নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • কাঠমোল্লা
    • সাতাল
    • সৈকত সমুদ্র
    • মৃত কালপুরুষ

    নতুন যাত্রী

    • সুমন মুরমু
    • জোসেফ হ্যারিসন
    • সাতাল
    • যাযাবর বুর্জোয়া
    • মিঠুন সিকদার শুভম
    • এম এম এইচ ভূঁইয়া
    • খাঁচা বন্দি পাখি
    • প্রসেনজিৎ কোনার
    • পৃথিবীর নাগরিক
    • এস এম এইচ রহমান

    চেতনায় একুশ


    একুশ বাঙ্গালীর চেতনা,বাঙ্গালীর অহংকার।একুশ স্বাধীণতার সোপান।প্রতিটি বাঙ্গালীর হৃদয়ে একুশ এক অবিস্বরণীয় অধ্যায়।পাকীস্থানী শোষকেরা শোষণের সব সীমা ছাড়িয়ে হাত দিল বাঙ্গালীর অস্তিত্বের দিকে,বাংলা ভাষার দিকে।বাংলার মানুষকে বসে রাখার সেই নীল নকশা বাস্তবায়নে জিন্নাহ্ ঘোষণা দিল-"Urdu and urdu shall be the state language of Pakistan."সেই সমাবেশেই শুরু হওয়া প্রতিবাদের আগুণ ছড়িয়ে পরে সারাদেশে।সর্বোচ্চ কঠোর প্রদক্ষেপ নিয়েও দমিয়ে রাখতে পারেনি তারা বাংলার দামাল ছেলেদের।৫২'র ২১শে ফেব্রুয়ারীতে প্রতিবাদ সভা ও মিছিল ঠেকাতে জারি করা হয় ১৪৪ ধারা,তাতে ও ঠেকানো গেল না ভাষা সৈনিকদের।তাদের মিছিলে গুলে ছালায় পুলিশ।

    ঘাতকের পরিচয় - ৪ : শাহ মুহাম্মদ রুহুল কুদ্দুস - বাগেরহাটের কুখ্যাত রাজাকার।


    জামায়াত ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্ম পরিষদের সদস্য শাহ মুহাম্মদ রুহুল কুদ্দুস। মুক্তিযুদ্ধকালে ছিলেন কেন্দ্রীয় শান্তি কমিটির সদস্য। তিনি খুলনা জেলার কয়রা উপজেলার আমাদি গ্রামের মৃত মকবুল হোসেনের পুত্র। ১৯৬৩ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নকালে তিনি সমগ্র পাকিস্তান ইসলামী ছাত্রসংঘের সাধারন সম্পাদক ছিলেন। এই ছাত্রসংঘেরই বর্তমান পরিমার্জিত রুপ ইসলামী ছাত্র শিবির।

    যা বলবো প্যাঁচাইয়া বলবো


    যা বলবো প্যাঁচাইয়া বলবো... রেসকোর্সে আমীর আব্দুল্লাহ খান নিয়াজী বুলেট খুলে জগজিৎ সিং আরোরার হাতে দিতেই ৫৬ হাজার বর্গমাইলের বিজয় ফাইনাল হয়ে গেলো। তখন বুঝিনি এ ম্যাচের খেলোয়াড় আমরা, আম্পায়ার আন্তর্জাতিক। মনে পড়ছে, ভাগীরথী তীরের আম্রকাননে যুদ্ধের আগের রাতে মোহনলালকে সিরাজ বলেছিলেন, ‘আগামীকাল তোমরা যুদ্ধ করবে কিন্তু হুকুম দেবে মীর জাফর।’ সেই আম্পায়ারই ৭৫-এর ১৫ আগস্টের প্রথম প্রহরে ৩২ নম্বরে ওয়াকওভারে ফাইনাল খেললো।

    গন আদালত থেকে শাহবাগ চত্বর : মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নের আন্দোলনের একুশ বছর


    শাহবাগের মহাজাগরণ এক পক্ষ অর্থাত পনের দিন অতিক্রম করেছে। শুধু শাহবাগ নয়--চট্টগ্রাম থেকে দিনাজপুর, সিলেট থেকে খুলনা-যশোরের ছাত্র-জনতার জাগরণের মঞ্চ পক্ষ অতিক্রম করেছে এবং কোনও রাজনৈতিক দল বা প্রতিষ্ঠানের সক্রিয় সহযোগিতা ছাড়া সমাবেশ চলমান রেখেছে। জনতার এই স্বতস্ফূর্ত সমাবেশকে বিদেশী সাংবাদিকদের কেউ তুলনা করেছেন মিশরের তাহরির স্কয়ারের সঙ্গে, কেউ করেছেন দিল্লীর আন্না হাজারের উত্থানের সঙ্গে, কেউ করেছেন নিউইয়র্কের ওয়াল স্ট্রিট দখলের আন্দোলনের সঙ্গে।

    "ফাঁসি নিবেন ? দশ টাকা"


    আমরা মানুষকে মৃত্যুর পর সম্মান দিই । একটা মানুষ সারাজীবন হয়তো চাইবে তার আত্মীয় স্বজনকে একত্রিত করতে কিন্তু পারবে না । কিন্তু যেই মাত্র লোকটি মারা গেলো তাত্‍ক্ষনিক তার সব আত্মীয় স্বজন একত্রিত হবে । একটা মানুষকে জিবিত অবস্থায় অনেক অন্যায় অপমান সহ্য করতে হয় অথচ মৃত্যুর পর তাকে সম্মানিত করা হয় । বুঝলাম না দুনিয়ার নিতি এতো অদ্ভুত কেন ?

    পোষ্টটি আন্দোলন নিয়ে নয়


    ২/২০/২০১৩ । বুধবার।

    ১২টা । ঘুম ভাঙল।

    ১টা । খাওয়া সারল।

    ২টা । প্রেস ক্লাবে যাওয়ার ডাক পড়ল।

    ৩টা । বেলুন কেনার ধুম পড়ল।

    ৪টা । আমি এখনও যাইনি প্রেসক্লাবে।

    ৫টা । যা! নতুন প্রোফাইল পিকটা নিচ্ছে না।

    ৫টা ১৫মিনিট । আমি তো কাপুরুষ না! তাহলে ক্যান আমি এখানে বসে আছি? মানুষ কমার সাথে সাথে আমিও সরে পড়লাম! ছিঃ!!!

    ৬টা ৩০মিনিট । উপস্তিত প্রেসক্লাব। উপস্তিত।

    "মা" ডাক বিভিন্ন ভাষায়


    মা। এই ছোট শব্দটির ভূমিকা আমাদের জীবনে অসীম। সন্তানেরমুখে এই ডাকেই একজন নারী পান তাঁর জীবনের সর্বোচ্চ সম্মান। এই ছোট শব্দটির উপর নির্ভর করে একজন মানুষের জীবন। এই একটি শব্দের মহিমা যে কত মহান তার নমুনা আমরা দেখেছি ১৯৫২ এর ভাষা আন্দোলন ও ১৯৭১ এর মুক্তিযুদ্ধে। আমাদের জীবনের সম্পূর্ণ অস্তিত্বজুড়ে মা আছে বলেই আমরা কথা বলি মাতৃভাষা বাংলায়, জীবন দিই মাতৃভূমি বাংলাদেশের জন্য। ধারণা করা হয় বাংলা ভাষায় প্রথম শব্দ"ওম্", যার প্রচলিত রূপ "মা"। আসুন জেনে নিই বিশ্বের কয়েকটি দেশের মা ডাক সম্পর্কে।
    #Catalan ভাষায় মাকে ডাকা হয়mamà / mama.
    #Dutch ভাষাকে ডাকা হয় mama.

    প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি, কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ


    শাহবাগ প্রজন্ম চত্বরের শহীদ বস্নগার রাজিব হায়দারকে মুরতাদ আখ্যাদানকারী সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি মোঃ মিজানুর রহমান ভূঁঞা সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলে বিচার করে অপসারণের দাবি জানিয়েছে 'একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি'। আজ সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি লেখক সাংবাদিক শাহরিয়ার কবির, সহ-সভাপতি অধ্যাপক মুনতাসীর মামুন, শহীদজায়া শ্যামলী নাসরিন চৌধুরী, ভাস্কর ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণী, চলচ্চিত্রনির্মাতা শামীম আখতার, ডাঃ সৈয়দ শাফিকুল আলম ও সাধারণ সম্পাদক কাজী মুকুল স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে বলা হয়, 'আমরা অত্যন্ত উদ্বেগ ও ক্ষোভের সঙ্গে লক্ষ্য করেছি, সুপ্রিম কোর্টের একজন বিচারপতি মোঃ মিজানুর রহমান ভূঁঞা জামায়াতের

    " ভাষা আন্দোলনে নারীর ভূমিকা "



    একুশে ফেব্রুয়ারি ১৯৫৩ : পুরান ঢাকা কলেজ প্রাঙ্গনে ইডেন কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রীদের স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণ ছবি : অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম

    নজরুল তার নারী কবিতায় লিখেছিলেন,

    “ বিশ্বে যা-কিছু মহান সৃষ্টি চির-কল্যাণকর
    অর্ধেক তার করিয়াছে নারী, অর্ধেক তার নর”
    ( “সাম্যবাদী” , ১৩৩২ বঙ্গাব্দে ১লা পৌষ ‘লাঙ্গল’ পত্রিকায় প্রকাশিত হয়)

    শাহবাগের আন্দোলন কাদের? আস্তিকদের নাকি নাস্তিকদের?


    জামায়াত শিবির উঠে পরে লেগেছে মিথ্যা প্রচারণায়, শাহবাগের আন্দোলন নাস্তিক জন গোষ্ঠীর এই দাবীতে। এমনকি জামায়াত শিবির নিজেদের সুবিধার্থে কিছু ধর্মপ্রান মানুষকে পর্যন্ত নিধার্মিক বলে আখ্যায়িত করে অপপ্রচার করচ্ছে। বিভিন্ন অশ্লীল ছবি অ্যাড করে শাহবাগের ছবি নামে চালাচ্ছে। তাদের এই অপ্রাচারের জবাব দিতে এই ছবি ব্লগ।

    পৃষ্ঠাসমূহ

    কু ঝিক ঝিক

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    SSL Certificate
    কপিরাইট © ইস্টিশন.কম ® ২০১৬ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর