নীড়পাতা

টিকিট কাউন্টার

দৃষ্টি আকর্ষণ

  • ট্রেনিংরুম ঘুরে আসুন।
  • ইস্টিশনের এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করুন
  • পরিষ্কার বাংলা দেখার জন্য এখান থেকে ফন্ট ইন্সটল করে নিন।
  • অনলাইনে লেখা কনভার্ট করুন
  • ইস্টিশনের নতুন ব্যানার দেখতে না পেলে/সমস্যা হলে Ctrl+F5 চাপুন।
  • প্যাসেঞ্জার ট্রেন শিডিউল
  • আপনার ব্রাউজার থেকে ইস্টিশনব্লগের সাথে সবসময় যুক্ত থাকতে নিচের লোগোতে ক্লিক করে টুলবারটি ইন্সটল করুন।
  • ওয়েটিং রুম

    এখন 4 জন যাত্রী প্লাটফরমে আছেন

    • সৌম্যজিৎ দত্ত
    • নগরবালক
    • কাঙালী ফকির চাষী
    • রাজর্ষি ব্যনার্জী

    নতুন যাত্রী

    • নীল মুহাম্মদ জা...
    • ইতাম পরদেশী
    • মুহম্মদ ইকরামুল হক
    • রাজন আলী
    • প্রশান্ত ভৌমিক
    • শঙ্খচূড় ইমাম
    • ডার্ক টু লাইট
    • সৌম্যজিৎ দত্ত
    • হিমু মিয়া
    • এস এম শাওন

    "অগ্নি উৎস" তুমি তসলিমা নাসরিন।


    সৌম্যজিৎ।

    তোমার আপসহীন আগুন কত মানুষ দেখেছে!
    পদে পদে তোমার পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে সরকার, মৌলবী, ধর্মান্ধ ভক্ত।
    যখন লড়েছ, ভয় তোমারও হয়েছে।
    তুমি ভেবেছ, "এই বুঝি কেউ এসে আমার মুন্ডপাত করে।"
    ভয় সবাই পায়। সেই ভয়তেও তুমি আপসহীন।
    যত দেখি ততই মুগ্ধ হয়ে যাই,
    শরীরের প্রতিটা লোম খাড়া হয়ে যায় যখন
    তোমাকে বাংলা নির্বাসনের সময়গুলোতে অনুভব করি।
    রক্তের মধ্যে গরম স্রোত বয়ে যায়।

    অগ্নি কন্যাকে নতুন কি আর ভাষা দেবো!
    যে নিজে জ্বলন্ত আগুন তাকে
    ভাষার আগুনে উজ্বল করার ভাষা কম হয়ে যাবে।

    পোড়ামাটি'র শরীর


    ছোট্টকালে আমি ভাবতাম, শাড়ি পোশাক'টি শুধু মা'দের জন্যে। শুধুমাত্র মা'য়েরাই শাড়ি পরে। মা'য়েরা যে সালোয়ার কামিজও পরতে পারে তা আমার জানা ছিল না। আমার আশেপাশে সকল মা'য়েরাই শাড়ি পরতেন। আমি যেহেতু ছোট্ট ছিলাম এবং চিন্তাজগতও ছোট্ট ছোট্ট খাঁচায় বন্দি ছিল, তাই প্রায়ই মনে হতো মা'য়েরা কখনো'ই চিকন হতে পারে না। মা'য়েদের একটু গোলগাল ও নাদুসনুদুস হতে'ই হবে।

    সুবিধাবাদী মুসলমান: ব্রাজিল বনাম আর্জেন্টিনা| ইকরামুল শামীম


    ওহ ভাই বাঙ্গালী মুসলমান! আপনারা তো নাস্তিক বলতে দ্বিধা করেন না যখন কেউ যুক্তি দিয়ে কথা বলে বা লিখে। আপনি আমি সব জানি তবুও তাল গাছ আমার এই নীতিই এখন আমাদের ধর্ম। যেমনটা ইদানীং ফুটবল বিশ্বকাপ নিয়ে শতকরা নব্বই ভাগ মুসলমান দেশ বাংলাদেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষ কাদা ছোঁড়াছুড়ি করছে ব্রাজিল এবং আর্জেন্টিনা নিয়ে। এই দেশ দু'টোকে সমর্থন করে একে অপরকে হেয়প্রতিপন্ন বুলি দিচ্ছেন কেউ কেউ আবার খেলা উপভোগের জন্য বিভিন্ন সরঞ্জামাদি বিতরণ করছেন। কাউকে আজ পর্যন্ত দেখি নাই ইসলামের পতাকা উড়াতে কিন্তু এই দুই দেশের পতাকা উড়াবেই যতই খরচ হোক। এই যে অপচয় করছেন তা কি ইসলাম ধর্মে আছে?

    মানুষ না হয়ে এভাবে মুসলমান হয়ে লাভ কী?



    এখানে, আজ কত সহজে মুসলমান হওয়া যায়। মাথায় একটা সাদা বা যেকোনো রঙের টুপি, মুখে কয়েকগোছা দাড়ি, আর পরনে পায়জামা-পাঞ্জাবি কিংবা লুঙ্গিসমেত পাঞ্জাবি পরলে সেও বিরাট একখান মুসলমান! রমজান-মাসে নিজেদের মুসলমানিত্ব জাহির করার জন্য একশ্রেণীর প্রাণি আদাজল খেয়ে দৌড়ঝাঁপ শুরু করে দেয়।

    বাংলাদেশের মাহে রমজান এবং রমজানের সময় সংযমের নামে মন মানসিকতা


    প্রশ্ন করুন মনকে৷ মনকে ব্যস্ত রাখুন৷ অলস মাথায় ভৰ্তি ছাতায়৷ আর আল্লাহকে নিয়ে আপনাদের ভাবতে হবেনা৷ আপনারা কি করছেন তা ভাবুন৷ আল্লাহ যখন সৰ্বশক্তিমান তখন ওনার, আপনার ভাবনার কিংবা ইবাদতের প্রয়োজন পড়েনা৷ উনি বিচার করবেন বলে বিচারক৷ আপনি আসামি হয়ে বিচার করতে যাবেন না তাহলে বিচারকের মূল্য বিন্দুমাত্র থাকে না৷

    হুজুর একটা প্রশ্ন ছিল (০৩)


    - হুজুর একটা কথা বলতে চাই। যদি আপনি অভয় দেন।

    - ভয়ের কী আছে বাপু? তুমি তো আর কাফের মুশরিক না যে, মু’মিন মুসলমান দেইখা ভয় পাইবা।

    - তা বটে! তারপরও ভয় পাচ্ছি, কারণ আমার কথাটাকে আপনি কীভাবে নিবেন বুঝতে পারছি না।

    - আরে কও না, হুনি আগে।

    - বিষয়টা হচ্ছে হুজুর, আমি একটা বই পড়তেছি। বইয়ের নাম ‘ধর্মব্যবসার ফাঁদে’। হেযবুত তওহীদের বই। হেযবুত তওহীদের নাম শুনেছেন তো হুজুর?

    - হুম।

    লেখক তসলিমা নাসরিন'কে লেখা আমার প্রথম চিঠি।


    মেয়েমা,

    এক বছর নয়, দশ বছর নয়, শত বছর নয়,
    আমি চাই যতো বছর তুমি থাকো, ততো বছর যেন আমি থাকি তোমার সাথে।

    বিগব্যাং তত্ত্বঃ আধুনিক বিজ্ঞান,কোরআন এবং মিথলজী (পর্ব-১)


    বিগব্যাং তত্ত্বঃ মহাবিশ্বের উৎপত্তি ও ক্রমবিকাশ সম্পর্কিত সবচেয়ে গ্রহণযোগ্য মতবাদ হল বিগব্যাং তত্ত্ব।এ তত্ত্বমতে আজ থেকে ১৩.৭ বিলিয়ন বছর আগে অতি উত্তপ্ত ও অসীম ঘনত্বের একটি বিন্দুর বিস্ফোরণ থেকে কতগুলো ধারাবাহিক ঘটনাক্রম থেকেই মহাবিশ্বের উৎপত্তি।সর্বপ্রথম বিজ্ঞানী এডউইন হাবল দূরবর্তী গ্যালাক্সিসমুহের গতিবেগ পর্যালোচনা করে বলেন,দূরবর্তী ছায়াপথসমুহের বেগ সামগ্রিকভাবে পর্যালোচনা করলে দেখা যায় এরা পরষ্পর দূরে সরে যাচ্ছে অর্থাৎ মহাবিশ্ব সম্প্রসারিত হচ্ছে।মহাবিশ্ব যেহেতু সম্প্রসারিত হচ্ছে সেহেতু বলা যায় কোন একটা বিন্দু থেকে নিশ্চয় মহাবিশ্বের সূচনা হয়েছে।এই বিন্দুটিকেই বলা হয় সিংগুলারিটি পয়েন্ট যে

    পৃষ্ঠাসমূহ

    কু ঝিক ঝিক

    ফেসবুকে ইস্টিশন

    কপিরাইট © ইস্টিশন ব্লগ ® ২০১৮ (অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম) | ইস্টিশন নির্মাণে:কারিগর