নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 2 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • নুর নবী দুলাল
    • মারুফুর রহমান খান

    নতুন যাত্রী

    • চয়ন অর্কিড
    • ফজলে রাব্বী খান
    • হূমায়ুন কবির
    • রকিব খান
    • সজল আল সানভী
    • শহীদ আহমেদ
    • মো ইকরামুজ্জামান
    • মিজান
    • সঞ্জয় চক্রবর্তী
    • ডাঃ নেইল আকাশ

    অভ্যাসের অপমৃত্যু


    আগে বাসার কাছেই বা বাইরে আড্ডা দিতে গেলে টঙের দোকানে চা খাইতাম অনেক। ইদানীং আর যেতে ইচ্ছে করে না কারণ ওই জায়গায় গেলেই দেখি সবাই রাজাকারের গুণগান গায়। এগুলা আমি শুনতেও পারি না আবার বিপরীতে প্রতিবাদও করতে পারি না জানের ভয়ে। বাধ্য হয়ে আর যাই না। এই লোকগুলা যেই রকম হিংস্র তাতে বেশি কথা না বলাই ভাল। এই কারনেই ৫ মে যেভাবে পুলিশ ছাগু কিলাইছে, তাতে আমি যারপর নাই আনন্দিত হয়েছি। আর খুশি হইতাম যদি আসলেই ২৫০০ লোক মরত। বাস্তবতা বিবর্জিত মাদ্রাসা শিক্ষায় শিক্ষিত এই সব ছাগলগুলার জন্য দেশের উন্নয়ন তো হচ্ছেই না, বরং এগুলা চারিদিকে ল্যাদাইয়া দেশটাকে আরো দুর্গন্ধময় করে তুলছে।

    হিন্দী ভাষা:শিক্ষণ নাকি আগ্রাসন???


    ছোট বোনকে স্কুল থেকে আনতে গিয়েছিলাম । কিন্ডারগার্ডেন স্কুল ।বাচ্চারা খেলাধুলা করছে ।কিছু বাচ্চা কি যেন একটা খেলছে…….তাদের মুখের ভাষা শুনে আমি হতবাক ।স্রোতের মতো হিন্দী বলে যাচ্ছে তারা ।একটা বাংলা কথার বিপরীতে দশটা হিন্দী কথা বলছে ।কাছে ডাকলাম তাদের কিন্তু তারা এতটাই মগ্ন ভ্রুক্ষেপই করল না । আর কিছু না বলে চলে এলাম । :মানেকি: :কনফিউজড:

    আবোল তাবোল প্রেম!!!


    নাহ!! কিছু কিছু দিন আছে যখন সব কিছুই বিরক্ত লাগে।
    এই যে ঝুম ঝুম বৃষ্টি হচ্ছে তা ও বিরক্ত লাগছে আয়াত এর কাছে।
    ক্যাম্পাসে এভাবে একা একা বসে বৃষ্টি তে ভেজা টাঅ বিরক্তিকর লাগতেছে। কিন্তু উঠে বাসায় যেতেও ক্যামন জানি বিরক্ত ফিল করতেছে এই শুকনো মত ছেলেটা।
    আজকে আকাশের মত আয়াতের ও মন খারাপ খুব। রিপা সবকিছু নাহ করে দিছে।
    আয়াত বুঝে উঠতে পারছেনা এটা কি করে সম্ভব? তিল তিল করে গড়ে তোলা একটা সম্পর্ক কেমনে এত সহজে ভেঙ্গে যায়?
    জানতে ইচ্ছে করছে ছেলেটার। কিন্তু তা ও সম্ভব নাহ। রিপা বলেছে ওকে কোনোদিন ডিষ্টার্ব না করতে।
    কান্না আসছে খুব।

    আমার জোয়া খেলন সত্যবান স্বামী ডা গো,


    সকাল 6 টার সময় উইঠা সেই কাজ লেইট হইয়া যায়, আরে বাপু বাড়িতে কি কাজ কম, ঢের কাজ পরে থাকে।। সবই আমারে সামলাইতে হয়।।ভগবান তিনখানা ছেলে-মেলে দিছে।। তাগো সামলানো সবই আমার উপর পরে, আর আমার সত্যবান স্বামীর দেখাশুনা করতে হয়।। সত্যবান স্বামী আমার কোন কাজ কাম করে না হুদাই ঘুরে , মদ খায় ,গাঁজা খায়, জোয়া খেলে, কোন জণ্মে পাপ করছি,, ভগবান আমারে এইসব জুটাইছে, ভগবান আমারে চোখে ও দেখে না।। সারাদিন কাজকাম কইরা বাসায় গিয়া হান্ডি বসাইতে হয়।।গতকাল রাতে সত্যবান স্বামী

    দ্যা ভবিষ্যত বানী।


    আমি কইতাচি মহাসেন আই মিন তুফান সেন সাব আওয়া লইয়া কে কি কইবো । মিলাইয়া লন । ঠিক অইবই -

    বেগম জিয়া-
    আমাদের কাছে খবর আছে পাশ্ববর্তী দেশের গোয়েন্দা সংস্থা বিশেষ পদ্ধতিতে “মহাসেন ঝড়” সৃষ্টি করেছে বাংলাদেশের জন্য । যাতে এই নষ্ট সরকার ঝড়ে মৃতদের সাথে মতিঝিলে নিহত ২৫০০ ধর্মপ্রাণ মৃত মুসলামেনর লাশ ঝড়ে নিহতদের সাথে সাগরে ভাসিয়ে দিতে পারে । এ জন্য বিশেষ ব্যাবস্থা নেওয়া হয়েছে ।
    আমি দেশবাসীর কাছে আহ্ববান জানাচ্ছি আপনারা কেউ সাগর পাড় ছেড়ে যাবেন না । এতে কিছু প্রাণহানী হতে পারে ঝড়ের কারণে ।
    ঐ লাশ গায়েবকারী সরকারকে হাতে নাতে ধরার জন্য এ ক্ষয়-ক্ষতি মেনে নিতে হবে ।

    হেফাজতি ইসলাম-

    বাস্তবতা বুঝতে পারা সহজ কিন্তু মেনে নেওয়া কঠিন......


    ২ বছর আগের একদিনের ঘটনা ঃ আমি অফিস শেষ করে বাসার উদ্দেশ্য রওনা দিলাম যথারীতি বাস এ করে । আমাদের দেশের সিটি সার্ভিস বাস গুলোতে সিট পাওয়া আর সাত আসমানের চান হাতে পাওয়ার সামিল ।। সেদিনও খুব ভীড় ছিল কিন্তু আমি বাস এর দরজায় সবার সামনে ছিলাম বলে তাড়াহুড়ো করে বাসে উঠে পরতে পড়লাম এবংএকটা ছেলের পাশে গিয়ে বসলাম ।। আমার একটা বদঅভ্যাস আছে আমি বাস কিংবা কোনো যানবাহনে উঠলেই মোবাইলে ফেইসবুক কিংবা ইন্টারনেটে কিছু না কিছু করি ।। তো সেইদিনও আমি বাসে বসেই আমার মোবাইল বের করে ফেইসবুকে লগিন দিলাম সাথে বাংলাদেশের খেলার আপডেট দেখতে লাগলাম । আমার পাশে ছেলেটাও দেখলাম মোবাইল নিয়ে ব্যস্ত ।। বাস চলতে লাগলো তা

    ``মা’’ গো ঃ- **তুমি আমাকে মিষ্টি করে ``মা’’ বলে ডাক শুনতে ভাল লাগে**।।।


    আমি জানি না মায়ের কোন সংজ্ঞা আছে কিনা। আমার মতে মায়ের সংজ্ঞা মা নিজেই। মায়ের ক্ষেত্রে কোন সংজ্ঞা প্রযোজ্য বলে মনে হয় না। মা এমন একটি শব্দ যাকে ভাঙ্গা ও যায় না গড়াও যায় না। মায়ের সম্মান দিতে হয়ত আমরা কেউই পারি না। আসলে আমরা কোন সন্তানই মায়ের অনভূতি©টাকে বুঝতে চাই না। তবু ও মা আমাদের নিঃস্বাথ© ভাবে ভালবেসে যান । How to possible. আমি হয়ত মায়ের খুব একটা ভাল মেয়ে হয়ে উঠতে পারিনি। মায়ের সাথে হয়ত আমি খুব বাজে আচরণ করি। তবুও যেন মা আমাকে খুব ভালবাসেন। এই যে বললাম না, মায়ের ভালবাসা নিঃস্বাথ© । মা আমার কাছে god gifted .

    মধ্যবিত্তের সেলাই মেশিন এবং অনেক চাহিদার বুনন!!!


    আম্মা অনেক আগে থেকেই সেলাই কাজ করে আসছেন। উনি একটা এনজিওর আন্ডারে সেলাই কাজ শিখেছিলেন। সেলাই শিখতে যাওয়ার সময় আমাকে হাতে করে নিয়ে যেতেন। পেপার কেটে সেলাই কাজ শেখানো হত। ক্লাস শেষে সেই প্যাটার্ন গুলো আমি নিয়ে আসতাম। ফেরার পথে দোকান থেকে এটা ওটা খেতে চাইতাম বলে মাইরও খাইতাম আম্মার হাতে। দিন গুলো স্মৃতির ফ্রেমে বন্দি করে রাখার মতই…

    " শেখ হাসিনা :: গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী "


    ২৯ ডিসেম্বর ২০০৮ এ অনুষ্ঠিত সাধারণ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট নিরঙ্কুশ বিজয় অর্জনের পর ৬ জানুয়ারি ২০০৯-এ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দ্বিতীয়বারের মত শপথ নেন শেখ হাসিনা।

    এর আগে ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত তিনি প্রথমবারের মত প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৫ আগস্ট ১৯৭৫ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার পর দীর্ঘদিন আওয়ামী লীগ ক্ষমতার বাইরে ছিল। ১৯৯৬ সালে দীর্ঘ ২১ বছর পর শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ দেশ পরিচালনার সুযোগ পায়।

    কী-বোর্ড থেকে রাজপথ, রক্ত, মৃত্যু, ভালবাসা।


    জীবনের আসল স্বাদ পাওয়া যায় বোধহয় মৃত্যু কে কাছ থেকে উপলব্ধি করলে। মৃত্যু, যা গত কয়েকদিন থেকে বাংলাদেশের সবাই খুব কাছ থেকে দেখলাম। শুধু দেখেই আমরা ক্ষান্ত হইনি। আমরা রীতিমত এর সাথে লড়াই করেছি। লড়াই আসলে কি আমাদের বিজয় এনে দিয়েছে? আসলে জয়ের সমস্ত তৃপ্তি সাহিনার মৃত্যু এক নিমিষে অনেকখানি কমিয়ে দিয়েছে। সাহিনা বোন আমার তোমার মৃত্যু আমাকে অপরাধী করে, বাচাতে পারিনি বোন তোমাকে, অনেক ইচ্ছা ছিল বোন। কিন্তু পারিনি। পারিনি তোমার অবুঝ বাচ্চাটাকে পুরোপুরি এতিম হওয়া থেকে আটকাতে।

    পৃষ্ঠাসমূহ

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর