নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 3 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • মারুফুর রহমান খান
    • নরসুন্দর মানুষ
    • নুর নবী দুলাল

    নতুন যাত্রী

    • ফজলে রাব্বী খান
    • হূমায়ুন কবির
    • রকিব খান
    • সজল আল সানভী
    • শহীদ আহমেদ
    • মো ইকরামুজ্জামান
    • মিজান
    • সঞ্জয় চক্রবর্তী
    • ডাঃ নেইল আকাশ
    • শহিদুল নাঈম

    ম্যাৎকার -২


    ছাগপোনা-১। যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষা নয় নিরপরাধ মানুষদের যুদ্ধাপরাধী সাজানোরই প্রতিবাদ করছে জামায়াত।

    ছাগপোনা-২। বিক্ষোভ, আন্দোলন ও ত্যাগের মধ্য দিয়েই ইসলামী বিপ্লবের পথ সুগম করতে হবে। ধীরে ধীরে তৈরী করতে হবে খেলাফতের উপযুক্ত পরিবেশ। ইসলামী আন্দোলনের সৈনিকদেরকে এভাবেই তৈরী হতে হয়। এভাবেই তৈরী হয় ইসলামী হুকুমত কায়েম করার মত যোগ্য প্লাটফর্ম।.
    কবি কাজী নজরুল ইসলাম তাঁর কবিতায় বলেছিলেনঃ.
    শেকল পরা চল মোদের এই শেকল পরা চল.
    এই শেকল পরেই শেকল তোদের করব রে বিকল।.

    ভালোবাসার এই দিনে


    ..

    কাঁদছে আকাশ, কাঁদছে মন, রিমঝিম বৃষ্টিতে বিরহী রোদন।
    বন্ধু তুমি, ফিরে এসো ... স্বপ্ন ছোঁয়ার, বাদল দিন
    বৃষ্টি ধারায় শোধাব আজ ... ভালোবাসার সবটুকু ঋণ
    বন্ধু আমি একলা বসে, আশা-নিরাশার বাদল দিন
    বৃষ্টি ধারায় শোধাব আজ ... ভালোবাসার সবটুকু ঋণ
    ও আকাশ কি আমারই মতন স্বপ্ন বেঁচেও স্বপ্নহীন
    বৃষ্টি ধারায় শোধাব আজ ... ভালোবাসার সবটুকু ঋণ
    বন্ধু তুমি ফিরে এসো ... স্বপ্ন ছোঁয়ার বাদল দিন

    পাথারের বুকে বসন্ত ফুটে


    ঃ বিশ্ব ভালবাসা দিবস উপলক্ষ্যে ঃ

    এ দেহের ভীতর বাহিরে
    হাঁড় কাঁপন মাঘের শেষে-
    সোনালী রোদ্র ফাল্গুনের ছোঁয়া-
    টেকনাফ থেকে তেঁতুলিয়া
    নীল আকাশে- বাতাসে-
    আজ মিষ্টি হাওয়ায় বয়ছে,
    শ্যামা শালিকের চুম্বনে-
    শিমুল পলাশ ফুটেছে।
    ঐ আইল পাথারের বুকে-
    সবুজ রাঙ্গা ঠোঁটে
    হাসছে দেখ।সারি সারি-
    ধান ক্ষেতের অঙ্কুর লতা।
    বসন্তের প্রভাতে সূর্যের ঝলকে-
    ঝিলিমিলি করছে।
    ও বাবা তোমার কথা-
    ভীষণ মনে পরছে।
    তোমার- বাঁশতলা, খেরকাছা-
    আর মাঠ ভিটা জমির ক্ষেতে
    কি ধানের অঙ্কুর দুলছে?
    দেখছি কত ২৮-২৯ নাকি
    পায়জাম, আজ শুধু স্মৃতি
    পাতায় জাগ্রত-
    ফাল্গুনের কাদামাখা দিনগুলো
    এক গুচ্ছ কৃষ্ণচূড়া যায় ছুঁয়ে-

    ঘোলা পানিতে মাছ শিকার বন্ধ করেন


    সরকার বলছে জামাতের নিবন্ধন বাদ করতে পারে ইসি। ইসি জামাত বিষয় নিয়ে বৈঠক করেছে। প্রচলিত আইনের সাংঘর্ষিক এমন বিধান জামাতের গঠন তন্ত্রে আছে। অতএব তাদের নিবন্ধন বাতিলের চেষ্টা চলছে। নিবন্ধন বাতিল করলে আসলে কী হবে? তারা দল হিসেবে তো থাকবে?থাকবে তাদের চেইন অব কমান্ড, থাকবে তাদের প্রচারণা ,প্রকাশনা,মিছিল মিটিং করার সুযোগ। থাকবে আন্দোলনের নামে , মাঠে রাজনীতির নামে , অরাজকতা করবে,ভাঙচুর করবে,মানুষ মারবে,জনমনে ত্রাস সৃষ্টি করবে। অথব ভোটে দাঁড়াতে পারবে না। তো ভোটে দাঁড়াতে না পারলে কি হবে?

    প্রজন্ম চত্ত্বরের নতুন প্রজন্ম কে ভালোবাসা দিবসের শুভেচ্ছা !!1


    যেকোনো আন্দোলন এর মূল প্রাপ্য হচ্ছে তার সফল পরিসমাপ্তি । প্রজন্ম চত্ত্বর নিয়ে আমার অভিমত তেমনটাই, বিশেষ করে আমার অভিজ্ঞতা থেকে বলছি এই ছোট্ট জীবনে আন্দোলনে রাজপথে থেকেছি বহুবার, জেল খেটেছি, কিন্তু যা কোনদিন করতে পারিনি তা হচ্ছে মেইনস্টিমে নিজেকে লাইম লাইটে নিয়ে আসা। এর মূল কারণ হচ্ছে সহযোদ্ধাদের যেন অনুপ্রেরণায় কোনও ঘাটতি না হয়, তাদের উত্সাহ যুগিয়েছি, সাথে থেকেছি,। আর সবচেয়ে বড় যে বিষয়টি নিয়ে তাদের কে উজ্জীবিত করেছি, তা হচ্ছে সমর পরিকল্পনা মুখ্য ভূমিকা পালন করে। যা আন্দোলনের সফল পরিসমাপ্তির জন্য বিশেষ প্রয়োজনীয় একটা প্রথা।

    আন্দোলনের নেতা কে?- জনতা


    আমি শাহবাগের আন্দোলনটা শুরু করেছিলাম, আমি খুলনার আন্দোলন শুরু করেছিলাম, আমি, সিলেটের-চট্টগ্রামের-সারা দেশের আন্দোলনটা শুরু করেছিলাম, আমিই এর নেতা, আমিই এর কর্মী - কারন আমি জনতার একজন, আর জনতাই এই আন্দোলনের আহ্বানকারী-নেতা-কর্মী। জনতাই শুরু করেছে, জনতাই শেষ করবে এই নতুন মুক্তির সংগ্রাম। আপনিও কি জনতার একজন? তবে অভিনন্দন! আপনি কি জনতার কেউ নন? সেক্ষেত্রে দুরে গিয়ে মরুন সে আপনি যত বড় নেতা-রাজনীতিবিদ-সুশীল অথবা বুদ্ধিজীবিই হন না কেনো। কারন এখানে পক্ষ একটাই - জনতা। আর জনতার সংগ্রাম চলছে, চলবেই।

    দাওয়াত- দ্বীন- দুনিয়া ও তাবলীগ ।


    মহান আল্লাহ পাক রাব্বুল আলামিন দুনিয়া সৃষ্টির পর থেকে যুগে যুগে লক্ষাধিক নবী রাসুল দুনিয়ায় প্রেরন করিয়াছেন । আর সকল নবী রাসূল পয়গাম্বর{আঃ}গন দুনিয়ায় এসে,এক আল্লাহর একত্ববাদের দাওয়াত,অর্থাৎ-লা ইলাহা ইল্লাল্লাহর –দাওয়াত দিয়েছেন । যে,আল্লাহ এক তার কোন শরীক নেই । এরই ধারাবাহিকতায় আল্লাহ পাক তার প্রিয় হাবীব হযরত মুহাম্মদ {সাঃ}কে দুনিয়ায় প্রেরনের মাধ্যমে,দুনিয়াতে নবী প্রেরনের ইতি টানলেন । এবং আল্লাহ পাক হুজুর পাক {সাঃ}কে দিয়ে মানব জাতির নিকট দ্বীনের দাওয়াত পৌঁছালেন । আর যেহেতু দুনিয়াতে কোন নবী রাসূল {আঃ} গন এর আবির্ভাব ঘটবে না । এ জন্যই দাওয়াতের মত গুরু দায়িত্ব রাসুলে কারীম {সাঃ} তার নিজ উম্মতের

    ওৎ পাতা শত্রু


    প্রিয় সহ যোদ্ধারা আমার,
    আমরা জানি আমাদের নিজ নিজ স্ব-অবস্থান থেকে আমাদের আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছি।আমরা এই নিয়ে অনেক হুমকির মধ্যে আছি।আমি জানি এই হুমকি আপনাদের মনে নিজের জন্য একটুও কাঁপন ধরায় নাহ।আমি আরও বুঝতে পারি আমাদের মধ্যে অনেকের অনেক রকমের রাজনৈতিক ভাবাদর্শও আছে।কিন্তু,আমাদের দেশের সত্ত্বা আমাদের কাছে বড় বিধায় আমি,আপনি আজ রাজপথে।আমার মনে সদা প্রশ্ন জাগে আমি কিংবা আপনি রাজপথে হওয়ার কারণে কি তারা ঘরে বসে???????

    পৃষ্ঠাসমূহ

    কু ঝিক ঝিক

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর