নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 3 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • দ্বিতীয়নাম
    • বেহুলার ভেলা
    • অাব্দুল ফাত্তাহ

    নতুন যাত্রী

    • সুশান্ত কুমার
    • আলমামুন শাওন
    • সমুদ্র শাঁচি
    • অরুপ কুমার দেবনাথ
    • তাপস ভৌমিক
    • ইউসুফ শেখ
    • আনোয়ার আলী
    • সৌগত চর্বাক
    • সৌগত চার্বাক
    • মোঃ আব্দুল বারিক

    সরকার সমীপে


    সরকার সমীপে,

    একটি বাস্তব ও সমসাময়িক চুটকি


    এক গ্রামে একজন খুব জনপ্রিয় স্কুল মাস্টার ছিলো। সদ গুণাবলীর কারণে গ্রামের মানুষ তাকে খুব মান্য করতো। একবার গ্রামে শুরু হলো ফুটবল টুর্নামেন্ট। গ্রামের মানুষ সর্ব সম্মতিক্রমে সেই মাস্টারকে মনোনিত করলো রেফারি হিসেবে। মাস্টার সাহেবের কাছে গেলো তার সম্মতির জন্য। কিন্তু মাস্টার সাহেব ফুটবল খেলার কিছুই বুঝেন না। খেলার নিয়ম কানুন সম্পর্কে তার কোন ধারনাই নেই। গ্রামের মানুষ নাছোর বান্দা। তারা বিশ্বাস ই করছে না যে মাস্টার সাহেব ফুটবল খেলা বুঝেন না। গ্রামের মানুষের অদম্য পিড়াপিড়িতে মাস্টার সাহেব শেষ পর্যন্ত বাধ্য হয়ে রাজী হলেন।

    আকাশে উড়ানো চিঠি


    শোন, তোমাকেই বলছি। হ্যাঁ তুমি, চিঠিটা তোমারই জন্য। তোমার গল্প অনেক শুনেছি দাদুর কাছে। অনেক কথা জানার আছে আমার। আবার অনেক কিছু বলারও আছে।

    ঘাতকের পরিচয় - ৫ : যুদ্ধাপরাধী ঘাতক দালাল রাজাকার - ফরিদউদ্দিন চৌধুরী।


    মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে এমসি কলেজে স্নাতক শ্রেনীতে অধ্যায়নরত ফরিদউদ্দিন চৌধুরী ছিল সিলেট জেলা ইসলামী ছাত্রসংঘের সভাপতি। এক সময় সারাদেশে বদরবাহীনির কার্যক্রম শুরু হলে তিনি ৩১ পাঞ্জাব রেজিমেন্টে সভা করে সিলেট বদর বাহিনীর কার্যক্রমের সুচনা করেন।

    ব্লগ না...প্রবন্ধ না...জাস্ট এক খান পারসোনাল মতামত!!!


    ওকে...প্রথম বেপার টা হলো...শাহাবাগ আন্দোলন এ আপনাদের মত সমর্থক প্রয়োজন নাই। কারন যেই আন্দোলন কারি তার সহযোদ্ধাকে জবাই করে দেয়ার পর বলে "ভালো" হইসে জাস্ট বিকস হি ওয়াস এথিস্ট অর হিন্দু অর বৌদ্ধ!? সে আন্দোলন কারিরা আসলে জানে না...প্রকৃতপ্রস্তাবে এই মুভমেন্টটা আসলে কেন?? এটা কোন ধর্মীয় আন্দোলন না!! শাহাবাগ আসলে ধর্ম নিরপেক্ষতার কথা বলে...ধর্মান্ধতা না!! আর প্রসঙ্গত একটা কথা হলো ধর্মান্ধতা আর ধর্মভীরুতা এক জিনিস না!!!

    আর এই সব মানুষকে আসলে বঝানের কিছু নাই...এরা গ্যান পাপি!! এদের বরং চিনে রাখেন...পরের প্রজন্মের কাজে লাগবে!!!

    আমার একটা পারসোনাল ভিউ বলি...

    এক জীবেন রবীন্দ্রনাথ


    “একজীবনে রবীন্দ্রনাথ”

    “ অলৌকিক আনন্দের ভার
    বিধাতা যাহারে দেন
    তার বক্ষে বেদনা অপার
    তার নিত্য জাগরণ অগ্নিসম দেবতার দান
    ঊর্ধ্বশিখা জ্বালি চিত্তে
    অহরাত্রি দগ্ধ করে প্রাণ” ।

    বইমেলায় আগুন লাগেনি, আগুন লেগেছে আমাদের চেতনায়, আমাদের অস্তিত্বে


    বই মেলায় আগুন! এও সম্ভব, এটাও হতে পারে! খবরটা শুনার পর স্থাণু হয়ে গিয়েছিলাম। পুরো ২৪ ঘন্টা অনুভূতিশূন্য থাকার পর লিখতে বসেছি। চোখ ফেটে জল আসছে, রাগ, ক্ষোভ -ঘৃণা অপমান, অভিমানে সারা শরীর থরথর করে কাপছে। বইমেলা শুধুই একটা মেলা নয়। এই মেলার সাথে জড়িয়ে আছে আমাদের অস্তিত্বের ইতিহাস, আমাদের চেতনা, আমাদের ভাষার ইতিহাস। বইমেলা আমাদের প্রাণের মেলা। এই মেলা রাতারাতি সৃষ্টি হয়নি। এ মেলার সাথে জড়িয়ে আছে একটি জাতির অভ্যূত্থানের ইতিহাস। বইমেলার সাথে জড়িয়ে আছে বাঙ্গালীর আবেগ, ভালবাসা। অথচ সেই বইমেলায় আগুন! অবিশ্বাস্য! নিজের চোখে না দেখলে বিশ্বাস হয় না।

    অনন্য সুভাষ (১)


    [এই লেখাটি আমার ধারাবাহিক লেখা, প্রথম কিস্তি আজ প্রকাশে মনস্থির করছি এবং সেই সাথে আমি স্পষ্ট করে বলতে চাই আমার এই ধারাবাহিক লেখা আমি উৎসর্গ করছি আমার আদরের ছোটো বোন আমি যাঁর কাছে অনেকটা ঋণী সেই ক্যামেলিয়া কামাল (ফড়িং ক্যামেলিয়া)’কে]

    সঙ্কটে পড়ে সহায়তা চায় ইসলামী ব্যাংক; বন্ধ হয়ে যেতে পারে


    গণজাগরণ মঞ্চ থেকে যুদ্ধাপরাধী সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের তালিকায় নাম আসার পর বড় ধরনের সঙ্কটে পড়েছে ইসলামী ব্যাংক। বিভিন্ন শাখার গ্রাহকদের টাকা তোলার হিড়িক, বিভিন্ন স্থানে হামলায় পড়ার পর আন্তর্জাতিক বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানও এই ব্যাংকের এলসি নিতে অস্বীকৃতি জানাচ্ছে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

    এই পরিস্থিতিতে অস্তিত্ব রক্ষায় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাহায্য চেয়েছে ৩০ বছর পুরনো ইসলামী ব্যাংক, জঙ্গি অর্থায়নের অভিযোগ ওঠায় যে ব্যাংকের ওপর নজর রয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংকেরও।

    প্রজন্ম আন্দোলন - মানুষ মানবতা, বিশ্বাস অবিশ্বাস, নাস্তিকতা আস্তিকতা


    মানুষ আর মানবতার অনেক ইউটোপিয়ান কথার ফুলঝুড়িই আমরা ছড়াতে পারি। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে মানুষ এই প্রানিকুলের সবচেয়ে হিংস্র স্বার্থপর আর শঠ প্রানি।

    বিশ্বাস,শুধু ধর্মবিশ্বাসই মানুষের একমাত্র বিশ্বাস নয়, নাস্তিকতা,গনতন্ত্র,পুজিবাদ, কম্যুনিজম, বাক স্বাধিনতা,নাগরিক অধিকার, ইত্যাদি ইত্যাদি সবই বিশ্বাসের ব্যাপার। জটিল মানব জাতি সাধারনত একাধিক বিশ্বাসের নানা পারমুটেশন কম্বিনেশন নিয়েই চলে। তবে তার শঠতায় মানুষ মুখে তার বিশ্বাসের ফুলঝুড়ি ছোটালেও,তার বিশ্বাস শুদ্ধ নয়, আর সে তার অশুদ্ধ বিশ্বাস প্রয়োগ করে নিজের স্বার্থ অনুযায়ি, বিভিন্ন মাত্রার কপটতায়।

    পৃষ্ঠাসমূহ

    কু ঝিক ঝিক

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    SSL Certificate
    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর