নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 3 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • রূপালীনা
    • নুর নবী দুলাল
    • সুব্রত শুভ

    নতুন যাত্রী

    • মহক ঠাকুর
    • সুপ্ত শুভ
    • সাধু পুরুষ
    • মোনাজ হক
    • অচিন্তা দত্ত
    • নীল পদ্ম
    • ব্লগ সার্চম্যান
    • আদি মানব
    • নগরবালক
    • মানিকুজ্জামান

    আমাদের নবযু্দ্ধের শহীদেরা - মোহাম্মদ জাফর মুন্সি (৪৫) আর আহমেদ রাজিব হায়দার শোভন (২৬)


    মোহাম্মদ জাফর মুন্সি (৪৫)
    লিফট চালক, অগ্রনী ব্যাংক, ঢাকা
    ১৩ই ফেব্রুয়ারী ২০১৩
    1

    আহমেদ রাজিব হায়দার (শোভন)
    বয়স ২৬, স্থপতি, মীরপুর, ঢাকা
    ১৫ই ফেব্রুয়ারী ২০১৩

    2

    শুরু হোক নতুন করে, রক্ত আর প্রানের দাম উশুল করতে হবে সব নোংরা রাজনীতিবিদদের কাছ থেকে।

    একাদশ দিনে পা দিলো চট্টগ্রামের গণজাগরন মঞ্চের আন্দোলন।


    এই মাসের শুরুতে আরেকটি বিজয়ের রায়ের অপেক্ষায় ছিলো মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতায় বিশ্বাসী জনতা,কিন্তু ট্রাইব্যুনাল থেকে রায় এলো ৩৫০ অধিক হত্যাকারী মিরপুরের কসাই কাদেরের যাবজ্জীবন। মুহুর্তেই স্তব্ধ হয়ে গেলো পুরো জাতি,থমকে গেলো প্রাণের স্পন্দন। এ যেন আশার সাথে অপূর্ণ প্রাপ্তি।সাথে সাথেই জেগে উঠলো অনলাইনের যোদ্ধারা,ফুসে উঠলো ব্লগে মুহুর্তেই কিন্তু তারা বুঝলো এভাবে হবে না,জনগনকে নিয়েই রাস্তায় নামতে হবে। একলা চলো নীতি অনুসরন করে নেমে পড়লো,চিন্তা করেনি লোকজন পাবে কি পাবে না,ভেবে দেখেনি জনসমর্থন হবে কি হবে না। শুধু একটাই চিন্তা এই আন্দোলন অনলাইন ছেড়ে রাজপথে ছড়িয়ে দিতেই হবে,জানাতে হবে এই বাংল

    ঘাতকের পরিচয় - ২ : মাওলানা হাবিবুর রহমান - চুয়াডাঙ্গার কুখ্যাত রাজাকার।


    a

    জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় মজলিশে শূরার সদস্য মাওলানা হাবিবুর রহমান মুক্তিযুদ্ধের সময় চুয়াডাঙ্গার জীবননগরের শান্তি কমিটির সভাপতি ছিলেন। হাবিবুরের নেতৃত্বে এখানে ছিল পাকবাহিনীর শক্তিশালী ঘাঁটি।

    রাজাকার হাবিবুরের নেতৃত্বেই কয়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রাজ্জাককে হাসাদহ ক্যাম্পে নিয়ে হত্যা ও পরে তার লাশ গুম করে ফেলা হয়। এ ছাড়া এলাকায় পাকবাহিনীর বিভিন্ন দুষ্কর্মের নির্দেশদাতা ছিলেন এই রাজাকার।

    ম্যাৎকার -২


    ছাগপোনা-১। যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষা নয় নিরপরাধ মানুষদের যুদ্ধাপরাধী সাজানোরই প্রতিবাদ করছে জামায়াত।

    ছাগপোনা-২। বিক্ষোভ, আন্দোলন ও ত্যাগের মধ্য দিয়েই ইসলামী বিপ্লবের পথ সুগম করতে হবে। ধীরে ধীরে তৈরী করতে হবে খেলাফতের উপযুক্ত পরিবেশ। ইসলামী আন্দোলনের সৈনিকদেরকে এভাবেই তৈরী হতে হয়। এভাবেই তৈরী হয় ইসলামী হুকুমত কায়েম করার মত যোগ্য প্লাটফর্ম।.
    কবি কাজী নজরুল ইসলাম তাঁর কবিতায় বলেছিলেনঃ.
    শেকল পরা চল মোদের এই শেকল পরা চল.
    এই শেকল পরেই শেকল তোদের করব রে বিকল।.

    ভালোবাসার এই দিনে


    ..

    কাঁদছে আকাশ, কাঁদছে মন, রিমঝিম বৃষ্টিতে বিরহী রোদন।
    বন্ধু তুমি, ফিরে এসো ... স্বপ্ন ছোঁয়ার, বাদল দিন
    বৃষ্টি ধারায় শোধাব আজ ... ভালোবাসার সবটুকু ঋণ
    বন্ধু আমি একলা বসে, আশা-নিরাশার বাদল দিন
    বৃষ্টি ধারায় শোধাব আজ ... ভালোবাসার সবটুকু ঋণ
    ও আকাশ কি আমারই মতন স্বপ্ন বেঁচেও স্বপ্নহীন
    বৃষ্টি ধারায় শোধাব আজ ... ভালোবাসার সবটুকু ঋণ
    বন্ধু তুমি ফিরে এসো ... স্বপ্ন ছোঁয়ার বাদল দিন

    পাথারের বুকে বসন্ত ফুটে


    ঃ বিশ্ব ভালবাসা দিবস উপলক্ষ্যে ঃ

    এ দেহের ভীতর বাহিরে
    হাঁড় কাঁপন মাঘের শেষে-
    সোনালী রোদ্র ফাল্গুনের ছোঁয়া-
    টেকনাফ থেকে তেঁতুলিয়া
    নীল আকাশে- বাতাসে-
    আজ মিষ্টি হাওয়ায় বয়ছে,
    শ্যামা শালিকের চুম্বনে-
    শিমুল পলাশ ফুটেছে।
    ঐ আইল পাথারের বুকে-
    সবুজ রাঙ্গা ঠোঁটে
    হাসছে দেখ।সারি সারি-
    ধান ক্ষেতের অঙ্কুর লতা।
    বসন্তের প্রভাতে সূর্যের ঝলকে-
    ঝিলিমিলি করছে।
    ও বাবা তোমার কথা-
    ভীষণ মনে পরছে।
    তোমার- বাঁশতলা, খেরকাছা-
    আর মাঠ ভিটা জমির ক্ষেতে
    কি ধানের অঙ্কুর দুলছে?
    দেখছি কত ২৮-২৯ নাকি
    পায়জাম, আজ শুধু স্মৃতি
    পাতায় জাগ্রত-
    ফাল্গুনের কাদামাখা দিনগুলো
    এক গুচ্ছ কৃষ্ণচূড়া যায় ছুঁয়ে-

    ঘোলা পানিতে মাছ শিকার বন্ধ করেন


    সরকার বলছে জামাতের নিবন্ধন বাদ করতে পারে ইসি। ইসি জামাত বিষয় নিয়ে বৈঠক করেছে। প্রচলিত আইনের সাংঘর্ষিক এমন বিধান জামাতের গঠন তন্ত্রে আছে। অতএব তাদের নিবন্ধন বাতিলের চেষ্টা চলছে। নিবন্ধন বাতিল করলে আসলে কী হবে? তারা দল হিসেবে তো থাকবে?থাকবে তাদের চেইন অব কমান্ড, থাকবে তাদের প্রচারণা ,প্রকাশনা,মিছিল মিটিং করার সুযোগ। থাকবে আন্দোলনের নামে , মাঠে রাজনীতির নামে , অরাজকতা করবে,ভাঙচুর করবে,মানুষ মারবে,জনমনে ত্রাস সৃষ্টি করবে। অথব ভোটে দাঁড়াতে পারবে না। তো ভোটে দাঁড়াতে না পারলে কি হবে?

    পৃষ্ঠাসমূহ

    কু ঝিক ঝিক

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    SSL Certificate
    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর