নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • কাঙালী ফকির চাষী
    • রাজর্ষি ব্যনার্জী
    • মাহের ইসলাম
    • মৃত কালপুরুষ

    নতুন যাত্রী

    • নীল মুহাম্মদ জা...
    • ইতাম পরদেশী
    • মুহম্মদ ইকরামুল হক
    • রাজন আলী
    • প্রশান্ত ভৌমিক
    • শঙ্খচূড় ইমাম
    • ডার্ক টু লাইট
    • সৌম্যজিৎ দত্ত
    • হিমু মিয়া
    • এস এম শাওন

    সিদ্ধান্ত নিতে ভুল হলে তার দায়ভার কার?


    সব যুদ্ধেরই কিছু রণকৌশল থাকে। মিত্রেরও থাকে, শত্রুরও থাকে। যুদ্ধে তারই জয়ের
    সম্ভাবনা থাকে, যে প্রতিপক্ষের রণকৌশল আগে-ভাগেই যৌক্তিক পর্যালোচনার মাধ্যমে জেনে যায় এবং সে মোতাবেক রনাঙ্গন পরিচালনা করে। প্রজন্ম চত্বরের রণকৌশল কি, ঠিক বুঝতে পারছি না।

    ভালোবাসার ঘ্রাণ # ৩য় পর্ব


    এইবারও ফোনটা কেউ ধরল না। সৈকতের মেজাজটা পুরাই খারাপ হয়ে গেল। এটা কোন কথা? আরে বাবা কথাই যদি না বলবি তাহলে ফোন নাম্বার দিবি কেন। নিজের উপর সৈকতের রাগ হচ্ছে বেশি। একটা নাম্বার পেয়েই সে কি না কি ভেবে বসেছিল। রাগের চোটে মোবাইলটা ছুড়ে ফেলতে যাবে ঠিক এই মুহূর্তেই একটা মেসেজ আসল মোবাইলে। আছাড় দেওয়ার জন্য মোবাইলটাকে উপরে তুলছিল সৈকত। হাতটা নামিয়ে এনে সে মোবাইলের স্ক্রিনের দিকে তাকাল। আরে এ তো নিশাতের নাম্বার। মেসেজটা অন করল সে।

    “আপনি কি সৈকত?”

    রিপ্লাই না দিলে খারাপ দেখা যায়। অতএব সৈকত রিপ্লাই দিল-

    “ইয়েস, আমি সৈকত। আপনি নিশাত তো?”

    কিছুক্ষণ পরেই আবারো মেসেজ আসল-

    সাকার গুডস হিলের বাড়ীকে বাজেয়াপ্ত করে বধ্যভুমি ঘোষণা করা হোক।


    গূডস হিলের বাড়ীটি একটি বিভিষিকার নাম। প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে এ বাড়ী নিয়ে অনেক গল্প প্রচলিত আছে। এ বাড়িতে মুক্তিযোদ্ধাদের আর্তচিতকারে প্রকম্পিত হয়েছে আকাশ বাতাস, কিন্ত পাহাড়ের উপর বিশাল সেই এলাকা ভেদ করে আসেনি মুক্তিযোদ্ধাদের কন্ঠ। যে সময় চট্টগ্রামের মানুষ মাথা গোজার ঠাই পায় না, সে সময় খোদ চট্টগ্রাম শহরে একরের পর একর পাহাড় দখল করে সাকা পরিবার মহা দর্পে এই এলাকা দখল করে আছে, যেই পাহাড়ে এখনও হয়তো শোনা যায় মুক্তিযোদ্ধা পুরুষ আর ধর্ষিত নারীর আর্তচিতকার। রাজাকারদের যাবজ্জীবন দিয়ে (ফাঁসী দিবে কিনা সন্দেহ হয়) যদি সরকার তার দায়িত্ব শেষ করবে মনে করে তা হবে বিশাল ভুল। ইতিমধ্যেই একজ

    শিবিরের ওয়েবসাইট হ্যাকড


    শিবিরের ওয়েবসাইট হ্যাক করে শাহবাগের নামে উৎসর্গ করেছে একদল হ্যাকার। :নৃত্য: :নৃত্য: :ফুল: :ফুল: শুক্রবার রাতে শিবিরের ওয়েবসাইট (www.shibir.org.bd) হ্যাক করে হোম পেইজে হ্যাকার দল ইংরেজিতে লিখে দেয়, দিস হ্যাকড ইজ ডেডিকেটেড টু শাহাবাগ। মাই ওয়ার ইজ ডিক্লিয়ার এগেইনস্ট ইউ। :bow: :bow: :bow:
    শিবিরের ওয়েবসাইট হ্যাক করার পর হোম পেইজে বসিয়ে দেয়া কালো পৃষ্ঠায় হ্যাকার নিজের পরিচয় দেন ‘XTOR’। এরপর সবুজ বন্ধনী চিহ্নে লাল হরফে লেখা হয় প্রাউড টু বি এ বাংলাদেশি’।

    প্রজন্ম চত্বর মঞ্চ থেকে ছাত্র নেতাদের আর ধর্মবিদ্বেষি নাস্তিকদের হটান


    “ব্লগার মাত্রই নাস্তিক নয়। যেমন টুপি দাড়ি মানেই জামাত নয়” এটা জনতাকে পরিস্কারভাবে বোঝানোর দ্বায়িত্ব আন্দোলোনকারীদের, তাদের নেতা আর সংঘঠকদের। অপ্রাসঙ্গিক নাস্তিকতা, ধর্র্মবিদ্বেষিকতাকে আর দলিয়করনকে সামান্যতম প্রশ্রয় দিলেই যে জামাত তার রাজনৈতিক ফয়দা তুলতে লুফে নেবে এবং নিচ্ছে তাতো জানা কথা। তা জেনেও শাহবাগ মঞ্চের সংগঠক নেতৃত্ব এই ভুল কেন করছেন?

    ভিসা ক্যান্সেল


    আমাদের ইউনিভার্সিটিতে বায়োকেমিস্ট্রি ডিপার্টমেন্ট এর ছোট ভাই আরমান।বিদেশে এ-লেভেল আর ও-লেভেল শেষ করে এই দেশে আসে।পুরা ফ্যামিলি-ই শিফট।তার আব্বা ছাড়া।আমাদের ইউনিভার্সিটিতে আসার পর তারে যতটা নাহ তার ডিপার্টমেন্ট চিনে,তার চেয়ে বেশী চিনে আমাদের ডিপার্টমেন্ট এর পোলাপান।আমাদের সাথে আড্ডা দেওয়া থেকে শুরু করে সব কিছু।তার একটা সমস্যা ছিল,সে বাংলায় কথা বলতে জানলেও বাংলিশ লেখা ছাড়া বাংলা লেখা পড়তে পারতো নাহ।সে ক্লাসে স্যারদের কাছে হইত অপদস্থ।কারণ,আমাদের অনেক শিক্ষক বাংলায় লেকচার দেন।আরমান অনেক সময় বুজতও নাহ।ডেইলি পেইন দিত,স্যারদের নামে।আমি একদিন তারে রাগ করে বলে দি,"তুমি মিয়া বাংলা প্রতিবন্ধ

    ধর্মান্ধদের সাথে নিয়ে


    আসলে নাস্তিকতা তো মুল বিষয় নয় , এটা শুধুমাত্র উপলক্ষ। জান বাচানোর সর্বশেষ অস্ত্র ব্যবহার করছে কতিপয় ধর্মান্ধদের সাথে নিয়ে। কোন ধর্মপ্রান মুসলমান ওদের সাথে নেই। ধর্মপ্রান মুসলমান দেশের জন্য শহীদ হয় কখনোই মা আর মাতৃভূমির সাথে বেঈমানী করেনা। একজন ধর্মপ্রাণ মুসলিম.

    আমাদের মুক্তিযুদ্ধ ও ইষ্ট বেঙ্গল রেজিমেন্ট


    বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে এদেশের সশস্ত্র বাহিনীর অবদান ছিল অপরিসীম। পাকিস্তানী বাহিনী এদেশের বাঙালীদের নিয়ে ১৯৪৮ সালে গঠন করে "ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্ট(EBR)" ।প্রথম দিকে শুধু একটি ব্যাটেলিয়ন থাকলেও পরবর্তীতে ব্যাটেলিয়ন সংখ্যা আটে উন্নীত করা হয়।এই রেজিমেন্টের 5th EBR এর সাহসী সৈনিক এবং অফিসারেরা ১৯৬৫ সালে পাক ভারত যুদ্ধে অনন্য কৃতিত্ব প্রদর্শন করে এবং ভারত বাহিনীর কাছ থেকে লাহোরকে রক্ষা করে।

    ধর্মের রাজনৈতিক ব্যবহার এবং গ্ল্যামারপ্রিয় ফেসবুকীয় নাস্তিকগণ


    ভার্চুয়াল জগতে প্রগতিশীল এবং মানবতাবাদী হবার সহজ এবং শর্টকাট পথ হচ্ছে ধর্মকে পোন্দানো। পোন্দানো শেষে আয়েশ করে সিগারেটে সুখটান দেবার মাঝে যে সুখ- সাথে নাম কামাবার যে সুযোগ,- তা ধৈর্য ধরে, পড়াশোনো করে, বুদ্ধিবৃত্তিক আলোচনায় পাওয়া যায় না এত তাড়াতাড়ি। শর্ট টাইমের দুনিয়ায় যা করার সাত তাড়াতাড়ি করে ফেলতে হয় যাতে সমাজের অথবা সভ্যতার কল্যাণ [যেটা তাদের উদ্দেশ্য হিসেবে বিবেচনা করে] হোক বা না হোক, গ্ল্যামারটা যেন আসে!

    ডকুমেন্টারিঃ শাহবাগ স্কোয়ার - যুদ্ধপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তি চাই


    ডকুমেন্টারিঃ প্রজন্ম চত্বর – যুদ্ধাপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তি চাই

    শাহবাগ আন্দোলনের সাথে সংহতি প্রকাশ করে এই ডকুমেন্টারিতে প্রবাসী লন্ডনবাসীদের মতামত ও সেখানের আন্দোলনের তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। তরুন প্রজন্মের এই আন্দোলনের জন্য রইলো শুভকামনা। সিনেমা পিপলস এর ব্যানারে আন্দোলন নিয়ে দ্বিতীয় ডকুমেন্টারি।

    Vimeo: http://vimeo.com/59868946
    Youtube: http://youtu.be/rUYqTkelujg
    Facebook: https://www.facebook.com/photo.php?v=10151340290537982&set=vb.672862981&...

    পৃষ্ঠাসমূহ

    কু ঝিক ঝিক

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর