নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • কাঙালী ফকির চাষী
    • রাজর্ষি ব্যনার্জী
    • মাহের ইসলাম
    • মৃত কালপুরুষ

    নতুন যাত্রী

    • নীল মুহাম্মদ জা...
    • ইতাম পরদেশী
    • মুহম্মদ ইকরামুল হক
    • রাজন আলী
    • প্রশান্ত ভৌমিক
    • শঙ্খচূড় ইমাম
    • ডার্ক টু লাইট
    • সৌম্যজিৎ দত্ত
    • হিমু মিয়া
    • এস এম শাওন

    ট্যাক্যাল


    সদ্য বাগান থেকে তুলে আনা ক্যানাবিসের পাতাগুলোর দিকে তাকিয়ে বারাক ওবামা।বিশ্বের হর্তাকর্তা তিনি।তার জনগন এই ক্যানাবিসের লিগাইলাইজেসন চায়।তারা বোঝাতে চায় এটা তামাক ও অ্যালকোহলের চেয়েও ভালো জিনিস।ভাবতে লাগলেন,এত দিনে জনগন কি বুজলো কি জানি।আমেরিকায় কিসের অভাব।এতো জিনিস থাকতে তোরা ক্যানাবিসের পাতায় মন দিলি ক্যান???আনমনে হেসে ঊঠে ওবামা।ভেবে ঊঠেন এই ক্যানাবিস ইস্যুতে তিনি দ্বিতীয় বারের মত আমেরিকার প্রেসিডেন্ট।এই জনগন ও ত্যাঁদর মাইরী।আব্রাহাম সাহেব ও ক্যানাবিস খেতেন কিনা কে জানে???আর যদি না খেতেন কি বলে তাদের সান্তনা দিতেন?????????

    জয় মাহমুদুর!!


    জয় মাহমুদুর !! এক মাহমুদুরের কারনে আজ শাহবাগে নামাজ পড়া হয়, কোরান তিলাওয়াত হয় ,মোমবাতি জালানো বন্ধ হয় ।এক মাহমুদুরের কারনে জনসভা করে বলতে হয় আমরা আস্তিক আমরা মুসলমান।এই মাহমুদুর এর কারনে নাস্তিকরা ও বনে যায় আস্তিক!

    আর কোন পিছুটান নেই


    শিবিরের এলাকা নামে খ্যাত আমার জন্মস্থান । ছোটবেলা থেকেই "রগ কাটা " শব্দটার সাথে পরিচিত আমি ,তবে এতো ছোট বয়স থেকে শব্দটা শুনেছি যে তখন কথাটার মানে বুঝতাম না ,বুঝলে হয়ত তখন থেকেই জোরাল ভাষায় লিখে যেতাম । তবে এখন যখন বুঝি তখন নির্ভয়েই লিখে যায়। কি আর হবে ?

    চট্টগ্রামের শিক্ষাঙ্গনে জামাত শিবির


    বর্তমানে চট্টগ্রামে শিক্ষাঙ্গনে যে বিষয়টি লক্ষণীয় তা হল জামাত শিবিরের কুপ্রভাব। মাদ্রাসা তো বটেই, স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় কোনোটাই এদের আওতামুক্ত নয়। আমি চট্টগ্রামে এমন একটা বিদ্যালয়ে পড়েছি যেখানে শিবিরের প্রভাব সুস্পষ্ট। সেইসূত্রে তাদেরকে কাছ থেকে দেখার সুযোগ আমার হয়েছি। এদের প্রভাব যে কতটা শক্তিশালী তা অকল্পনীয়। এদের নির্দেশে স্কুলের টিচার বদলি হয়, স্কুল কলেজের কার্যক্রম পরিচালিত হয়, এদের বিরুদ্ধে কথা বলা মানেই নিশ্চিত সাসপেন্ড!

    আমরা কী হেরে যাচ্ছি রোজ, মুন্ডুহীন এগুচ্ছি আলো ফেলে আঁধারে!


    আমাদের তো রোজ অল্প অল্প করে হলেও এগুবার কথা ছিল। কথা ছিল কুসংস্কার ভেঙ্গে দিয়ে আলো জ্বালবার। আমরা কেবল আলো নিবিয়ে কুসংস্কারে মাথা নত করছি! বাংলাদেশ কী পিছিয়ে যাচ্ছে আমাদের হাত ধরে!! কিছু কথা যে না বললেই নয়,

    ছিটকে আশা রাজাকেরের রক্ত গায়ে মেখে তবেই ফিরবো


    নিজ ধর্মের অসম্মান কেউই চায় না । যেমনটি আমিও । আমাদের রসূল ও শেষ নবী মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) কে নিয়ে এর আগেও বাংলাদেশ সহ পৃথিবীর আরোও অনেক দেশে কুটুক্তি কিংবা অবমাননা করা হয়েছে ।
    ইসলাম শান্তির ধর্ম । সেটা নিয়ে কেউই বিপক্ষে যাবে না । সেটা মুসলমান হোক আর অন্য ধর্মেরই হোক না কেন । ইসলাম কখনই রক্তের বদলে রক্ত সমর্থন দেয়না । মাথার বদলে মাথা কখনই ইসলামে বৈধ হতে পারে না ।

    সরকার সমীপে


    সরকার সমীপে,

    একটি বাস্তব ও সমসাময়িক চুটকি


    এক গ্রামে একজন খুব জনপ্রিয় স্কুল মাস্টার ছিলো। সদ গুণাবলীর কারণে গ্রামের মানুষ তাকে খুব মান্য করতো। একবার গ্রামে শুরু হলো ফুটবল টুর্নামেন্ট। গ্রামের মানুষ সর্ব সম্মতিক্রমে সেই মাস্টারকে মনোনিত করলো রেফারি হিসেবে। মাস্টার সাহেবের কাছে গেলো তার সম্মতির জন্য। কিন্তু মাস্টার সাহেব ফুটবল খেলার কিছুই বুঝেন না। খেলার নিয়ম কানুন সম্পর্কে তার কোন ধারনাই নেই। গ্রামের মানুষ নাছোর বান্দা। তারা বিশ্বাস ই করছে না যে মাস্টার সাহেব ফুটবল খেলা বুঝেন না। গ্রামের মানুষের অদম্য পিড়াপিড়িতে মাস্টার সাহেব শেষ পর্যন্ত বাধ্য হয়ে রাজী হলেন।

    আকাশে উড়ানো চিঠি


    শোন, তোমাকেই বলছি। হ্যাঁ তুমি, চিঠিটা তোমারই জন্য। তোমার গল্প অনেক শুনেছি দাদুর কাছে। অনেক কথা জানার আছে আমার। আবার অনেক কিছু বলারও আছে।

    ঘাতকের পরিচয় - ৫ : যুদ্ধাপরাধী ঘাতক দালাল রাজাকার - ফরিদউদ্দিন চৌধুরী।


    মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে এমসি কলেজে স্নাতক শ্রেনীতে অধ্যায়নরত ফরিদউদ্দিন চৌধুরী ছিল সিলেট জেলা ইসলামী ছাত্রসংঘের সভাপতি। এক সময় সারাদেশে বদরবাহীনির কার্যক্রম শুরু হলে তিনি ৩১ পাঞ্জাব রেজিমেন্টে সভা করে সিলেট বদর বাহিনীর কার্যক্রমের সুচনা করেন।

    পৃষ্ঠাসমূহ

    কু ঝিক ঝিক

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর