নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • কাঠমোল্লা
    • মিঠুন বিশ্বাস
    • মারুফুর রহমান খান
    • দ্বিতীয়নাম

    নতুন যাত্রী

    • চয়ন অর্কিড
    • ফজলে রাব্বী খান
    • হূমায়ুন কবির
    • রকিব খান
    • সজল আল সানভী
    • শহীদ আহমেদ
    • মো ইকরামুজ্জামান
    • মিজান
    • সঞ্জয় চক্রবর্তী
    • ডাঃ নেইল আকাশ

    প্রেসকিপশন


    আমি একজন মেডিকেল ছাত্র । পড়ালেখার পাশাপাশি চেষ্টা করি ভাল থাকার গান গাইতে ,মানুষকে সচেতন করতে । আজ থেকে চেষ্টা করব কিছু ভাল লেখা দিতে ।আর অবশ্য ই যা আমার দেশ এর কথা বলবে ,স্বাধীনতার কথা বলবে । আপনাদের সহযোগীতা এবং পরামর্শ পেলে নিজেকে ধন্য মনে করবো । আপনারা ব্লগ পড়ুন এবং অবশ্য ই বোলোগ দিয়া ইন্তারনেত চালান Blum 3

    আপনি যেহেতু আর বাঙ্গালীর সাথে নাই তাই আমরা আপনাকে প্রত্যাখ্যান করলাম।


    ঘিলুহীন খালেদা জিয়াকে বলছি।
    ..........................................
    আপনার সাত জন্মের ভাগ্য যে ৫৬ হাজার বর্গমাইলের এই ভূখণ্ডে জন্ম নিয়েছেন। তা না হলে প্রধানমন্ত্রী হওয়া তো দুরের কথা একটা চাকরি করে পেট চালানোর অবস্থাও আপনার থাকতনা।
    আপনার মাথার ঘিলুর পরিচয় আমরা বারবার পেয়েছি।
    আপনার অনুরবর মস্তিষ্ক থেকে আমরা ভালো কিছু আশা করিনা।
    কিন্তু খারাপের আধিক্যও যে সয়তে পারিনা।
    আপনি ঢাকা বাসীকে আহবান জানিয়েছেন যে তারা যেন হেফাজতিদের পাশে গিয়ে দাঁড়ায় এবং তাদের দেশ বিরোধী কর্মকাণ্ডে সহায়তা করে।

    ধর্মানুভূতির সংজ্ঞা চাই...


    ধর্মানুভূতির সংজ্ঞাটা কি কেউ আমাকে দিতে পারেন? কোন রেফারেন্স লাগবে না, কোন মহৎ ব্যক্তি দ্বারা উদ্ধৃত হতে হবে না। স্রেফ একটা যৌক্তিক সংজ্ঞা।

    যে সংজ্ঞা দ্বারা আমি খুব ভাল ভাবে বুঝতে পারব, কীভাবে শাহবাগে কোরআন পোড়ানোর মিথ্যে গুজবে মানুষের ধর্মানুভূতিতে আঘাত লাগে, কিন্তু হেফাজতের কোরআন পোড়ানোর সত্যি খবরে তাতে আঁচও লাগে না।

    কোরআন শরিফ, যা বুকে রাখার জিনিস


    রোববার সন্ধ্যার পর হেফাজত কর্মীরা আগুন দেয় বায়তুল মোকাররমের তিন দিকের ফুটপাতের দোকান, জুয়েলারি ও ব্যাংকের এটিএম বুথে। এমনকি ধর্মীয় বইয়ের দোকানে আগুন দেয় তারা। কোরান, হাদিসের বই, তসবিহ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

    সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয় ফুটপাতের দোকানিরা। সমস্ত এলাকাজুড়ে শোনা যাচ্ছে তাদের আহাজারি, কান্না। বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ, পশ্চিম ও পূর্ব দিকে ফুটপাতে থাকা বিভিন্ন স্টেশনারি, কাপড়, বই, জুয়েলারি, আতর, তসবির দোকানে আগুন দিয়েছে হেফাজত কর্মীরা। ভাঙচুরও করেছে অনেক দোকানে।

    জিপিওর কাছে সোনালী ব্যাংকের এটিএম বুথেও আগুন জ্বলতে দেখা গেছে।

    নারী আজ হয়ত হোমো-স্যাপিয়েন্স থেকে আলাদা কিছু


    কৃষিসভ্যতার পর থেকে যখন নারীরা ক্রমেই বন্ধী হতে লাগল তখন থেকেই তাদের ব্যক্তিস্বত্বা আর স্বকীয়তা ভুলন্ডিত হয়ে অবিরত রবীঠাকুরের হৈমন্তীর মত শোপিস এবং সম্পদের সত্ত্বায় বিকশিত হতে থাকল।

    হেফাজতি তান্ডব আর কঠিন পরিস্থিথি নিয়ে কিছু কথা !!


    শফি সাব নিরাপত্তার ভয়ে শাপলা চত্তরে রওনা হয়েও হলোনা।আর হেফাজতের অন্য নেতারা ঘোষনা দিসে ১৩ দফা আদায়ের আগ পর্যন্ত শাপলা চত্তর ছাড়বেনা এতে সময় এক মাস লাগলে লাগবে।হেফাজতি বাহিনীর তান্ডবে মতিজিল,বায়তুল মোকারম সহ ঢাকার বিভিন্ন এলাকা রনক্ষেত্রে পরিনত হয়েছে।সরকার আর কত দিন এই ছাগুদের ল্যাদা পরিস্কার করবেন ! হয় জামায়াত-শিবির নিষিদ্ধ করা হোক নাহয় দালাল রাজাকার ছাগুদের ১৩দফা মেনে নিন।এই বাল ছাল করে করে সাধারণ মানুষের নিরীহ প্রান কেন যাবে !আর কত িরপরাধ মানুষের লাস চান !

    আমি আসবই


    এলো মেলো সবুজ আর আস্তিক নাস্তিক দ্বন্দ্ব
    রক্ত রঙ্গা পলাশ আর কোকিল কালো বসন্ত ।
    জল হয়ে যায় মাছরাঙ্গা বাসন্তী মালা ফ্যাকাসে
    কোকিলের কান্না আজ আকাশে বাতাসে ।

    অপ্রকাশিত কষ্ট


    - প্রতিদিনেই তোর সমস্যা থাকে ?
    প্রশ্নটা শুনে থতমত খেয়ে গেল নীর । কি বলবে সে ? কথাটা তো আর মিথ্যে নয় । প্রতিদিনে বিকেলেই সে আড্ডায় আসে , কিছুক্ষণ থাকে তারপর চলে যায় । কিন্তু কি করবে সে ? বসে থাকলে যে তার চলবে নাহ , তার এখন কোনো কিছুই ভাল লাগে নাহ । একটা কারণ অবশ্য আছে , কিন্তু সে ছোটবেলা থেকেই চাপা স্বভাবের । তার সব কথা তার মাঝেই থাকে , প্রকাশ করতে তার ভাল লাগে না । আকাশ আবার প্রশ্নটা করলো , - কি বললাম শুনস নাই ? প্রতিদিনেই তোর সমস্যা থাকে ?

    অবস্থা ও অবস্থান এবং অতঃপর – পর্ব -১


    অবস্থা : সাভারে রানা প্লাজা ধ্বস – ভয়াবহ অপরাধময় বিপর্যয় ।

    অবস্থান :
    সরকার বা সরকারীদলের কেউ জড়িত নয় মুলক সতর্কতা গ্রহন, অন্যের ঘাড়ে দোষ চাপানোর চেষ্টা এবং আত্মপক্ষ সাফাই সহ দায়মুক্তির ব্যাপক আয়োজন ও প্রচেষ্টা । -সরকারী দলের বিব্রতকর অবস্থান ।
    বিরোধীদলের বেকারত্বমোচন ও দাবীর নুতন ক্ষেত্র তৈরী , এবং সেই সুবাদে চুপমেরে থাকা নেতাদের নুতন পোষাকে মাইকের পেছনে অবস্থান –ঘটনায় সরকারী দলের সম্পৃক্ততা প্রমানের প্রয়াস এবং পরিস্থিতি মোকাবেলায় সরকারের ব্যার্থতা প্রমান করবার প্রানান্তকর চেষ্টা । - বিরোধীদলের সুবিধাজনক রাজনৈতিক অবস্থান ।

    হেফাজতে ছাগুদের আজকের মহাসমাবেশ সর্ম্পকে কিছু কথা!!


    আসলে নামটা হেফাজতে রাজাকার বলমু না ছাগু বলমু তা নিয়া টেনশিত আছি।যাইহোক হেফাজতের হাইব্রিড ছাগু মাওলানা মহীউদ্দিন রব্বানী বলছে ১৩দফা দাবি বাদ,এখন থেকে একদফা দাবি।আর তা হলো সরকার পতন।অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাদের সত্যি কথা বলার জন্য।কাঠাঁল পাতা আজকাল সত্যি বলাতে সাহায্য করছে মুনে হয়।আপনারা যে কাদের হেফাজতে নেমেছেন তা এখন বুঝার বাকি নাই।এতদিন ইসলাম ইসলাম করে গলা ফাটালেনতো ঐ রাজাকার বাপদের মুক্তির জন্যই।বাই দা ওয়ে আজকে ঢাকাতে সেইরাম শো দেখালেন।আশা করি এমন শো আরো দেখাবেন।কারন লেন্জা যে ভেরি ডিফিকাল্ট থিং টু হাইড!!

    পৃষ্ঠাসমূহ

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর