুগ‌ে যুগ‌ে ছাত্র যুবসমাজ হচ্ছ‌ে দেশ ও জাত‌ির পথ‌িক।সকল বাধা পের‌িয়ে সামন‌ে এগিয়ে যাওয়ার সাহসের কান্ডার‌ি ছাত্র ও যুবসমাজ।এই ছাত্র ও যুবসমাজ ক‌োনরুপ অন‌িয়ম বা অন্যায় অব‌িচারে‌র কাছ‌ে মাথা নত করত‌ে পার‌ে না।তাই দ‌েশ ও জাত‌ির দুর্দ‌িনে ছাত্ররা অক‌ুত‌োভয়ে সম্মুখ‌ে লড়াই সংগ্রাম‌ে ঝাপিয়ে পড়‌ে ।তৎকালীন পুর্ব পাকিস্তান আমল‌ে

    ইসরায়েল-প্যালেস্টাইন সংঘাত(পর্ব-২): প্যালেস্টাইনের স্বাধীনতার পথে প্রতিবন্ধকতাসমূহ


    প্যালেস্টাইন নামে কোন স্বাধীন রাষ্ট্র আগেও ছিল না, এখনও নেই। ইসরায়েলের জন্মের অনেক পরে প্যালেস্টেনীয় জনগণের মাঝে স্বাধীনতার প্রয়োজন অনুভূত হয়। বেশ কয়েকটি যুদ্ধে আরব বিশ্ব পরাজিত হবার পরে যখন অবস্থা বেগতিক হয় তখন প্যালেস্টেনীয় জনগণ বুঝতে পারে যে এভাবে যুদ্ধের মাধ্যমে ইসরায়েলকে উৎখাত করা সম্ভব নয়। এরপরই তারা তাদের আলাদা রাষ্ট্রের জন্য সংগ্রাম শুরু করে। সেই সংগ্রামের ইতিহাস অত্যন্ত সহিংস, রক্তাক্ত এবং হৃদয়বিদারক। এতটা দুর্গম পথ পাড়ি দেওয়ার পরেও কেন আজ পর্যন্ত প্যালেস্টাইন তার স্বাধীনতা অর্জনে ব্যর্থ হল- সেই কারণই আমরা এই পর্বে অনুসন্ধান করবো।

    পশ্চিমবঙ্গে ধর্মীয় জঙ্গিবাদের প্রকোপ ও মুক্তচিন্তা:



    পাশের বাড়ি পুড়লে, নিজের বাড়িতেও আঁচ লাগে! ওপার বাংলার মুক্তচিন্তক আর এপার বাংলার মুক্তচিন্তক, সকলেই এক তিমিরে বন্ধু! চাপাতির কোপে বা বন্দুকের গুলিতে, যদি এবার এপার বাংলার কোনো মুক্তচিন্তকের মৃত্যু হয়, তবে এই মুসলিম ধর্মীয় জঙ্গিদের ক্ষমতার প্রবলতা সমগ্র বাংলা জুড়ে প্রমানিত হবে!

    সাঈদীর ফাঁসি চেয়ে ছাত্র-জনতার সমাবেশ


    যুদ্ধাপরাধী দেলোয়ার হোসাই সাঈদীর আমৃত্যু কারাদণ্ড রায় প্রত্যাখান করে, তাঁর সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসি দাবি করে ১৯ মে গতকাল শাহবাগে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে প্রগতিশীল ছাত্রসমাজ ।

    ১৯ মে, শুক্রবার বিকেল পাঁচটায় (৫.০০) শুরু হয় এই সমাবেশটি চলে রাত আট (৮.০০) পর্যন্ত । সবাবেশে বক্তব্য রাখেন প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনের বক্তরা ।

    পৃষ্ঠাসমূহ

    কু ঝিক ঝিক

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    SSL Certificate
    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর