নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • দ্বিতীয়নাম
    • মিশু মিলন
    • বেহুলার ভেলা
    • আমি অথবা অন্য কেউ

    নতুন যাত্রী

    • সুশান্ত কুমার
    • আলমামুন শাওন
    • সমুদ্র শাঁচি
    • অরুপ কুমার দেবনাথ
    • তাপস ভৌমিক
    • ইউসুফ শেখ
    • আনোয়ার আলী
    • সৌগত চর্বাক
    • সৌগত চার্বাক
    • মোঃ আব্দুল বারিক

    জামাত নিষিদ্ধ করনের দাবি – রাজনৈতিক প্রজ্ঞা আর বাস্তবতাহিন


    আমার মতে জামাত নিষিদ্ধের এই দাবি রাজনৈতিক প্রজ্ঞা আর বাস্তবতাহিন। ওদের নিষিদ্ধ করলেই কি ওদের সমর্থকরা, যারা যথেষ্ট সংখ্যক ও রাজনৈতিক ভাবে সবচেয়ে সুসঙ্ঘটিত, ভানিশ হয়ে যাবে?

    স্বপ্নের বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে স্বপ্নযাত্রার মিছিল থেকে একটি গণদাবী :: ক্ষত-বিক্ষত হৃদয়গুলোর একটি আহত প্রশ্ন


    স্বাধীনতার বেদীমূলে ৪২ বছরের যে জঞ্জাল-আগাছা-আবর্জনা তা সমূলে উপড়ে ফেলে পরিস্কার করে একটি সুন্দর সুখী সমৃদ্ধশালী ও অসম্প্রদায়িক নতুন বাংলাদেশ গড়ার সূচনায় এই প্রজন্মের যারা কলম-কিবোর্ড ছেড়ে রাজপথে নেমে গনজাগরণ সৃষ্টি করে নতুন আলোর মিছিলের যাত্রা শুরু করেছিলো। সে পথে কখনো শত্রুর পেতে রাখা নানারকম কাঁটার আঘাতে রক্তাক্ত জর্জরিত হয়ে আবার কখনো কখনো রাজনৈতিক দল কিংবা ধর্মভিত্তিক গোষ্ঠী ও নানান যড়যন্ত্রকারী প্রতাপ-প্রভাবশালী মহলগুলোর বিভিন্ন অপপ্রচার বাধা-বিপত্তি ডিঙ্গিয়ে প্রজন্মের হাতে স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়া প্রত্যয়ে প্রিয় প্রজন্মের স্বপ্নপথের মিছিল আজ অনেকটা দূর এসেও এখনো তীরে না পৌঁছানো অস্থির

    জ্বালানী ও বিদ্যুৎ সঙ্কট সমাধানে নবায়নযোগ্য শক্তির সম্ভাবনা- দ্বিতীয় পর্ব


    আনুমানিক ৫০,০০০ থেকে ১০০,০০০ বছর আগে আগুন আবিস্কার(১১) এবং এর নিয়ন্ত্রিত ব্যবহার ছিল প্রশ্নাতীত ভাবে মানব সভ্যতার অগ্রগতিতে সবচেয়ে বড় আবিস্কার। একথা বলার অপেক্ষা রাখেনা যে আমরা যত রকম কাজই করতে চাই না কেন তা কোন না কোন ভাবে তাপ উৎপাদনের সাথে সম্পর্কিত। কিন্তু উনবিংশ শতাব্দী থেকে শুরু করে বর্তমান পর্যন্ত সারা পৃথিবীতে ঠিক যে কায়দায় তাপ উৎপাদন করা হচ্ছে তা চালু থাকলে যে সন্তানদের মুখ দেখে আমরা ভবিষ্যতের কথা ভাবি তাদের পুরো জীবদ্দশা শেষ করার মত সময় পৃথিবীর হাতে নেই। যদিও বিশ্বের মোট তেলের মজুদ আগামি ৪৩ বছরের মধ্যে(১২), আবিষ্কৃত গ্যাস আগামি ৬১ বছরের মধ্যে এবং সম্ভাব্য আবিষ্কৃত গ্যাস আগামি ১৬৭ ব

    জ্বালানী ও বিদ্যুৎ সঙ্কট সমাধানে নবায়নযোগ্য শক্তির সম্ভাবনা- প্রথম পর্ব


    তেল গ্যাস কয়লার মত জ্বালানি গুলোর উপর বাংলাদেশের ৯৮ ভাগ বিদ্যুৎ উৎপাদন নির্ভরশীল। কৃষি সহ অন্যান্য সমস্ত উৎপাদন নির্ভরশীল আবার বিদ্যুতের উপর। বাংলাদেশ সরকার তার এই শাসনামলে জ্বালানি তেল, গ্যাস এবং বিদ্যুতের মূল্য পাঁচ থেকে সাতবার করে বৃদ্ধি করেছে। জ্বালানি তেল, গ্যাসের দাম বৃদ্ধির স্বাভাবিক প্রতিক্রিয়া হিসেবে পরিবহন, খাদ্য, কৃষিপণ্য সহ অন্যান্য সব নির্ভরশীল বাণিজ্যিক উৎপাদনের খরচ বৃদ্ধি পায়, ফলে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যও বৃদ্ধি পায়। দ্বিতীয় ঘটনাটি ঘটে যখন তেল গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির কারন দেখিয়ে সরকার বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি করে। আবারও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটে। রাষ্ট্রের পুরো অর্থনৈতিক ব্যবস্থ

    CTN এগেইন


    সকালে ঘুম থেকে উঠে আমাদের মন্ত্রী আবুল উঠে দেখলেন চোর এসে তার বাড়ির সব টাকা নিয়ে গেছে ।
    বাসি মুখে মাল সাহেব বিড়বিড় করে বললেন , রাবিশ !
    মিসেস মাল তো ঘটনা দেখে পুরো তাজ্জব বনে গেলেন , সাথে সাথে বাঁধ ভাঙা কান্না , এখন আমাদের কি হবে গো Cray 2

    মালমন্ত্রী কিছুদিন চুপচাপ । কেউ তাকে জ্বালাতন করল না । সবাই ভাবলো বুড়ো , কিউট , নাদুস নুদুস মানুষটা শোকে স্তব্ধ । মানসিক চাপ পড়লে হয়তো স্ট্রোক করে ফেলবেন ।

    তা , ক’দিন পর তিনি স্ট্রোক খেললেন বৈ কি । তার এমন শটে সবাই তাজ্জব বনে গেলো । কেউ যেন হজম করতে পারছিলো না ।

    মিসেস গিন্নি মুখে আচল দিয়ে জলদ আখিঁ মেলে বললেন , এ আপনি কি বলছেন ?

    আপনার বিবেক কে বোঝান


    মেয়েটাকে নিয়ে বেশ বাড়াবাড়ি হবে বুঝছিলাম। আজ খবর পেলাম ঢাকায় আনা হচ্ছে চিকিৎসার জন্য। কিছুদিন আগেই দেখলাম মেয়েটার ছবি প্রায় সব পত্রিকার প্রথম পাতায় এসেছে। কোন পত্রিকায় এক চোখে ব্যান্ডেজ বেধে শুয়ে আছে। কোন পত্রিকায় চোখ দিয়ে রক্ত ঝরছে আর তাঁর মা হাত দিয়ে চোখ চেপে ধরে আছে। চট্টগ্রামের মেয়ে। ঐ যে কোচিং করতে যাওয়ার পথে কক্টেলের স্প্লিন্টার চোখে লাগার কেসটা। প্রায় সবাই এই ছবি ছাপিয়ে দারুণ সব সেন্টিমেন্টাল প্রতিবেদন করেছে। কোন মানে হয়? সব পত্রিকারই আসল ধান্ধা পত্রিকা বিক্রি করা।

    অসাধু সাবধান !


    কাফনে ও কফিনে লিখে রেখেছি
    বেজন্মাদের নাম,
    এবার শুধু হস্তান্তরের পালা।
    মগবাজার আর মসজিদ ছেড়ে
    এবার তোরা অন্যত্র পালা....

    আসছে ধেয়ে সমগ্র শাহবাগ
    শিয়রে বসে খেতে
    তোদের কূলখানির কাঙ্গালী ভোজ।

    মা ও মাটি জেগেছে আজ
    মৌলবাদের মৃত্যুর দাবীতে,
    সোচ্চার সাহসে শামিল শাহবাগে
    সমবেত হয়েছে সাধারনেরা,
    রাজাকারের রক্তে স্নান করতে।

    অধর্মের আনাগোনায়

    বিষাক্ততার শানে-নূযুল


    ‘ভালবাসিলেই ভালবাসা হয়’
    শুনে একবার মরতে মরতে ফিরেছি
    বিন্ধ্যপাহাড়ের এক ডাকিনীর হাত থেকে –
    ফের রঙপালিশ দেখাচ্ছ কাকে ?
    আমি চিনে গেছি চিনির প্রলেপে সায়ানাইড ।

    ব্লাক মাম্বার মধুচুম্বন তবু নিরাপদ
    থাকো যদি নারী অচলবৃত্তে,
    তথাপি সংশয়ে দোলে মন
    পেন্ডুলাম ছন্দে, শিকার-কেন্দ্র
    অ্যান্টিলোপের মতোন ;
    ভীরু চঞ্চল মনে অবাধ যাতায়াত করে
    আসন্ন অমঙ্গলের আশঙ্কাকুল আধিপত্য ।

    দহনে প্রেম
    চুম্বনে গরল

    হায় ! সুরাসিক্ত কণ্ঠে আজ গাই
    প্রতারনার প্রলেতারিয়েত, স্নিগ্ধ সংক্রমনে

    বীর(!!!!!) সেনানায়ক হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এবং আমাদের মুক্তিযুদ্ধে তার ভূমিকা।।



    মোহাম্মদ এরশাদ হোসেন ১৯৩০ সালের
    ২রা ফেব্রুয়ারি রংপুরে জন্মগ্রহণ করেন । তার বাবার
    নাম মোহাম্মদ মকবুল হোসেন । ভারতের
    কুচবিহারের দিনহাটা থেকে মোহাম্মদ মকবুল হোসেন
    রংপুর শহরের সেনপাড়ায় এসে স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু
    করেন । মোহাম্মদ এরশাদ হোসেন পরে তার
    সেনা বিভাগের কমিশন লাভের সময় নাম পরিবর্তন
    করে হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ করেন ।

    হরতালের ফাঁসী চাই


    ধৈর্যের বাঁধ ভেঙ্গে যাচ্ছে। শুধু বলি আর পেরে উঠছি না। কমিশনের টাকায় সম্পদের পাহাড় গড়ে তোলা হরতালকারী রাজনীতিবিদদের ফাঁসী চাই। হরতালের ফাঁসী চাই। আমার গাড়ী-বাস-সিএঞ্জি পোড়ানোর ক্ষতিপুরণ চাই। আমার হারানো আয়ের (লস অফ ইনকাম)ক্ষতিপুরণ চাই। আমার সন্তান অন্ধ হল যাদের কারণে তাদের বিচার চাই। আমার পুলিশের দুই কবজি উড়ে গেল যাদের কারণে তাদের বিচার চাই। আমার সন্তানের শিক্ষাজীবন ধ্বংসকারীদের বিচার চাই। যে ধনী লুটেরা রাজনীতিবিদেরা গুলশানে বসে জনগণের জন্য হরতাল দেয় আর জনগণের জন্য কাঁদে তাদের ভন্ডামীর বিচার চাই। আর লিখতে ভাল লাগছেনা।

    পৃষ্ঠাসমূহ

    কু ঝিক ঝিক

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    SSL Certificate
    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর